তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৯ জুন ২০২০

তথ্যবিবরণী ৯ জুন ২০২০

তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর:  ২১০২

প্লাজমা নেটওয়ার্ক ‘সহযোদ্ধা’ উদ্বোধন করলেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা, ২৬ জৈষ্ঠ্য (৯ জুন)

          তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন প্লাজমা নেটওয়ার্ক ‘সহযোদ্ধা’ আগ্রহী প্লাজমা দাতা এবং গ্রহীতার মধ্যে সেতুবন্ধন ঘটিয়ে করোনা  রোগীকে সুস্থ করে তোলার ক্ষেত্রে কার্যকরী ভূমিকা পালন করবে। 

          প্রতিমন্ত্রী আজ দেশের করোনা রোগীদের চিকিৎসায় প্লাজমা সংগ্রহ এবং সরবরাহে আইসিটি বিভাগ, স্বাস্থ্য সেবা অধিদপ্তর, এটুআই, ইনোভেশন ল্যাব এবং ইজেনারেশনের উদ্যোগে ‘সহযোদ্ধা’  প্লাজমা নেটওয়ার্ক অনলাইনে প্রধান অতিথি হিসেবে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনকালে একথা বলেন। 

          প্রতিমন্ত্রী বলেন, দেশের জনগণকে স্বাস্থ্য ঝুঁকি থেকে নিরাপদ রাখতে সরকার নানাবিধ উদ্যোগ  বাস্তবায়ন করছে। তারই ধারাবাহিকতায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীকে সুস্থ করতে আইসিটি বিভাগের আরেকটি উদ্যোগ হলো ‘সহযোদ্ধা’  প্ল্যাটফর্ম। তিনি বলেন, সরকার বিদ্যমান জনস্বাস্থ্য অবকাঠামো এবং তথ্যপ্রযুক্তি অবকাঠামো কার্যকরীভাবে ব্যবহার করে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে ব্যক্তিগত এবং সামাজিক স্বাস্থ্য সেবা উন্নত করতে নিরলস প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

          আইসিটি বিভাগের অধীন এটুআই-এর প্রকল্প পরিচালক আব্দুল মান্নান, পলিসি এডভাইজার আনীড় চৌধুরী, ইজেনারেশনের চেয়ারম্যান শামীম আহসান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

          উল্লেখ্য, যারা ইতিমধ্যে করোনা থেকে সেরে উঠেছেন তাদের কাছ থেকে প্লাজমা সংগ্রহ করে চাহিদা মোতাবেক সেটি সরবরাহে স্বাস্থ্য খাতকে সহায়তা করতে প্ল্যাটফর্ম করা হয়েছে। আগ্রহী প্লাজমা দাতা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের সহায়তায় জন্য তৈরি এই ডিজিটাল প্লাজমা ব্যাংকে নিবন্ধন করতে পারবেন। যদি ডাক্তার প্লাজমা থেরাপি দেয়ার পরামর্শ দেন তাহলে আক্রান্ত রোগীর জন্য প্লাটফর্মটিতে প্লাজমা খোঁজা এবং সংগ্রহ করার প্রয়োজনীয় সব সুবিধা থাকছে। ‘সহযোদ্ধার’ অফিশিয়াল ওয়েবসাইট (www.shohojoddha.com) ভিজিট করে জানা যাবে।

#

শহিদুল/নাইচ/রফিকুল/রেজাউল/২০২০/২০৩০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                              নম্বর:  ২১০১

কলকারখানায় স্বাস্থ্য সুরক্ষা নির্দেশিকার চূড়ান্ত অনুমোদন

ঢাকা, ২৬ জৈষ্ঠ্য (৯ জুন)

          কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠানে করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) প্রতিরোধ ও স্বাস্থ্য সুরক্ষায় ‘স্বাস্থ্য সুরক্ষা নির্দেশিকা’র চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের জাতীয় শিল্প, স্বাস্থ্য ও সেইফটি কাউন্সিল। 

          আজ সচিবালয়ে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ানের সভাপতিত্বে জাতীয় শিল্প স্বাস্থ্য ও সেইফটি কাউন্সিলের ৯ম সভায় এ স্বাস্থ্য সুরক্ষা নির্দেশিকা খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়া হয়। 

          সভাপতির বক্তৃতায় শ্রম প্রতিমন্ত্রী বলেন, করোনা মহামারীর সময়ে দেশের অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে কারখানা চালু রাখা যেমন জরুরি তেমনি শ্রমিক মালিক-সহ সকলের স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিষয়টি অধিক গুরুত্বপূর্ণ। তিনি স্বাস্থ্য সুরক্ষা নির্দেশিকা মেনে কারখানা চালানোর নির্দেশ দেন। বৈশ্বিক এ মহামারীর সময়ে মালিকদের আরো মানবিক হওয়ার আহ্বান জানান। সবাইকে সচেতন এবং সহনশীলতার সাথে এ দুর্যোগ মোকাবিলার পরামর্শ দেন। শিল্প, কল-কারখানা ও প্রতিষ্ঠানে এ স্বাস্থ্য সুরক্ষা নির্দেশিকা মেনে চললে করোনাকে জয় করা সহজ হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। 

          আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা-আইএলও এর সহযোগিতায় শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অধীন কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর স্বাস্থ্য সুরক্ষা নির্দেশিকা প্রণয়ন করে। সভায় কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের মহাপরিদর্শক এবং এ কমিটির সদস্যসচিব শিবনাথ রায় করোনা দুর্যোগকালীন  শ্রমিকদের সুরক্ষায় গৃহীত পদক্ষেপ এবং এ নির্দেশিকা প্রণয়নের প্রয়োজনীয়তার কথা তুলে ধরেন। প্রাতিষ্ঠানিক-অপ্রাতিষ্টানিক সকল খাত এমনকি যেসকল কারখানা শ্রম আইন মেনে চলে না তাদেরও এ নির্দেশিকা কাজে লাগবে।  মালিকগণ কলকারখানায় স্বাস্থ্য সুরক্ষায় কর্মপরিকল্পনা করলে এ নির্দেশিকা পরিপূর্ণ গাইড লাইন হিসেবে কাজ করবে। কারখানা পর্যায়ে কীভাবে কাদের দিয়ে এটি বাস্তবায়ন করা হবে তাও সুনিদিষ্ট করা হয়েছে। 

          সভায় শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব কে এম আব্দুস সালাম, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সচিব লোকমান হোসেন মিয়া, শ্রম মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (শ্রম) ড. রেজাউল হক, নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব অনল কুমার দাস, শ্রম অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এ কে এম মিজানুর রহমান, আইএলও বাংলাদেশের কর্মসূচি সমন্বয়ক মুনিরা সুলতানা, জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি ফজলুল হক মন্টু, বিশিষ্ট শ্রমিক নেতা এডভোকেট দেলোয়ার হোসেন খান-সহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, বিভাগ, শিল্প পুলিশ এবং ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের প্রতিনিধিরা অংশ গ্রহণ করেন। 

#

 

আকতার/নাইচ/রফিকুল/রেজাউল/২০২০/২০২২ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর:  ২১০০

বরিশাল জেলার মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার খাজুরিয়া ইউপি চেয়ারম্যান ও একজন সদস্য সাময়িক বরখাস্ত

 

ঢাকা, ২৬ জৈষ্ঠ্য (৯ জুন)

          ক্ষমতার অপব্যবহার, মারধরের ভিডিও ধারণ এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার অভিযোগে বরিশাল জেলার মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার দড়িচর খাজুরিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ মোস্তফা রাড়ী এবং একই ইউপি'র ৮ নং ওয়ার্ডের সদস্য মোঃ শহীদ দেওয়ান-কে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়। আজ স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।

          চেয়ারম্যান ও সদস্যের বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহারের মাধ্যমে মধ্য খাজুরিয়া দাখিল মাদ্রাসায় নিম্নমান সহকারী-কাম-কম্পিউটার অপারেটর মোঃ শহীদুল ইসলামকে লাঠি, জুতা ও ঝাড়ু ব্যবহার করে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত, পঞ্চাশ হাজার টাকা চাঁদা দাবি, জুতার মালা পরিয়ে মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারণ-সহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ স্থানীয় তদন্তে প্রমাণিত হওয়ায় বরিশাল জেলা প্রশাসক আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করেন। প্রেক্ষিতে স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইন ২০০৯ এর ৩৪(১) ধারা অনুযায়ী তাদের স্বীয় পদ হতে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করে স্থানীয় সরকার বিভাগ।

          সাময়িকভাবে বরখাস্তকৃত চেয়ারম্যান ও সদস্যদের পৃথক পৃথক কারণ দর্শানো নোটিশে কেন তাদেরকে চূড়ান্তভাবে তাদের পদ থেকে অপসারণ করা হবে না তার জবাব পত্র প্রাপ্তির ১০ কার্যদিবসের মধ্যে সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে স্থানীয় সরকার বিভাগে প্রেরণের নির্দেশ দিয়েছে মন্ত্রণালয়।

#

 

মাহমুদুল/নাইচ/রফিকুল/রেজাউল/২০২০/১৯০৪ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                   নম্বর : ২০৯৯

প্রধানমন্ত্রীর মোবাইল ব্যাংকিংয়ে নগদ অর্থ সহায়তা,

ত্রাণে অনিয়মে আরো দুই  ইউপি সদস্যসহ এ পর্যন্ত বরখাস্ত ৮৯ জনপ্রতিনিধি

 

ঢাকা, ২৬ জ্যৈষ্ঠ (৯ জুন) :

          প্রধানমন্ত্রীর মোবাইল ব্যাংকিংয়ে নগদ অর্থ সহায়তা এবং ত্রাণ বিতরণে অনিয়মের অভিযোগে আরো দুইজন ইউনিয়ন পরিষদ সদস্যকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়।   

          আজ সাময়িকভাবে বরখাস্তকৃত সদস্যদ্বয় হলেন খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার মাটিরাঙ্গা উপজেলার তাইন্দং ইউনিয়ন পরিষদের ৩ নং ওয়ার্ডের সদস্য জামাল হোসেন এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর উপজেলার লাউরফতেহপুর ইউপির ১,২ ও ৩ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা আসনের সদস্য পূর্ণিমা রানী বণিক।

          প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার লাউরফতেহপুর ইউপি'র মহিলা সদস্য পূর্ণিমা রানী বণিকের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী প্রদত্ত মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে নগদ অর্থ সহায়তা কর্মসূচির তালিকা প্রণয়নে অনিয়ম ও স্বজনপ্রীতির অভিযোগ স্থানীয় তদন্তে প্রমাণিত হয়েছে। 

          পৃথক প্রজ্ঞাপনে বলা হয় খাগড়াছড়ি জেলার তাইন্দং ইউপির সদস্য জামাল হোসেনের বিরুদ্ধে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির চাল আত্মসাতের অভিযোগ স্থানীয় তদন্তে প্রমাণিত হয়েছে।

          উল্লেখিত সদস্যদ্বয় কর্তৃক সংঘটিত অপরাধ মূলক কার্যক্রমের প্রেক্ষিতে স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইন ২০০৯ এর ৩৪(১) ধারা অনুযায়ী তাদের স্বীয় পদ হতে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়।

          সাময়িকভাবে বরখাস্তকৃত সদস্যদের পৃথক পৃথক কারণ দর্শানো নোটিশে কেন তাদেরকে চূড়ান্তভাবে তাদের পদ থেকে অপসারণ করা হবে না তার জবাব পত্র প্রাপ্তির ১০ কার্যদিবসের মধ্যে সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে স্থানীয় সরকার বিভাগে প্রেরণের নির্দেশ দেওয়া হয়।

          স্থানীয় সরকার বিভাগ হতে আজ এ সংক্রান্ত পৃথক প্রজ্ঞাপন জারির মাধ্যমে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

          উল্লেখ্য, করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হবার পর এ নিয়ে মোট ৮৯ জনপ্রতিনিধিকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হল। এদের মধ্যে ২৯ জন ইউপি চেয়ারম্যান, ৫৪ জন ইউপি সদস্য, ১ জন জেলা পরিষদ সদস্য, ৪ জন পৌর কাউন্সিলর এবং ১ জন উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান। 

 

#

মাহমুদুল/নাইচ/রফিকুল/কানাই/২০২০/১৮৪৫ ঘন্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                   নম্বর : ২০৯৮

 

কোভিড-১৯ (করোনা ভাইরাস) সংক্রান্ত সর্বশেষ প্রতিবেদন

ঢাকা, ২৬ জ্যৈষ্ঠ (৯ জুন) :

          ন্যাশনাল ডিজাস্টার রেসপন্স কো-অর্ডিনেশন সেন্টার (এনডিআরসিসি) থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য ৬৪ জেলায় ইতোমধ্যে ২ লাখ ১ হাজার ৪ শত ১৭ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ করা হয়েছে। এছাড়া শিশু খাদ্য-সহ অন্যান্য সামগ্রী ক্রয়ের জন্য ১১৬ কোটি ৬৭ লাখ ৭২ হাজার ২৬৪ টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে বরাদ্দকৃত এ সাহায্য দেশের সকল জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে বিতরণ করা হচ্ছে । ‌

          স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এবং রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)-এর তথ্যানুযায়ী আজ দেশে নতুন করে আরো ৩ হাজার ১৭১ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ ধরা পড়েছে। এ নিয়ে বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৭১ হাজার ৬৭৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ৪৫ জন-সহ এ পর্যন্ত ৯৭৫ জন এ রোগে মৃত্যুবরণ করেছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় ১৪ হাজার ৬৬৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

          এখন পর্যন্ত সর্বমোট ২৫ লাখ ৯ হাজার ১৪২টি পিপিই সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে মোট বিতরণ করা হয়েছে ২২ লাখ ৪৯ হাজার ২৭৫টি এবং মজুত আছে ২ লাখ ৫৯ হাজার ৮৬৭টি।

          সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনের জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে ৬২৯টি প্রতিষ্ঠান এবং এর মাধ্যমে তাৎক্ষণিকভাবে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনের সেবা প্রদান করা যাবে ৩১ হাজার ৯৯১ জনকে।

#

তাসমীন/নাইচ/রফিকুল/কানাই/২০২০/১৭৩০ ঘন্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                                   নম্বর: ২০৯৭

করোনা-সহ যে কোনো বিষয়ে গুজব বা অপপ্রচার ছড়ানো শাস্তিযোগ্য ফৌজদারি অপরাধ

                                                                                 -- তথ্যমন্ত্রী

ঢাকা, ২৬ জৈষ্ঠ্য (৯ জুন)

            ‘করোনা ভাইরাস-সহ যে কোনো বিষয়ে গুজব বা অপপ্রচার ছড়ানো শাস্তিযোগ্য ফৌজদারি অপরাধ এবং জনস্বার্থ রক্ষায় সরকার এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ অব্যাহত রাখবে’ জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ। 

            আজ রাজধানীতে সচিবালয়ে নিজ দপ্তর থেকে ভিডিও কনফারেন্সে চট্টগ্রামের ইউএসটিসি বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল হাসপাতালে ১০০ শয্যার কোভিড ইউনিট উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী একথা বলেন। ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল ও চট্টগ্রামের সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন বিশেষ অতিথি হিসেবে ভিডিও কনফারেন্সে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন। 

            ড. হাছান বলেন, ‘করোনার প্রাদুর্ভাবের শুরুতে সারা পৃথিবীতে ভেন্টিলেশন ইউনিটের সংকট ছিল। একারণে ইউরোপ-আমেরিকার দেশগুলোতে ৬৫ বা তদূর্ধ্ব বয়সের মানুষের চেয়ে অপেক্ষকৃত তরুণদের ভেন্টিলেশন ইউনিটের মাধ্যমে চিকিৎসার অগ্রাধিকার দেয়া হয়েছিল। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে হোয়াইট হাউসের সামনে ও অন্যান্য অঙ্গরাজ্যে পিপিই’র জন্য বিক্ষোভ হয়েছে। কানাডায় ও ইউরোপের বিভিন্ন দেশে মাস্কের সংকট ছিল। আমাদের দেশে এধরনের সংকট হয়নি। বরং দু’দিন আগে নাইজেরিয়া বিমান পাঠিয়ে বাংলাদেশ থেকে ঔষধ, পিপিই ও অন্যান্য চিকিৎসাসামগ্রী নিয়ে গেছে। আমরা এসকল সুরক্ষাসামগ্রী মালদ্বীপেও পাঠিয়েছি।’  

            ‘এসত্ত্বেও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও ইন্টারনেটে অনেক সময় নানা গুজব ও অপপ্রচার দেখা যায়’ উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘করোনা ভাইরাস-সহ যে কোনো বিষয়ে গুজব, আতঙ্ক বা অপপ্রচার ছড়ানো ফৌজদারি অপরাধ, যা শাস্তিযোগ্য। ইতোমধ্যে এধরনের অপরাধের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে এবং ভবিষ্যতে ঘটলেও সরকার ব্যবস্থা নেবে।’  

            চট্টগ্রামের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে চট্টগ্রাম ৭ আসনের সংসদ সদস্য ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১০০, জেনারেল হাসপাতালে ১০০, ইউএসটিসি বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল হাসপাতালে ১০০, মা ও শিশু হাসপাতালে ৫০ ও বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে ৫০টি বেড ইতোমধ্যেই প্রস্তুত রয়েছে। চট্টগ্রামে করোনা সংক্রমণ সংখ্যানুপাতে বৈশ্বিক নিয়মানুসারে ১০% রোগীকে হাসপাতালে ভর্তির জন্য যা পর্যাপ্ত। এর বাইরে ফিল্ড হাসপাতাল ও চট্টগ্রাম সিটি কমিউিনিটি সেন্টারও প্রস্তুত হচ্ছে।’ একইসাথে আগাম সতর্কতা হিসেবে চট্টগ্রামের আরো কয়েকটি কমিউিনিটি সেন্টারকে স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রে রূপান্তরের জন্য সিটি মেয়রকে অনুরোধ জানান মন্ত্রী। 

            মন্ত্রী এ সময় করোনা ইউনিট চালুর জন্য ইউএসটিসি বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে অভিনন্দন জানানও ইউএসটিসি’র প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত জাতীয় অধ্যাপক নুরুল ইসলামকে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন। সদ্যস্থাপিত ১০০ শয্যার কোভিড ইউনিটটি পুলিশ ও সাংবাদিকদের অগ্রাধিকার-সহ সর্বসাধারণের চিকিৎসার জন্য উন্মুক্ত থাকবে। 

            ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী এ সময় চট্টগ্রামের হাসপাতালগুলোতে স্বাস্থ্যউপকরণ ও বাইরে ঔষধালয়গুলোতে  প্রয়োজনীয় ঔষধ যোগান নিশ্চিত করার ওপর জোর দেন। শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার রোধে সাংবাদিকদের সহায়তা চান। চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার এবিএম আজাদের সভাপতিত্বে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব আহমদ কায়কাউস, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মোস্তফা কামাল উদ্দীন, পুলিশের ইনসপেক্টর জেনারেল বেনজীর আহমেদ ও ইউনিভার্সিটি অভ্ সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি চট্টগ্রাম- ইউএসটিসি বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল হাসপাতালের পক্ষে ট্রাস্টি বোর্ড সদস্য প্রকৌশলী নূর ই জান্নাত আয়েশা ইসলাম দীনা ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হন।

#

আকরাম/নাইচ/রফিকুল/রেজাউল/২০২০/১৭২৫ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                             নম্বর: ২০৯৬

প্রতিশ্রুতি ভঙ্গকারী পরিবহনকে জনগণ গণদুশমন হিসেবে চিহ্নিত করবে

ঢাকা, ২৬ জ্যৈষ্ঠ (৯ জুন) :

          করোনাকালীন গণপরিবহনের ভাড়া পুনবির্ন্যাসের পর যে সকল পরিবহন নিয়ম মেনে ভাড়া আদায় করছে তাদের ধন্যবাদ জানিয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এমপি বলেন, যেসকল পরিবহন প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করে এ সংকটে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করছে জনগণ তাদের গণদুশমন হিসেবে চিহ্নিত করবে।

          মন্ত্রী নিয়ম না মেনে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়কারী পরিবহনের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন।

          কাদের আজ সকালে সংসদ ভবন এলাকাস্থ নিজ বাসভবন থেকে নিয়মিত ব্রিফিং এ নির্দেশ দেন।

          এসময় মন্ত্রী বলেন, সরকারের সামনে এখন দুটি চ্যালেঞ্জ, একটি করোনা সংক্রমণ রোধ ও আক্রান্তদের চিকিৎসা এবং অপরটি করোনাজনিত অসহায় মানুষের সুরক্ষা। কিছু সীমাবদ্ধতা স্বত্বেও সরকার নিরলস কাজ করে যাচ্ছে এবং সরকারের এসকল কাজে জনগণের দৃঢ় আস্থা রয়েছে বলে তিনি ব্রিফিং এ জানান।

          সারাদেশে নেতাকর্মীদের ঢালাও গ্রেফতার ও মিথ্যা মামলা দেয়া হচ্ছে, বিএনপি মহাসচিবের এমন অভিযোগের জবাবে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক কোথায় ঢালাওভাবে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং কার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দেয়া হয়েছে তার সুস্পষ্ট তালিকা দেয়ার আহ্বান জানান।

          এ সময় কাদের অশুভ উদ্দেশ্যে সত্যকে আড়াল করে অন্ধকারে ঢিল না ছুড়তে বিএনপির প্রতি আহ্বান জানান।

          ক্ষমতার ক্ষুধার তীব্রতায় বিএনপি নেতাদের হৃদয় হাহাকার করছে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের  বলেন, জনমানুষের প্রতি শেখ হাসিনা সরকারের দায়িত্বশীলতায় বিএনপির গা জ্বালা করছে।

#

নাছের/মামুন/গিয়াস/আসমা/২০২০/1600 ঘণ্টা  

তথ্যবিবরণী                                                                                                    নম্বর: ২০৯৫

করোনা সংকটে নারীর কর্মসংস্থান ও উন্নয়নে সহায়তা দিতে মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রীর আহবান

ঢাকা, ২৬ জৈষ্ঠ্য (৯ জুন)

করোনা মহামারীর কারণে বিশ্বব্যাপী নারীরা আর্থিক, সামাজিক ও স্বাস্থ্যগতভাবে বিভিন্ন ধরনের ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে। নারীরা চাকুরী হারাচ্ছে ও উদ্যোক্তাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে গেছে। যার ফলে তাদের জীবন যাত্রার মান নেমে গেছে ও সহিংসতার স্বীকার হচ্ছে। এ সংকটকালে জাতিসংঘের এজেন্সিসমূহ, আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা ও উন্নয়ন অংশীদারদের করোনা ভাইরাস সংকটে ক্ষতিগ্রস্থ কর্মজীবি নারী, নারী উদ্যোক্তা ও ব্যবসায়ীদের সহায়তায় এগিয়ে আসার অনুরোধ করেছেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা।

প্রতিমন্ত্রী ইন্দিরা বলেন, কোভিড-১৯ বিশ্বব্যাপী যে স্বাস্থ্যঝুঁকি তৈরি করেছে তা মোকাবেলায় সম্মুখযোদ্ধা হিসেবে যে ডাক্তার, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীরা কাজ করছে তার ৭০ ভাগ নারী। বিশ্ব যখন মহাসংকটে তখন নারীরা ঘরে বসে নেই। বাংলাদেশেও স্বাস্থ্যখাতসহ বিভিন্ন চ্যালেঞ্জিং পেশায় উচ্চপদে নারীর দক্ষতা ও বলিষ্ট নেতৃত্ব প্রদানের মাধ্যমে কাজ করে যাচ্ছে।

আজ প্রতিমন্ত্রী  ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা বাংলাদেশ সচিবালয় থেকে ইউএন উইমেনের ব্যাংকক আঞ্চলিক অফিসের পরিচালক Mohammad Naciri এর সঞ্চালনায় “টুওয়ার্ডস জেন্ডার রেস্পনসিভ কোভিড-১৯ রিকোভারিঃ এক্সপিরেয়েন্স ফ্রম এশিয়া এন্ড প্যাসিফিক”বিষয়ে ইউএন উইমেনের আঞ্চলিক কার্যালয়ের সাথে এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের নয়টি দেশের মহিলা বিষয়ক মন্ত্রীদের সাথে অনুষ্ঠিত ভার্চুয়াল ভিডিও কনফারেন্সে এসব কথা বলেন। ভার্চুয়াল সভায় স্বাগত বক্তব্য দেন জাতিসংঘের এ্যাসিস্টেন্ট সেক্রেটারি জেনারেল ও ইউএন উইমেনের নির্বাহী পরিচালক আনিতা ভাটিয়া।   

প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা তার বক্তব্যে করোনা সংকটে এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের নারী উদ্যোক্তাদের ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে আর্থিক সহায়তা, ঘরে বসে কাজ করা ও সরকারি-বেসরকারি সকল নাগরিক সুবিধা পাওয়ার বিষয় সুপারিশ হিসেবে তুলে ধরেন। সুপারিশে তিনি আরো উল্লেখ করেন, গবেষণা ও উন্নয়নের উপর সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়ে বিশ্ব নেতৃবৃন্দকে একসাথে কাজ করে কোভিড-১৯ সংক্রামক ব্যাধিকে চিরতরে পৃথিবী থেকে দূর করতে হবে।

ইন্দিরা আরোও বলেন কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে বিশ্বের কোটি কোটি মানুষ বেকার হয়েছে।  এই পরিস্থিতিতে বাংলাদেশে নারীসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ ব্যাপকভাবে আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের কর্মসংস্থান ও অর্থনীতিকে গতিশীল করতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এক লাখ কোটি টাকার বেশী ১৯ টি প্যাকেজ ঘোষণা করেছে।  

ইউএন উইমেনের ব্যাংকক আঞ্চলিক অফিস আয়োজিত ভার্চুয়াল সভায় ভারত, অস্ট্রেলিয়া, ফিজি, কম্বোডিয়ার মহিলা বিষয়ক মন্ত্রী,ফিলিপাইনের মহিলা বিষয়ক কমিশনের চেয়ারপার্সন , মায়ানমায়ের সমাজ কল্যাণ ও ত্রাণমন্ত্রী, কোরিয়ার জেন্ডার ও পরিবার মন্ত্রী, ও থাইল্যান্ডের সমাজ উন্নয়ন ও নিরাপত্তা মন্ত্রণালয়য়ের সচিব এবং জাপানের নারী উন্নয়ন বিভাগের মহাপরিচালক এই ভার্চুয়াল সভায় অংশগ্রহণ করেন। সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব কাজী রওশন আক্তারসহ মন্ত্রণালয়ের উর্ধতন কর্মকর্তাবৃন্দ।

#

আলমগীর/মামুন/গিয়াস/সজিব/2020/1530 NÈv 

তথ্যবিবরণী                                                                                              নম্বর: ২০৯৪

করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত ১৫০ জন অসহায় ক্রীড়াবিদকে আর্থিক সহায়তা দিলেন ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা, ২৬ জ্যৈষ্ঠ (৯ জুন) :  

          সরকারের মানবিক সহায়তার অংশ হিসেবে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ ও বঙ্গবন্ধু ক্রীড়াসেবি কল্যাণ ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত ১৫০ জন অসহায় ক্রীড়াবিদকে আর্থিক সহায়তা প্রদান করেছেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল।  

          আজ জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সভাকক্ষে এক অনাড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে অস্বচ্ছল ক্রীড়াবিদদের হাতে আর্থিক সহায়তার এ চেক তুলে দেন প্রতিমন্ত্রী। ইতিপূর্বে তিনি প্রায় ছয় শতাধিক ক্রীড়াবিদকে আর্থিক সহায়তা প্রদান করেছেন। করোনা মোকাবেলায় প্রধানমন্ত্রীর সাহসী নেতৃত্বের প্রশংসা করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় সরকার করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় ক্রীড়াবিদদের জন্য আরো
৩ কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছে। অচিরেই এ অর্থ দেশের তৃণমূল পর্যায়ের ক্রীড়াবিদদের হাতে তুলে দেওয়া হবে। এছাড়াও আমরা বঙ্গবন্ধু ক্রীড়াসেবি কল্যাণ ফাউন্ডেশন হতে প্রায় ১ হাজার ১৫০ জন ক্রীড়াবিদ ও ক্রীড়া সংগঠককে প্রতিমাসে দুই হাজার টাকা করে একবছরে মোট ২৪ হাজার টাকা প্রদানের লক্ষ্যে কাজ করছে। 

          ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত সকল অসহায় ক্রীড়াবিদদের পাশে দাঁড়াতে চাই। সরকারের মানবিক সহায়তার অংশ হিসেবে এটি আমাদের ধারাবাহিক কার্যক্রম। এটি অব্যাহত থাকবে।  তিনি আরো বলেন, শুধু ক্রীড়াবিদ নয়, আমরা করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত কোচ, কর্মকর্তা ও ক্রীড়া সংগঠকদের কিভাবে সহযোগিতা করা যায় সেটি নিয়েও ভাবছি।  এ সময় মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ আখতার হোসেন, জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সচিব মোঃ মাসুদ করিমসহ মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ ও বিভিন্ন ক্রীড়া ফেডারেশনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।    

#

আরিফ/মামুন/গিয়াস/আসমা/২০২০/১৫০০ ঘণ্টা   

তথ্যবিবরণী                                                                                             নম্বর: ২০৯৩

মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের পরিচালক (যুগ্ম-সচিব) মো. ফখরুল কবির এর মৃত্যুতে

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ও সচিবের শোক

ঢাকা, ২৬ জৈষ্ঠ্য (৯ জুন) :

বিসিএস (প্রশাসন) ক্যাডারের ১৩তম ব্যাচের সদস্য, মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের পরিচালক
(যুগ্ম-সচিব) মো. ফখরুল কবির আজ ঢাকার একটি হাসপাতলে ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন  তার মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন। আজ এক শোকবার্তায় প্রতিমন্ত্রী বলেন, তিনি ছিলেন একজন কর্মনিষ্ঠ, সৎ, দক্ষ ও মেধাবী কর্মকর্তা। দেশ ও জনগণের প্রতি  ছিলেন  নিবেদিতপ্রাণ কর্মী। তার মৃত্যুতে দেশ একজন মেধাবী কর্মকর্তাকে হারালো। প্রতিমন্ত্রী মরহুমের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।             

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সচিব শেখ ইউসুফ হারুনও তার মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী ও এক কন্যা সন্তান রেখে গেছেন।

#

শিবলী/মামুন/গিয়াস/সজিব/2020/1110 NÈv 

তথ্যবিবরণী                                                                                              নম্বর: ২০৯২

করোনাকালে সরকারের ‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍‍ত্রাণ সহায়তা অব্যাহত

ঢাকা, ২৬ জৈষ্ঠ্য (৯ জুন)

          করোনা পরিস্থিতিতে সৃষ্ট দুর্যোগে সারাদেশের সাধারণ মানুষের কষ্ট লাঘবে মানবিক সহায়তা হিসেবে ত্রাণ বিতরণ অব্যাহত রেখেছে সরকার। এ পর্যন্ত সারা দেশে প্রায় দেড় কোটি পরিবারকে ত্রাণ সহায়তা দেয়া হয়েছে।

          ৬৪ জেলার জেলা প্রশাসন থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী ৮ জুন পর্যন্ত সারাদেশে চাল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে দুই লাখ ১ হাজার ৪১৭ মেট্রিক টন এবং বিতরণ করা হয়েছে এক লাখ ৬৭ হাজার ৭৯৫ মেট্রিক টন। এতে উপকারভোগী পরিবার সংখ্যা এক কোটি ৪৭ লাখ ২৯ হাজার ৫৩২ টি এবং উপকারভোগী লোকসংখ্যা ছয় কোটি ৫২ লাখ ৯৩ হাজার ৭২০ জন। 

          নগদ বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ১শ ১৬ কোটিরও বেশী টাকা। এরমধ্যে সাধারণ ত্রাণ বাবদ নগদ বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ৯১ কোটি ১৩ লাখ ৭২ হাজার ২৬৪ টাকা এবং বিতরণ করা হয়েছে ৭৮ কোটি ১ লাখ ৫২ হাজার ৬৬১টাকা। এতে উপকারভোগী পরিবার সংখ্যা  ৯৪ লাখ ৪৪ হাজার ৬৮৯ টি এবং উপকারভোগী লোকসংখ্যা ০৪ কোটি ২১ লাখ ৩৫ হাজার ৮৪০ জন। শিশু খাদ্য সহায়ক হিসেবে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ২৫ কোটি ৫৪ লাখ টাকা এবং এ পর্যন্ত বিতরণ করা হয়েছে ২০ কোটি ৯৮ লাখ ২৭ হাজার ৮৫৪ টাকা। এতে উপকারভোগী পরিবার সংখ্যা ৬ লাখ ৬৭ হাজার ৮১৩ টি এবং লোকসংখ্যা ১৩ লাখ ৭৯ হাজার ৩৭৪ জন।

#

সেলিম/মামুন/গিয়াস/মাসুম/২০২০/১১০০ ঘন্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                             নম্বর: ২০৯০

সমাজসেবা অধিদফতরের ২১ কর্মকর্তা-কর্মচারী কোভিড-আক্রান্ত

ভাতা ও ত্রাণবিতরণে সারাদেশে উপকারভোগী ৮০ লক্ষাধিক মানুষ

ঢাকা, ২৬ জৈষ্ঠ্য (৯ জুন) :

          কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে সমাজকল্যাণমন্ত্রীর নির্দেশে ও তত্বাবধানে সারাদেশের জেলা-উপজেলা পর্যায়ে সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির আওতায় জুন মাস পর্যন্ত ৮০ লাখ ৯ হাজার উপকারভোগীর মধ্যে প্র

2020-06-09-20-38-f075e952d918ff82298e218c3e5c979c.docx 2020-06-09-20-38-f075e952d918ff82298e218c3e5c979c.docx

Share with :

Facebook Facebook