তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯

তথ্যবিবরণী - 05/09/2019

তথ্যবিবরণী                                                                                                                                   নম্বর : ৩৩৭৮
 
কাপ্তাই হ্রদে মাছের উৎপাদন বাড়ানোর নির্দেশ মৎস্য প্রতিমন্ত্রীর
                     
ঢাকা, ২১ ভাদ্র (৫ সেপ্টেম্বর) :
মৎস্য উন্নয়ন কর্পোরেশনের উদ্যোগে ‘কাপ্তাই হ্রদে মৎস্য উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য উন্নত ব্যবস্থাপনা এবং মৎস্য চাষ কলাকৌশল’ বিষয়ক এক কর্মশালায় বক্তারা হ্রদে মৎস্য চাষের উন্নত ব্যপস্থাপনার ওপর জোর দিয়ে বলেছেন, কাপ্তাই হ্রদে নিয়মিতভাবে কার্পজাতীয় মাছের পোনা ছাড়া হলেও দিন দিন তার উৎপাদন কমে যাওয়ার পাশাপাশি ছোট মাছের পরিমাণ ব্যাপক হারে বেড়ে যাচ্ছে। এই হ্রদে কার্পজাতীয় মাছের উৎপাদন ৮৫ শতাংশ থেকে কমে বর্তমানে ৫ শতাংশে দাঁড়িয়েছে বলে তারা উল্লেখ করেন। তারা হ্রদে গুণগত মানসম্পন্ন পোনা ও খাদ্য সরবরাহের পরামর্শ দেন এবং বাইরে থেকে পোনা আনার বদলে লেকেই পোনার অটো-স্টকিং বাড়ানোর ওপর গুরুত্বারোপ করেন।  
ঢাকার ফার্মগেটে কৃষি গবেষণা কাউন্সিলের সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরু বলেন, হ্রদে ছোট মাছের আধিক্য থাকলে সেখানে কার্পজাতীয় মাছের বৃদ্ধি সম্ভব নয়। তাই কাপ্তাই হ্রদের ছোট মাছের সংখ্যা দ্রুত কমাতে হবে। তিনি হ্রদের কার্পজাতীয় মাছের উৎপাদন ও গুণগতমান বাড়াতে হ্রদের উৎপাদিত পোনাই আবার হ্রদে ছাড়ার পরামর্শ দেন। তিনি কাপ্তাই হ্রদের অভয়াশ্রম এবং অবতরণকেন্দ্রের সংখ্যা বাড়াতেও সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানান। 
মৎস্য উন্নয়ন কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান দিলদার আহমদের সভাপতিত্বে কর্মশালায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন আই আই ইউ সি বাংলাদেশ এর প্রভিসি ড. মোহাম্মদ আলী আজাদী এবং অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব সাজ্জাদুল হাসান, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব কাজী ওয়াসি উদ্দিন, যুগ্মসচিব তৌফিকুল আরিফ, মৎস্য অধিদফতরের মহাপরিচালক আবু সাইদ মোঃ রাশেদুল হক ও মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. ইয়াহিয়া মাহমুদ।
#
শাহআলম/মাহমুদ/রফিকুল/জয়নুল/২০১৯/২১৩০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                     নম্বর :  ৩৩৭৭

 

আন্তঃকলেজ ফুটবল টুর্নামেন্টের আয়োজন করা হবে

                                                       -- যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী

 

গাজীপুর, ২১ ভাদ্র (৫ সেপ্টেম্বর) :

 

যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল বলেছেন,  সরকার ফুটবলের হারানো ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে চায়। ইতোমধ্যে ফুটবলের উন্নয়নে বেশ কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। এর ধারাবাহিকতায় এ বছর  থেকেই প্রথমবারের মতো দেশব্যাপী আন্তঃকলেজ ফুটবল টুর্নামেন্টের আয়োজন করা হবে।

 

প্রতিমন্ত্রী আজ গাজীপুরের শহীদ বরকত স্টেডিয়ামে  গাজীপুর জেলা প্রশাসন ও জেলা ক্রীড়া অফিস  আয়োজিত  আন্তঃউপজেলা শহীদ আহসানউল্লাহ মাস্টার ফুটবল টুর্নামেন্ট (অনূর্ধ্ব ১৬) এর সমাপনী খেলা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

 

জাহিদ আহসান রাসেল বলেন, প্রধানমন্ত্রীর পৃষ্ঠপোষকতায় এ বছরের বাজেটে ফুটবলের উন্নয়নে ২০ কোটি টাকা থোক বরাদ্দ রাখা হয়েছে। ইতোমধ্যে বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়াম সংস্কার বাবদ প্রায় ১০০ কোটি টাকার অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

 

গাজীপুরের জেলা প্রশাসক তরিকুল ইসলাম, জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী-সহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

 

#

 

আরিফ/মাহমুদ/রফিকুল/সেলিম/২০১৯/২০৫০ ঘণ্টা    

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                     নম্বর :  ৩৩৭৬

 

ফ্রিল্যান্সারদের সমস্যা চিহ্নিত করা ও সমাধান নির্ধারণে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

 

ঢাকা, ২১ ভাদ্র (৫ সেপ্টেম্বর) :

 

আন্তর্জাতিক অনলাইন মার্কেটপ্লেসে কর্মরত ফ্রিল্যান্সারদের বিভিন্ন সমস্যা চিহ্নিত করা ও  সেগুলো সমাধানের লক্ষ্যে কর্মপন্থা নির্ধারণে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (BIDA)-এর কনফারেন্স কক্ষে আজ একটি মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

 

সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান ফজলুর রহমান এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্মেদ পলক এমপি। প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব মোঃ নজিবুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নবনিযুক্ত চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সিনিয়র সচিব মোঃ আসাদুল ইসলাম, আইসিটি বিভাগের সচিব এন এম জিয়াউল আলম, বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং বাংলাদেশ ফ্রিল্যান্সার ডেভেলপমেন্ট সোসাইটি (বিএফডিএস)-এর নেতৃবৃন্দ।

 

উপদেষ্টা সালমান ফজলুর রহমান বলেন, বেসরকারি খাতের এই সম্ভাবনাময় শিল্প শুধু যথাযথ পেশাগত স্বীকৃতির অভাবে পরিপূর্ণভাবে বিকশিত হতে পারছে না। সামাজিক ও আর্থিক বিভিন্ন সুবিধা থেকেও বঞ্চিত হচ্ছে।

 

নিজের পাওয়ার পয়েন্ট উপস্থাপনায় আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্মেদ পলক জানান, উপার্জিত অর্থ দেশে আনা ও পেশাগত স্বীকৃতির অভাবে নানা ক্ষেত্রে ফ্রিল্যান্সাররা যেসব সমস্যার মুখোমুখি হন তা সমাধানের লক্ষ্যে আইসিটি বিভাগ ও বিএফডিএস-এর যৌথ উদ্যোগে ফ্রিল্যান্সার আইডি কার্ড ও ডেটাবেজ প্রস্তুতের কাজ চলমান রয়েছে। বিভিন্ন ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান এতে যুক্ত হলে নিবন্ধনকৃত ফ্রিল্যান্সাররা সহজে নানাবিধ আর্থিক সেবা পাবেন। এতে বিদেশ থেকে অর্থ আনার পথ আরো সহজ হবে বলে জানান তিনি।

 

উন্মুক্ত আলোচনায় ফ্রিল্যান্সারদের প্রতিনিধি হিসেবে বিএফডিসি নেতৃবৃন্দ ও বিভিন্ন ব্যাংকের প্রতিনিধিরা বিভিন্ন ইস্যুর ওপর আলোচনা করেন। 

 

অনুষ্ঠানে ফ্রিল্যান্সারদের উন্নয়ন ও সহযোগিতার বিষয়ে বিএফডিএস ও আইসিটি বিভাগ-এর মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। এছাড়া নিবন্ধনকৃত ফ্রিল্যান্সারদের বিনা সুদে কিস্তিতে ডিজিটাল ডিভাইস কেনার সুযোগ দিতে ওয়ালটন ও বিএফডিএস এর মধ্যেও একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়।

#

 

জাহিদুল/মাহমুদ/রফিকুল/সেলিম/২০১৯/২০৪৫ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                                                       নম্বর : ৩৩৭৫
 
কানাডার কাঁচামাল বাংলাদেশে প্রক্রিয়াজাত করে বাণিজ্য ও কর্মসংস্থান বাড়ানো সম্ভব
                                                                                         --- বাণিজ্যমন্ত্রী
                    
ঢাকা, ২১ ভাদ্র (৫ সেপ্টেম্বর) :
কানাডা সফররত বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুন্শি বলেছেন, কানাডার বিভিন্ন কাঁচামাল বাংলাদেশে প্রক্রিয়াজাত করে পণ্যের মূল্য সংযোজন ঘটিয়ে স্থানীয় ও বিশ^ বাজারে বিক্রির মাধ্যমে উভয় দেশের বাণিজ্য বৃদ্ধি করা সম্ভব। এতে করে ব্যবসায়ীগণ যেমন লাভবান হবেন, তেমনি বাংলাদেশে বৈদেশিক বিনিয়োগসহ বিপুল কর্মসংস্থানেরও সৃষ্টি হবে। 
বাণিজ্যমন্ত্রী গতকাল কানাডার অটোয়ায় বাংলাদেশ হাইকমিশন আয়োজিত বাংলাদেশ ও কানাডার সাসকাচুয়ান প্রদেশের মধ্যে দ্বি-পাক্ষিক বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বৃদ্ধি বিষয়ক সেমিনারে এসব কথা বলেন।
পরে গোল টেবিল বৈঠকে বাণিজ্যমন্ত্রী বাংলাদেশ ও কানাডার মধ্যকার দ্বি-পাক্ষিক সম্পর্কের বিভিন্ন দিক তুলে ধরে দু’দেশের মধ্যকার বর্তমান বাণিজ্যের অগ্রগতির কথা তুলে ধরে বলেন, সাসকাচুয়ান প্রদেশ দু’দেশের বাণিজ্য বৃদ্ধিতে অসমান্য অবদান রেখে চলেছে, যা আরো বৃদ্ধি করা সম্ভব। বৈঠকে মূলত এ প্রদেশ ও বাংলাদেশের মধ্যকার বাণিজ্য ও বিনিয়োগ কিভাবে বৃদ্ধি করা যায়, সে বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। 
অনুষ্ঠানে পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে বাংলাদেশ ও সাসকাচুয়ান প্রদেশের মধ্যে 
দ্বি-পাক্ষিক বাণিজ্য সম্পর্কিত তথ্যাদি উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ হাইকমিশনের কাউন্সেলর (বাণিজ্যিক) মোঃ শাকিল মাহমুদ। কানাডায় নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার মোঃ মিজানুর রহমান সেমিনারে বাংলাদেশের অর্থনীতি ও সার্বিক পরিবেশ ও বাণিজ্য সম্ভাবনা তুলে ধরেন। বর্তমান সরকারের যুগোপযোগী ট্যাক্স, উদার বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্ভাবনার বিভিন্ন দিক ও অগ্রগতির বিষয়ে সভায় উপস্থিত আলোচকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর প্রদান করেন যথাক্রমে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান মোঃ মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া, বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব তপন কান্তি ঘোষ, বাংলাদেশ ব্যাংকের মহাব্যবস্থাপক মোহাম্মদ খুরশীদ ওয়াহাব, বাংলাদেশ ফার্মাসিউটিক্যাল এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক এস এম সফিউজ্জামান, বাংলাদেশ সফটওয়্যার এক্সপোর্টার এসোসিয়েশন (বেসিস) এর সভাপতি সৈয়দ সাদাত আলমাস কবির এবং কেনচেম বাংলাদেশের সভাপতি মাসুদুর রহমান। 
#
বকসী/মাহমুদ/মোশারফ/জয়নুল/২০১৯/২০৫০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                                           নম্বর : ৩৩৭৪

 
কৃষিমন্ত্রীর সাথে কেনিয়ার কৃষি, প্রাণিসম্পদ ও মৎস্য মন্ত্রীর সাক্ষাৎ
                     
ঢাকা, ২১ ভাদ্র (৫ সেপ্টেম্বর) :
কৃষিমন্ত্রী ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাকের সাথে আজ মন্ত্রণালয়ে তাঁর অফিস কক্ষে কেনিয়ার কৃষি, প্রাণিসম্পদ ও মৎস্য মন্ত্রী গধিহমর করঁহলঁৎর -এর নেতৃত্বে এক প্রতিনিধিদল সাক্ষাৎ করেন।
সাক্ষাতে দুই দেশের কৃষি ও রপ্তানি খাত নিয়ে আলোচনা হয়। দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্প্রসারণের জন্য কেনিয়া ও বাংলাদেশ উভয়েই আগ্রহ প্রকাশ করে। 
মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছে। এখন লক্ষ্য নিরাপদ ও পুষ্টিমানসমৃদ্ধ খাদ্য নিশ্চিত করা। এছাড়াও আধুনিক কৃষি ও বাণিজ্যিক কৃষির জন্য কাজ করে যাচ্ছে সরকার। তিনি বাংলাদেশ থেকে চামড়াজাত পণ্য আমদানির জন্য কেনিয়ার মন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানান।
কেনিয়ার মন্ত্রী বলেন, কেনিয়া ও বাংলাদেশ ভূমি গঠনে, সংস্কৃতিতে, ভাষায় ও ইতিহাস-ঐতিহ্যে সম্পূর্ণ আলাদা। তবুও দুই দেশই উন্নয়ন তালিকায় সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার হিসেবে কৃষি, খাদ্য নিরাপত্তা ও পুষ্টিকে রেখেছে এবং উভয় দেশই স্বাধীনতার পর কৃষিতে ব্যাপক অগ্রগতি ঘটিয়েছে। বাংলাদেশ কৃষিখাতে যে অভূতপূর্ব সাফল্য অর্জন করেছে এর জন্য সরকার ও কৃষকদের ভূয়সী প্রশংসা করেন তিনি। 
 
#
গিয়াস/মাহমুদ/রফিকুল/জয়নুল/২০১৯/২০২০ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                     নম্বর :  ৩৩৭৩

 

গজারিয়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনের উদ্বোধন

 

গজারিয়া (মুন্সীগঞ্জ), ২১ ভাদ্র (৫ সেপ্টেম্বর) :

 

মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা বলেছেন, স্বাধীনতার মূল্যবোধ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত বাংলাদেশ গড়ে তুলতে  সাহায্য করতে হবে।

 

প্রতিমন্ত্রী আজ মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলা ভবের চরে গজারিয়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

 

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘মুক্তিযোদ্ধারা দেশের শ্রেষ্ঠ সন্তান। মহান মুক্তিযুদ্ধে ৩০ লাখ শহীদ ও ২ লাখ মা-বোনের আত্মত্যাগের প্রতীক গজারিয়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স উদ্বোধন করাতে পারা আমার জন্য অত্যন্ত সৌভাগ্যের।’

 

অনুষ্ঠানে সভাপতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোঃ মনিরুজ্জামান তালুকদার ও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মুন্সীগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম-সহ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধাবৃন্দ।

 

এরপর প্রতিমন্ত্রী গজারিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত  গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

 

#

 

আলমগীর/মাহমুদ/মোশারফ/সেলিম/২০১৯/১৯৩০ ঘণ্টা

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                     নম্বর :  ৩৩৭২

 

দেশে সাক্ষরতার হার ৭৩ দশমিক ৯ শতাংশে উন্নীত হয়েছে

                                                -- গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী

 

ঢাকা, ২১ ভাদ্র (৫ সেপ্টেম্বর) :

 

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাকির হোসেন বলেছেন, সরকারের নিরলস প্রচেষ্টায় দেশে বর্তমানে সাক্ষরতার হার ৭৩ দশমিক ৯ শতাংশে উন্নীত হয়েছে। ২০০৫ সালে তৎকালীন সরকারের সময় এ হার ছিল ৫৩ দশমিক ৫ শতাংশ। তিনি বলেন,  সাক্ষরতা অর্জনকারী ব্যক্তিদের দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণ প্রদান করা হচ্ছে। এছাড়া প্রাথমিকভাবে ৫০০টি তথ্য প্রযুক্তিভিত্তিক স্থায়ী কমিউনিটি লার্নিং সেন্টার (সিএলসি) এবং ৬৪টি জেলায় ৬৪টি জীবিকায়ন দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণ কেন্দ্র স্থাপন করা হবে।

 

প্রতিমন্ত্রী আজ আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস উপলক্ষে মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন। মন্ত্রণালয়ের সচিব আকরাম-আল-হোসেন, উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরোর মহাপরিচালক তপন কুমার ঘোষ, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, ড. এ এফ এম মনজুর কাদির-সহ মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

 

প্রতিমন্ত্রী বলেন, নিরক্ষর জনগোষ্ঠীকে অক্ষরজ্ঞান দান, অব্যাহত ও জীবনব্যাপী শিক্ষার সুযোগ সৃষ্টি, কারিগরি ও বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষ মানবসম্পদ তৈরি, কর্মসংস্থান, আত্ম-কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি এবং বিদ্যালয় বহির্ভূত শিশু-কিশোরদের শিক্ষার বিকল্প সুযোগ সৃষ্টি করা হচ্ছে। এ লক্ষ্যে সরকার উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা আইন ২০১৪ প্রণয়ন করেছে। সাক্ষরতা বিস্তার, দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণ এবং জীবনব্যাপী শিক্ষার সুযোগ সৃষ্টির জন্য ৭ম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনায় ব্যাপক পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।

 

          প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, দারিদ্র্য, অনগ্রসরতা, শিশুশ্রম, ভৌগলিক প্রতিবন্ধকতা ইত্যাদি কারণে এখনও অনেক শিশু বিদ্যালয়ে আসছে না। উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যবস্থায় এসব শিশুর প্রাথমিক শিক্ষা নিশ্চিত করার জন্য ৮-১৪ বছর বয়সী বিদ্যালয় বহির্ভূত ১০ লাখ শিশুকে উপানুষ্ঠানিক প্রাথমিক শিক্ষা প্রদানের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। সারা দেশে সরকারি-বেসরকারি সকল প্রতিষ্ঠান যারা উপানুষ্ঠানিক শিক্ষার সাথে জড়িত তাদের প্রতিষ্ঠানের রেজিস্ট্রেশন, শিক্ষকদের যোগ্যতা ও দক্ষতা নিরূপণ, শিক্ষার্থীদের নিবন্ধন, প্রশ্নপত্র প্রণয়ন, পরীক্ষা গ্রহণ ও সনদ প্রদানের জন্য উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা বোর্ড প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে।

 

#

 

রবীন্দ্রনাথ/মাহমুদ/রাহাত/রফিকুল/সেলিম/২০১৯/১৯২০ ঘণ্টা

 
তথ্যবিবরণী                                                                                                                              নম্বর : ৩৩৭১
 
কৃষিমন্ত্রীর সাথে বাংলাদেশ টেক্সটাইল মিলস এসোসিয়েশন প্রতিনিধিদলের বৈঠক
                     
ঢাকা, ২১ ভাদ্র (৫ সেপ্টেম্বর) :
কৃষিমন্ত্রী ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাকের সাথে মন্ত্রণালয়ে তাঁর অফিস কক্ষে প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান এমপি এর নেতৃত্বে বাংলাদেশ টেক্সটাইল মিলস এসোসিয়েশন (বিটিএমএ) এর এক প্রতিনিধিদল বৈঠক করেন।
বৈঠকে কৃষিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে সমভূমির তুলা চাষ এলাকা ও উৎপাদন ক্রমান্বয়ে কমে যাচ্ছে। তুলার উৎপাদন বাড়াতে তুলা উন্নয়ন বোর্ড তুলা গবেষণা, এর সম্প্রসারণ, বীজ উৎপাদন ও বিতরণ, প্রশিক্ষণ, বাজারজাতকরণ ও ঋণ বিতরণ প্রভৃতি কার্যক্রম বাস্তবায়ন করে আসছে। বর্তমানে সমতল এলাকায় সমভূমির জাতের তুলার আবাদ হচ্ছে এবং সম্প্রতি ৩টি পার্বত্য জেলাতেও পাহাড়ি জাতের পাশাপাশি সমভূমির জাতের তুলার চাষাবাদ শুরু হয়েছে।
প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা বলেন, দেশের টেক্সটাইল মিলগুলো ভালো করছে। এক সময় কাপড় ছিল আমদানিনির্ভর, আজ দেশের চাহিদার সম্পূর্ণ কাপড় দেশে তৈরি হচ্ছে। প্রতিনিধিবৃন্দ এ সময় মন্ত্রীর কাছে কিছু দাবি তুলে ধরেন। এর মধ্যে রয়েছে আইপি আবেদনের সময় ও খরচ কমানো এবং এসআরও সহজ করা।
মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব সনৎ কুমার সাহা, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. মোঃ আব্দুর মুঈদ, তুলা উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী পরিচালক ড. ফরিদ উদ্দিন, উদ্ভিদ সংগোনিরোধ শাখার পরিচালক ড. মোঃ আজাহার আলী বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। 
প্রতিনিধিদলের অন্যান্য সদস্যের মধ্যে ছিলেন বিটিএমএ-এর প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ আলী খোকন, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা তপন চৌধুরী, বিটিএমএ-এর প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট এ মতিন চৌধুরী, এ কে আজাদ, কটন ইউএসএ-এর কনসালট্যান্ট সাব্বির আহমেদ চৌধুরী এবং বিটিএমএ-এর সেক্রেটারি জেনারেল ফিরোজ আহমেদ।
#
গিয়াস/মাহমুদ/মোশারফ/জয়নুল/২০১৯/২০১০ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                                       নম্বর : ৩৩৭০
 
 
সারা দেশে বৈদ্যুতিক পেশায় দক্ষ জনশক্তি সৃষ্টির প্রশিক্ষণ কর্মসূচি উদ্বোধন
                     
ঢাকা, ২১ ভাদ্র (৫ সেপ্টেম্বর) :
সচিবালয় থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আজ বিদ্যুৎ বিভাগ কর্তৃক সারা দেশে বৈদ্যুতিক কর্মপেশায় দক্ষ জনশক্তি সৃষ্টির প্রশিক্ষণ কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়েছে। 
উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিষয়ক উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী বীরবিক্রম বলেন, প্রশিক্ষণের শিক্ষা যথাযথভাবে প্রয়োগ করতে হবে। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেন, আন্তর্জাতিক শ্রম বাজারে ভাষার জন্য সাফল্য পাওয়া যাচ্ছে না। এ প্রশিক্ষণের সাথে ইংরেজি ভাষা সম্পৃক্ত করলে প্রশিক্ষণের মান বৃদ্ধির সাথে সাথে আন্তর্জাতিক শ্রম বাজারে সাফল্য পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যাবে। 
অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বিদ্যুৎ বিভাগের সিনিয়র সচিব ড. আহমদ কায়কাউস এবং জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের সচিব আবু হেনা মোঃ রাহমাতুল মুনিম বক্তব্য রাখেন। 
মুজিব বর্ষ উদ্যাপনের জন্য ‘সেবা বর্ষ’ প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে স্বল্প বা অর্ধশিক্ষিত বেকার জনগোষ্ঠীকে দক্ষ জনগোষ্ঠীতে পরিণত করা এবং শ্রমশক্তি রপ্তানির জন্য শ্রমিকদের দক্ষতা বৃদ্ধি করার উদ্দেশ্যে এ প্রশিক্ষণ আয়োজন করা হয়েছে। ২ মাসব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মসূচিতে ২ হাজার ৮৭৫ জন প্রশিক্ষণার্থী রয়েছে। মুজিব বর্ষ পালন উপলক্ষে ৭ হাজার জনকে প্রশিক্ষণ দেয়া হবে এবং আগামী ৫ বছরে এ সংখ্যা দাঁড়াবে ৭০ হাজার। 
#
আসলাম/মাহমুদ/মোশারফ/জয়নুল/২০১৯/১৯১৫ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                     নম্বর :  ৩৩৬৯

 

বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী ৪-৭ সেপ্টেম্বর প্রধান বিচারপতির দায়িত্বে

 

ঢাকা, ২১ ভাদ্র (৫ সেপ্টেম্বর) :

 

রাষ্ট্রপতি  মোঃ আবদুল হামিদ সংবিধানের ৯৭ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী প্রধান বিচারপতির কার্যভার পালনরত বিচারপতি মোহাম্মদ ইমান আলীর অনুপস্থিতিতে ৪  থেকে ৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত অথবা প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন পুনরায় স্বীয় কার্যভার গ্রহণ না করা পর্যন্ত বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের আপীল বিভাগের কর্মে পরবর্তী প্রবীণতম বিচারক বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীকে প্রধান বিচারপতির কার্যভার পালনের দায়িত্ব প্রদান করেছেন।

 

আইন ও বিচার বিভাগের এক প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

 

#

 

সারওয়ার/মাহমুদ/মোশারফ/সেলিম/২০১৯/১৮৫০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                     নম্বর :  ৩৩৬৮

 

বিএনপির আস্থা জনগণে নয়, বিদেশিদের ওপর

-- তথ্যমন্ত্রী

 

ঢাকা, ২১ ভাদ্র (৫ সেপ্টেম্বর) :

 

তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহ্‌মুদ বলেছেন, ‘বিএনপির আস্থা জনগণের ওপরে নয়, বিদেশিদের ওপর। কোনো একটা কিছু হলেই বিএনপি বিদেশিদের কাছে নালিশ উপস্থাপন করে। এ কারণে অনেকে তাদেরকে ‘বাংলাদেশ নালিশ পার্টি’ বলে।’

 

আজ রাজধানীতে সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের সাথে সংক্ষিপ্ত মতবিনিময়কালে ‘বিএনপি আবারো কূটনীতিকদের কাছে নালিশ করেছে’- এ বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী একথা বলেন।

 

ড. হাছান বলেন, ‘বারংবার কূটনীতিকদের সাথে বসার মাধ্যমে বিএনপি এটাই প্রমাণ করে যে, দেশের জনগণের ওপর তাদের আস্থা নেই, বিদেশিদের ওপরেই তাদের সমস্ত ভরসা। যাদের জনভিত্তি নেই তারাই কিন্তু বারবার বিদেশিদের কাছে যায়। কোনো একটা কিছু হলেই বিএনপি বিদেশিদের কাছে নালিশ উপস্থাপন করে। এ কারণে অনেকে তাদেরকে ‘বাংলাদেশ নালিশ পার্টি’ বলে, এটি তাদের জন্য অত্যন্ত লজ্জাকর।’

 

 সময় সাংবাদিকরা আগামী মাস অর্থাৎ অক্টোবর থেকে বিএনপি’র মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ঘোষিত আন্দোলন বিষয়ে মন্ত্রীর মন্তব্য জানতে চাইলে তিনি পাল্টা প্রশ্ন করেন, ‘কোন্ বছরের অক্টোবর থেকে তাদের আন্দোলন, সেটিই প্রশ্ন। কারণ তারা দশ বছর ধরে একথা বলে আসছেন। গরম একটু কমলে বা শীত একটু কমলে, বার্ষিক পরীক্ষার পরে, রোজার পরে, ঈদের পরে, বৃষ্টি একটু কমলে- এভাবে বহু সময় বহু আন্দোলনের তারিখ আমরা দেখেছি। কিন্তু তাদের পক্ষে কোনো আন্দোলন গড়ে তোলা সম্ভব হয়নি।’

 

এর আগে ব্যাংকিং খাত সম্পর্কে বিএনপি’র বিরূপ মন্তব্যের জবাবে মন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, ‘ঋণ খেলাপি অপসংস্কৃতি জিয়াউর রহমানের আমলে শুরু। এখন তা অনেক কমে এসেছে। গত দশ বছরে জিডিপি ও অর্থনীতির আকার অনেক বড় হওয়ায় খেলাপি ঋণের পরিমাণ বেশি দেখালেও শতকরা হারে তা আগের চেয়ে অনেক কম।’

 

#

 

আকরাম/মাহমুদ/মোশারফ/সেলিম/২০১৯/১৮০০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                                                       নম্বর : ৩৩৬৭

 
সড়ক পরিবহনে শৃঙ্খলা ও সড়ক দুর্ঘটনা রোধ
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নেতৃত্বে উচ্চ পর্যায়ের টাস্কফোর্স গঠন
                     
ঢাকা, ২১ ভাদ্র (৫ সেপ্টেম্বর) :
সড়ক পরিবহন খাতে শৃঙ্খলা জোরদার করা ও সড়ক দুর্ঘটনা রোধে গঠিত কমিটির সুপারিশমালা অনুমোদন করেছে সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিল। এ সকল সুপারিশ বাস্তবায়নে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খানকে প্রধান করে গঠন করা হয়েছে উচ্চ পর্যায়ের টাস্কফোর্স। শীঘ্রই এ টাস্কফোর্স কাজ শুরু করবে।
আজ বিআরটিএ’র সদর কার্যালয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সভাপতিত্বে জাতীয় সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিলের ২৭তম সভা শেষে মন্ত্রী সাংবাদিকদেরকে একথা জানান।
মন্ত্রী বলেন, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব টাস্কফোর্সকে সাচিবিক সহায়তা দেবেন ও সমন্বয় করবেন। এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮ কার্যকর করতে বিধিমালা প্রণয়নের কাজ চলছে। শীঘ্রই অংশীজনদের সাথে আলোচনা করে বিধিমালাটি চূড়ান্ত করা হবে।
সভায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান, রেলপথ মন্ত্রী মোঃ নূরুল ইসলাম সুজন, সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি একাব্বর হোসেন এমপি, সাবেক নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান এমপি, সাবেক প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙ্গা এমপি, বাংলাদেশ পুলিশের মহাপুলিশ পরিদর্শক ড. জাভেদ পাটোয়ারী, বিশিষ্ট কলামিস্ট সৈয়দ আবুল মকসুদ, পরিবহন বিশেষজ্ঞ প্রফেসর ড. শামসুল হক, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের সচিব, পরিবহন মালিক-শ্রমিক সংগঠনের প্রতিনিধি-সহ সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিলের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিলের ২৬তম সভায় সড়ক পরিবহন খাতে শৃঙ্খলা জোরদার করা ও দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে সুপারিশ প্রণয়নের লক্ষ্যে সাবেক নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান এমপি’কে প্রধান করে একটি কমিটি গঠন করা হয়। সম্প্রতি এ কমিটি ১১১ দফা সুপারিশ-সহ প্রতিবেদন জমা দেয়।
#
নাছের/মাহমুদ/মোশারফ/জয়নুল/২০১৯/১৭৪০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                    নম্বর : ৩৩৬৬

৯৫টি প্রতিষ্ঠানকে ভোক্তা অধিকারের  জরিমানা

ঢাকা, ২১ ভাদ্র (৫ সেপ্টেম্বর) :     

            জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর গতকাল ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় অভিযান চালিয়ে ৯৫টি প্রতিষ্ঠানকে বিভিন্ন অপরাধে ৫ লক্ষ ১৭ হাজার টাকা জরিমানা করেছে। অধিদপ্তরের বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয়ের ৩৭ জন কর্মকর্তার নেতৃত্বে রাজধানীসহ সারাদেশে এই বাজার তদারকি কার্যক্রম পরিচালিত হয়।

          ঢাকার নিউ মার্কেট ও হাতিরঝিলে পণ্যের মোড়কে এমআরপি লেখা না থাকার অপরাধে ‘গ্রামীন সুইটমিট বেকারি’,  ‘আনন্দ ডিপার্টমেন্টাল স্টোর’  ও  ‘লক্ষীপুর ফাস্ট ফুড’ এবং অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাদ্য পণ্য তৈরির অপরাধে ‘ক্যাফে শাহজালাল হোটেল’, ‘গাউছিয়া হোটেল’, ‘নিউ পপুলার হোটেল, ‘রোজ হ্যাভেন হোটেল’, ‘রয়েল হোটেল’ ও ‘থ্রী স্টার রেস্টুরেন্ট’কে জরিমানা করা হয়। এসব প্রতিষ্ঠানকে মোট ১ লক্ষ ৭৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।       

          এছাড়া দেশব্যাপী ৩৪টি বাজার তদারকি কার্যক্রমের মাধ্যমে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাদ্যপণ্য তৈরি, পণ্যের মোড়কে এমআরপি লেখা না থাকা, মেয়াদ উত্তীর্ণ পণ্য বা ঔষধ বিক্রয়, খাদ্যপণ্যে নিষিদ্ধ দ্রব্যের মিশ্রণ, প্রতিশ্রুত পণ্য বা সেবা যথাযথভাবে বিক্রয় বা সরবরাহ না করা, ভেজাল পণ্য বা ঔষধ বিক্রয়, বাটখারা বা ওজন পরিমাপক যন্ত্রের কারচুপি, ধার্য্কৃত মূল্যের অধিক মূল্যে পণ্য বিক্রয়, সেবাগ্রহীতার জীবন বা নিরাপত্তা বিপন্নকারী কার্যকলাপ, ওজনে কারচুপি, সেবা প্রদানে অবহেলা ইত্যাদি দ্বারা সেবাগ্রহীতার অর্থ, স্বাস্থ্য, জীবনহানি ইত্যাদি ঘটানো এবং পণ্যের মূল্যের তালিকা প্রদর্শন না করার অপরাধে ৮৩টি প্রতিষ্ঠানকে ৩ লক্ষ ৩৩ হাজার টাকা জরিমানা আরোপ ও আদায় করা হয়।

          অন্যদিকে লিখিত অভিযোগ নিষ্পত্তির মাধ্যমে ধার্য্কৃত মূল্যের অধিক মূল্যে পণ্য বিক্রি ও পণ্যের মোড়কে এমআরপি লেখা না থাকার অপরাধে ৩টি প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা আরোপ ও আদায় এবং আইনানুযায়ী ৩ জন অভিযোগকারীকে জরিমানার ২৫% হিসেবে তৎক্ষণাৎ টাকা প্রদান করা হয়।

         সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসন, জেলা পুলিশ, আর্মড পুলিশ ব্যাটলিয়ন, সিভিল সার্জন, মৎস্য কর্মকর্তা, পরিবেশ অধিদপ্তরের প্রতিনিধি, বাজার কর্মকর্তা, স্যানিটারি ইন্সপেক্টর, শিল্প ও বণিক সমিতির প্রতিনিধি এবং ক্যাবের সদস্যগণ এসব তদারকি কার্যক্রমে সহায়তা প্রদান করেন। তদারকিকালে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে জনগণের মাঝে লিফলেট ও প্যাম্পফ্লেট বিতরণ করা হয়েছে।

#

ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর /অনসূয়া/পরীক্ষিৎ/আসমা/২০১৯/১৬২০ ঘণ্টা 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                  নম্বর : ৩৩৬৫

বাংলাদেশ ও ফিলিপাইনের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা

Todays handout (13).docx Todays handout (13).docx

Share with :

Facebook Facebook