তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৬ জানুয়ারি ২০২০

তথ্যবিবরণী 6/1/2020

Handout                                                                                                         Number : 63

 

Foreign Minister mourns the loss of valuable lives on bushfires in Australia

 

Dhaka, 22 Poush (6 January) :

 

Foreign Minister Dr. A K Abdul Momen sent a condolence message to the Australian Foreign Minister Manise Payne today on multiple devastating bushfires in New South Wales and Victoria in Australia, which have claimed many lives and

destroyed more than 1400 homes alongside over 6 million hectares of land and flora thereon and innumerable fauna.

 

Dr. Momen conveyed condolences to the families of those who have died and deep sympathy to those who have lost their homes, land and properties. He also expressed Bangladesh’s readiness to extend any assistance that may be required to mitigate the crisis.

#

Tohidul/Nice/Rofiqul/Abbas/2020/2051 Hours

 

 

 

Handout                                                                                                        Number : 62

 

Faruk Khan seeks support of Combodian Prime Minister Hun Sen for early and

 safe repatriation of Rohingyas

 

Bangkok, 22 Poush (6 January) :

Muhammad Faruk Khan, MP, Chair of the Parliamentary Standing Committee on Foreign Affairs of Bangladesh during his official visit to Cambodia met the Prime Minister of Cambodia Samdech Akka Moha Sena Pakdei Techo Hun Sen at Peace Palace (the office of Prime Minister) in Phnom Penh this afternoon to form opinion for early repatriation of the forcibly displaced Myanmar nationals temporarily sheltered in Bangladesh.

Faruk Khan briefed the 4-ponit policy direction of the  Prime Minister to Prime Minister Hun Sen and sought support from Cambodia, an important member country of ASEAN, for early, safe and sustainable repatriation of Rohingya people.

He also highlighted the negative consequence of the prolong stay of these Rohingya people in Bangladesh and the ASEAN countries and beyond. Prime Minister Hun Sen expected a peaceful solution of the Rohingya crisis. He also mentioned that mutual naming of road in Phnom Pen and Dhaka after the Father of the Nation Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman and the Late King Father of Cambodia Norodom Sihanouk would strengthen bilateral relationship. They also discussed other bilateral issues including trade, agriculture, tourism etc.

Faruk Khan has mentioned that Bangladesh would organize events in Cambodia during Mujib Year from March 2020 to March 2021, the Birth Centenary of Father of the Nation of Bangladesh so that the people of Cambodia may learn more about the glorious life of the Father of the Nation of Bangladesh.

#

Tohidul/Nice/Mosharaf/Abbas/2020/2041 Hours

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                      নম্বর : ৬৫

 

               রাঙ্গুনিয়ার কৃতি ছাত্রলীগ নেতা ওয়ায়েস কাদেরের ১ম মৃত্যুবার্ষিকী : তথ্যমন্ত্রীর প্রার্থনা

                                                 

ঢাকা, ২২ পৌষ (৬ জানুয়ারি) :

          রাঙ্গুনিয়ার কৃতি ছাত্রলীগ নেতা ওয়ায়েস কাদেরের ১ম মৃত্যুবার্ষিকীতে তাঁর আত্মার শান্তির জন্য প্রার্থনা করেছেন রাঙ্গুনিয়ার সন্তান তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহ্‌মুদ। 

          গত বছর ৭ জানুয়ারি মাত্র ৩০ বছর বয়সে আকস্মিকভাবে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়া ওয়ায়েস কাদেরের কথা স্নেহভরে স্মরণ করেন ড. হাছান মাহ্‌মুদ। 

          'বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সফল সদস্য, চট্টগ্রাম আইন কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক ভিপি এবং রাংগুনিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ওয়ায়েস কাদেরের নিষ্ঠার জন্য তাঁকে মানুষ স্মরণে রাখবে, আমরা তার আত্মার চিরশান্তি প্রার্থনা করি', বলেন মন্ত্রী। 

 

#

 

আকরাম/ফারহানা/রফিকুল/আব্বাস/২০২০/২২৫০ ঘণ্টা

 

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                   নম্বর : ৬৪

 

               সরকার দেশে গণমাধ্যমের স্বাধীনতা দিয়েছে

                                                  --- গণপূর্ত মন্ত্রী

 

ঢাকা, ২২ পৌষ (৬ জানুয়ারি) :

          গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, সরকার দেশে গণমাধ্যমের স্বাধীনতা দিয়েছে। তথ্য অধিকার আইন পাশ করে নাগরিকের তথ্য প্রাপ্তির অধিকার দিয়েছে। বেসরকারি খাতে টেলিভিশনের লাইসেন্স উন্মুক্ত করে দিয়েছে।

          আজ রাজধানীর সেগুনবাগিচায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় সংগীত ও নৃত্যকলা কেন্দ্র মিলনায়তনে ২০তম টেলিভিশন রিপোর্টার্স অভ্ বাংলাদেশ (ট্র্যাব) এর অ্যাওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠানে  প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

          মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা চাইনা টেলিভিশন চ্যানেলগুলো অন্ধের মতো সরকারের পক্ষে নিউজ করবে। কিন্তু নেতিবাচক সংবাদের পাশাপাশি দেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রার অপ্রতিরোধ্য গতির কথা গণমাধ্যমে তুলে ধরতে হবে।’

          টেলিভিশন রিপোর্টার্স অভ্ বাংলাদেশ (ট্র্যাব) এর সভাপতি কাদের মনসুরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, বেস্টওয়ে গ্রুপের চেয়ারম্যান মোঃ মিজানুর রহমান, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধুরী এবং ট্র্যাবের প্রধান উপদেষ্টা রাজু আলীম।

          অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও বিশিষ্ট নাট্য ব্যক্তিত্ব আতাউর রহমান এবং বিশিষ্ট লালন সংগীত শিল্পী ফরিদা পারভীনকে আজীবন সম্মাননা প্রদান করা হয় এবং বিভিন্নক্ষেত্রে গুণী ব্যক্তিদের পুরস্কার তুলে দেয়া হয়।

#

 

ইফতেখার/নাইচ/রফিকুল/আব্বাস/২০২০/২২৪৭ ঘণ্টা

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                      নম্বর : ৬১

কৃষিমন্ত্রীর সাথে কানাডার রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ

ঢাকা, ২২ পৌষ (৬ জানুয়ারি) :

          কৃষিমন্ত্রী ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, বাংলাদেশ স্বাধীন হবার পরপরই কানাডা বাংলাদেশকে স্বীকৃতি প্রদান করে। কানাডা বাংলাদেশের ভালো বন্ধুপ্রতিম দেশ। দুই দেশেই গণতান্ত্রিক সরকার ব্যবস্থা বিরাজমান। বঙ্গবন্ধু চেয়ার এর জন্য রাষ্ট্রদূতকে ধন্যবাদ জানান মন্ত্রী।

 

          আজ মন্ত্রীর সাথে ঢাকায় সচিবালয়ে তাঁর অফিস কক্ষে কানাডার রাষ্ট্রদূত Benoit Prefontaine সাক্ষাৎকালে তিনি এসব কথা বলেন।

          কৃষিমন্ত্রী বলেন, খাদ্য সংরক্ষণ, প্রক্রিয়াকরণ শিল্পের যথাযথ বিকাশ হলে কৃষি সেক্টর লাভবান হবে। সেই সাথে সৃষ্টি হতো কর্মসংস্থানের নতুন ও বৈচিত্র্যময় ক্ষেত্র। এক্ষেত্রে অবকাঠামোগত উন্নয়ন ও বিনিয়োগের কানাডার সহযোগিতা প্রয়োজন । এছাড়া আমাদের কৃষিবিজ্ঞানী, গবেষকদের এবং টেকনিশিয়ানদের উন্নত প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা গেলে এ সেক্টর আরো লাভবান হবে যা জাতীয় অর্থনীতির ভিতকে মজবুত করবে।

 

          রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশের সাম্প্রতিক উন্নয়ন প্রশংসনীয়। দু’দেশের মাঝে ব্যবসায়িক সম্ভাবনার দ্বার উন্মোচন ও বাণিজ্য সম্পর্ককে আরো দৃঢ়করণের লক্ষ্যে কাজ করছে কানাডা। কানাডার বিনিয়োগকারী ও ব্যবসায়ীরা যে কোন দেশের ব্যবসায়ী সমাজের মতামতকে গুরুত্ব প্রদান করে থাকেন। কানাডা কৃষি গবেষণা প্রশিক্ষণ-সহ টেকনিক্যাল সহায়তা করবে বাংলাদেশকে।

 

          এছাড়া কানাডায় হিমায়িত ও প্রক্রিয়াজাত খাদ্যের চাহিদা রয়েছে, আর বাংলাদেশের এই দুইটি খাতেই রপ্তানির সম্ভাবনা রয়েছে। কানাডা এদেশের শিক্ষা স্বাস্থ্য-সহ নানা খাতে বিনিয়োগ করেছে। বাংলাদেশের সাথে যৌথ অংশীদারিত্বে কাজ করবে দেশটি। এছাড়াও টেকনিক্যাল খাতে সহায়তা করতে আগ্রহের কথা জানান রাষ্ট্রদূত।

#

 

গিয়াস/ফারহানা/সঞ্জীব/রেজাউল/২০২০/১৯৪০ ঘণ্টা

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                            নম্বর : ৬০

বিএসটিআইকে বিভাগে পরিণত করার উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে

                                                             ---শিল্পমন্ত্রী

                            

ঢাকা, ২২ পৌষ (৬ জানুয়ারি) :

 

শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহ্‌মুদ হুমায়ূন বলেছেন, জনগুরুত্ব বিবেচনায় বিএসটিআইকে একটি বিভাগে পরিণত করার উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে। তিনি বলেন, দেশীয় সক্ষমতাকে কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশ আজ আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে একটি মর্যাদাপূর্ণ অবস্থান তৈরি করেছে। প্রশাসক নয়, সেবকের ভূমিকায় থেকে জনগণের কল্যাণে সরকারি কর্মকর্তাদের কাজ করতে হবে।

আজ ঢাকায় শিল্প মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন দপ্তর-সংস্থাসমূহের ২০১৮-‘১৯ অর্থবছরের বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি (এপিএ) বাস্তবায়ন পুরস্কার ও শুদ্ধাচার পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় শিল্পমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

শিল্পসচিব মোঃ আবদুল হালিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার।

প্রতিমন্ত্রী কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে শিল্প মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন সকল শিল্প প্রতিষ্ঠানকে লাভজনক করার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, সরকারি চিনিকলগুলো যাতে বছরজুড়ে উৎপাদন কার্যক্রম চালিয়ে যেতে পারে সে লক্ষ্যে উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। প্রতিমন্ত্রী এ সময় সারের সঠিক রক্ষণাবেক্ষণের জন্য বাফার গোডাউনসমূহের কাজ দ্রুত সমাপ্ত করার নির্দেশনা প্রদান করেন।  

অনুষ্ঠানে শিল্প মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন দপ্তর-সংস্থাসমূহের মধ্যে ২০১৮-’১৯ অর্থবছরে বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি (এপিএ) বাস্তবায়নের জন্য ১ম, ২য় ও ৩য় স্থান অর্জন করায় যথাক্রমে ন্যাশনাল প্রোডাক্টিভিটি অর্গানাইজেশন (এনপিও),  ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প ফাউন্ডেশন এবং বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস এন্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশন (বিএসটিআই)-কে পুরস্কৃত করা হয়। ২০১৮-’১৯ অর্থবছরের শুদ্ধাচার পুরস্কার লাভ করেছেন শিল্প মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব লুৎফুন নাহার, বিটাকের মহাপরিচালক ড. মোঃ মফিজুর রহমান এবং মন্ত্রণালয়ের কম্পিউটার অপারেটর মোঃ মেহবুবুর রহমান। 

#

মাসুম/ফারহানা/মোশারফ/আব্বাস/২০২০/১৯১০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                         নম্বর : ৫৯

প্রয়োজনীয়তার ভিত্তিতে উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হচ্ছে

       ---স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

 

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ), ২২ পৌষ (৬ জানুয়ারি) :

 

স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম বলেছেন, প্রয়োজনীয়তার ভিত্তিতে উন্নয়ন প্রকল্প নেওয়া হচ্ছে এবং পরিকল্পিতভাবে তা বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। তিনি বলেন, সরকার এমনভাবে উন্নয়ন প্রকল্প অনুমোদন দিচ্ছে যাতে সারা দেশে সমভাবে উন্নয়ন হয়। প্রকল্পগুলোর বাস্তবায়ন যথাযথভাবে হচ্ছে কি না, সে ব্যাপারে সরকার সচেতন বলেই আজকের পরিদর্শন কর্মসূচির আয়োজন।

আজ সকালে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন দুটি সেতুর নির্মাণ কাজ পরিদর্শন শেষে এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, রূপগঞ্জে রাস্তবায়নাধীন এই ব্রিজ দুটি বর্তমান গণতান্ত্রিক সরকারের গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন প্রতিশ্রুতির সফল বাস্তবায়ন। এর মাধ্যমে এলাকার জনসাধাণের আর্থসামাজিক উন্নয়ন হবে এবং তারা দেশের অর্থনীতিতে মূল্যবান অবদান রাখতে পারবে।

          নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোঃ জসিম উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী, সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু, স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ এবং এলজিইডি’র প্রধান প্রকৌশলী সুশংকর চন্দ্র আচার্য্য।

পরে মন্ত্রী নারায়ণগঞ্জ জেলার তারাব পৌরসভা পরিদর্শন করেন এবং পৌরসভার বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কার্যক্রম সম্পর্কে খোঁজখবর নেন।

          উল্লেখ্য, নারায়ণগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জ উপজেলার বালু নদীর ওপর ৩২০ মিটার (মূলব্রিজ ১৫০ মিটার + ১৭০ মিটার ভায়াডাক্ট) ডবল লেন ব্রিজটির কাজ সমাপ্ত হবে ২০২১ সালে। ‘পল্লী সড়কে গুরুত্বপূর্ণ সেতু নির্মাণ’ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ২০১৮ সালে নির্মাণ কাজ শুরু হওয়া উক্ত ব্রিজটি চালু হলে রূপগঞ্জ উপজেলা হেড কোয়ার্টার, পূর্বাচল, জলসিড়ি আবাসন প্রকল্পকে ঢাকার খিলক্ষেত এবং এয়ারপোর্টের সাথে সংযোগ স্থাপন করবে। 

          রূপগঞ্জ উপজেলার মুড়াপাড়ায় শীতলক্ষ্যা নদীর ওপর ৫৭৬ মিটার দীর্ঘ পিসি গার্ডার ব্রিজটির নির্মাণ কাজ শুরু হয় ২০১৬ সালে এবং সমাপ্ত হবে ২০২০ সালের জুন মাসে। ‘উপজেলা এবং ইউনিয়ন সড়কে দীর্ঘ সেতু নির্মাণ’ প্রকল্পের আওতায় প্রায় ৭৪ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত ব্রিজটি শীঘ্রই প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক উদ্বোধন করা হবে। এই ব্রিজটি চালু হলে রূপগঞ্জ ও নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা, নরসিংদী জেলার পলাশ উপজেলা এবং গাজীপুর জেলার অংশ বিশেষের বিরাট জনগোষ্ঠী রাজধানী ঢাকা এবং শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের সাথে যাতায়াত করতে পারবে।   

#

হাসান/মাহমুদ/মোশারফ/আব্বাস/২০২০/১৮৪৮ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                      নম্বর : ৫৮

‘মুজিববর্ষ’ উদ্‌যাপন উপলক্ষে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের বছরব্যাপী কর্মসূচি

ঢাকা, ২২ পৌষ (৬ জানুয়ারি) :

            জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ‘মুজিববর্ষ’ উদ্‌যাপন উপলক্ষে কর্মসূচি বাস্তবায়নের জন্য এক আলোচনা সভা আজ ঢাকায় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান এতে সভাপতিত্ব করেন।

            মন্ত্রী ‘মুজিববর্ষ’ এর সকল কর্মসূচি সুষ্ঠুভাবে বাস্তবায়নের জন্য সকলের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করেন। তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস, বঙ্গবন্ধুর অবদান যাতে সকলের নিকট তুলে ধরা যায় সে লক্ষ্যে মন্ত্রণালয়কে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে। সেই সাথে মন্ত্রণালয় এবং অধীনস্থ সংস্থার সকল কর্মকর্তার আন্তরিকতা সহযোগিতা-সহ সংস্থাগুলো যে কর্মসূচি গ্রহণে করে সেগুলো যাতে সারা দেশে যথাযথভাবে ও যথাযথ মর্যাদায় পালিত হয় তা নিশ্চিত করতে হবে। তিনি অধীনস্থ সংস্থার কর্মপরিকল্পনা দ্রুত প্রণয়ন করে মন্ত্রণালয়ে প্রেরণের জন্যও নির্দেশ প্রদান করেন।

            ‘মুজিববর্ষ’ উদ্‌যাপন উপলক্ষে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের বছরব্যাপী কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতা ঘোষণার মেসেজ, মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধু কর্নার তৈরি, সকল অনুষ্ঠান প্রচারের জন্য সেন্ট্রালি ডিসপ্লের ব্যবস্থা, লাইট এন্ড সাউন্ড শো  এর মাধ্যমে পুরো মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস তুলে ধরা, বঙ্গবন্ধু জীবনী নিয়ে মন্ত্রণালয়ের প্রবেশ পথে বা প্রধান ফটকে ডিজিটাল ডিসপ্লে বোর্ড প্রদর্শন করা। এছাড়াও বঙ্গবন্ধুর ওপর রচনা, বক্তৃতা প্রতিযোগিতা, বঙ্গবন্ধুর পারিবারিক ও মুক্তিযুদ্ধের ছবি প্রদর্শনী, বঙ্গবন্ধু ডাকটিকিট ও মুদ্রা প্র্রদর্শনী, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক রচনা, কবিতা আবৃত্তি, দেশাত্মবোধক গান এবং চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে।

            অনুষ্ঠানে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মোঃ আনোয়ার হোসেন, মন্ত্রণালয়াধীন সংস্থা প্রধানগণ এবং প্রকল্প পরিচালকগণ উপস্থিত ছিলেন।

#

 

বিবেকানন্দ/মাহমুদ/সঞ্জীব/রেজাউল/২০২০/১৮৪০ ঘণ্টা

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                  নম্বর : ৫৭

 

আরো ৫ হাজার ডাক্তার ও ১৫ হাজার নার্স নিয়োগ দেওয়া হবে

                                                              ---স্বাস্থ্যমন্ত্রী

                                              

ঢাকা, ২২ পৌষ (৬ জানুয়ারি) :

          স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, দেশের প্রতিটি সরকারি হাসপাতালে শয্যা সংখ্যা দ্বিগুণ করা হয়েছে। ক্যান্সার হাসপাতালে গত মাসেই শয্যা সংখ্যা ২শ’ থেকে ৫শ’তে উন্নীত করা হয়েছে। দেশের ৮ বিভাগে ৮টি ক্যান্সার হাসপাতাল প্রতিষ্ঠার কাজ প্রক্রিয়াধীন। এ বছরই দেশের সকল আইসিইউ শয্যা সংখ্যাও দ্বিগুণ করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। পাশাপাশি, ২৫০টি নতুন ডায়ালাইসিস শয্যা স্থাপনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। আজ নিউরোসায়েন্সেস হাসপাতালে ১০০ শয্যার স্ট্রোক ইউনিট উদ্বোধন করা হলো, যা বিশ্বের মাত্র অল্প কয়েকটি দেশের মধ্যে একটি। চিকিৎসা ক্ষেত্রে এটি আমাদের এক বিরাট অর্জন। স্বাস্থ্য সেবার এই সকল সুবিধা ভালোভাবে সম্পন্ন করার জন্য জরুরিভিত্তিতে অধিক সংখ্যক ডাক্তার, নার্স ও অন্যান্য লোকবল প্রয়োজন। এ কারণে এ বছরই নতুন করে অন্তত আরো ৫ হাজার ডাক্তার ও ১৫ হাজার নার্স নিয়োগ দেয়া হবে।

          আজ রাজধানীর জাতীয় নিউরোসায়েন্সেস ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে ১০০ শয্যার স্ট্রোক ইউনিট উদ্বোধন উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

           স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরো বলেন, সরকারি হাসপাতালে ১০০ শয্যার স্ট্রোক ইউনিট স্থাপন একটি বিরল ঘটনা। পৃথিবীর হাতেগোনা কয়েকটি দেশের হাসপাতাল ছাড়া ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলংকা, ইন্দোনেশিয়া, ভিয়েতনাম, মালেয়েশিয়া-সহ বিশ্বের আর কোথাও ১০০ শয্যার স্ট্রোক ইউনিট নেই। সুতরাং সরকারের এই মহতী উদ্যোগকে সকলে মিলে সর্বাত্মক সহায়তা করতে হবে।

          ঢাকার অভিজ্ঞ চিকিৎসকদের দেশের বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে পদায়ন করা গেলে জেলা পর্যায় থেকে ঢাকায় আসা রোগীদের চাপ আরো কমে যেতে পারে বলে অনুষ্ঠানে অন্য বক্তারা অভিমত ব্যক্ত করেন।

          জাতীয় নিউরোসায়েন্সেস ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক ডাঃ কাজী দীন মোহাম্মদের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব মোঃ আসাদুল ইসলাম, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক আবুল কালাম আজাদ, জাতীয় নিউরোসায়েন্সেস ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের যুগ্ম পরিচালক ডাঃ বদরুল আলম।

          এর আগে স্বাস্থ্যমন্ত্রী স্ট্রোক ইউনিট ঘুরে দেখেন ও চিকিৎসারত রোগীদের সাথে কথা বলেন।

#

মাইদুল/মাহমুদ/সঞ্জীব/জয়নুল/২০২০/১৮৫০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                  নম্বর : ৫৬

 

বাজার পরিদর্শন অব্যাহত রাখতে হবে

                                  ---কৃষিমন্ত্রী

                                        

গাজীপুর, ২২ পৌষ (৬ জানুয়ারি) :

          ‘বাজার ব্যবস্থাপনায় সুশাসন প্রতিষ্ঠা অপরিহার্য, তা না হলে কৃষক তার উৎপাদিত পণ্যের উপযুক্ত মূল্য পাবে না। কৃষক এই পেশায় আগ্রহ হারিয়ে ফেলবে। তাই নিয়মিত বাজার পরিদর্শন অব্যাহত রাখতে হবে। উৎপাদক থেকে ভোক্তা পর্যন্ত কৃষিপণ্যের দামের তারতম্য বেশি হওয়ার কারণ বের করতে হবে, তাহলেই এ ব্যাপারে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়া যাবে।’

          কৃষিমন্ত্রী ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক আজ বাংলাদেশ কৃষি প্রশিক্ষণ একাডেমি (নাটা)-তে ‘কৃষক-উদ্যোক্তা: বাণিজ্যিক কৃষির উদীয়মান চালক’ শীর্ষক সেমিনারে এসব কথা বলেন। এর আগে মন্ত্রী নবনির্মিত ট্রেনিং সেন্টার উদ্বোধন করেন।

          মন্ত্রী বলেন, কৃষির সাফল্যে আত্মতুষ্টির কোনো কারণ নেই, কৃষিকে বাণিজ্যিকীকরণ করতেই হবে। দেশের বিভিন্ন প্রান্তে কৃষক প্রয়োজনে বা লাভের জন্য নানা রকমের মূল্যবান ফসল আবাদ করছে, এখন সরকারের দায়িত্ব কৃষককে লাভবান করা, এর জন্য বাজার সৃষ্টি করা ও রপ্তানি করা। বাণিজ্যিক ফুল চাষ সম্প্রসারণের লক্ষ্যে যশোরে একটি টিস্যু কালচার সেন্টার স্থাপন করা হবে বলে জানান তিনি।

          নাটা’র মহাপরিচালক ড. মোঃ আবু সাইদ মিঞার সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কৃষি সচিব মোঃ নাসিরুজ্জামান; কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. আব্দুল মূঈদ। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন এমিরেটাস প্রফেসর ও বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি ড. এম এ সাত্তার মন্ডল।

#

গিয়াস/মাহমুদ/মোশারফ/জয়নুল/২০২০/১৮২০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                  নম্বর : ৫৫

 

বাণিজ্যমন্ত্রী-কানাডার রাষ্ট্রদূত বৈঠক

বাংলাদেশ-কানাডা জয়েন্ট ওয়াকিং গ্রুপ গঠনের সিদ্ধান্ত

                                              

ঢাকা, ২২ পৌষ (৬ জানুয়ারি) :

          বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, যত দ্রুত সম্ভব বাংলাদেশ-কানাডা জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপ গঠন করা হবে। এতে করে বিজনেসম্যান টু বিজনেসম্যান (বিটুবি) আলোচনার জন্য একটি প্লাটফর্ম তৈরি হবে। এছাড়া বাণিজ্য ও বিনিয়োগে গতি আসবে। বাংলাদেশে এগ্রো প্রসেসিং জোন গড়ে তোলার বিপুল সম্ভাবনা রয়েছে, কানাডা এ খাতে বিনিয়োগ করলে লাভবান হবে।

          বাণিজ্যমন্ত্রীর সাথে আজ তাঁর দপ্তরে ঢাকায় নিযুক্ত কানাডার রাষ্ট্রদূত Benoit Prefontaine সাক্ষাৎ করতে এলে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

          কানাডার রাষ্ট্রদূত বলেন, কানাডা বাংলাদেশের সাথে জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপ গঠনে একমত। কানাডার ব্যবসায়ীগণ বাংলাদেশের সাথে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বাড়াতে আগ্রহী। বাংলাদেশ দৃশ্যমান উন্নয়ন করছে। কানাডা বাংলাদেশের উন্নয়নে অংশীদার হতে আগ্রহী। বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হলে কানাডা অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বাণিজ্য সহযোগিতা প্রদান করবে। বাংলাদেশের প্রাইভেট সেক্টরে ব্যাপক উন্নয়নের সুযোগ রয়েছে, কানাডা এ সুযোগ নিতে চায়।

          বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. মোঃ জাফর উদ্দীন, ট্যারিফ কমিশনের চেয়ারম্যান (সচিব) তপন কান্তি ঘোষ, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (এফটিএ) শরিফা খান এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

#

বকসী/মাহমুদ/মোশারফ/জয়নুল/২০২০/১৮১০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                  নম্বর : ৫৪

 

নিত্যপণ্যের বাজার মনিটরিং জোরদার

পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধির কারণ নেই

                                              

ঢাকা, ২২ পৌষ (৬ জানুয়ারি) :

          পেঁয়াজের সাম্প্রতিক অস্বাভাবিক মূল্য বৃদ্ধির কোন সংগত কারণ নেই বলে জানিয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। আজ এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে মন্ত্রণালয় জানায়, বাজারে পর্যাপ্ত পেঁয়াজ রয়েছে। দেশে উৎপাদিত পেঁয়াজ (মুড়িকাটা) বাজারে এসেছে এবং বিভিন্ন দেশ থেকে চাহিদা মোতাবেক প্রয়োজনীয় পেঁয়াজ আমদানি করা হয়েছে এবং হচ্ছে। এখনও প্রতিদিন আমদানিকৃত পেঁয়াজ দেশে আসছে। পেঁয়াজ আমদানির ক্ষেত্রে আমদানিকারকদেরকে প্রয়োজনীয় সব ধরনের সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে। প্রতিটি বাজারে পর্যাপ্ত দেশি ও আমদানি করা পেঁয়াজ সরবরাহ ও মজুত রয়েছে।

          বাণিজ্য মন্ত্রণালয় আরো জানিয়েছে, সরকার পেঁয়াজের সরবরাহ ও মূল্য স্বাভাবিক রাখতে বাজার অভিযান জোরদার করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। বাজারে পেঁয়াজ, তেল-সহ নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের সরবরাহ, মূল্য তদারকির জন্য ব্যাপকভাবে বাজার অভিযান চালানো হবে। পাশাপাশি জেলা প্রশাসন দেশব্যাপী এ অভিযান জোরদার করবে। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে ইতোমধ্যে বিভাগ ও জেলা প্রশাসনের কাছে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা পাঠানো হয়েছে। ব্যবসায়ীদেরকে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের আমদানি মূল্য, ক্রয়মূল্যের চালান বা রশিদ সংরক্ষণে রাখার অনুরোধ করা হচ্ছে। একই সাথে দোকানে বিক্রয়মূল্যের তালিকা দোকানে টাঙিয়ে রাখার অনুরোধ করা হচ্ছে। অন্যায়ভাবে কোন ব্যবসায়ীকে হয়রানি করা হবে না, কারসাজি করে অন্যায়ভাবে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য মজুত করলে, মূল্য বৃদ্ধি করলে বা কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করার চেষ্ট করলে তাদের বিরুদ্ধে আইন মোতাবেক কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

          পেঁয়াজের আমদানি, সরবরাহ ও বিক্রয়মূল্যের বিষয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় তথা সরকার সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে কাজ করে যাচ্ছে। সরকার টিসিবি’র মাধ্যমে ঢাকা-সহ দেশব্যাপী প্রায় দুইশত  ট্রাক সেলের মাধ্যমে ৩৫ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ বিক্রয় অব্যাহত রেখেছে। বাজারে চাহিদা থাকা পর্যন্ত এ বিক্রয় অব্যাহত থাকবে।

#

বকসী/মাহমুদ/সঞ্জীব/জয়নুল/২০২০/১৮০০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                       নম্বর : ৫৩

 

স্পোর্টস চ্যানেলের অনুমোদন দিয়েছে সরকার

                             -যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা, ২২ পৌষ (৬ জানুয়ারি) :

          সরকার বেশ কয়েকটি স্পোর্টস চ্যানেলের অনুমোদন দিয়েছে বলে জানিয়েছেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী
মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল। তিনি আজ রাজধানীর কুষ্টিয়া ভবনের সম্মেলন কক্ষে বাংলাদেশ স্পোর্টস কমেন্টেটরস ফোরাম আয়োজিত নবীন ধারাভাষ্যকারদের নিয়ে রিফ্রেশারস কোর্সের সমাপনী ও সনদ বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন। 

          ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বলেন, দেশের ক্রীড়াঙ্গনকে এগিয়ে নিতে পর্দার নেপথ্যে থেকে ক্রীড়া ধারাভাষ্যকাররা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছেন। ক্রিকেটকে জনপ্রিয় করতে ক্রীড়া ধারাভাষ্যকারদের ভূমিকা অনবদ্য। তাঁরাই বাংলাদেশ বেতার ও টেলিভিশনের মাধ্যমে  প্রতিটি ঘরে ক্রিকেটের আলো ছড়িয়ে দিয়েছেন। সময় এসেছে তাঁদের কাজের স্বীকৃতি দেবার। তাঁদের যথার্থ মূল্যায়নের।

          এ সময় প্রতিমন্ত্রী বাংলাদেশ স্পোর্টস কমেন্টেটরস ফোরামের নিবন্ধনের প্রয়োজনীয় ব্যবস্হা গ্রহণের আশ্বাস প্রদান করেন। এছাড়াও লিজেন্ড ধারাভাষ্যকারদের নামে  কমেন্ট্রি বক্স নামকরণসহ শেখ কামাল জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ পুরস্কারে ধারাভাষ্যকারদের পুরস্কৃত  করার উদ্যোগ  গ্রহণ করবেন বলেও জানান মন্ত্রী। ধারাভাষ্যে বাংলা ভাষা ব্যবহারের ওপরও গুরুত্বারোপ করেন মন্ত্রী। 

          অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ স্পোর্টস কমেন্টেটরস ফোরামের সভাপতি আলফাজ উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক ড. সাইদুর রহমানসহ ফোরামের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। 

#

আরিফ/পরীক্ষিৎ/রেজ্জাকুল/শামীম/২০২০/১৬৩৮ ঘণ্টা

 

 

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                       নম্বর : ৫২

নীরব এলাকায় হর্ণ বাজানোয় ছয় জনকে অর্থদণ্ড

ঢাকা, ২২ পৌষ (৬ জানুয়ারি) :

          সচিবালয়ের চারপাশের রাস্তায় হর্ণ বাজানোয় ভ্রাম্যমান আদালত আজ একটি গাড়ী, একটি সিএনজি ও চারটি মোটরসাইকেলের ড্রাইভারকে জরিমানা করেছে। ছয়জনকে মোট এক হাজার তিনশ টাকা জরিমানা করা হয়।  ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন পরিবেশ অধিদপ্তরের এনফোর্সমেন্ট উইং এর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাকসুদ ইসলাম এবং সহকারী পরিচালক মোসাব্বের হোসেন মোহাম্মদ রাজীব। অর্থদণ্ড প্রদানের আগে তাঁরা সচিবালয়ের চারপাশের রাস্তায় হর্ণ না বাজানোর বিষয়ে জনসচেতনতামূলক প্রচারণা চালান।

     &nb

2020-01-06-22-59-b56e41d1bb39f423d6940342e4c89e52.docx 2020-01-06-22-59-b56e41d1bb39f423d6940342e4c89e52.docx

Share with :

Facebook Facebook