তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯

তথ্যবিবরণী - 8/9/2019

তথ্যবিবরণী                        নম্বর : ৩৪২৪
 
দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে অর্থনৈতিক করিডোর তৈরির
উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন পরিকল্পনা মন্ত্রী
 
ঢাকা, ২৪ ভাদ্র (৮ সেপ্টেম্বর) :  
 
দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে অর্থনৈতিক করিডোর তৈরির উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান। তিনি বলেন, উত্তর-পূর্বাঞ্চলে প্রচুর সম্ভাবনা রয়েছে। এই উদ্যোগকে সফল করতে অবকাঠামো গড়ে তোলা-সহ সুযোগ-সুবিধা কিভাবে দেওয়া যায়, সে প্রচেষ্টা করা হবে। 
 
মন্ত্রী আজ ঢাকায় স্থানীয় এক হোটেলে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা) ও এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক যৌথভাবে আয়োজিত ‘বাংলাদেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে অর্থনৈতিক করিডোর উন্নয়ন’ বিষয়ক এক পরামর্শক কর্মশালায় একথা বলেন ।
 
তিনি আরো বলেন, এখানে কিছু সমস্যাও রয়েছে। শত শত বছর ধরে এখানকার মানুষজন পাসপোর্ট, ভিসা ছাড়াই যাতায়াত করেছে, ব্যবসা করেছে। কিন্তু এখন রাজস্ব, নিরাপত্তা ও অন্যান্য কারণে এখানে কড়াকড়ি করা হয়েছে। 
 
মন্ত্রী এ অঞ্চলে ব্যবসা-বাণিজ্য সহজতর করার জন্য প্রতিবেশী দেশগুলোর ইতিবাচক চিন্তা-ভাবনা করা দরকার বলে মনে করেন।
 
কর্মশালায় প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান, এসডিজির মুখ্য সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ, এডিবির কান্ট্রি ডিরেক্টর মনমোহন প্রকাশ, বিডার নির্বাহী চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলামসহ সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।
 
#
শাহেদ/নাইচ/মোশারফ/আব্বাস/২০১৯/২০৪১ ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                   নম্বর : ৩৪২৩
 
বিশ্বে শান্তি প্রতিষ্ঠায় মুসলমানদের ঐক্য স্থাপন জরুরি
          --- ধর্ম প্রতিমন্ত্রী
 
ঢাকা, ২৪ ভাদ্র (৮ সেপ্টেম্বর) :
বিশ্বে শান্তি প্রতিষ্ঠায় মুসলমানদের ঐক্য প্রতিষ্ঠা জরুরি বলে মন্তব্য করেছেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী আলহাজ এডভোকেট শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ। তিনি বলেন, সৌদি আরব ও বাংলাদেশের সম্পর্ক অতীতের যে কোনো সময়ের তুলনায় এখন অনেক সুদৃৃঢ় এবং সৌহার্দ্যপূর্ণ। 
প্রতিমন্ত্রী আজ সকালে জেদ্দা কিং আব্দুল আজিজ আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে সৌদি আরবের ধর্ম, দাওয়া ও গাইডেন্স বিষয়ক মন্ত্রী ডক্টর আব্দুল লতিফ বিন আব্দুল আজিজ আল শেখের সাথে বৈঠকে এ মন্তব্য করেন। 
এ সময় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কূটনৈতিক, রাজনৈতিক ও উন্নয়নে বিচক্ষণ নেতৃত্বর প্রশংসা করেন সৌদি মন্ত্রী। সৌদি সরকারের আমন্ত্রণে ‘কিং আব্দুল আজিজ ইন্টারন্যাশনাল কোরান মেমোরাইজেশন কন্টেস্টে’ সন্মানিত অতিথি হিসেবে অংশ নিতে ৬ দিনের সফরে আজ সকালে সৌদি আরব পৌঁছান ধর্ম প্রতিমন্ত্রী। 
পবিত্র মক্কা শরীফের মসজিদুল হারামে ৭-১১ সেপ্টেম্বর, আন্তর্জাতিক এ কোরান মেমোরাইজেশন কন্টেস্টের ৪১তম অধিবেশন চলছে। বাংলাদেশ-সহ বিশ্বের প্রায় ১৫০টি দেশের প্রতিযোগী এ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করছে।
#
 
আনোয়ার/ফারহানা/রফিকুল/জয়নুল/২০১৯/২০০০ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                                                       নম্বর : ৩৪২২ 

গণতন্ত্রকে শক্তিশালী করতে প্রয়োজন শক্তিশালী বিরোধী দল

                               

ঢাকা, ২৪ ভাদ্র (৮ সেপ্টেম্বর) :

‘গণতন্ত্রকে শক্তিশালী করার জন্য শক্তিশালী বিরোধী দল প্রয়োজন’, বলেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহ্‌মুদ।

আজ ঢাকায় শহীদ মনসুর আলী হ্যান্ডবল স্টেডিয়ামে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি-ডিআরইউ আয়োজিত ‘মিডিয়া ফুটবল টুর্নামেন্ট ২০১৯’ এর সমাপনী অনুষ্ঠান শেষে জাতীয় পার্টির অবস্থা নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী একথা বলেন। 

ড. হাছান বলেন, ‘আমরা চাই সব বিরোধী দল শক্তিশালী হোক। বিরোধী দল যদি ক্ষয়প্রাপ্ত হয়, গণতন্ত্র কিন্তু ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এজন্য আমরা চাই, শুধু জাতীয় পার্টি নয়, বিএনপি-সহ সব বিরোধী দল শক্তিশালী থাকুক। গত কয়েকদিন ধরে আমরা জাতীয় পার্টির মধ্যে প্রচণ্ড অস্থিরতা দেখেছি। কিন্তু আজকে দেখতে পেলাম তাদের মধ্যে ঐক্য হয়েছে। আমি মনেকরি এটি গণতন্ত্রের জন্য একটি শুভ সংবাদ।’ 

ফুটবল টুর্নামেন্ট আয়োজনের জন্য ডিআরইউ’কে ধন্যবাদ জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘প্রকৃতপক্ষে তরুণ ও যুব সমাজকে মাদকাসক্তি, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের প্রতি আসক্তি এবং জঙ্গিবাদ থেকে মুক্ত রাখতে হলে খেলাধুলা ও সংস্কৃতির চর্চা করতে হবে।’ 

মন্ত্রী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা অত্যন্ত ক্রীড়ামোদী একজন মানুষ। তিনি সবসময় খেলাধুলাকে উৎসাহ দিয়েছেন। তার হাত ধরেই বাংলাদেশ বিশ্ব ক্রিকেটে টেস্ট স্ট্যাটাস পেয়েছে। তাঁর হাত ধরেই বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট  দল চ্যাম্পিয়ন হয়ে বিশ্বকাপে মূল পর্বে খেলা নিশ্চিত করেছে।

এ সময় হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর ১২৭তম জন্মবার্ষিকী স্মরণে তিনি বলেন, ‘আজ গণতন্ত্রের মানসপুত্র হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর ১২৭তম জন্মবার্ষিকী। এই মহান নেতার জন্মদিনে আমার কামনা থাকবে, রাজনীতির নামে অপরাজনীতি বন্ধ হওয়া। রাজনীতির নামে জঙ্গি-সন্ত্রাস-আশ্রয়ী ও মিথ্যাচারের যে অপরাজনীতি, সেটি চিরদিনের জন্য বাংলাদেশে বন্ধ হবে। রাজনীতি যে ব্রত এটি অনেক রাজনীতিবিদ ভুলে গেছেন। এসব পরিহার করে জনগণের জন্য রাজনীতি করতে হবে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী সারাজীবন দেশের জন্য সংগ্রাম করেছেন। পাকিস্তান সৃষ্টির পর ১৯৫৬ সাল পর্যন্ত কোনো সংবিধান ছিল না। আওয়ামী লীগ পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় সরকার গঠন করার পর হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী  নেতৃত্বে পাকিস্তানে প্রথম সংবিধান তৈরি হয়। ১৯৪৯ সালে মাওলানা ভাসানীর নেতৃত্বে পূর্ব পাকিস্তানে মুসলিম আওয়ামী লীগ গঠিত হয়। এরপর আওয়ামী মুসলিম লীগ গঠিত হয়, এরপর ১৯৪৯ সালে হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ গঠিত হয়। আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি হচ্ছেন হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী।’ 

বিএনপি আহুত মানববন্ধন সম্পর্কে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ড. হাছান বলেন, ‘মির্জা ফখরুল সাহেবরা মানববন্ধন করবেন, এটা ভালো। মানববন্ধন তারা করতেই পারে। তবে মানববন্ধন যেন অতীতের মতো জ্বালাও-পোড়াওয়ে রূপান্তরিত না হয়, সেটি তাদেরকে খেয়াল রাখতে হবে। আর সেটিই যদি হয়, দেশের মানুষ যেমন অতীতে তাদের প্রতিহত করেছে, এখনও তাই করবে।’ 

ডিআরইউ সভাপতি ইলিয়াস হোসেনের সভাপতিত্বে টুর্নামেন্ট পৃষ্ঠপোষক ওয়ালটন গ্রুপের ক্রীড়া বিভাগের নির্বাহী পরিচালক এফ এম ইকবাল বিন আনোয়ার ডন বিশেষ অতিথি হিসেবে এবং ডিআরইউ সাধারণ সম্পাদক কবির আহমেদ খান স্বাগত বক্তা হিসেবে অনুষ্ঠানে অংশ নেন। সিক্স-এ-সাইড ফুটবল টুর্নামেন্টে অংশ নেয়া ৪০টি দলের মধ্যে আরটিভি দল টাইব্রেকারে চ্যানেল ২৪-কে হারিয়ে শিরোপা জিতে নেয়। তথ্যমন্ত্রী চ্যাম্পিয়ন ও রানার্স আপ দল ও রেফারিদের হাতে পদক তুলে দেন।

#

আকরাম/ফারহানা/রফিকুল/আব্বাস/২০১৯/১৯০৮ ঘণ্টাতথ্যবিবরণী                                                                                                           নম্বর : ৩৪২১

 

সাইবার হামলা থেকে রক্ষা পেতে সচেতনতা ও সক্ষমতা তৈরির বিকল্প নেই

                                                                                        ---আইসিটি প্রতিমন্ত্রী      

ঢাকা, ২৪ ভাদ্র (৮ সেপ্টেম্বর) :

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক বলেছেন, সাইবার হামলা থেকে রক্ষা পেতে সচেতনতা ও সক্ষমতা তৈরির কোনো বিকল্প নেই। তিনি বলেন, এ ধরনের সক্ষমতা অর্জনে সরকারি-বেসরকারি খাত, ইন্ডাস্ট্রি এবং একাডেমিকে এক সাথে কাজ করতে হবে। পাশাপাশি ভৌত অবকাঠামো নির্মাণ করতে হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।   

 

আজ আগারগাঁওস্থ আইসিটি টাওয়ারের বিসিসি মিলনায়তনে আইসিটি বিভাগের আওতাধীন ডিজিটাল সিকিউরিটি এজেন্সি (ডিএসএ) এবং এটুআই  উদ্যোগে ‘সরকারি কর্মকর্তাদের সচেতনতা বৃদ্ধিতে অনলাইন প্রশিক্ষণ’ কোর্সের উদ্বোধন উপলক্ষে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

 

সরকারি কর্মকর্তারা এখনো দাপ্তরিক কাজে শতভাগ অফিসিয়াল ই-মেইল ঠিকানা ব্যবহার করছেন না উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন,  বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি) থেকে সকল কর্মকর্তাকে একটি সরকারি ই-মেইল এড্রেস দেওয়া হয়, যার শেষে ডট গভ ডট বিডি রয়েছে। সরকারি কর্মকর্তাদের জন্য সরকার প্রদত্ত ইমেইল ব্যবহার বিষয়ে আইন তৈরি করা হচ্ছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন। সরকার ইতোমধ্যে একটি ‘ই-মেইল পলিসি’ তৈরি করেছে যা চূড়ান্ত অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে বলে প্রতিমন্ত্রী জানান।  

 

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ।  তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব এনএম জিয়াউল আলমের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বক্তৃতা করেন ডিজিটাল সিকিউরিটি এজেন্সি এর মহাপরিচালক রাশেদুল ইসলাম, এটুআই এর পলিসি অ্যাডভাইজর আনীর চৌধুরী, ডিএসএ এর পরিচালক তারেক বরকত উল্লাহ, ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার এসোসিয়েশন অভ্ বাংলাদেশ এর সভাপতি এম এ হাকিম।

 

পরে প্রতিমন্ত্রী অনলাইন প্ল্যাটফর্ম মুক্তপাঠের ‘ডিজিটাল নিরাপত্তা’ বিষয়ক অনলাইন কোর্সের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

#

শহিদুল/ফারহানা/সঞ্জীব/আব্বাস/২০১৯/১৯১০ ঘণ্টা

 তথ্যবিবরণী                                                                                                             নম্বর : ৩৪২০

 
একক ব্যক্তির কোম্পানি গঠনের সুযোগ রেখে সংশোধন হচ্ছে কোম্পানি আইন
 
ঢাকা, ২৪ ভাদ্র (৮ সেপ্টেম্বর) : 
কোনো একক ব্যক্তির কোম্পানি গঠনের সুযোগ রেখে ১৯৯৪ সালের কোম্পানি আইন সংশোধন করতে যাচ্ছে সরকার। এজন্য বিদ্যমান আইনে ‘এক ব্যক্তি কোম্পানি’ নামে নতুন ধারা যুক্ত করা হচ্ছে। আইনের সংজ্ঞায় বলা হয়েছে ‘এক ব্যক্তি কোম্পানি’ বলতে এমন একটি প্রাইভেট কোম্পানিকে বুঝাবে যেখানে একজন মাত্র প্রাকৃতিক সত্তাবিশিষ্ট ব্যক্তি এই কোম্পানির শেয়ার হোল্ডার হবেন।
আইনটি সংশোধনের বিষয়ে আজ আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ে স্টেক হোল্ডারদের সঙ্গে এক পরামর্শ সভার আয়োজন করা হয়। আইনমন্ত্রী আনিসুল হকের সভাপতিত্বে সভায় অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল, প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান, বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও সাবেক বাণিজ্য মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সিনিয়র সচিব মো আসাদুল ইসলাম-সহ সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয় এবং সরকারি-বেসরকারি আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহের প্রতিনিধিগণ অংশ নেন।
উল্লেখ্য একক ব্যক্তির কোম্পানি গঠনের সুযোগ ছাড়াও দেশে বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টির মাধ্যমে দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ আকৃষ্ট করা, ব্যবসা ও বিনিয়োগ সহজ করা, কোম্পানির সাধারণ পাওনাদার ও সংখ্যালঘু শেয়ারহোল্ডারদের স্বার্থ সংরক্ষণকে গুরুত্ব দিয়ে আইনটি সংশোধন করা হচ্ছে।
 
#
 
রেজাউল/ফারহানা/রফিকুল/জয়নুল/২০১৯/১৮২০ঘণ্টা 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                           নম্বর : ৩৪১৯

 

প্রতিটি উপজেলায় যুব প্রশিক্ষণ কেন্দ্র নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে

 ---যু্ব ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা, ২৪ ভাদ্র (৮ সেপ্টেম্বর) :

যু্ব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল বলেছেন, তরুণদের কর্মসংস্হানের লক্ষ্যে প্রতিটি উপজেলায় যুব প্রশিক্ষণ কেন্দ্র নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।  এ কেন্দ্রে যুবকদের সুস্থ বিনোদনের  জন্য যুব বিনোদন কেন্দ্র থাকবে। যুব গবেষণা কেন্দ্রের মাধ্যমে তরুণদের উন্নয়নের স্রোতধারায় সম্পৃক্ত করা হবে।

আজ রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে ইয়েস বিডি ও ইয়ুথ ফর চেঞ্জ বাংলাদেশ আয়োজিত যুবদের নেতৃত্বে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা শীর্ষক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্ততায় প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।  

ইতোমধ্যে প্রায় ৫৫ লাখ যুবককে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে বলে প্রতিমন্ত্রী জানান।  তন্মধ্যে প্রায় ২২ লাখ যুবক আত্ম-কর্মসংস্হানে নিয়োজিত হয়েছে। যুবকদের মাদকমুক্ত ও জঙ্গিবাদমুক্ত রাখতে সুস্থ বিনোদন চর্চা করতে প্রতিটি উপজেলায় স্টেডিয়াম নির্মাণ করা হচ্ছে। প্রতিটি জেলায় ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচি চালু করা হয়েছে।  

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্ল্যান ইন্টারন্যাশনালের ডেপুটি কান্ট্রি ডিরেক্টর লরা ক্রাডিয়া এবং মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রকল্প পরিচালক ড. আবুল হোসেন।

#

আরিফ/ফারহানা/সঞ্জীব/আব্বাস/২০১৯/১৭৪৭ ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                                                                    নম্বর : ৩৪১৮
 
পাটখাতের সমস্যা সমাধানে সরকার সচেষ্ট রয়েছে
        --- বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী
 
ঢাকা, ২৪ ভাদ্র (৮ সেপ্টেম্বর) : 
বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী, বীরপ্রতীক বলেছেন, পাটখাতের সমস্যা সমাধানে সরকার সচেষ্ট রয়েছে। দেশীয় সংস্কৃতি ধারণ ও পরিবেশবান্ধব পাটজাত সামগ্রীর ব্যবহার বৃদ্ধি করার মাধ্যমে পাটের সোনালি সুদিন ফিরিয়ে এনেছে সরকার। ‘পণ্যে পাটজাত মোড়কের বাধ্যতামূলক ব্যবহার আইন-২০১০’ শতভাগ ও সুষ্ঠু বাস্তবায়ন করা হয়েছে। সরকার দেশের অভ্যন্তরে ১৯টি পণ্য মোড়কীকরণের ক্ষেত্রে পাটের ব্যাগ ব্যবহার বাধ্যতামূলক করেছে। 
মন্ত্রী আজ বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে বাংলাদেশ জুট অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যদের সাথে বৈঠক কালে এসব কথা বলেন। 
মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে পাটকে বিশ্ব বাজারে তুলে ধরতে জুট ডাইভারসিফিকেশন প্রমোশন সেন্টার (জেডিপিসি) এ ২৮০ প্রকার পাটপণ্যের স্থায়ী প্রদর্শনী ও বিক্রয় কেন্দ্র চালু হয়েছে। পরিবেশবান্ধব পাটের ব্যবহার বহুমুখীকরণ ও উচ্চমূল্য সংযোজিত পাটপণ্য উৎপাদন, বাজারজাতকরণ ও ব্যবহার বৃদ্ধির লক্ষ্যে পাট কাঠি থেকে চারকোল, পাটপাতার পানীয়-সহ নতুন নতুন বহুমুখী পাটপণ্য উৎপাদন ও বাজারজাতকরণে জোর পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।
বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব মোঃ খুরশীদ ইকবার রেজভী, বাংলাদেশ জুট অ্যাসোসিয়েশন (বিজেএ) এর সভাপতি শেখ সৈয়দ আলী, সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যন আরজু রহমান ভূইয়া, বিজেএ’র সাবেক সভাপতি মোঃ রেজাউল করিম-সহ বাংলাদেশ জুট অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিনিধিগণ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।
#
 
সৈকত/ফারহানা/রফিকুল/জয়নুল/২০১৯/১৮০০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                   নম্বর : ৩৪১৭

দেশের ডেঙ্গু পরিস্থিতি

ঢাকা, ২৪ ভাদ্র (৮ সেপ্টেম্বর) :  

          স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের তথ্য অনুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে নতুন ৭৬১ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। সেপ্টেম্বর মাসের শুরু থেকেই হাসপাতালগুলোতে নতুন ডেঙ্গুরোগী ভর্তির সংখ্যা লক্ষ্যণীয়ভাবে কমে এসেছে।

          প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী গত জানুয়ারি থেকে আজ পর্যন্ত ডেঙ্গু রোগের চিকিৎসা শেষে ছাড়পত্র নিয়ে চলে গেছেন ৭৩ হাজার ৯১ জন। বর্তমানে সারা দেশের হাসপাতালগুলোতে ডেঙ্গুরোগে আক্রান্ত ভর্তিকৃত রোগী আছেন ৩ হাজার ২২৬ জন। এ যাবত ৬০ জনের মৃত্যু ডেঙ্গুজনিত বলে নিশ্চিত করা হয়েছে। 

#

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর/অনসূয়া/জসীম/রেজাউল/২০১৯/১৬৪৮ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                       নম্বর : ৩৪১৬   

অভ্যন্তরীণ নৌ-রুটে পণ্যবাহী জাহাজ ভাড়ার প্রথম অ্যাপ ‘জাহাজী’ চালু

ঢাকা, ২৪ ভাদ্র (৮ সেপ্টেম্বর) :    

দেশে চালু হলো অভ্যন্তরীণ নৌ-রুটে পণ্যবাহী জাহাজ ভাড়ার প্রথম অ্যাপ ‘জাহাজী’। নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহ্‌মুদ চৌধুরী আজ  ঢাকায় জাতীয় প্রেসক্লাবে এর উদ্বোধন করেন। 

উদ্বোধনকালে প্রতিমন্ত্রী বলেন, নৌসেক্টরের সাথে জড়িত বিশাল জনগোষ্ঠীকে ভোগান্তির হাত থেকে মুক্তি দিতে ‘জাহাজী’ অ্যাপ সহায়ক ভূমিকা পালন করবে। এই বিশাল সেক্টরের উন্নয়নে সরকার আরো নতুন নতুন পদক্ষেপ নিবে । প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে পজিটিভ ধারা সৃষ্টি করেছেন। এই ধরনের অ্যাপ এই ইতিবাচক ধারারই বহিঃপ্রকাশ। ‘জাহাজী’ অ্যাপ এর মতো শত শত উদ্যোক্তাদের সরকার এগিয়ে নিয়ে যাবে।

 ‘জাহাজী’ অ্যাপের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কাজল আব্দুল্লাহ’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ কার্গো ভেসেল ওনার্স অ্যাসোসিয়েশেনের সাবেক সভাপতি মাহবুব উদ্দিন আহমদ বীর বিক্রম, প্রযুক্তি পরামর্শক ও রাজনীতিবিদ নাঈমুজ্জামান মুক্তা, ‘জাহাজী’ অ্যাপের চেয়ারম্যান শেখ বাহাউদ্দিন রুপক এবং অভিনন্দন জোয়ার্দার।

‘জাহাজী’ অ্যাপের মাধ্যমে লাইটার জাহাজের মালিক, সাপ্লায়ার, ক্যারিয়ার, এজেন্ট এবং ব্রোকাররা ঘরে বসেই জাহাজ বুকিং দেওয়ার পাশাপাশি তার অবস্থান সম্পর্কে নিশ্চিত হতে পারবেন। পাশাপাশি চলন্ত জাহাজ থেকে পণ্যের মূল্য এবং মান যাচাই করে বালু, পাথরের মতো পণ্য কিনতে পারবেন। লাইটার জাহাজের জন্য এ সেবা বিশ্বের আর কোথাও নেই। নৌপরিবহন খাতে সুষ্ঠু বাণিজ্যের জন্য এ ধরনের অ্যাপ নির্ভরযোগ্য প্ল্যাটফর্ম হিসেবে ভূমিকা রাখবে যেখান থেকে ভেরিফায়েড তথ্য পাওয়া যাবে।

অ্যাপটি আপাতত গুগল প্লে স্টোরে পাওয়া গেলেও উদ্যোক্তারা বলছেন, শিগগিরই এর আইফোন ভার্সনও চলে আসবে।

#

জাহাঙ্গীর/অনসূয়া/পরীক্ষিৎ/আসমা/২০১৯/১৬২০ ঘণ্টা 

 
তথ্যবিবরণী                           নম্বর :  ৩৪১৩
শিল্পমন্ত্রীর সাথে জেট্রো’র প্রেসিডেন্টের সাক্ষাৎ
অটোমোবাইলখাতে জাপানি উদ্যোক্তাদের প্রতি যৌথ বিনিয়োগের পরামর্শ
ঢাকা, ২৪ ভাদ্র (৮ সেপ্টেম্বর) :
বাংলাদেশের অটোমোবাইল শিল্পখাতে জাপানি উদ্যোক্তাদেরকে যৌথ বিনিয়োগের পরামর্শ দিয়েছেন শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন। তিনি বলেন, জাপানের উদ্যোক্তারা ইতোমধ্যে শিল্প মন্ত্রণালয়ের সাথে যৌথভাবে মোটরসাইকেল, সারসহ বিভিন্নখাতে বিনিয়োগ করেছে। 
জাপান এক্সটার্নাল ট্রেড অর্গানাইজেশন (ঔঊঞজঙ) প্রেসিডেন্ট ইয়াসুচি আকাহুসি (ণধংঁংযর অশধযড়ংযর) আজ শিল্পমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎ করতে এলে তিনি এ কথা বলেন। শিল্প মন্ত্রণালয়ে এ সাক্ষাতকার অনুষ্ঠিত হয়। 
এ সময় শিল্প মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব বেগম পরাগ, জেট্রোর বাংলাদেশ প্রতিনিধি ওজি আন্দো
 (ণঁলর অহফড়) সহ শিল্প মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
 সাক্ষাতকালে বাংলাদেশ ও জাপানের মধ্যে শিল্পখাতে দ্বিপাক্ষিক বিনিয়োগ ও সহায়তার বিষয়ে আলোচনা হয়। 
শিল্পমন্ত্রী জাপানের সাথে বাংলাদেশের ঐতিহাসিক বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের কথা তুলে ধরে বলেন, বঙ্গবন্ধুর জাপান সফরের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ-জাপান দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক সুদৃঢ় হয়েছিল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাম্প্রতিক জাপান সফর এ সম্পর্ককে নতুন উচ্চতায় নিয়ে গেছে। গুণগতমানের কারণে জাপানি পণ্যের প্রতি বাংলাদেশের জনগণের আস্থা রয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, জাপানি উদ্যোক্তারা বাংলাদেশের অটোমোবাইল, জ্বালানি, মোটরসাইকেল, ম্যানুফ্যাকচারিং ও এসএমইখাতে বিনিয়োগে এগিয়ে আসতে পারে। 
নূরুল মজিদ মাহমুদ অটোমোবাইলখাতে ভেন্ডর ডেভেলপমেন্টের জন্য জাপানি উদ্যোক্তাদের বিনিয়োগের পরামর্শ দেন। জাপানের উদ্যোক্তাদের চাহিদা অনুযায়ী বাংলাদেশ থেকে দক্ষ জনবল আমদানি করতে জেট্রোর প্রেসিডেন্টের দৃষ্টি আকর্ষণ করে জাপানি কারিগরি সহায়তায় বাংলাদেশে একটি স্কিল ডেভেলপমেন্ট ইন্সটিটিউট স্থাপনের তাগিদ দেন শিল্পমন্ত্রী। 
জেট্রো প্রেসিডেন্ট বাংলাদেশের সাম্প্রতিক আর্থ-সামাজিক অগ্রগতির প্রশংসা করে বলেন, জাপান শুরু থেকেই বাংলাদেশের সাথে অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে কাজ করছে। জাপানি কোম্পানিগুলো দীর্ঘদিন ধরে এদেশে সুনামের সাথে কনজ্যুমার প্রোডাক্টস্ বাজারজাত করে আসছে। এদেশের শিল্পখাতে জাপানি উদ্যোক্তারা বিনিয়োগ বাড়াতে আগ্রহী বলে তিনি উল্লেখ করেন। তিনি বাংলাদেশে জাপানি বিনিয়োগের ক্ষেত্র প্রসারে সরকারের সহায়তা কামনা করেন। এ বিনিয়োগ সম্প্রসারণে বর্তমান সরকারের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে বলে মন্ত্রী এসময় আশ্বাস প্রদান করেন।  
#
জলিল/অনসূয়া/পরীক্ষিৎ/কুতুব/২০১৯/১৬২৬ ঘণ্টা 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                       নম্বর : ৩৪১৪  

গত দশ বছরে সাক্ষরতা ২১ শতাংশ বেড়েছে

           - প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা, ২৪ ভাদ্র (৮ সেপ্টেম্বর) :    

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাকির হোসেন বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকারের নিরলস প্রচেষ্টায় গত দশ বছরে দেশে  সাক্ষরতার হার  ২১ শতাংশ বেড়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় সরকার ১৫ বছরের ঊর্ধ্বে ৫০ লাখ নিরক্ষরকে মৌলিক সাক্ষরতা প্রদানের পাশাপাশি নতুন সাক্ষরতা অর্জনকারী ১৫-৪৫ বছর বয়সী ৫ লাখ যুবক ও বয়স্ক ব্যক্তিকে দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণ প্রদান করেছে।  বর্তমানে ২৫০টি উপজেলার ১৫ থেকে ৪৫ বছর বয়সী ৪৫ লাখ নিরক্ষরকে সাক্ষরতা প্রদান করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে শিখন কেন্দ্রের মাধ্যমে ১৩৪ টি উপজেলায়  ২৩ লাখ ৫৯ হাজার ৪৪১ জন নিরক্ষরকে সাক্ষরতা প্রদান করা হয়েছে।      

আজ রাজধানীর সেগুনবাগিচায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবসের উদ্বোধন উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ আকরাম-আল-হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরোর মহাপরিচালক তপন কুমার ঘোষ বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে ইউনেস্কোর মহাপরিচালক Audrey Azoulay এর লিখিত বক্তব্য পাঠ করে শোনানো হয়।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা এমডিজি বাস্তবায়ন করেছি। এখন 'টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট (এসডিজি)' এবং জাতীয় অঙ্গীকারের সকল লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের জন্য  ৭ম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা প্রণয়ন করা হয়েছে। এ লক্ষ্য বাস্তবায়নে সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। দেশে প্রাথমিকভাবে ৫০০টি আইসিটি বেইজড স্থায়ী কমিউনিটি লার্নিং সেন্টার ও ৬৪ জেলায় ৬৪ টি জীবিকায়ন দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষন কেন্দ্র স্থাপন করা হবে।  তিনি বলেন,  উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা  বোর্ডের মাধ্যমে  উপানুষ্ঠানিক শিক্ষার সাথে জড়িত সারাদেশের সরকারি বেসরকারি সকল প্রতিষ্ঠান ও শিক্ষার্থীদের  নিবন্ধন , শিক্ষকদের যোগ্যতা ও দক্ষতা নিরূপণ,  প্রশ্নপত্র প্রণয়ন, পরীক্ষা গ্রহণ ও সনদ প্রদান করা হবে।

জাকির হোসেন বলেন, বিভিন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত তৎকালীন আওয়ামী লীগ সরকারের সময় প্রায় ১ কোটি ৮০ লক্ষ নিরক্ষরকে অক্ষর জ্ঞান প্রদান করা হয়। সাক্ষরতা বিস্তারে এ বিশাল অর্জনের জন্য বাংলাদেশ ইউনেস্কো কর্তৃক ‘আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা পুরস্কার ১৯৯৮’ লাভ করে। ‘সবার জন্য শিক্ষা’ এবং ‘সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রাসমূহ’ অর্জনে সাফল্যের জন্য ২০১৪ সালে ইউনেস্কো প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ‘শান্তিবৃক্ষ’ পদক প্রদান করে। 

এর আগে প্রতিমন্ত্রী জাতীয় প্রেসক্লাব থেকে শিল্পকলা একাডেমি পর্যন্ত আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবসের র‌্যালিতে নেত্বত্ব দেন।

#

রবীন্দ্র/অনসূয়া/পরীক্ষিৎ/আসমা/২০১৯/১৫৫০ ঘণ্টা   

তথ্যবিবরণী                                                                                                       নম্বর : ৩৪১২  

‘সত্যের স্পর্ধিত উচ্চারণ’ গ্রন্থটি অসাধারণ সৃষ্টি

                                   - স্পিকার

ঢাকা, ২৪ ভাদ্র (৮ সেপ্টেম্বর) :    

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, ‘সত্যের স্পর্ধিত উচ্চারণ’ গ্রন্থটি অসাধারণ সৃষ্টি। গ্রন্থটি জাতীয় সংসদে মঈন উদ্দীন খান বাদল এমপি’র বক্তব্যের সংকলন। জনগণের নিকট দেওয়া প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের জন্য তাঁর বক্তব্য অত্যন্ত নিপুণ, দরদ, ভালবাসা ও আবেগে ভরপুর বলে স্পিকার উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, এ গ্রন্থটি সংসদীয় গণতন্ত্র শক্তিশালী ও বিকাশে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

আজ জাতীয় সংসদের পার্লামেন্ট মেম্বার্স ক্লাবে মঈন উদ্দীন খান বাদল রচিত ‘সত্যের স্পর্ধিত উচ্চারণ’ গ্রন্থের প্রকাশনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতাকালে এসব কথা বলেন।

স্পিকার বলেন, মুক্তিযোদ্ধারা জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান। বীর মুক্তিযোদ্ধা মঈন উদ্দীন খান বাদল দেশ, জনগণ ও মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণে সব সময় সরব থেকেছেন সংসদ কার্যক্রমে। অত্যন্ত সাহসিকতা ও দক্ষতার সাথে তিনি জনগণের পক্ষে বক্তব্য রেখে চলেছেন সংসদে। জাতীয় সংসদে তাঁর বক্তব্য সংবলিত পুস্তিকা ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য উদাহরণ হয়ে থাকবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

পরে স্পিকার গ্রন্থটির মোড়ক উন্মোচন করেন।

#

তারিক/অনসূয়া/জসীম/রেজ্জাকুল/আসমা/২০১৯/১৫৪৫ ঘণ্টা  

তথ্যবিবরণী                                                                                                       নম্বর : ৩৪১১  

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩য় বর্ষ ডিগ্রী পাস ও সার্টিফিকেট পরীক্ষার সময় পরিবর্তন

ঢাকা, ২৪ ভাদ্র (৮ সেপ্টেম্বর) :    

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ থেকে অনুষ্ঠিতব্য ২০১৮ সালের ডিগ্রী পাস ও সার্টিফিকেট কোর্স ৩য় বর্ষ পরীক্ষা অনিবার্য কারণে দুপুর ১ টার পরিবর্তে প্রতিদিন দুপুর ২ টায় শুরু হবে।

এ পরীক্ষার প্রকাশিত সময়সূচির অন্যান্য বিষয়সমূহ অপরিবর্তিত থাকবে।

প্রিলিমিনারি টু মাস্টার্স ভর্তির রিলিজ স্লিপের মেধা তালিকা ১২ সেপ্টেম্বর প্রকাশ

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষে প্রিলিমিনারি টু মাস্টার্স (নিয়মিত) ভর্তি কার্যক্রমে রিলিজ স্লিপের মেধা তালিকা আগামী ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ তারিখে প্রকাশ করা হবে। SMS এর মাধ্যমে বিকেল ৪ টা থেকে যেকোন মোবাইলের মেসেজ অপশনে গিয়ে- nu<space>atmp<space>roll no লিখে ১৬২২২ নম্বরে মেসেজ Send করলে ফল জানা যাবে এবং রাত ৯ টায় ভর্তি বিষয়ক ওয়েবসাইট www.nu.ac.bd/admissions থেকে ফল পাওয়া যাবে।

#

ফয়জুল/অনসূয়া/জসীম/আসমা/২০১৯/১৫০০ ঘণ্টা  

তথ্যবিবরণী                                                                                                       &

Todays handout (17).docx Todays handout (17).docx

Share with :

Facebook Facebook