তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

তথ্যবিবরণী ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

তথ্যবিবরণী                                                                                                      নম্বর : ৩৪৮৩
 
শিল্পোন্নয়নে সরকারের পাশাপাশি বিত্তবানদের এগিয়ে আসতে হবে
            ---সমাজকল্যাণ মন্ত্রী
 
লালমনিরহাট, ২৮ ভাদ্র (১২ সেপ্টেম্বর) : 
সমাজকল্যাণ মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ বলেছেন, উত্তরের সীমান্তবর্তী জেলা লালমনিরহাট শিল্পোন্নয়নে অনেক পিছিয়ে পড়েছে। জেলার শিল্পোন্নয়নে সরকারের পাশাপাশি বিত্তবানদের এগিয়ে আসতে হবে। তবেই কাক্সিক্ষত উন্নয়ন সাধিত হবে। 
 
আজ লালমনিরহাটে মাসব্যাপী শিল্প ও বাণিজ্য মেলা উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন।
 
মন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার লালমনিরহাটে এয়ার এভিয়েশন বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেছে। তিনি আরো বলেন, বিনোদনের ব্যবস্থা না থাকায় আমাদের সন্তানরা মাদকে আসক্ত হচ্ছে। এদের বিপথগামী থেকে ভালো পথে ফেরাতে এ শিল্প ও বাণিজ্য মেলা অবদান রাখবে।
 
লালমনিরহাট চেম্বার অভ্ কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি’র সভাপতি সিরাজুল হকের সভাপতিত্বে উদ্বোধন অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক আবু জাফর, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট মতিয়ার রহমান, পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক, সাবেক সংরক্ষিত নারী সংসদ সদস্য এডভোকেট সফুরা বেগম রুমী প্রমুখ।
 
 
#
জাকির/ফারহানা/মোশারফ/আব্বাস/২০১৯/২১৫৫ ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                          নম্বর : ৩৪৮২
 
হিন্দু উত্তরাধিকার আইন সংশোধন এখন সময়ের দাবি
                                                    --- আইনমন্ত্রী
 
ঢাকা, ২৮ ভাদ্র (১২ সেপ্টেম্বর) :
আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, সরকার নারীর ক্ষমতায়নের সাথে সাথে উত্তরাধিকারের ক্ষেত্রে বিভিন্ন বিষয়ে উত্তারণের চেষ্টা করছে। এদেশের সংখ্যা গরিষ্ঠদের দায়িত্ব হলো সংখ্যালঘুদের অধিকার নিশ্চিত করা। সে কারণেই হিন্দু উত্তরাধিকার আইন সংশোধন করা এখন সময়ের দাবি। তবে এ ক্ষেত্রে হিন্দু সম্প্রদায় এগিয়ে এলে সরকার এ বিষয়ে সব ধরনের সহযোগিতা করতে প্রস্তুত আছে।
আজ রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের সেমিনার হলে ‘একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি’ আয়োজিত মুক্তিযুদ্ধের চেতনার আলোকে আইন সংস্কারের প্রয়োজনীয়তা বিষয়ক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন। 
মন্ত্রী বলেন, আইন কমিশন থেকে পাঠানো সাক্ষী সুরক্ষা আইন পরীক্ষা করা হচ্ছে। খুব তাড়াতাড়ি এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনেরও কিছু সংশোধন করার চিন্তভাবনা করা হচ্ছে।
  বিচারপতি শামসুল হুদার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক; অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম; একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি লেখক সাংবাদিক শাহরিয়ার কবির; বাংলাদেশ হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট রানা দাশ গুপ্ত প্রমুখ বক্তৃতা করেন।
#
 
রেজাউল/ফারহানা/রফিকুল/জয়নুল/২০১৯/২১৩০ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                                               নম্বর : ৩৪৮১
 
 শেয়ার বাজার ও বন্ড মার্কেট উন্নয়নে সহায়তা করবে বিশ্বব্যাংক
              --- অর্থমন্ত্রী
 
ঢাকা, ২৮ ভাদ্র (১২ সেপ্টেম্বর) :
অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, শেয়ার বাজার ও বন্ড মার্কেট উন্নয়নে সহায়তা করবে বিশ্বব্যাংক। এছাড়াও অর্থনীতিতে যেসব জায়গায় দেশ পিছিয়ে আছে, সেসব জায়গার উন্নয়নেও এগিয়ে আসবে সংস্থাটি। 
আজ অর্থমন্ত্রীর সাথে শেরেবাংলা নগরে তাঁর দপ্তরে বিশ্বব্যাংকের আঞ্চলিক পরিচালক জুবিদা খেরুজ এলাউয়া (তড়ঁনরফধ কযবৎড়ঁং অষষধড়ঁধ) সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। সাক্ষাৎ শেষে মন্ত্রী সাংবাদিকদেরকে এসব কথা বলেন।
মন্ত্রী বলেন, বন্ড মার্কেটের উন্নয়নে কর্পোরেট সেক্টরের প্রভিডেন্ড ফান্ডগুলো নিয়ে আসা হবে। বন্ড মার্কেট এমনভাবে উন্নয়ন করা হবে যাতে করে ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীরাও চলে আসবে। বন্ড মার্কেটের উন্নয়ন হলে শেয়ার বাজারেরও উন্নয়ন হবে।
বিশ্বব্যাংকের আঞ্চলিক পরিচালক বলেন, বাংলাদেশের অর্থনীতি যেভাবে এগুচ্ছে তা প্রশংসাযোগ্য। বিশ্বব্যাংক এক্ষেত্রে কারিগরি সহায়তা, রেগুলেটরি রিফর্ম এবং পলিসির উন্নয়নে সহায়তা করবে। বন্ড মার্কেট ও শেয়ার বাজারের উন্নয়ন সমন্বিতভাবে করা হবে বলে তিনি আশ্বাস দেন।
#
 
তৌহিদুল/মাহমুদ/ফারহানা/মোশারফ/জয়নুল/২০১৯/২০৫৫ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                                          নম্বর : ৩৪৮০
 
মানুষ যেন যন্ত্র না হয়ে যায়, সেজন্য কবিতা 
                                        --- তথ্যমন্ত্রী
 
ঢাকা, ২৮ ভাদ্র (১২ সেপ্টেম্বর) :
তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহ্মুদ বলেছেন, মানুষ যেন যন্ত্র না হয়ে যায়, সেজন্য কবিতা ও কবিতাপাঠ চর্চা অব্যাহত রাখা প্রয়োজন।
আজ রাজধানীর শাহবাগে কেন্দ্রীয় গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান মিলনায়তনে আবৃত্তি একাডেমির ২১ বছর পূর্তি উৎসবে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী একথা বলেন।
তথ্যমন্ত্রী বলেন, আধুনিকতার নামে, বৈষয়িক উন্নয়নের তাগিদে যন্ত্র হয়ে যাওয়া, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অতিরিক্ত আসক্ত হয়ে পড়া বা জঙ্গিবাদের কালো থাবায় জড়িয়ে পড়া- এসব থেকে মুক্ত থাকার জন্য চাই কবিতা আর কবিতার পাঠ ও আবৃত্তি। একা কবিতা পাঠে আনন্দ আছে, কিন্তু অনেক মানুষের মাঝে কবিতার আবৃত্তি মানুষকে অনুপ্রাণিত করে, সৃষ্টি করে অপূর্ব ব্যঞ্জনা। তাই আবৃত্তির গুরুত্বও অনেক।
কবিতা মানুষের মাঝে দেশপ্রেম, মানবিক মূল্যবোধ ও মমত্ববোধ জাগ্রত করে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, উন্নত দেশের পাশাপাশি উন্নত জাতি হিসেবে গড়ে উঠতে কবিতা হোক সকলের প্রাণের সাথী।
ড. হাছান মাহ্মুদ এ সময় আবৃত্তিজন অধ্যাপক নিরঞ্জন অধিকারীর হাতে আবৃত্তি একাডেমি পদক ও পুরস্কারের অর্থ তুলে দেন। এর আগে মন্ত্রী বেলুন উড়িয়ে দু’দিনব্যাপী উৎসবের উদ্বোধন করেন।
আবৃত্তি একাডেমির পরিচালক মৃন্ময় মিজানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আবৃত্তি একাডেমি পদকপ্রাপ্ত অধ্যাপক নিরঞ্জন অধিকারী তার অনুভূতি ব্যক্ত করেন ও বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আহকাম উল্লাহ বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন।
#
আকরাম/মাহমুদ/মোশারফ/জয়নুল/২০১৯/২০৪০ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                                                  নম্বর : ৩৪৭৯
 
শিক্ষার্থীদের অর্থায়নে কেনা বাসের উদ্বোধন করলেন শ্রম প্রতিমন্ত্রী
 
খুলনা, ২৮ ভাদ্র (১২ সেপ্টেম্বর) :
খুলনায় দৌলতপুর সরকারি বিএল কলেজের শিক্ষার্থীদের নিজস্ব অর্থায়নে প্রায় ৮৪ লাখ টাকায় কেনা নতুন দুইটি বাসের উদ্বোধন করেছেন শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান। 
এ উপলক্ষে আজ কলেজ প্রাঙ্গণে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী বলেন, সরকার শিক্ষাকে সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়ে এর অবকাঠামোর উন্নয়ন করে যাচ্ছে। সরকারের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় প্রায় সকল শিশুই স্কুলমুখী। এখন প্রয়োজন শিক্ষার মানোন্নয়ন। এজন্য শিক্ষক, শিক্ষার্থী-সহ সমাজের সকলকে একসাথে কাজ করতে হবে। 
সরকারি বিএল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক কে এম আলমগীর হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপাধ্যক্ষ অধ্যাপক শরীফ আতিকুজ্জামান ও কলেজ শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক অধ্যাপক মোঃ হাফিজুর রহমান বক্তৃতা করেন।
#
 
আকতারুল/মাহমুদ/রফিকুল/জয়নুল/২০১৯/২০০০ঘণ্টা 
 
তথ্যবিবরণী                                                                                                                      নম্বর : ৩৪৭৮
 
শিগগিরই অনলাইনে জিডি ব্যবস্থা চালু করা হবে
          ---স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
 
ঢাকা, ২৮ ভাদ্র (১২ সেপ্টেম্বর) :
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেছেন, শিগগিরই অনলাইনে জেনারেল ডায়েরি (জিডি) ব্যবস্থা চালু করবে পুলিশ। প্রাথমিক পর্যায়ে ঢাকা ও ময়মনসিংহ মেট্রোপলিটন এলাকায় চালু হবে। ফলে মানুষ ঘরে বসে মোবাইল বা কম্পিউটারের মাধ্যমে জিডি করতে পারবে। পুলিশ ভেরিফিকেশনের কাজও দ্রুত অনলাইনে আনা হবে। শুরুতে অনলাইনে ‘লস্ট এন্ড ফাউন্ড’ জিডি করা যাবে এবং পর্যায়ক্রমে সব ধরনের জিডি অনলাইনে নেয়ার সুবিধা সারাদেশে চালু করা হবে।
আজ সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ‘ডিজিটাল কেইস ডায়েরি’-এর ওপর পর্যালোচনা সভা শেষে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন।
ঢাকাকে নিরাপদ নগরীতে পরিণত করার লক্ষ্যে ‘সেইফ সিটি’ প্রকল্পের কথা উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘সেইফ সিটি প্রকল্পের আওতায় শুধু ঢাকা মহানগরীর প্রায় ৬ হাজার কিলোমিটার রাস্তাজুড়ে বসবে উন্নত প্রযুক্তির ক্যামেরা। এর ফলে যে কোনো অপরাধীর এনআইডি থেকে ছবি নিয়ে শনাক্ত করা যাবে তার অবস্থান। প্রথমে ঢাকা মহানগরীকে সেফ সিটির আওতায় নিয়ে আসা হবে। এরপর পর্যায়ক্রমে সারা দেশের সবগুলো সিটি কর্পোরেশনকে এ প্রকল্পের আওতায় আনা হবে। ফলে যানজট নিরসনের পাশাপাশি অপরাধ নিয়ন্ত্রণ করাও সহজ হবে।’
এ সময় মন্ত্রী জরুরি সেবা ‘৯৯৯’ নম্বরের কার্যক্রমকে গতিশীল করতে এবং এ বিষয়ে একটি পলিসি প্রণয়নের জন্য জননিরাপত্তা বিভাগের অতিরিক্ত সচিবকে আহ্বায়ক করে ৬ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করে দেন।
সভায় আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্মেদ পলক, জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব মোস্তাফা কামাল উদ্দীন, বাংলাদেশ পুলিশের আইজিপি ড. মোঃ জাবেদ পাটোয়ারী, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, আইসিটি বিভাগ, এ টু আই ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
#
অপু/ফারহানা/মোশারফ/জয়নুল/২০১৯/১৯৪০ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                                         নম্বর : ৩৪৭৭                                                                                                                                                                                                                                                            
প্রশিক্ষণ নিতে জাপানে যাচ্ছে ৫০ সদস্যের দল
ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে দক্ষ মানবসম্পদের বিকল্প নেই
                      ---আইসিটি প্রতিমন্ত্রী
ঢাকা, ২৮ ভাদ্র (১২ সেপ্টেম্বর) : 
আইসিটি প্রশিক্ষণ নিতে জাপানে যাচ্ছে ৫০ জনের একটি দল। জাপানের ফুজিৎসু রিসার্চ ইনস্টিটিউটে ডাটা সায়েন্স, আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স, মেশিন লার্নিং, ইন্টারনেট অভ্ থিংস, রবোটিক্স, ব্লক চেইন এবং সাইবার সিকিউরিটি বিষয়ে ৯০ দিনব্যাপী এই প্রশিক্ষণ কার্যক্রম চলবে। বাংলাদেশের হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন জেলা পর্যায়ে আইটি/হাই-টেক পার্ক স্থাপন (১২টি জেলায়) প্রকল্পের আওতায় এ প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়েছে।
আজ বাংলাদেশের হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের কার্যালয়ে এ উপলক্ষে এক মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। মতবিনিময়কালে প্রশিক্ষণার্থীদেরকে বিভিন্ন দিকনির্দেশনা প্রদান করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক । 
প্রতিমন্ত্রী এ সময় বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে দক্ষ মানবসম্পদ তৈরির কোনো বিকল্প নেই। বাংলাদেশকে একটি মেধানির্ভর অর্থনীতির দেশে পরিণত করতে সরকার ইতোমধ্যে বিভিন্ন উচ্চতর প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। নির্বাচনী ইশতেহারের প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী সরকার বিভিন্ন প্রকল্প ও কর্মসূচির মাধ্যমে দেশের তৃণমূল পর্যায়ে প্রশিক্ষণ কার্যক্রম ছড়িয়ে দিতে চায়। এর অংশ হিসেবে জেলা পর্যায়ে আইটি/ হাই-টেক পার্ক স্থাপন প্রকল্পের আওতায় ৩০ হাজার তরুণ-তরুণীকে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে। 
মতবিনিময় অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম-সহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 
 
#
শহিদুল/মাহমুদ/মোশারফ/আব্বাস/২০১৯/১৯০৪ ঘণ্টা
 
তথ্যবিবরণী                                                                                                                         নম্বর : ৩৪৭৬
 
বিআইডব্লিউটিসি’র বৈঠকে সিদ্ধান্ত
বুড়িগঙ্গা নদী পারাপারে ওয়াটার বাস
 
ঢাকা, ২৮ ভাদ্র (১২ সেপ্টেম্বর) :
যাত্রী সাধারণের দুর্ভোগ লাঘবে বুড়িগঙ্গা নদী পারাপারে সদরঘাট ও কেরানীগঞ্জের মধ্যে শীঘ্রই চারটি ওয়াটার বাস চলাচল করবে। 
আজ নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্পোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) এর উন্নয়ন, আর্থিক ও প্রশাসনিক বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহ্মুদ চৌধুরী এতে সভাপতিত্ব করেন। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ আবদুস সামাদ এবং বিআইডব্লিউটিসি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।
বৈঠকে জানানো হয়, বিআইডব্লিউটিসি’র ১২টি ওয়াটার বাস রয়েছে। এর মধ্যে বুড়িগঙ্গা নদীতে পর্যটন কাজে ব্যবহারের জন্য একটি ওয়াটার বাস চার্টার প্রদান করা হয়েছে। বাকি ১১টি গাবতলী থেকে ওয়াইজঘাট এবং নারায়ণগঞ্জ থেকে টঙ্গি রুটে চলাচল করছে। সেগুলোর মধ্য থেকে চারটি ওয়াটারবাস সদরঘাট ও কেরানীগঞ্জের মধ্যে বুড়িগঙ্গা নদী পারাপারে ব্যবহৃত হবে।
বিআইডব্লিউটিসি’র সকল যাত্রীবাহী জাহাজ ও ফেরি সার্ভিসে যাত্রী সেবার মান বাড়ানো-সহ কন্টেইনার জাহাজগুলোর নিয়মিত সার্ভিস পরিচালনার মাধ্যমে আয় বৃদ্ধির ওপর বৈঠকে গুরুত্বারোপ করা হয়।
পরে প্রতিমন্ত্রী মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ন্যাশনাল মেরিটাইম ইনস্টিটিউটের উন্নয়ন, আর্থিক ও প্রশাসনিক বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন।
#
 
জাহাঙ্গীর/মাহমুদ/রাহাত/রফিকুল/জয়নুল/২০১৯/১৮১০ঘণ্টা
 
তথ্যবিবরণী                                                                                                                   নম্বর : ৩৪৭৫
 
শিক্ষার্থীরা আগামী দিনে শান্তি প্রতিষ্ঠায় ভূমিকা রাখবে
          --- শিক্ষা উপমন্ত্রী
 
ঢাকা, ২৮ ভাদ্র (১২ সেপ্টেম্বর) :
শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেছেন, বাংলাদেশ তথা বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় আগামী দিনে ভূমিকা রাখবে শিক্ষার্থীরা, আর এ জন্য শিক্ষকদের প্রধান দায়িত্ব পালন করতে হবে। শিক্ষার্থীদের শান্তিকামী, নৈতিক মূল্যবোধ সম্পন্ন মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। মানুষ শান্তিতে না থাকলে পৃথিবীর যে সম্ভাবনা তা নষ্ট হবে।
উপমন্ত্রী আজ রাজধানীর ডেমরার মাতুয়াইলে শামসুল হক খান স্কুল এন্ড কলেজ এবং হেভেনলি কালচার, ওয়ার্ল্ড পিস, রেসটোরেশন অভ্ লাইট (এইচ ডব্লিউ পিএল) এর আয়োজনে ওয়ার্ল্ড পিস সামিটে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
উপমন্ত্রী আরো বলেন, বাংলাদেশ একটি শান্তিপ্রিয় দেশ। এ দেশের রাষ্ট্রীয় নীতিই হচ্ছে শান্তির পক্ষে। যে কারণে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশের পররাষ্ট্রনীতির মূল মর্মবাণী তৈরি করেছেন ‘সবার সঙ্গে বন্ধুত্ব কারো সাথে শত্রুতা নয়’। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একই নীতি ও আদর্শ অনুসরণ করে সকল প্রতিবেশী দেশ-সহ আন্তর্জাতিক আসনে সুসম্পর্ক বজায় রেখে চলেছেন।
শামসুল হক খান স্কুল এন্ড কলেজের প্রিন্সিপাল ড. মাহাবুব রহমান মোল্লার সভাপতিত্বে অন্যান্যর মধ্যে উপস্থিত ছিলেন শামসুল হক খান স্কুল এন্ড কলেজের ম্যানেজিং কমিটির চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমান মোল্লা এবং বৈশাখী টেলিভিশনের প্রধান বার্তা সম্পাদক সাইফুল ইসলাম।
#
খায়ের/মাহমুদ/মোশারফ/জয়নুল/২০১৯/১৮০৫ঘণ্টা
 
 
তথ্যবিবরণী                                                                                                                  নম্বর : ৩৪৭৪
 
‘আমার গ্রাম-আমার শহর’ একটি রাজনৈতিক দর্শন
        --- স্থানীয় সরকার মন্ত্রী
 
ঢাকা, ২৮ ভাদ্র (১২ সেপ্টেম্বর) :
স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম বলেছেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নির্বাচনি ইশতেহার-২০১৮ এর বিশেষ অঙ্গীকার ‘আমার গ্রাম-আমার শহর’ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একটি রাজনৈতিক দর্শন। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তেই প্রধানমন্ত্রী এ পদক্ষেপ নিয়েছেন। এর ফলে গ্রামীণ জনগোষ্ঠী দেশের সামগ্রিক উন্নয়নের সুবিধা ভোগ করতে পারবে।
আজ রাজধানীর ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলের গ্রান্ড বলরুমে স্থানীয় সরকার বিভাগ কর্তৃক ‘আমার গ্রাম-আমার শহর : প্রতিটি গ্রামে আধুনিক নগর সুবিধা সম্প্রসারণ’ শীর্ষক জাতীয় কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, শহরের নাগরিক সুবিধা গ্রামের মানুষের নিকট পৌঁছে দিতে এ কর্মশালার সুপারিশের ভিত্তিতে একটি সময়াবদ্ধ কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন করা হবে।
স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কর্মশালায় বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স¦পন ভট্টাচার্য্য। 
কর্মশালায় স্বাগত বক্তব্য দেন স্থানীয় সরকার বিভাগের অতিরিক্ত সচিব ড. কাজী আনোয়ারুল হক, ধারণাপত্র উপস্থাপন করেন স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মোঃ শফিকুল ইসলাম আকন্দ। এছাড়াও এ বিষয়ে অন্যান্যের মধ্যে আলোচনা করেন পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের সচিব মোঃ কামাল উদ্দিন তালুকদার এবং বাংলাদেশে নিযুক্ত ইউএনডিপি’র আবাসিক প্রতিনিধি সুদীপ্ত মুখার্জী।
 
#
হাসান/মাহমুদ/ফারহানা/মোশারফ/রফিকুল/জয়নুল/২০১৯/২২২০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                 নম্বর : ৩৪৭৩

পদ্মা সেতু প্রকল্পের ৭৪ শতাংশ অগ্রগতি

                           - সেতুমন্ত্রী

ঢাকা, ২৮ ভাদ্র (১২ সেপ্টেম্বর) :

পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্পের সার্বিক অগ্রগতি শতকরা ৭৩ দশমিক ৫০ ভাগ। মূল সেতুর বাস্তব কাজের অগ্রগতি শতকরা ৮৩ দশমিক ৫০ ভাগ এবং আর্থিক অগ্রগতি শতকরা ৭৩ দশমিক ৩৭ ভাগ। সবকটি পাইল ড্রাইভিং এর কাজ সম্পন্ন হয়েছে। নদীশাসন কাজের বাস্তব অগ্রগতি শতকরা ৬২ দশমিক ৫০ ভাগ এবং আর্থিক অগ্রগতি শতকরা ৪৮ দশমিক ৪০ ভাগ। সংযোগ সড়কের অগ্রগতি শতকরা ১০০ ভাগ।  

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের আজ রাজধানীর সেতু ভবনে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিষ্ঠান কোরিয়া এক্সপ্রেসওয়ে করপোরেশন (কেইসি) এবং বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষের মধ্যে এক সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর অনুষ্ঠান শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদেরকে এ তথ্য জানান। 

 সেতুর পরিচালন, রক্ষণাবেক্ষণ ও টোল আদায়ে এই সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয় । বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষের পক্ষে পরিচালক (প্রশাসন) মোঃ রেজাউল হায়দার এবং কোরিয়া এক্সপ্রেসওয়ে করপোরেশন (কেইসি) এর পক্ষে ব্যবস্থাপনা পরিচালক শিন, ইয়ং সুক স্মারকে স্বাক্ষর করেন। 

মন্ত্রী আরো জানান, এই প্রকল্পে মোট পিয়ার ৪২টি। এর মধ্যে ৩১টির কাজ পুরাপুরি সম্পন্ন হয়েছে, বাকি ১১টির কাজ চলমান আছে এবং এ বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে শেষ হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। মোট স্প্যান ৪২টি। মাওয়া সাইটে এ পর্যন্ত স্প্যান এসেছে ২৮টি যার মধ্যে ১৪টি স্প্যান স্থাপন করা হয়েছে। ফলে এখন ২ দশমিক ১ কিলোমিটার দৃশ্যমান। এছাড়া অবশিষ্ট স্প্যানগুলোর কাজ চীনে প্রায় শেষ পর্যায়ে রয়েছে।

পদ্মা সেতুর টোল আদায়ে ইলেক্ট্রনিক টোল কালেকশন (ইটিসি) পদ্ধতি চালু করবে কেইসি। ইটিসি লেন স্বয়ংক্রিয়ভাবে পরিচালিত হবে এবং এ ক্ষেত্রে কোন যানবাহনকে টোল বুথে থামতে হবে না। কেইসি পদ্মা সেতুর রক্ষণাবেক্ষণে পারফরমেন্স বেইজড ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম চালু করবে। এই পদ্ধতিতে স্বয়ংক্রিয়ভাবে রক্ষণাবেক্ষণের সিদ্ধান্ত গ্রহণ ও এ সংক্রান্ত বাজেট প্রণয়নে সহায়ক হবে। কেইসি অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ট্রাফিক ইনফরমেশন অ্যাপলিকেশন চালু করবে। এ পদ্ধতিতে প্রতি মুহুর্তে সড়ক, সেতু বা এর আওতাধীন অন্য যে কোন অবস্থানের বিদ্যমান যানবাহন সংক্রান্ত তথ্যাদি স্বয়ংক্রিয়ভাবে মোবাইল, বেতার বা অন্য কোন ডিভাইসের মাধ্যমে জানা যাবে। বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষসহ টোল আদায় করে এ ধরণের সংস্থাসমূহের জনবলকে প্রশিক্ষিত করবে কেইসি।

মন্ত্রী আরও জানান, স্বাক্ষরিত সমঝোতা স্মারক অনুযায়ী কেইসি’র একটি কারিগরি দল পদ্মা বহুমুখী সেতু এলাকা পরিদর্শন করে সেতুর রক্ষণাবেক্ষণ পদ্ধতি ও  প্রয়োজনীয় জনবলসহ অন্যান্য আনুষঙ্গিক তথ্য  সম্বলিত একটি কারিগরি প্রস্তাব দাখিল করবে। নীতিমালা অনুযায়ী প্রস্তাব অনুমোদন এবং যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণের পর  বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষ ও কেইসি এর মধ্যে উভয় পক্ষের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষরিত হবে বলে ওবায়দুল কাদের  জানান।  

এ সময় সেতু বিভাগের সিনিয়র সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম, পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক মোঃ শফিকুল ইসলাম, বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষের প্রধান প্রকৌশলী কাজী মোঃ ফেরদাউস, ঢাকা আশুলিয়া এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক মোঃ শাহাবুদ্দিন খানসহ সেতু বিভাগের অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। 

#

ওয়ালিদ/অনসূয়া/পরীক্ষিৎ/আসমা/২০১৯/১৬০০ ঘণ্টা  

তথ্যবিবরণী                                                                                                        নম্বর : ৩৪৭২

চিনিকলে বহুমুখী পণ্য উৎপাদনের পরামর্শ জার্মান বিশেষজ্ঞ দলের

ঢাকা, ২৮ ভাদ্র (১২ সেপ্টেম্বর) :

দেশীয় চিনিশিল্পকে লাভজনক করতে চিনিকলসমূহে বহুমুখী পণ্য উৎপাদনের পরামর্শ দিয়েছে জার্মান বিশেষজ্ঞ দল। এছাড়া কলসমূহে চিনির পাশাপাশি স্থানীয়ভাবে উৎপাদিত ভুট্টা হতে তেল ও অন্যান্য শিল্পজাত পণ্য উৎপাদনের ওপরও গুরুত্বারোপ করেছে দলটি।

আজ শিল্প মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে জার্মানভিত্তিক প্রতিষ্ঠান হেইনকেল ড্রাইং এন্ড সেপারেশন গ্রুপের একটি বিশেষজ্ঞদল এ সংক্রান্ত এক পাওয়ার পয়েন্ট উপস্থাপনায় এ প্রস্তাব দেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন শিল্পমন্ত্রী নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন। শিল্পসচিব মোঃ আবদুল হালিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার। হেইনকেল গ্রুপের পরিচালক উইলিয়াম ক্রেইগ (William Craig) বিশেষজ্ঞদলের নেতৃত্ব দেন।

উইলিয়াম ক্রেইগ বলেন, অত্যাধুনিক জার্মান প্রযুক্তির মাধ্যমে  জ্বালানি সাশ্রয় করে ইক্ষু ও বিট হতে অধিক পরিমাণ চিনি উৎপাদন করা সম্ভব। চিনি উৎপাদনের পাশাপাশি বায়োফার্টিলাইজারসহ বিভিন্ন ধরনের পণ্য উৎপাদন করে চিনিশিল্পকে লাভজনক করা যায় বলে তিনি উল্লেখ করেন। 

অনুষ্ঠানে শিল্পমন্ত্রী বলেন, চিনিশিল্পকে লাভজনক করতে সরকার আন্তরিকভাবে কাজ করছে। চিনি ছাড়াও চিনিকলসমূহে অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ পণ্য উৎপাদন করে এই খাতকে লাভজনক করতে চায় সরকার। চিনিকলসমূহের উন্নয়নে আর্থিক ও প্রযুক্তিগত দিকসমূহ বিস্তারিত তুলে ধরে পুর্ণাঙ্গ প্রস্তাব প্রেরণের জন্য জার্মান প্রতিনিধি দলের প্রতি আহ্বান জানান শিল্পমন্ত্রী।

শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ বলেন, চিনিকলসমূহের উৎপাদন ক্ষমতা বাড়িয়ে অলাভজনক চিনিকলসমূহকে লাভজনক করা হবে। বাস্তবতা বিবেচনা করে চিনিশিল্প হতে বহুমুখী পণ্য উৎপাদন এবং বিদেশে রপ্তানির পরিকল্পনা প্রস্তাবে অন্তর্ভুক্ত করার জন্য জার্মান বিশেষজ্ঞদলের প্রতি তিনি আহ্বান জানান।

শিল্প মন্ত্রণালয় এবং বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প কর্পোরেশনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

#

মাসুম বিল্লাহ/অনসূয়া/পরীক্ষিৎ/কুতুব/২০১৯/১৬২৪ ঘণ্টা  

তথ্যবিবরণী                                                                                                        নম্বর : ৩৪৭১

হৃদরোগ চিকিৎসায় অধিক সংখ্যক নারী চিকিৎসক প্রয়োজন

                                                  - স্পিকার

ঢাকা, ২৮ ভাদ্র (১২ সেপ্টেম্বর) :  

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, নারী চিকিৎসকগণ দেশের সম্পদ। হৃদরোগ চিকিৎসায় অধিক সংখ্যক নারী চিকিৎসককে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন তাঁরা নারীদের পাশাপাশি পুরুষদেরও স্বাস্থ্য সেবা দিতে সক্ষম। এসময় তিনি হৃদরোগ চিকিৎসায় অধিক সংখ্যক নারী চিকিৎসক তৈরি, তাঁদের জন্য অনুকূল কর্মপরিবেশ ও অসংক্রামক রোগ সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধির ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

স্পিকার আজ ঢাকার মিরপুরে ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতাল অ্যান্ড রিসার্চ ইনষ্টিটিউট মিলনায়তনে ‘উইমেন অ্যাজ ওয়ান,বাংলদেশ চ্যাপ্টার’- এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন অভ্ বাংলাদেশ এর উদ্যোগে নারী হৃদরোগ বিশেষজ্ঞগণের সমন্বয়ে একটি সচেতনতামূলক ফোরাম ‘উইমেন অ্যাজ ওয়ান,বাংলাদেশ চ্যাপ্টার’ গঠিত হয়েছে।

স্পিকার বলেন, সরকারের নানামুখী উদ্যোগের ফলে বাংলাদেশ সংক্রামক রোগ নিয়ন্ত্রণে সফল হয়েছে। জীবনমান উন্নয়নের সাথে সাথে জীবনযাপন প্রণালিতে পরিবর্তন আসাসহ বিভিন্ন কারণে বিশ্বব্যাপী নতুন নতুন সংক্রামক রোগের প্রাদুর্ভাব বেড়ে চলেছে। এ পরিস্থিতি মোকাবিলায় বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক তৈরি করা প্রয়োজন।

তিনি বলেন, দেশের নারীরা হাসপাতালে গিয়ে হৃদরোগের সেবা নিতে অনীহা সংকোচ দেখায়। এর পিছনে অন্যতম কারণ অজ্ঞতা, অসচেতনতা এবং পুরুষ হৃদরোগ বিশেষজ্ঞদের কাছে চিকিৎসা নিতে সংকোচ বোধ। এজন্য প্রতিটি হাসপাতালে বেশি সংখ্যক নারী হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ নিয়োগ দেয়া জরুরি। নারী চিকিৎসকদের সুযোগ-সুবিধা বাড়ানো এবং হৃদরোগ চিকিৎসা সংক্রান্ত উচ্চতর প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা প্রয়োজন বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

স্পিকার আরো বলেন, দেশে আজ সকল ক্ষেত্রে নারী উন্নয়ন দৃশ্যমান। এদেশের নারীরা অনেক নতুন ও ঝুঁকিপূর্ণ পেশায় কাজ করছেন। মেধা,দক্ষতা ও যোগ্যতার স্বাক্ষর রেখে নারী চিকিৎসকগণ এগিয়ে যাচ্ছে বলে উল্লেখ করে  তিনি বলেন, সকল প্রতিকূলতা জয় করে অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি করতে পারলে  হৃদরোগ   চিকিৎসায় নারীরা এগিয়ে আসতে উৎসাহী হবে। কেন না শুধু বাংলদেশে নয় সারা বিশ্বে হৃদরোগের চিকিৎসায় নারী  চিকিৎসকের সংখ্যা অপ্রতুল। এ ক্ষেত্রে নারীবান্ধব পরিবেশ, আয় বৈষম্য নিরসন ও জনসচেতনতা বৃদ্ধির ওপর গুরুত্বারোপ করেন তিনি।

ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন অভ্ বাংলাদেশ এর প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি, জাতীয় অধ্যাপক ব্রিগেডিয়ার (অব.) আব্দুল মালিক এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন অপরাজিতা হক এমপি। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন উইমেন অ্যাজ ওয়ান বাংলদেশ চ্যাপ্টারের আহ্বায়ক অধ্যাপক ফজিলা তুন নেসা মালিক।

#

তারিক/অনসূয়া/পরীক্ষিৎ/আসমা/২০১৯/১৫৩০ ঘণ্টা    

তথ্যবিবরণী                                                                                                        নম্বর : ৩৪৭০

সমুদ্র বন্দরসমূহের জন্য তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত

ঢাকা, ২৮ ভাদ্র (১২ সেপ্টেম্বর) :  

উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় বায়ুচাপের তারতম্যের আধিক্যের কারণে বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা, উত্তর বঙ্গোপসাগর এবং সমুদ্র

Todays handout (13).docx Todays handout (13).docx

Share with :

Facebook Facebook