তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

প্রতিবাদ-26-2-2015

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
জাতীয় রাজস¦  বোর্ড
রাজস¦ ভবন, ঢাকা।

নথি নং-অম/অসমি-সচিব/এনবিআর-২০১৫/১               তারিখ ঃ ২৬/০২/২০১৫

প্রকাশিত সংবাদের বিষয়ে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের বক্তব্য
আজ ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ইং তারিখে দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার শেষের পাতায় প্রকাশিত ‘আগামী রোববারের মধ্যে ক্ষমা চাইতে হবে- এনবিআর চেয়ারম্যানকে ডিআরইউ, ইআরএফ এর আলটিমেটাম’ শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদের প্রতি জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের দৃষ্টি আকর্ষিত হয়েছে। প্রকাশিত সংবাদের একাংশে বলা হয়েছে যে, ‘গত মঙ্গলবার এনবিআর আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান মোঃ নজিবুর রহমান যুগান্তরের বিশেষ প্রতিনিধি হেলাল উদ্দিনের সঙ্গে ঔদ্ধ্যত্বপূর্ণ আচরণ করেছেন। নিজ কার্যালয়ে আমন্ত্রণ জানিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে এই দুর্ব্যবহার এবং অকথ্য ভাষায় আক্রমণ গোটা সাংবাদিক সমাজকে মর্মাহত ও ব্যথিত করেছে। এনবিআর এর কাছ থেকে এমন আচরণ মোটেই কাম্য নয়। তাই এ ধরনের আচরণ সরকারি চাকুরী বিধিমালার লঙ্ঘন।’
    জাতীয় রাজস্ব বোর্ড মনে করে বর্ণিত সংবাদটি অসত্য, মিথ্যা, ভিত্তিহীন, বানোয়াট, উদ্দেশ্যমূলক এবং কল্পনাপ্রসূত। প্রকৃত তথ্য এই যে, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ তারিখে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সম্মেলন কক্ষে মাসিক প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সচিব, অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগ ও চেয়ারম্যান, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড জনাব মোঃ নজিবুর রহমান জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের কার্যক্রমের উপর লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন। তিনি তাঁর বক্তব্য পাঠ শেষে সাংবাদিকদের উম্মুক্ত প্রশ্নের জন্য অনুরোধ জানান। প্রশ্নপর্ব চলাকালীন যুগান্তরের বিশেষ প্রতিনিধি হেলাল উদ্দিন চেয়ারম্যানকে উদ্দেশ্যমূলকভাবে অসৌজন্যমূলক, শিষ্টাচারবহির্ভূত এবং অপেশাদারিত্বমূলক ব্যক্তিগতভাবে আক্রমণাত্মক প্রশ্ন করেন। যুগান্তরের প্রতিনিধির প্রশ্নের উত্তরে এনবিআর চেয়ারম্যান তাঁর এ ধরনের ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণের বিষয়ে উপস্থিত সাংবাদিকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে জানান যে, হেলাল উদ্দিন অসৌজন্যমূলক, শিষ্টাচারবহির্ভূত এবং সাংবাদিকতর রীতিনীতিহীন অপেশাদারি প্রশ্ন করেছেন।
    জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান একজন গণমাধ্যম প্রিয় নিষ্ঠাবান মানুষ। তিনি জাতীয় রাজস্ব বোর্ডে যোগদানের পর ইতোমধ্যে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের তিনটি অনুবিভাগ যথা আয়কর, শুল্ক এবং মূসককে  আধুনিক, গতিশীল, স্বচ্ছ ও শক্তিশালীকরণের লক্ষ্যে বিভিন্ন সংস্কারমূলক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন। তাছাড়া, জাতীয় উন্নয়ন ও জনকল্যাণকর কাজের জন্য প্রয়োজনীয় রাজস্ব সর্বোচ্চ পরিমাণে সংগ্রহের নিমিত্ত সদর দপ্তর ও মাঠপর্যায়ের সকল কর্মকর্তাদের বিশেষভাবে উৎসাহিত করেছেন। তিনি সরকারের এ গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানটি সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য ‘দুষ্টের দমন, শিষ্টের লালন’ নীতি গ্রহণ করেছেন। তাঁর ভাবমূর্তি ক্ষুণœ করার জন্য মহলবিশেষ কর্তৃক উদ্দেশ্যমূলকভাবে রিপোর্টটি করানো হয়েছে।
    জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের উপরোক্ত বক্তব্য আপনার বহুল প্রচারিত গণমাধ্যমে যথাযথভাবে প্রকাশের জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো।
                                 (সৈয়দ এ মু’মেন)
                                     জনসংযোগ কর্মকর্তা        
প্রাপকঃ
বার্তা সম্পাদক
দৈনিক যুগান্তর, ঢাকা।    

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
তথ্য অধিদফতর
বাংলাদেশ সচিবালয়
ঢাকা


নং-সক/বিশি-০১/১৫                                                         তারিখ : ২৬/০২/২০১৫


    বিষয় ঃ প্রকাশিত সংবাদের বিষয়ে জাতীয় রাজস¦  বোর্ডের বক্তব্য

    আজ ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ইং তারিখে দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার শেষের পাতায় প্রকাশিত ‘আগামী রোববারের মধ্যে ক্ষমা চাইতে হবে- এনবিআর চেয়ারম্যানকে ডিআরইউ, ইআরএফ এর আলটিমেটাম’ শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদের প্রতি জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের দৃষ্টি আকৃষ্ট হয়েছে।

    এ বিষয়ে এতদসঙ্গে প্রেরিত জাতীয় রাজস¦  বোর্ডের জনসংযোগ কর্মকর্তা জনাব সৈয়দ এ মু’মেন স্বাক্ষরিত  বোর্ডের বক্তব্যটি  দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার আগামীকালের সংখ্যায় যথাযথ গুরুত্বসহকারে প্রকাশের জন্য অনুরোধ করা হলো।
                                                                                                                                      ধন্যবাদান্তে

                                                                              (ফায়জুল হক)
                                          ডিউটি অফিসার
                                                                                     ও
                                                                         সিনিয়র তথ্য অফিসার                                                              
                                                                       সংবাদকক্ষ, বিকেলের শিফ্ট
প্রতি                                                               ফোন ঃ ৯৫৪০০১৯, ৯৫১২২৪৬
বার্তা স¤পাদক                                 ৯৫১৪৯৮৮
দৈনিক যুগান্তর
ঢাকা

 

Unofficial News.doc Unofficial News.doc

Share with :