তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২nd মার্চ ২০২০

তথ্যবিবরণী -২ মার্চ ২০২০

তথ্যবিবরণী                                                                                         নম্বর : ৭৭৬
 
বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আইসিটি বিভাগের কর্মপরিকল্পনা
 
ঢাকা, ১৮ ফাল্গুন (২ মার্চ) :
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের আওতাধীন দপ্তর ও সংস্থার প্রধানদেরকে নিয়ে বিভিন্ন কর্মপরিকল্পনা নির্ধারণের লক্ষ্যে এক সভা আজ আইসিটি বিভাগের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়।
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক সভায় সভাপতিত্ব করেন।
সভায় জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি কর্তৃক আগামী ১৭ মার্চ মুজিববর্ষের উদ্বোধন এবং বছরব্যাপী অনুষ্ঠানমালার আয়োজন সংক্রান্ত বিষয়াদি এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের ‘১০০+কৌশল’ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয় এবং এ সংক্রান্ত বছরব্যাপী কর্মপরিকল্পনা নির্ধারণ করা হয়।
সভায় মুজিববর্ষে ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার (ইউডিসি) এর ১০ বছর পূর্তি উপলক্ষে আগামী ১১ নভেম্বর ডিজিটাল সেন্টারের সকল উদ্যোক্তাদের নিয়ে সমাবেশ করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। ১৭ মার্চ জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় গরীব-মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে বিতরণের জন্য ১০০টি ল্যাপটপ মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের নিকট হস্তান্তরের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।
এছাড়া বঙ্গবন্ধুর আত্মজীবনী নিয়ে গুরুত্ব অনুযায়ী অডিও বুক প্রকাশ, ওয়েবসাইট ও লোগো নির্বাচন, বঙ্গবন্ধু অনলাইন পোর্টাল স্থাপন, ১০ মিনিট ব্যাপ্তিকালের ৬টি এনিমেটেড শিশুতোষ চলচ্চিত্র নির্মাণ, ডিজিটাল ডিসপ্লে স্থাপন, মুজিববর্ষ এর ওয়েব সাইটের পূর্ণাঙ্গ মোবাইল অ্যাপস তৈরি, বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী অবলম্বনে ‘মুজিব গ্রাফিক্স নভেল এনিমেশন’ তৈরি, প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক লিখিত ‘মুজিব আমার পিতা’ বই অবলম্বনে এর এন্ড্রয়েড ও আইওএস অ্যাপস এবং এনিমেশন তৈরি, টুঙ্গিপাড়া-সহ ধানমন্ডি ৩২নং বাড়ি ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের স্মৃতি বিজড়িত স্থাপনাসমূহের ভার্চুয়াল রিয়েলিটি (ভিআর) কন্টেন্ট তৈরি ও ৫টি উল্লেখযোগ্য স্থানে ভার্চুয়াল রিয়েলিটি (ভিআর) প্রদর্শনের কিয়স্ক স্থাপনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।
এছাড়াও প্রস্তাবিত আর্কাইভে প্রদর্শনের জন্য বঙ্গবন্ধুর জীবন, কর্ম ও ৭ মার্চের ভাষণসহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ ঘটনাসমূহের ডিজিটাল কন্টেন্ট তৈরি, স্বল্প দৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র প্রতিযোগিতা, বঙ্গবন্ধুর বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক ইতিহাস জানতে এবং তরুণদের আরো আগ্রহী করে তুলতে অনলাইন কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজনসহ বিভিন্ন বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয় এবং উল্লিখিত বিষয়সমূহ বাস্তবায়নে কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তর ও সংস্থাকে দায়িত্ব প্রদান করা হয়।
সভায় অন্যান্যোর মধ্যে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম-সহ বিভাগ ও সংস্থার সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ। 
 
#
 
শহিদুল/ফারহানা/মোশারফ/জয়নুল/২০২০/২০২৫ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                   নম্বর : ৭৭৫

রোহিঙ্গারা যাতে ভোটার হতে না পারে, সে বিষয়ে সজাগ থাকতে হবে

                                                                                           ---- আইনমন্ত্রী

ঢাকা, ১৮ ফাল্গুন (২ মার্চ) : 

আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, ২০০৮ সাল থেকে এ পর্যন্ত নির্বাচন কমিশন যে ভোটার  তালিকা প্রণয়ন করেছে তার বিশ্বস্ততা নিয়ে জনসাধারণের মধ্যে একটি আস্থা তৈরি হয়েছে। এই অবস্থায় নির্বাচন কমিশনের দায়িত্ব হবে, নির্ভুল ভোটার তালিকা প্রণয়নের ধারা অব্যাহত রেখে আগামীতেও জনগণের এই আস্থা ধরে রাখা। কোনো অবস্থাতেই যাতে এক ব্যক্তি দুই জায়গায় ভোটার হতে না পারে এবং রোহিঙ্গা বা অন্য কোনো দেশের নাগরিক যেন অবৈধভাবে ভোটার হতে না পারে সে বিষয়ে কমিশনকে অত্যন্ত সজাগ থাকতে হবে। প্রয়োজনে এসব অপরাধের কঠোর শাস্তির বিধি-বিধান করতে হবে। এ বিষয়ে সরকারের সব ধরনের সহযোগিতা থাকবে।  

মন্ত্রী আজ ঢাকায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে জাতীয় ভোটার দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।  

অনুষ্ঠানে এ বছর জাতীয় নির্বাচন পদকপ্রাপ্ত  তিনজন নির্বাচন কর্মকর্তার হাতে পদক তুলে দেন আনিসুল হক। একই সময় কয়েকজন নতুন ভোটারের হাতে জাতীয় পরিচয়ের স্মাট কার্ড তুলে দেন তিনি।

ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে মন্ত্রী বলেন, ইভিএম- পদ্ধতিকে আরো আধুনিক ও স্বচ্ছ করার জন্য ধারাবাহিক গবেষণা করতে হবে। ট্রায়াল এন্ড এরারএর ভিত্তিতে ইভিএম পদ্ধতিকে স্ট্যান্ডারাইজড তথা সার্বিক ত্রুটিমুক্ত করতে হবে।  এছাড়া ভবিষ্যতে এমন প্রযুক্তি উদ্ভাবন করতে হবে যাতে মানুষ ঘরে বসেই অনলাইনে তার নিজের ভোট নিজে দিতে পারেন এবং তার ভোটটি কোথায় গেল তা যেন নিশ্চিত হতে পারেন।

নির্বচন কমিশনের সিনিয়র সচিব মোঃ আলমগীরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা, নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার, মোঃ রফিকুল ইসলাম, কবিতা খানম ও ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদাত হোসেন চৌধুরী।  

#

রেজাউল/ফারহানা/মোশারফ/আব্বাস/২০২০/১৯২৯ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                             নম্বর : ৭৭৪

এসএমই মেলা উপলক্ষে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে শিল্পমন্ত্রী

গত ৭টি মেলায় ১৬ কোটি ৯৩ লাখ টাকার পণ্য বিক্রি ও ৩০ কোটি ১২ লাখ টাকার ক্রয় আদেশ

 

ঢাকা, ১৮ ফাল্গুন (২ মার্চ) :

            শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন বলেছেন, গত ৭টি জাতীয় এসএমই মেলায় ১৬ কোটি ৯৩ লাখ ১৪ হাজার টাকার পণ্য বিক্রি এবং ৩০ কোটি ১২ লাখ ১৩ হাজার টাকার ক্রয় আদেশ পেয়েছেন উদ্যোক্তারা। এছাড়া ২০১৮-১৯ অর্থবছরে দেশের ২৩টি জেলার আঞ্চলিক মেলায় প্রায় ৯ কোটি ১৬ লাখ টাকার পণ্য বিক্রয় এবং প্রায় ৬ কোটি ৪৪ লাখ টাকার বিভিন্ন পণ্যের ক্রয় আদেশ পাওয়া যায়।

            আজ ৮ম জাতীয় এসএমই মেলা ২০২০ উপলক্ষে রাজধানীর পান্থপথে এসএমই ফাউন্ডেশনের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত প্রেসব্রিফিংয়ে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। শিল্পসচিব মোঃ আবদুল হালিম, এসএমই ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ সফিকুল ইসলাম-সহ শিল্প মন্ত্রণালয় এবং এসএমই ফাউন্ডেশনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

             শিল্পমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৪ মার্চ কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন, ঢাকায় এ মেলার উদ্বোধন করবেন এবং দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ এসএমই খাতের ২ জন নারী এবং ৩ জন পুরুষ উদ্যোক্তাকে ‘জাতীয় এসএমই উদ্যোক্তা পুরস্কার-২০২০’ প্রদান করবেন। ঢাকার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ৪ থেকে ১২ মার্চ প্রতিদিন সকাল ১০টা হতে রাত ৮টা পর্যন্ত মেলা চলবে। মেলায় কোনো প্রবেশ মূল্য থাকবে না। 

            প্রেস ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প পণ্যের প্রচার ও বিক্রয় এবং স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক বাজার সম্প্রসারণ, এ খাতের উদ্যোক্তাদের পারস্পরিক সম্পর্ক উন্নয়ন এবং পণ্য উৎপাদন ও সেবায় বিভিন্ন মহলের সৃজনশীল মতামত ও পরামর্শ গ্রহণের লক্ষ্যে এ মেলা আয়োজন করা হয়েছে।

            মেলায় দেশে উৎপাদিত পাটজাত পণ্য, খাদ্য ও কৃষি প্রক্রিয়াজাত পণ্য, চামড়াজাত সামগ্রী, ইলেকট্রিক্যাল ও ইলেকট্রনিক্স সামগ্রী, লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং পণ্য, আইটি পণ্য, প্লাস্টিক ও সিনথেটিক পণ্য, হস্তশিল্প, ডিজাইন ও ফ্যাশনওয়্যার-সহ বিভিন্ন ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের স্বদেশি পণ্য প্রদর্শিত ও বিক্রয় হবে। কোনো বিদেশি পণ্য এ মেলায় প্রদর্শন কিংবা বিক্রয় করা হবে না।

#

মাসুম/ফারহানা/সঞ্জীব/জয়নুল/২০২০/১৯২০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                   নম্বর : ৭৭৩

জামদানিকে বাঁচিয়ে রেখেছে সোনারগাঁওয়ের মেধাবী বয়নশিল্পীরা  

                                                        ---সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা, ১৮ ফাল্গুন (২ মার্চ) : 

সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেছেন, জামদানি বয়নশিল্পের কথা বলতে গেলে সবার আগে উল্লেখ করতে হবে বিশ্বনন্দিত হাতে বোনা তাঁতে তৈরি ঢাকার মসলিনের কথা। সূক্ষ্ম, শুভ্র, মসৃণবস্ত্র মসলিন ছিল মূলত পাঁচ ধরনের। গোটা জমিনে তাঁতে বিশেষ কৌশলে বা পদ্ধতিতে বুননের মাধ্যমে তৈরি হতো ফুল তোলা মসলিন যার পোশাকি নাম জামদানি। তাই জামদানিকে বলা হয় মসলিনের পঞ্চম কন্যা। বিভিন্ন কারণে মসলিন ধ্বংস হয়ে গেলেও জামদানিকে (ফিগার্ড মসলিন) বাঁচিয়ে রেখেছে সোনারগাঁওয়ের  সৃজনশীল, মেধাবী, সুরুচিশীল মনমানসিকতা সম্পন্ন ধীমান বয়নশিল্পীগণ।

 

প্রতিমন্ত্রী আজ রাজধানীর বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে বিশিষ্ট লোক ও কারুশিল্প অনুরাগী, গবেষক ও লেখক মালেকা খান রচিত 'জামদানি : বাংলাদেশের বিশ্বনন্দিত ঐতিহ্য' শীর্ষক সচিত্র গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন ও প্রকাশনা উৎসবে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

 

কে এম খালিদ বলেন, লোক ও কারুশিল্প অনুরাগী মিসেস মালেকা খান প্রায় ৬০ বছর ধরে জামদানি নিয়ে কাজ ও গবেষণা করে যাচ্ছেন। জামদানি বিষয়ে তাঁর সুদীর্ঘ অভিজ্ঞতা ও গবেষণার আলোকে তিনি গ্রন্থটি রচনা করেছেন। গ্রন্থটিতে জামদানি শিল্পের আদি ইতিহাস, ঐতিহ্য, বুনন পদ্ধতি, বর্তমান অবস্থা প্রভৃতির সন্নিবেশ ঘটেছে।

 

প্রতিমন্ত্রী বলেন, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় সবসময় জামদানি শিল্পের পৃষ্ঠপোষকতা করে আসছে এবং ভবিষ্যতেও প্রয়োজনীয় সহযোগিতা ও পৃষ্ঠপোষকতা করতে বদ্ধপরিকর। তিনি বলেন, মালেকা খানের বইটি জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্রের মাধ্যমে সংগ্রহ করা হবে এবং বিদেশস্থ বাংলাদেশ মিশনসমূহে প্রেরণের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

দৈনিক ইত্তেফাক ও অনন্যার সম্পাদক তাসমিমা হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক ও প্রফেসর ড. রওনক জাহান।

 

#

ফয়সল/ফারহানা/মোশারফ/আব্বাস/২০২০/১৯১০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                            নম্বর : ৭৭২

বিএনপি দুর্নীতিতে নিমজ্জিত

                     -- তথ্যমন্ত্রী

ঢাকা, ১৮ ফাল্গুন (২ মার্চ) : 

            ‘বিএনপি দুর্নীতিতে নিমজ্জিত দল’ বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহ্‌মুদ। 

            আজ রাজধানীর বেইলী রোডে অফিসার্স ক্লাবে দৈনিক সময়ের আলো পত্রিকার প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে যোগদানের পূর্বে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে বিএনপি মহাসচিবের ‘সরকার দেশে লুটপাটের রাজত্ব করছে’-এমন মন্তব্যের জবাবে মন্ত্রী একথা বলেন।   

            ড. হাছান বলেন, ‘তিনি (মির্জা ফখরুল) যে দল করেন, সে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দুর্নীতির বিরুদ্ধে বিদেশি গোয়েন্দা সংস্থা বাংলাদেশে এসে সাক্ষ্য দিয়ে গেছে। বিভিন্ন অপরাধ প্রমাণে তার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হয়েছে। তাদের দলের চেয়ারপার্সন বেগম জিয়া নিজে দুর্নীতির মাধ্যমে অর্জিত সম্পদ অর্থাৎ অপ্রদর্শিত কালো টাকা জরিমানা দিয়ে সাদা করেছেন। দেশ থেকে দুর্নীতির মাধ্যমে তার প্রয়াত পুত্র কোকোর পাচারকৃত টাকা সিঙ্গাপুর থেকে দেশে ফেরত আনা হয়েছে। তারেক ও কোকো’র দু’টো ঘটনাই বিদেশি গোয়েন্দা সংস্থা উদঘাটন করেছে, বাংলাদেশ সরকার নয়।’

            তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘মির্জা ফখরুল সাহেবের নিজের দলই দুর্নীতিতে নিমজ্জিত। ক্ষমতায় থাকাকালে তারা হাওয়া ভবন তৈরি করে সমান্তরাল সরকার পরিচালনা করছিলেন এবং হাওয়া ভবনের মূল কাজটা ছিল সব ব্যবসায় দশ পার্সেন্ট টোল বসানো, যেটি সমগ্র দেশের মানুষ জানে। সে কারণে তিনি যে কথাগুলো বলেছেন, সেগুলো আসলে তাদের দলের বেলায়, তাদের নেতৃত্বের বেলায়ই প্রযোজ্য।’

            ‘আমাদের সরকার সঠিকভাবে দেশ পরিচালনা করছে বিধায় দেশে উন্নতি হয়েছে, অগ্রগতি হয়েছে’ উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘যেখানে মাথাপিছু আয় ছিল ৬০০ ডলার, সেটি এখন ২০০০ ডলার ছাড়িয়ে গেছে। আমরা অর্থনৈতিক, মানবউন্নয়ন, সামাজিক সমস্ত সূচকে আজ পাকিস্তানকে পেছনে ফেলেছি। পাকিস্তান সেজন্য আক্ষেপ করে। তাদের (বিএনপি’র) সময় তারা দুর্নীতিতে পরপর পাঁচবার দেশকে চ্যাম্পিয়ন বানিয়েছেন।’ 

            বিএনপি মহাসচিবের অপর বক্তব্য -‘সরকার যদি হস্তক্ষেপ না করতো, তাহলে বেগম খালেদা জিয়ার জামিন আরো আগেই হয়ে যেতো’ প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন , ‘আদালতে সরকার কখনোই হস্তক্ষেপ করেনি এবং হস্তক্ষেপ করে না। উচ্চ আদালতে তারা বারংবার জামিন চেয়েছে, পায়নি। তিনি রাজনৈতিক বন্দি নন, তাকে উন্নত চিকিৎসা দেওয়ার জন্য তারা জামিন চাচ্ছে, সেখানে চিকিৎকদের রিপোর্ট হচ্ছে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল হাসপাতালে তাকে উন্নত চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। এবং আরো যে জটিলতাগুলো তারা উল্লেখ করেছে সেসব সেবা সেখানেই দেওয়া সম্ভব। সুতরাং সেই বিবেচনায় আদালত জামিন দেয়নি। এটা আদালতের এখতিয়ার।’

            ‘আদালত সম্পূর্ণ স্বাধীন বিধায় আমাদের দলের মন্ত্রীদেরকেও আদালতে হাজিরা দিতে হয়, এমনকি আমাদের দলের এমপিরা দুদকের মামলায় জেলেও গেছেন, আমাদের দলের প্রাক্তন দু’দফা মন্ত্রী এমন অনেককে জেলে যেতে হয়েছে, সুতরাং আদালত এখানে সম্পূর্ণ স্বাধীনভাবে কাজ করছে’ বলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান।

            তথ্যমন্ত্রী দৈনিক সময়ের আলো পত্রিকার প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে কেক কাটার সময় পত্রিকাটির শতবর্ষী জীবন কামনা করে বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার আমরা গণমাধ্যমের স্বাধীনতা ও বহুমাত্রিক সমাজে বিশ্বাসী। আমরা মনেকরি, বিতর্কভিত্তিক সমাজ ব্যবস্থার মাধ্যমে দেশকে বহুদূর এগিয়ে নেওয়া সম্ভব। বাংলাদেশের গণমাধ্যম অনেক উন্নত দেশের তুলনায় অনেক বেশি স্বাধীনভাবে কাজ করছে, স্বাধীনতা ভোগ করছে। যখন বিএনপি ক্ষমতা ছিল তখন গণমাধ্যমের বরং এই স্বাধীনতা ছিল না।’

            দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মোঃ এনামুর রহমান, ডিবিসি২৪ চ্যানেলের চেয়ারম্যান ইকবাল সোবহান চৌধুরী প্রখ্যাত চিত্রতারকা রোজিনা, আমিন মোহাম্মদ গ্রুপের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ রমজানুল হক, দৈনিক সময়ের আলো’র প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ, ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক কমলেশ রায়, চিত্রতারকা অরুণা বিশ্বাস প্রমুখ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। 

#

আকরাম/ফারহানা/মোশারফ/রেজাউল/২০২০/১৮২৫ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                    নম্বর : ৭৭১

উরুগুয়ের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্টের শপথ অনুষ্ঠানে যোগ দিলেন রাষ্ট্রপতি

ঢাকা, ১৮ ফাল্গুন (২ মার্চ) :

          রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ উরুগুয়ের রাজধানী মন্টি ভিডিওতে পার্লামেন্ট ভবনে আজ নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট Luis Alberto Lacalle Pou এর শপথ অনুষ্ঠানে যোগ দেন। উরুগুয়েতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোঃ জুলফিকার রহমান, রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের সচিব সম্পদ বডুয়া এবং প্রেস সচিব মোঃ জয়নাল আবেদীন এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

          বাংলাদেশ-সহ বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্র ও সরকার প্রধান এবং প্রতিনিধিরা শপথ অনুষ্ঠানে যোগদান করেছেন।

          পরে বিকেলে Independence Plaza-তে প্রেসিডেন্সিয়াল কমান্ড হস্তান্তর অনুষ্ঠানে যোগ দেন রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ। বিভিন্ন আনুষ্ঠানিকতার মাধ্যমে প্রেসিডেন্সিয়াল কমান্ড হস্তান্তর করা হয়। সামরিক বাহিনীর সদস্যরা প্যারেড করে উরুগুয়ের নতুন প্রেসিডেন্টকে সালাম প্রদান করে। পরে আমন্ত্রিত অতিথিদের প্রেসিডেন্টের কার্যালয় Jose Artigas ভবনে নিয়ে যাওয়া হয।

          সেখানে উরুগুয়ের নতুন প্রেসিডেন্ট বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ-সহ আগত অতিথিদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। এ সময় রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ উরুগুয়ের নতুন প্রেসিডেন্টকে অভিনন্দন জানান।

          শপথ অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট Jair Messias Bolsonaro  এবং স্পেনের রাজা Felipe the sixth-সহ বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানদের সঙ্গে শুভেচ্ছা ও কুশল বিনিময় করেন।

#

ইমরানুল/ফারহানা/মোশারফ/জয়নুল/২০২০/১৭৫০ঘণ্টা

2020-03-02-20-26-af9f59193db304c607a2f90c0a653e62.docx 2020-03-02-20-26-af9f59193db304c607a2f90c0a653e62.docx

Share with :

Facebook Facebook