তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৪ মার্চ ২০২০

তথ্যবিবরণী 04/03/2020

তথ্যবিবরণী                                                                                                                       নম্বর : ৮১০

খাল দখল ও দূষণ রোধ এবং মশক নিধন কার্যক্রমে শৈথিল্য বরদাস্ত করা হবে না

                                                                         - স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

ঢাকা, ২০ ফাল্গুন (৪ মার্চ) :

            স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম বলেছেন, সম্প্রতি মশা বেড়ে যাওয়ায় তা নিধনে সরকার গুরুত্বসহকারে কাজ করছে। ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনের ওয়ার্ড কাউন্সিলরদেরকে স্ব-স্ব ওয়ার্ডের দায়িত্ব ভাগ করে দেয়া হয়েছে। মশক নিধনের জন্য পর্যাপ্ত কীটনাশক মজুদ আছে, পর্যাপ্ত যন্ত্রপাতি ও লোকবলও দেওয়া হয়েছে। মশক নিধনে সিটি কর্পোরেশনকে সবধরনের সহায়তা দেয়া হচ্ছে।

            আজ মিরপুরের রূপনগর এলাকায় আধুনিক যন্ত্রপাতি (জড়ধফ ঝবিবঢ়বৎ এবং ঔবঃ ্ ঝঁপশবৎ)    ব্যবহারের মাধ্যমে রোড সুইপিং এবং ড্রেন পরিষ্কার কার্যক্রম পরিদর্শন, রূপনগর খাল পরিদর্শন এবং বিশেষ মশক নিধন কর্মসূচি ও জনসচেতনতামূলক কার্যক্রমের উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে মন্ত্রী এসব একথা বলেন।

            মন্ত্রী আরো বলেন, সরকার জনগণকে সেবা দেওয়ার জন্য অঙ্গীকারবদ্ধ। রূপনগর খালটি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। খাল দখল বা দূষণ রোধে কোনো রকম শৈথিল্য বা দায়িত্বহীনতা বরদাস্ত করা হবে না। এটি পরিষ্কার করার পরে খনন করার জন্য ওয়াসাকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এ কাজে একদিনও সময়ক্ষেপণ মেনে নেওয়া হবে না ।

            ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে মশক নিধন কার্যক্রমে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র আতিকুল ইসলাম, প্যানেল মেয়র জামাল মোস্তফা, স্থানীয় সরকার বিভাগের অতিরিক্ত সচিব অমিতাভ সরকার ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আবদুল হাই প্রমুখ।

#

হাসান/মাহমুদ/রফিকুল/জয়নুল/২০২০/২০১০ঘণ্টা

 তথ্যবিবরণী                                                                                                                      নম্বর : ৮০৯

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে দেশব্যাপী তিনটি শক্তিশালী কমিটি গঠন

                                                                      -স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ঢাকা, ২০ ফাল্গুন (৪ মার্চ) :

            স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান মন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, করোনা ভাইরাস বর্তমানে বিশ্বের ৭০ টিরও বেশি দেশে প্রবেশ করেছে। বাংলাদেশে এই ভাইরাসটি যদি চলেও আসে তার জন্য স্বাস্থ্যখাতের সব ধরনের প্রস্তুতি রাখা হয়েছে। দেশের সকল বন্দরে মনিটরিং ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। ডাক্তার নার্সদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে প্রস্তুত রাখা, সার্বক্ষণিক হটলাইন খোলা রাখার ব্যবস্থার পাশাপাশি দেশের প্রতিটি জেলা, উপজেলা এবং আন্তঃমন্ত্রণালয়ভিত্তিক তিনটি শক্তিশালী কমিটি গঠন করা হয়েছে।

            আজ রাজধানীর মহাখালীস্থ নিপসম এর পুনঃসজ্জিত অডিটোরিয়াম ও নবনির্মিত ব্যায়ামাগারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। এর আগে মন্ত্রী নিপসম এর পুনঃসজ্জিত অডিটোরিয়াম ও নবনির্মিত ব্যায়ামাগারের উদ্বোধন করেন।

            মন্ত্রী বলেন, প্রতিটি উপজেলায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, জেলা পর্যায়ে জেলা প্রশাসক ও আন্তঃমন্ত্রণালয়ের ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর নেতৃত্বে মন্ত্রিপরিষদ সচিব, মুখ্যসচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব-সহ এডিবি, বিশ্ব ব্যাংক, ইউনিসেফ, ইউএসএইড-সহ ৩১ সদস্যবিশিষ্ট তিনটি গুরুত্বপূর্ণ কমিটি করে দেয়া হয়েছে। সুতরাং দেশে কোনো কারণে করোনা ভাইরাস চলে এলেও তা আশঙ্কার কারণ হতে পারবে না।

            স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব আসাদুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশনের সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, সাচিপ এর সভাপতি ডা. ইকবাল আর্সেনাল, সাধারণ সম্পাদক ডা. মোঃ আব্দুল আজিজ। অনুষ্ঠানে সূচনা বক্তব্য রাখেন নিপসম এর পরিচালক ডা. বায়জীদ খুরশীদ রিয়াজ।

#

মাইদুল/ফারহানা/রফিকুল/জয়নুল/২০২০/২০০০ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                                                      নম্বর : ৮০৮

উদ্ভুত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে জেলা জজ প্রত্যাহার

                                         - আইনমন্ত্রী

ঢাকা, ২০ ফাল্গুন (৪ মার্চ) :

            আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, পিরোজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি একেএম আব্দুল আওয়াল ও তাঁর স্ত্রীর জামিন চাওয়াকে কেন্দ্র করে গতকাল সেখানে যে পরিস্থিতির উদ্ভব হয়েছিল তা নিয়ন্ত্রণ বা প্রশমিত করার জন্যই জেলা জজকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

            আজ সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব কথা বলেন আইনমন্ত্রী।

            মন্ত্রী বলেন, জামিন দেওয়া না দেওয়ার এখতিয়ার সম্পূর্ণ আদালতের কিন্তু আদালত যদি এমন কোন ব্যবহার করেন, এমন একটি পরিস্থিতির সৃষ্টি করেন, যেখানে আইন শৃঙ্খলা রক্ষা করা এবং আইনের শাসন রক্ষা করা প্রশ্নবিদ্ধ হয় তখন কিন্তু একটি ব্যবস্থা নিতে হয়। সেই অবস্থার আলোকে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এখানে আইনের শাসনের কোন ব্যত্যয় হয়নি।

            তিনি বলেন, দেশে আইনের শাসন নিশ্চিত হচ্ছে,  বিচার হচ্ছে। এটা আপনারা দেখছেন। কিন্তু উদ্ভুত পরিস্থিতিতে যে ব্যবস্থা নিতে হয়, সেটা আমাকে নিতেই হবে। এখানে সরকারি দলের লোক না বিরোধী দলের লোক, সেটা বিবেচনা করা হয়নি। পরিস্থিতি যাতে আরো খারাপ না হয় সেজন্যই এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

            মানব পাচার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বিশে^র মানব পাচারের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ এখন দ্বিতীয় স্তরে রয়েছে। আমরা যদি মানব পাচার আদালত তাড়াতাড়ি স্থাপন না করি তাহলে আমাদেরকে তৃতীয় স্তরে নামিয়ে দেওয়ার একটা সম্ভাবনা আছে। সেই প্রেক্ষিতে আমরা ৭টি মানব পাচার ট্রাইব্যুনাল স্থাপন করেছি এবং আগামী ৭ দিনের মধ্যে এটি কাজ শুরু করবে। এটি দেশের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয়।

#

রেজাউল/মাহমুদ/রফিকুল/জয়নুল/২০২০/১৯৩০ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                                                      নম্বর : ৮০৭

বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকীতে অতিরঞ্জিত কিছু না করার আহ্বান স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর

ঢাকা, ২০ ফাল্গুন (৪ মার্চ) :

            স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু তাঁর কর্মের মধ্য দিয়ে আমাদেরকে একটি স্বাধীন বাংলাদেশ উপহার দিয়েছেন। বঙ্গবন্ধু শুধু মহান স্বাধীনতার স্থপতিই নন, তিনি একজন বিশ্ব নেতা। বঙ্গবন্ধুকে যারা হƒদয়ে ধারণ না করে তার ছবি অপব্যবহার করবে তাদের প্রতি সাবধানী উচ্চারণ করে মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কেউ অতিরঞ্জিত কিছু করবেন না।

            আজ রাজধানীর কাকরাইলস্থ হোটেল রাজমনি ঈশাখাঁ’র ব্যাঙ্কুয়েট হলে সার্ক চলচ্চিত্র সাংবাদিক ফোরাম- বাংলাদেশ এর উদ্যোগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ‘বঙ্গবন্ধু বাঙালির হাজার বছরের অনুপ্রেরণা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

            সার্ক চলচ্চিত্র সাংবাদিক ফোরাম- বাংলাদেশ’র সভাপতি ও বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সহ সভাপতি, রেদুয়ান খন্দকারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাবেক বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক, সাবেক তথ্য ও সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী সৈয়দ দিদার বখত প্রমুখ।

#

হাসান/ফারহানা/সঞ্জীব/জয়নুল/২০২০/  ঘণ্টা

 তথ্যবিবরণী                                                                                                                       নম্বর : ৮০৬

ড. কামাল চৌধুরীর সাথে কসোভো রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ

ঢাকা, ২০ ফাল্গুন (৪ মার্চ) :

            জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদ্যাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির প্রধান সমন্বয়ক ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরীর সাথে আজ তাঁর কার্যালয়ে বাংলাদেশে নিযুক্ত কসোভোর রাষ্ট্রদূত এঁহবৎ টৎবুধ সাক্ষাৎ করেন।

            সাক্ষাৎকালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও মুজিববর্ষ উদ্যাপনের প্রস্তুতির নানা বিষয় নিয়ে তাঁরা মতবিনিময় করেন। দুই দেশের ঘনিষ্ঠ সম্পর্কের বিষয়ে আলোকপাত করে রাষ্ট্রদূত মুজিববর্ষ উদ্যাপনের বর্ণাঢ্য আয়োজনে কসোভোর অংশগ্রহণের বিষয়ে তাঁর সরকারের আগ্রহের কথা জানান।

            জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্ম সম্বন্ধে কসোভোর জনগণকে জানানোর নানা উদ্যোগ সম্বন্ধেও সাক্ষাৎকালে আলোচনা হয়।

#

নাসরিন/মাহমুদ/রফিকুল/জয়নুল/২০২০/১৯১০ঘণ্টা

 তথ্যবিবরণী                                                                                                                       নম্বর : ৮০৫

মদের দোকান ও বার বন্ধ রাখা সম্পর্কিত প্রজ্ঞাপন

ঢাকা, ২০ ফাল্গুন (৪ মার্চ) :

            মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের নিয়ন্ত্রণাধীন সকল প্রকার মদের দোকান বন্ধ ও খোলা রাখা সম্পর্কিত ১৯১৫ সালের ৩০ মার্চের ৫৯৬ এস, আর বিজ্ঞপ্তির ১৪(৩) ধারায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে অধিদপ্তর সম্প্রতি এক প্রজ্ঞাপনে জানিয়েছে, নিম্নলিখিত দিবসসমূহের পবিত্রতা ও মর্যাদা রক্ষার্থে নিম্নে বর্ণিত শর্তসাপেক্ষে নির্ধারিত সময়সূচি (চাঁদ দেখার উপর নির্ভরশীল) অনুসারে সকল প্রকার মদের দোকান, বার ও ক্লাব বন্ধ থাকবে :

            শব-ই-মিরাজ ২২ মার্চ ২০২০ তারিখ সূর্যাস্ত হতে ২৩ মার্চ ২০২০ তারিখ সূর্যাস্ত পর্যন্ত; শব-ই-বরাত ৮ এপ্রিল ২০২০ তারিখ সূর্যাস্ত হতে ৯ এপ্রিল ২০২০ তারিখ সূর্যাস্ত পর্যন্ত; শব-ই-ক্বদর ২০ মে ২০২০ তারিখ সূর্যাস্ত হতে ২১ মে ২০২০ তারিখ সূর্যাস্ত পর্যন্ত; ঈদ-উল-ফিতর ২৪ মে ২০২০ তারিখ সূর্যাস্ত হতে ২৫ মে ২০২০ তারিখ সূর্যাস্ত পর্যন্ত; ঈদ-উল-আযহা ৩০ জুলাই ২০২০ তারিখ সূর্যাস্ত হতে ৩১ জুলাই ২০২০ তারিখ সূর্যাস্ত পর্যন্ত; আশুরা ২৯ আগস্ট ২০২০ তারিখ সূর্যাস্ত হতে ৩০ আগস্ট ২০২০ তারিখ সূর্যাস্ত পর্যন্ত; ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী (সাঃ) ২৯ অক্টোবর ২০২০ তারিখ সূর্যাস্ত হতে ৩০ অক্টোবর ২০২০ তারিখ সূর্যাস্ত পর্যন্ত।

            পবিত্র রমজান মাসে যে সকল আন্তর্জাতিক মানের হোটেল এবং বারে যেখানে শুধুমাত্র বিদেশিরাই মদ্যপান করেন সে সকল প্রতিষ্ঠান ব্যতীত অন্যান্য হোটেল, ক্লাব এবং বার এ দিনের বেলায় মদ্যপান সম্পূর্ণভাবে বন্ধ থাকবে। দেশি মদের দোকানগুলো সকাল ৮টা হতে দুপুর ১২টা পর্যন্ত মদ বিক্রয়ের জন্য খোলা রাখা যাবে। তবে রমজান মাসের পবিত্রতা রক্ষার্থে পারমিটধারীরাও দোকানে বসে মদ্যপান করতে পারবেন না। বিদেশি মদ ‘অফ’ দোকানগুলো সকাল ৮টা হতে দুপুর ১২টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। তাড়ীর দোকানগুলো কোনো অবস্থাতেই দিনের বেলায় খোলা থাকবে না।

            সকল প্রকার মদের দোকান ও বার শুক্রবারে অবশ্যই বন্ধ থাকবে। এ ধরনের বন্ধ রাখার জন্য লাইসেন্সধারীরা কোন প্রকার ক্ষতিপূরণ পাবেন না।

#

জামাল/মাহমুদ/সঞ্জীব/জয়নুল/২০২০/১৯২০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                               নম্বর : ৮০৪

সবার আগে সংবাদ দিতে গিয়ে যেন তথ্যবিভ্রাট না ঘটে

                                                      -- তথ্যমন্ত্রী

ঢাকা, ২০ ফাল্গুন (৪ মার্চ) : 

            সবার আগে সর্বশেষ সংবাদ দিতে গিয়ে যাতে ভুল তথ্য পরিবেশিত না হয়, সেদিকে সর্তক দৃষ্টি রাখার আহ্বান জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহ্‌মুদ।

            আজ রাজধানীর তোপখানা রোডে জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে প্রয়াত বরেণ্য সাংবাদিক শাহ আলমগীরের স্মরণে ‘স্বপ্নের সারথি শাহ আলমগীর’ গ্রন্থের প্রকাশনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় গণমাধ্যম প্রসঙ্গে মন্ত্রী একথা বলেন। 

            অনলাইন গণমাধ্যম সংবাদ পরিবেশনে প্রতিযোগিতার বিষয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সংবাদ পরিবেশনের ক্ষেত্রে এখন সবার আগে সর্বশেষ সংবাদ পরিবেশনের প্রতিযোগিতা চলে। সেটি করতে গিয়ে দেখা যায়, অনেক সময় সংবাদের গুণগতমান নষ্ট হয়। বিশেষ করে অনলাইনগুলোর ক্ষেত্রে সেটি হয়। অনলাইনগুলোকে সবার আগেই সংবাদটা পরিবেশন করতে হয়। কার আগে কে দিল সেটি নিয়ে একটি প্রতিযোগিতা আছে। এটি করতে গিয়ে দেখা যায়, বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ অনেক সময় হয় না। অনেক সময় ভুল সংবাদ হয়, অসত্য সংবাদ হয়।’ 

            এ বিষয়ে সতর্কতা নিশ্চিত করতে পিআইবি  (বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউট), প্রেস কাউন্সিল, জাতীয় প্রেসক্লাব, ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন ঢাকা, চট্টগ্রাম-সহ শহর এবং মফস্বলে কর্মশালা করার পরামর্শ দেন মন্ত্রী। 

            শীঘ্রই অনলাইন গণমাধ্যমের রেজিস্ট্রেশনের উদ্যোগ প্রসঙ্গে ড. হাছান বলেন, ‘অনলাইনগুলোকে আমরা রেজিস্ট্রেশনের আওতায় আনার জন্য দরখাস্ত আহ্বান করেছিলাম এবং সাড়ে তিন হাজারের বেশি দরখাস্ত পড়েছে। আইটিটিভি, অনলাইন টিভিগুলোকেও আমরা রেজিস্ট্রেশনের আওতায় আনার উদ্যোগ নিয়েছি সেখানেও পাঁচশ’র মতো আবেদন এসেছে। আমরা অনেক আগে থেকেই রেজিস্ট্রেশন দেওয়ার চেষ্টা করছি।’

            তথ্যমন্ত্রী আরো জানান, ‘অনলাইনগুলোর বিষয়ে কিছু সংখ্যকের তদন্ত রিপোর্ট স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে আমরা পেয়েছি। একটি সংস্থা থেকে এক হাজারের বেশি পেয়েছি আরেকটি সংস্থা থেকে একশ’র কম পেয়েছি। শুধুমাত্র একটি সংস্থার রিপোর্টের ওপর ভিত্তি করে দেয়া যায় না, আরেকটু অপেক্ষা করছি। প্রতিষ্ঠিত অনলাইনগুলোকে প্রথম ধাপেই দিতে চাই। সেজন্য তাদের রিপোর্টটাও যাতে আসে সেজন্য অপেক্ষা করছি।’

            গণমাধ্যমের অনুসন্ধানী রিপোর্টের প্রশংসা করে ড. হাছান বলেন, ‘দেশের একজন নাগরিক হিসেবে, মন্ত্রী হিসেবে নয়, কিছু গণমাধ্যমের অনুসন্ধানী রিপোর্টের জন্য আমি তাদেরকে ধন্যবাদ জানাই। তাদের অনেক অনুসন্ধানী রিপোর্ট সমাজকে উপকৃত করে, সমাজের তৃতীয় নয়ন খুলে দেয়।’

            রিপোর্টিংয়ের গুণগত মানের উৎকর্ষ সাধনের ওপর বিশেষ গুরুত্বারোপ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘অনেক ভালো রিপোর্ট হয়, আমি অনেক রিপোর্টারকে না পেলেও সেই পত্রিকায় ফোন করে অনেক সময় বলি যে ভালো রিপোর্ট হয়েছে, ধন্যবাদ জানাই রিপোর্টারকে। একটি বির্তকভিত্তিক সমাজ ব্যবস্থার মধ্য দিয়েই রাষ্ট্র, সমাজ ও  জাতির বিকাশ ঘটে। সেটি করার ক্ষেত্রে গুণগত রিপোর্টিংসম্পন্ন গণমাধ্যমের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।’

            প্রয়াত সাংবাদিক শাহ আলমগীরের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘তার আত্মা শান্তিতে থাকুক সেই প্রত্যাশা ও প্রার্থনা করে তার জন্য তার পরিবার ও সহকর্মীরা যেভাবে কাজ করে যাচ্ছে, সেজন্য তাদের ধন্যবাদ জানাই। আজ প্রকাশিত স্মারকগ্রন্থের মাধ্যমে তিনি যুগ যুগ ধরে বেঁচে থাকবেন, এ কামনা করি।’

            ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রয়াতের সহধর্মিণী বেগম মায়া আলমগীর, জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার সম্পাদক সাইফুল আলম, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদ, ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল, বিশিষ্ট সাংবাদিক সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা ও রহমান মুস্তাফিজ প্রমুখ বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন।

#

আকরাম/মাহমুদ/সঞ্জীব/সেলিম/২০২০/১৮২০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                  নম্বর : ৮০৩

 

বিআইডব্লিউটিএর অভিযান

১৫টি স্থাপনা এবং ৫০ হাজার ঘনফুট মাটি অপসারণ

 

ঢাকা, ২০ ফাল্গুন (৪ মার্চ) :

          বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) ঢাকার চারপাশের নদীগুলো দখল ও দূষণমুক্ত করতে আজ ঢাকা নদী বন্দরের আওতাধীন বুড়িগঙ্গা-তুরাগ নদীর সংযোগস্থল চরওয়াশপুর মৌজায় বিশেষ অভিযানে দু’টি পাকা ব্যাংক প্রটেকশন (২ হাজার ২০০ ফুট দৈর্ঘ্য ও ৪০ ফুট প্রস্থ), তিনটি পাকা ওয়াল (এক হাজার ফুট), ১০টি অন্যান্য স্থাপনা এবং  ৫০ হাজার ঘনফুট মাটি/বালি অপসারণ করেছে।

          আগামী ১০ এবং ১১ মার্চ পুনরায় অভিযান চলবে।

#

জাহাঙ্গীর/মাহমুদ/সঞ্জীব/জয়নুল/২০২০/১৮১০ঘণ্টা

 

  তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ৮০২

 

পাঠ্যপুস্তকের বাইরের বই আরো বেশি পড়তে হবে

                                      - সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

 

ময়মনসিংহ, ২০ ফাল্গুন (৪ মার্চ) :

          সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেছেন, শুধু জ্ঞানার্জন নয়, সমাজে প্রতিষ্ঠা পেতে হলেও বই পড়ার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে, এর বিকল্প নেই। তাই একদিকে যেমন পাঠ্যপুস্তকের বই পড়তে হবে, তেমনি জ্ঞানার্জনের জন্য পাঠ্যপুস্তকের বাইরের বই আরো বেশি করে পড়তে হবে। আজ যারা জ্ঞানী-গুণী ও সমাজে প্রতিষ্ঠিত ব্যক্তিবর্গ রয়েছেন, তাঁরা সকলেই বেশি করে বই পড়েছেন, জ্ঞান চর্চা করেছেন। তাই নতুন প্রজন্মের উচিত আরো বেশি করে বই পড়া, জ্ঞান চর্চায় আত্মনিয়োগ করা।

          প্রতিমন্ত্রী আজ ময়মনসিংহ জিমনেসিয়াম প্রাঙ্গণে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পৃষ্ঠপোষকতায়, জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্রের উদ্যোগে ও ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসনের আয়োজনে সাত দিনব্যাপী (৪-১০ মার্চ) ময়মনসিংহ বিভাগীয় বইমেলা-২০২০ এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

          ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক মোঃ মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ময়মনসিংহের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব) এ এইচ এম নোমান, জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্রের পরিচালক কবি মিনার মনসুর, ময়মনসিংহ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জয়িতা শিল্পী, বাংলাদেশ জ্ঞান ও সৃজনশীল প্রকাশক সমিতির সভাপতি ফরিদ আহমেদ প্রমুখ।

          উল্লেখ্য, মুজিববর্ষের অঙ্গীকার, গ্রামে গ্রামে পাঠাগার শীর্ষক স্লোগানকে সামনে রেখে সপ্তাহব্যাপী এ বইমেলা আয়োজিত হয়েছে।

          এর আগে প্রতিমন্ত্রী আজ ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ‘মুজিববর্ষ’ উপলক্ষে মুক্তাগাছা উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত মহান ভাষা আন্দোলন ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সম্পর্কে ‘ভাষা ও পিতা’ শীর্ষক কুইজ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন।

#

ফয়সল/মাহমুদ/সঞ্জীব/জয়নুল/২০২০/১৭৪০ঘণ্টা

2020-03-04-20-36-acf9dacbf8f6de100e6f0b201ebcaa38.docx 2020-03-04-20-36-acf9dacbf8f6de100e6f0b201ebcaa38.docx

Share with :

Facebook Facebook