তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

তথ্যবিবরণী - 28.02.2020

তথ্যবিবরণী                                                                                               নম্বর :  ৭৪৯

 

মেধার সাথে শিক্ষার্থীদের প্রয়োজন মূল্যবোধ ও দেশাত্মবোধের বিকাশ

                                                                     -- তথ্যমন্ত্রী

চট্টগ্রাম, ১৫ ফাল্গুন (২৮ ফেব্রুয়ারি) : 

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহ্‌মুদ বলেছেন, মেধা বিকাশের পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের মাঝে মূল্যবোধ, মমত্ববোধ ও দেশাত্মবোধের বিকাশ ঘটাতে অভিভাবকদের দায়িত্বশীল ভূমিকা রাখতে হবে।

মন্ত্রী আজ চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ার সুখবিলাস উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ‘নুরুন্নাহার স্মৃতি বৃত্তি’র পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে বক্তৃতাকালে একথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, 'শিক্ষার্থীদের এমন শিক্ষা দিতে হবে, যাতে তারা যেন গুরুজনের প্রতি দায়-দায়িত্ব সম্পর্কে সচেতন হয়। বড় হয়ে বাবা-মা’কে যেন অবহেলা না করে এবং তাদের বৃদ্ধাশ্রমে পাঠিয়ে না দেয়। এ ধরনের মানসিকতা যাতে তাদের মধ্যে সৃষ্টি না হয় সেজন্য ছোটকাল থেকেই সেই শিক্ষাটা দিতে হবে। তবেই শিক্ষার্থীরা পরিপূর্ণ মানুষ হিসেবে গড়ে উঠবে। এভাবে আমাদের দেশটি আরো সুন্দর হবে।'

সুখবিলাস ফিশারিজ এন্ড প্ল্যান্টেশনের উদ্যোগে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন পদুয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম কবির তালুকদার। প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম জজকোর্টের আইনজীবী ও তথ্যমন্ত্রীর মাতা প্রফেসর এডভোকেট কামরুন নাহার বেগম। 

ড. হাছান মাহ্‌মুদ বলেন, 'জীবনে বড় হতে হলে স্বপ্ন দেখতে হয়। স্বপ্নহীন মানুষের মাঝে স্বপ্ন পূরণের তাগাদা থাকে না। তাই অভিভাবকদের অনুরোধ জানাবো ছাত্রছাত্রীদের স্বপ্ন দেখানোর জন্য। শুধু স্বপ্ন দেখে বসে থাকলে হবে না, সেই স্বপ্ন পূরণ করার জন্য  প্রাণান্তকর প্রচেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে। শিক্ষাটা শুধু স্কুলে নয়, পরিবার থেকেও অনেক কিছু শিখতে হয়। মূল্যবোধ, দেশাত্মবোধ মানুষের প্রতি মমত্ববোধ এবং গুরুজনের প্রতি কর্তব্যবোধ এগুলো পরিবার থেকে শিক্ষা নেওয়ার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে।'

মন্ত্রী বলেন, 'আজ প্রদত্ত বৃত্তির অংকটা হয়তো ছোট, কিন্তু ছাত্রছাত্রীদের উৎসাহিত করতে এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। যে কোনো জায়গায় একটা বই উপহার পেলেও আমরা খুব বেশি উৎসাহিত হতাম। আমরা অনেক সময় দৌড় প্রতিযোগিতায় একটা কাপ কিংবা প্লেট পুরস্কার হিসেবে পেতাম। স্কুলে যে পুরস্কার পেতাম তা ঘরে এসে মা বাবাকে দেখাতাম। সেটার যে আনন্দ সেই আনন্দ এখনও শরীরে লেগে আছে। জীবনের বহুপথ পাড়ি দিয়ে আজকে এই অর্জনের পেছনে সেই অর্জনগুলো সহায়ক শক্তি হিসেবে কাজ করেছে।'

অনুষ্ঠানে উদ্বোধনী বক্তব্য দেন সুখবিলাস ফিশারিজ এন্ড প্ল্যান্টেশনের চেয়ারম্যান এরশাদ মাহমুদ। বিধু মুৎসুদ্দির সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন রাঙ্গুনিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মাসুদুর রহমান, সুখবিলাস উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদ সভাপতি মোঃ খালেদ মাহমুদ, উপাধ্যক্ষ দুলাল কান্তি দাশ, সাবেক চেয়ারম্যান আবু জাফর, নাছির উদ্দিন সেলিম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম বাদশা, ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক রিক্তা সেন, বৃত্তি পরীক্ষা পরিচালনা কমিটির নাজিম উদ্দিন, মোহাম্মদ রাসেল মাহমুদ প্রমুখ।

#

আকরাম/ফারহানা/মোশারফ/সেলিম/২০২০/২০৪০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                             নম্বর: ৭৪৮

 

আদর্শ শিক্ষক শিক্ষিত জাতি গঠনের মূল কারিগর

                   ---প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী

 

কুড়িগ্রাম, ১৫ ফাল্গুন (২৮ ফেব্রুয়ারি) :

 

          প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাকির হোসেন বলেছেন, শিক্ষিত জাতি ছাড়া কোনো দেশের উন্নয়ন অভীষ্ঠ লক্ষ্য অর্জন করা সম্ভব নয়। আর একজন আদর্শ শিক্ষক শিক্ষিত জাতি গঠনের মূল কারিগর। তাই শিক্ষিত জাতি গঠনের লক্ষ্যে শিক্ষার্থীদের নিকট তিনি হবেন একজন আদর্শ অভিভাবক। তিনি কখনও হবেন সুশৃঙ্খল জাতি বিনির্মাণে যোগ্য নেতা তৈরির আধুনিক কারিগর এবং শিক্ষার্থীর সুপ্ত প্রতিভা বিকাশ ও উন্নয়নের এক অনিবার্য মাধ্যম। 

 

          প্রতিমন্ত্রী আজ কুড়িগ্রামে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ-২০১৮ এর যোগদানকৃত শিক্ষকদের পেশাগত দক্ষতা উন্নয়নের লক্ষ্যে ওরিয়েন্টেশন প্রশিক্ষণের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। 

 

          প্রতিমন্ত্রী বর্তমান সরকারের দুর্নীতিমুক্ত ও স্বচ্ছতার সাথে শিক্ষক নিয়োগের কথা উল্লেখ করে বলেন, শিক্ষার মানোন্নয়নে শিক্ষক-সহ শিক্ষার সাথে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের দেশ-বিদেশে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়েছে। শিক্ষকদের সামাজিক মর্যাদা বৃদ্ধি ও আর্থিক উন্নয়নে  সহকারী শিক্ষকদের বেতন স্কেল একধাপ উন্নয়ন-সহ প্রধান শিক্ষকদের দ্বিতীয় শ্রেণির মর্যাদা প্রদান করা হয়েছে । বর্তমানে  প্রশিক্ষণের ওপর ভিত্তি করে প্রধান শিক্ষকদের বেতন গ্রেড ১১ ও ১২ এবং সহকারী শিক্ষকদের বেতন গ্রেড ১৪ ও ১৫ করে ২টি গ্রেড কার্যকর রয়েছে। সম্প্রতি সকল ধরনের প্রধান শিক্ষকদের বেতন গ্রেড ১১ এবং সহকারী শিক্ষকদের বেতন গ্রেড ১৩ তে উন্নতি করা হয়েছে। এছাড়া সহকারী প্রধান শিক্ষক পদ সৃষ্টি কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে, যাদের গ্রেড নির্ধারণ করা হয়েছে ১২ তম। 

 

          কুড়িগ্রাম জেলা প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগ আয়োজিত ওরিয়েন্টেশন প্রশিক্ষণের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মোছাঃ সুলতানা পারভীন।  

 

         #

 

রবীন্দ্র/ফারহানা/মোশারফ/আব্বাস/২০২০/১৯৫৬ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                               নম্বর : ৭৪৭

 

ডায়াবেটিসরোধে গণসচেতনতা সৃষ্টির আহ্বান সমাজকল্যাণ মন্ত্রীর

 

ঢাকা, ১৫ ফাল্গুন (২৮ ফেব্রুয়ারি) : 

 

সমাজকল্যাণ মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ স্বাস্থ্য ও সমাজ সেবাখাত-সহ দেশের সকল ক্ষেত্রে সরকারের ব্যাপক উন্নয়ন চিত্র তুলে ধরে বলেছেন,  বর্তমান সরকার সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির আওতায় অনেক প্রকল্প নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে। অসহায় ও দুঃস্থ মানুষের কল্যাণে নিয়মিত ভাতা প্রদান ছাড়াও প্রতিবন্ধী এবং পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর শিশুদের শিক্ষা উপবৃত্তির ব্যবস্থা করছে। পাশাপাশি ক্যান্সার, কিডনি রোগ-সহ ৬টি রোগের চিকিৎসায় রোগীপ্রতি ৫০ হাজার টাকাও আর্থিক সাহায্য দিয়ে যাচ্ছে।

 

বাংলাদেশ ডায়াবেটিক সমিতির ৬৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে দেশব্যাপী আজ ‘ডায়াবেটিস সচেতনতা দিবস’  উপলক্ষে বারডেম হাসপাতালের সম্মেলনকক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন। এ উপলক্ষে মৎস্য ভবন এলাকা থেকে একটি বর্ণাঢ্য র‍্যালি মহানগরী প্রদক্ষিণ শেষে বারডেম চত্বরে এসে আলোচনা সভায় মিলিত হয়।  

 

ডায়াবেটিক সমিতির সভাপতি একে আজাদ খানের সভাপতিত্বে সভায় শিশুদের ডায়াবেটিস এবং প্রতিকার বিষয়ক মূলপ্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ডা. বিদৌরা জাবীন।  অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন বারডেম হাসপাতালের মহাপরিচালক অধ্যাপক জাফর এ লতিফ, সমিতির মহাসচিব মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন প্রমুখ।

 

এর আগে মন্ত্রী দীর্ঘমেয়াদি ডায়াবেটিসে আক্রান্ত  ১২ জন আদর্শ রোগীকে সম্মাননাপত্র ও ক্রেস্ট প্রদান করেন।   

 

#

 

শাহ আলম/ফারহানা/মোশারফ/সেলিম/২০২০/১৯০০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                             নম্বর: ৭৪৬

 

মুজিববর্ষে বাংলাদেশ হবে উন্নত, সমৃদ্ধ দেশ

                          ---পানিসম্পদ উপমন্ত্রী

 

ঢাকা, 1৫ ফাল্গুন (২৮ ফেব্রুয়ারি) :

 

          পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম বলেছেন, মুজিববর্ষে বাংলাদেশ হবে একটি উন্নত, সমৃদ্ধ দেশ। সেই লক্ষ্যে সরকার দেশের মানুষের ভাগ্যোন্নয়নে কাজ করে চলেছে।

 

          আজ নড়িয়া-জাজিরা সড়কের নড়িয়া পৌরসভা বাজার অংশের ৩৯০ মিটার সড়ক নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনকালে পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

 

          উপমন্ত্রী বলেন, পদ্মা নদীর ভাঙন রোধে বাঁধের কাজ দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলছে। ২০১৮ সালে পদ্মার ভাঙনে ৫ হাজার পরিবার গৃহহীন হয়েছিল। গত বছর পদ্মা নদীর ভাঙন আমরা ঠেকাতে পেরেছি। গত বর্ষা মৌসুমের শেষের দিকে ১২টি বাড়ি আকস্মিকভাবে ভাঙনের কবলে পড়েছিল। এ বছর নদী ভরাট করে ওই জমি ভাঙন কবলিতদের মাঝে ফিরিয়ে দেওয়া হচ্ছে। ভাঙন রোধে নড়িয়া-সহ শরীয়তপুরে নতুন আরো দুটি প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে, যাতে পদ্মা পাড়ের মানুষ ভাঙনের কবলে পড়ে ভিটে বাড়ি না হারায়। 

 

          এর আগে উপমন্ত্রী পদ্মা নদীর ডান তীর সংরক্ষণ প্রকল্পের কাজের অগ্রগতি পরিদর্শন করেন। 

 

 

#

 

আসিফ/ফারহানা/রাহাত/মোশারফ/আব্বাস/২০২০/১৮১৪ ঘণ্টা

 

 

Handout                                                                                                               Number : 745

 

Global leaders praise Bangladesh’s commitment

 and measures to fight the adverse impacts of climate change

 

Dhaka, 28 February:

 

            Foreign Minister Dr. A. K. Abdul Momen has attended the board meeting of Global Center on Adaptation held in Paris yesterday. During the meeting, the global leaders praised the Government of Bangladesh for commitment and measures to fight the adverse impacts of climate change. They also lauded Prime Minister Sheikh Hasina and Foreign Minister Dr. Momen for successfully holding its last meeting of GCA in Dhaka.

 

            Dr. Momen urged the global community for special focus on South Asian region while allocating fund and programs for its extreme vulnerabilities to the climate change. He also put emphasis on need for technology transfer, recognizing local based solution and innovation and public awareness for combating the menace of the climate change. He also gave an account of the activities that Bangladesh has undertaken to adapt the harmful impacts of the climate change; including developing flood, drought and salinity resistant seeds, harvesting rain water, rooftop gardening, introducing boat-schools, floating agriculture, trust fund from own resources etc.

 

            The discussion in the meeting broadly centered around the ways and means to bring back the issue of adaptation to the mainstream of climate negotiation and funding strategies  for ensuring accelerated adaptability against climate change through forming effective partnerships among public, private and philanthropic entities. The meeting also discussed the governance issues of the newly formed organization and the proposed regional offices. It may be mentioned that the regional office of GCA for South Asia will be located in Dhaka.

 

            The Foreign Minister was invited to be a board member of the newly formed Global Center on Adaptation due to spectacular record of Bangladesh in terms of climate adaptation and disaster management. World leaders who have been vocal on the issue of climate change were present in the meeting, which includes former UN Secretary General Ban Ki-moon; Ministers from the Netherlands, Norway, Sweden and Mayors from Paris, Rotterdam and Miami. China, Philippines and Bangladesh were invited to be board members from Asia.

 

            Dr. Momen also had discussions on the Presidency of Bangladesh of the Climate Vulnerable Forum and the projected programs and actions during the presidency with the officials of the GCA headquarters. He also discussed the modalities of the soon-to-be-established Dhaka regional office of GCA.

 

#

 

Tohidul/Farhana/Rahat/Abbas/2020/1705 Hours

তথ্যবিবরণী                                                                                             নম্বর: ৭৪৪

নেতিবাচক সংবাদ পরিবেশন থেকে বিরত থাকতে

সাংবাদিকদের প্রতি নৌ-প্রতিমন্ত্রীর আহ্বান

ঢাকা, 1৫ ফাল্গুন (২৮ ফেব্রুয়ারি) :

                   নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহ্‌মুদ চৌধুরী বলেছেন, গণমাধ্যম প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে যায়, এমন সংবাদ পরিবেশন করবেন না। সবসময় সত্যের সন্ধানে সত্যের সাথে থাকবেন। দেশবাসী সমস্যায় পড়ে যায়, এমন নেতিবাচক সংবাদ পরিবেশন থেকে বিরত থাকতে সাংবাদিকদের প্রতি তিনি আহ্বান জানান।

          প্রতিমন্ত্রী আজ ঢাকায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী হলে ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিল (ডিএসইসি) আয়োজিত ডিএসইসি’র সদস্যদের কৃতি সন্তানদের মেধাবৃত্তি ২০১৯ প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

          খালিদ মাহ্‌মুদ চৌধুরী বলেন, বর্তমান সরকার সাংবাদিকবান্ধব। সাংবাদিকদের কল্যাণে সরকার অনেক ফান্ড গঠন করেছে। গণমাধ্যম একটি শিল্প, এ শিল্পের উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভূমিকা অপরিসীম।

          প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, পর্দার আড়াল থেকে সাব-এডিটররা সংবাদ পরিবেশনের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকেন। কোন দল বা ব্যক্তি নয়, দেশের জন্য দেশপ্রেম নিয়ে কাজ করবেন।

          ডিএসইসি’র সভাপতি জাকির হোসেন ইমনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি ও যুগান্তর পত্রিকার সম্পাদক সাইফুল আলম, জাতীয় প্রেস ক্লাবের
সহ-সভাপতি ও বাংলাদেশের খবর পত্রিকার সম্পাদক আজিজুল ইসলাম ভূঁইয়া, আওয়ামী লীগ নেতা এডভোকেট বলরাম পোদ্দার, ডিএসইসি’র সাধারণ সম্পাদক মুক্তাদির অনিক প্রমুখ।

          প্রতিমন্ত্রী পরে সদস্যদের ৩০ জন কৃতি সন্তানের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন।

#

জাহাঙ্গীর/সঞ্জীব/শামীম/২০২০/১৬১০ ঘণ্টা

 

 

2020-02-28-21-08-c66fbb1a4dfec8cff3897ee7f77289f0.docx 2020-02-28-21-08-c66fbb1a4dfec8cff3897ee7f77289f0.docx

Share with :

Facebook Facebook