তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৮ জুলাই ২০১৯

তথ্যবিবরণী - 8/7/2019

তথ্যবিবরণী                                                                                                নম্বর : ২৪৭০
 
বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস পালন উপলক্ষে কর্মসূচি
 
 
ঢাকা, ২৪ আষাঢ় (৮ জুলাই) :
বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশে আগামী ১১ জুলাই বৃহস্পতিবার ‘বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস’ পালিত হতে যাচ্ছে। এ বছর দিবসের প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করা হয়েছে ‘২৫ ণবধৎং ড়ভ ঃযব ওঈচউ : অপপবষবৎধঃরহম ঃযব চৎড়সরংব’ যার বাংলা ভাবানুবাদ করা হয়েছে ‘জনসংখ্যা ও উন্নয়নে আন্তর্জাতিক সম্মেলনের ২৫ বছর : প্রতিশ্রুতির দ্রুত বাস্তবায়ন’। 
দিবসটি উপলক্ষে আগামী ১১ জুলাই সকাল ৯ টায় জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজা থেকে একটি র‌্যালি শুরু হয়ে ফার্মগেটে কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনে গিয়ে শেষ হবে। র‌্যালি শেষে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবসের জাতীয় পর্যায়ের উদ্বোধন অনুষ্ঠান কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে সকাল ১০টায় অনুষ্ঠিত হবে। স¦াস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন ও পুরস্কার বিতরণ করবেন মর্মে সম্মতি জ্ঞাপন করেছেন।
বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস উপলক্ষে জাতীয় পর্যায়ে দেশের সকল বিভাগ, জেলা এবং উপজেলা পর্যায়ে বিভিন্ন কর্মসূচি - প্রেস ব্রিফিং, র‌্যালি, উদ্বোধন অনুষ্ঠান, আলোচনা সভা, স¥রণিকা প্রকাশ, জাতীয় দৈনিকে ক্রোড়পত্র প্রকাশ, পরিবার পরিকল্পনা সেবা প্রদানকারীদের মধ্য থেকে শ্রেষ্ঠ কর্মী/প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কার প্রদান, পরিবার পরিকল্পনা মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড প্রদান, টেলিভিশন চ্যানেলে টক শো আয়োজন, বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক, সড়ক দ্বীপ ও ফুটওভার ব্রিজ সজ্জিতকরণ ইত্যাদি পালন করা হবে।
#
 
আহসানুল/মাহমুদ/ফারহানা/মোশারফ/জয়নুল/২০১৯/২১১০ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                    নম্বর : ২৪৬৯ 
  বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক বিশ্বে অনুসরণীয়
                    ---মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী
 
 
ঢাকা, ২৪ আষাঢ় (৮ জুলাই) :   
 
মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, বাংলাদেশ ও ভারতের সম্পর্ক  আন্তর্জাতিক সম্পর্কের ইতিহাসে অনন্য। প্রতিবেশী এ দু’টি দেশের সম্পর্ক ঐতিহাসিক, সাংস্কৃতিক, ভৌগোলিক ও পারস্পরিক বন্ধুত্ব ও ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে আবদ্ধ। একাত্তরের স্বাধীনতা যুদ্ধে ভারতের অবদান বাংলাদেশ কৃতজ্ঞতার সাথে স্মরণ করে।
 
আজ পরিবহন পুল ভবনস্থ নিজ অফিসকক্ষে ভারতের হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলীর সাথে সাক্ষাৎকালে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। 
 
 
ভারত সরকারের সহযোগিতার স্মৃতি রক্ষায় বাংলাদেশ সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগের উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর মিত্র বাহিনীর দেশে ফিরিয়ে নেওয়ার ঘোষণার স্থান এবং যৌথবাহিনীর কাছে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর আত্মসমর্পণের স্থান সংরক্ষণের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। মন্ত্রী জানান, মুক্তিযুদ্ধে অসামান্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ভারতীয় সেনাবাহিনীর সদস্যদের সম্মাননা জানানোর জন্য ১৫৯৫টি ক্রেস্ট সংরক্ষিত আছে। ভারত সরকার দ্রুততম সময়ে আনুষ্ঠানিকভাবে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গকে এ সম্মাননা প্রদানের সুযোগ করে দেবে মর্মে মন্ত্রী আশাবাদ ব্যক্ত করেন। 
 
মন্ত্রী বলেন, কিছু দ্বিপাক্ষিক সমস্যা থাকলেও দু’দেশের সম্পর্ক বর্তমানে উল্লেখযোগ্য। দ্বিপাক্ষিক সমস্যাগুলো সমাধানে ভারত সরকার আন্তরিক হবে বলে মন্ত্রী আশা প্রকাশ করেন। ভারত সরকার প্রদত্ত মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তান ও নাতি-নাতনীদের শিক্ষা বৃত্তি প্রদানের সংখ্যা বাড়ানোর জন্য তিনি ভারত সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। 
 
এ সময় মহান মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ করে ভারতীয় হাইকমিশনার বলেন, সে সময় বিশ্বের পরম প্রতিকূলতার মধ্যেও একমাত্র ভারতের প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী ব্যক্তিগত দৃঢ়তায় বাংলাদেশের স্বাধীনতার পক্ষে দাঁড়িয়েছিলন। ভারতীয় হাইকমিশনার বলেন, দক্ষিণ এশিয়ায় শান্তির পরিবেশ বজায় রাখার পেছনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অবদান প্রশংসনীয়। ভারত-বাংলাদেশ কূটনৈতিক সম্পর্কের সুবর্ণজয়ন্তী বর্ণাঢ্যভাবে উদ্যাপনের প্রস্তাব দিয়ে ভারতীয় হাইকমিশনার বলেন, পারস্পরিক সহমর্মিতা ও সহযোগিতা যাতে ভবিষ্যতেও অক্ষুণœ থাকে সে বিষয়ে দুই দেশকে এক সাথে কাজ করতে হবে। 
 
মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব এসএম আরিফুর রহমানসহ মন্ত্রণালয় ও ভারতীয় হাইকমিশনের কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন। 
 
#
দীপংকর/ফারহানা/রফিকুল/আব্বাস/২০১৯/২১১৬ ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                    নম্বর : ২৪৬৯ 
  বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক বিশ্বে অনুসরণীয়
                    ---মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী
 
 
ঢাকা, ২৪ আষাঢ় (৮ জুলাই) :   
 
মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, বাংলাদেশ ও ভারতের সম্পর্ক  আন্তর্জাতিক সম্পর্কের ইতিহাসে অনন্য। প্রতিবেশী এ দু’টি দেশের সম্পর্ক ঐতিহাসিক, সাংস্কৃতিক, ভৌগোলিক ও পারস্পরিক বন্ধুত্ব ও ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে আবদ্ধ। একাত্তরের স্বাধীনতা যুদ্ধে ভারতের অবদান বাংলাদেশ কৃতজ্ঞতার সাথে স্মরণ করে।
 
আজ পরিবহন পুল ভবনস্থ নিজ অফিসকক্ষে ভারতের হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলীর সাথে সাক্ষাৎকালে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। 
 
 
ভারত সরকারের সহযোগিতার স্মৃতি রক্ষায় বাংলাদেশ সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগের উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর মিত্র বাহিনীর দেশে ফিরিয়ে নেওয়ার ঘোষণার স্থান এবং যৌথবাহিনীর কাছে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর আত্মসমর্পণের স্থান সংরক্ষণের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। মন্ত্রী জানান, মুক্তিযুদ্ধে অসামান্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ভারতীয় সেনাবাহিনীর সদস্যদের সম্মাননা জানানোর জন্য ১৫৯৫টি ক্রেস্ট সংরক্ষিত আছে। ভারত সরকার দ্রুততম সময়ে আনুষ্ঠানিকভাবে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গকে এ সম্মাননা প্রদানের সুযোগ করে দেবে মর্মে মন্ত্রী আশাবাদ ব্যক্ত করেন। 
 
মন্ত্রী বলেন, কিছু দ্বিপাক্ষিক সমস্যা থাকলেও দু’দেশের সম্পর্ক বর্তমানে উল্লেখযোগ্য। দ্বিপাক্ষিক সমস্যাগুলো সমাধানে ভারত সরকার আন্তরিক হবে বলে মন্ত্রী আশা প্রকাশ করেন। ভারত সরকার প্রদত্ত মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তান ও নাতি-নাতনীদের শিক্ষা বৃত্তি প্রদানের সংখ্যা বাড়ানোর জন্য তিনি ভারত সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। 
 
এ সময় মহান মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ করে ভারতীয় হাইকমিশনার বলেন, সে সময় বিশ্বের পরম প্রতিকূলতার মধ্যেও একমাত্র ভারতের প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী ব্যক্তিগত দৃঢ়তায় বাংলাদেশের স্বাধীনতার পক্ষে দাঁড়িয়েছিলন। ভারতীয় হাইকমিশনার বলেন, দক্ষিণ এশিয়ায় শান্তির পরিবেশ বজায় রাখার পেছনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অবদান প্রশংসনীয়। ভারত-বাংলাদেশ কূটনৈতিক সম্পর্কের সুবর্ণজয়ন্তী বর্ণাঢ্যভাবে উদ্যাপনের প্রস্তাব দিয়ে ভারতীয় হাইকমিশনার বলেন, পারস্পরিক সহমর্মিতা ও সহযোগিতা যাতে ভবিষ্যতেও অক্ষুণœ থাকে সে বিষয়ে দুই দেশকে এক সাথে কাজ করতে হবে। 
 
মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব এসএম আরিফুর রহমানসহ মন্ত্রণালয় ও ভারতীয় হাইকমিশনের কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন। 
 
#
দীপংকর/ফারহানা/রফিকুল/আব্বাস/২০১৯/২১১৬ ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                         নম্বর : ২৪৬৮ 
ব্রাসেলসে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী জনসভায় তথ্যমন্ত্রী
বিভেদ ভুলে দেশের জন্য ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করুন
 
ঢাকা, ২৪ আষাঢ় (৮ জুলাই) :  
 
সকল ভেদাভেদ ভুলে প্রবাসীদেরকে দেশের জন্য ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন ইউরোপ সফররত তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহ্মুদ।
শনিবার সন্ধ্যায় ব্রাসেলসে ব্রিজ ইউনিভার্সিটি অভ্ ব্রাসেলসের মিলনায়তনে আয়োজিত আওয়ামী লীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বেলজিয়াম আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী এ আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘প্রত্যেক প্রবাসী বিদেশে বাংলাদেশের প্রতিনিধি। দেশপ্রেমই তাদেরকে ঐক্যবদ্ধ রাখতে পারে। আর সকল ভেদাভেদ ভুলে দেশের জন্য কাজ করার মধ্যেই জীবনের সার্থকতা।’ এ সময় প্রবাসীদের ভোটাধিকার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘প্রবাসীদের ভোটাধিকার নিশ্চিত করার জন্য বাংলাদেশ সরকার সমস্ত ব্যবস্থা নিচ্ছে।’
সভায় ব্রিজ ইউনিভার্সিটি অভ্ ব্রাসেলসের প্রাক্তন শিক্ষার্থী ও সে বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক ছাত্র সংগঠনের সাবেক প্রেসিডেন্ট ড. হাছান মাহ্মুদকে নাগরিক সংর্ধনাও দেয়া হয়। মন্ত্রী তার বক্তব্যে ব্রাসেলসে শিক্ষাজীবনের স্মৃতিচারণ করেন।
বেলজিয়াম আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল হকের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর চৌধুরী রতনের সঞ্চালনায় সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন রাষ্ট্রদূত শাহাদাত হোসেন এবং সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের সভাপতি এম নজরুল ইসলাম। সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান প্রধান বক্তা হিসেবে এবং ফ্রান্স আওয়াামী লীগের সভাপতি বেনজির আহমেদ সেলিম আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে সভায় বক্তব্য রাখেন।
‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের গণমাধ্যম এখন স্মরণকালে সবচেয়ে বিকশিত ও প্রসারমান উল্লেখ করে ড, হাছান বলেন, ‘বাংলাদেশ টেলিভিশনের সমস্ত অনুষ্ঠান আগামী মাস থেকে সমগ্র ভারতে দেখা যাবে, যা দেশের মানুষের দীর্ঘদিনের দাবি ছিল।’
বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের ঘোষণা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘জিয়াউর রহমান বেঁচে থাকার সময় তিনি কখনও নিজেকে স্বাধীনতার ঘোষক বলেননি। সকল সেক্টর কমান্ডার ৫০০ টাকা বেতনে কাজ করতেন। জিয়াউর রহমান তাদের মাঝে একজন।’
বাংলাদেশ আজ উন্নত বিশ্বের অংশ হওয়ার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আগামী কয়েক বছরে বাংলাদেশে ১০০ ভাগ এলাকায় বিদ্যুৎ যাবে।’ আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড, হাছান এ সময় সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের সাম্প্রতিক কর্মকা-ের প্রশংসা করে বলেন, ‘সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের সভাপতি এম. নজরুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক মজিবুর রহমানের নেতৃত্বে ইউরোপে আওয়ামী লীগের ঐক্য অটুট থাকবে।’
সভায় বেলজিয়াম আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল হক বলেন, ‘ড. হাছানের দিকনির্দেশনাতেই এক এগারোর সময় গ্রেপ্তার হওয়া শেখ হাসিনার মুক্তির জন্য ইউরোপে আন্দোলন শুরু হয়।’
ফ্রান্স আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এম এ কাশেম, আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের মধ্যে আখতারুজ্জামান, দাউদ খান সোহেল, জহির খান সোহেল, বিধান দেব, হুমাযুন মাসুদ হিমু, রাসেল আহমেদ-সহ আরো অনেকে বক্তব্য রাখেন। ইউরোপের অন্যান্য দেশ থেকেও দলীয় নেতাকর্মীরা এই সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দেন। সভা শেষে সাংস্কৃতিক পর্বে স্থানীয় শিশুরা নৃত্য এবং লন্ডন থেকে আগত শিল্পী শতাব্দী কর সংগীত পরিবেশন করে।
এর আগে তথ্যমন্ত্রী ইউরোপিয়ান এক্সটার্নাল একশন সার্ভিসের ম্যানেজিং ডিরেক্টর অর্থাৎ ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) এর পররাষ্ট্র বিভাগের সচিব গানার ভাইগ্যান্ড (এঁহহধৎ ডরবমধহফ)-এর সাথে বৈঠকে তথ্য ও সম্প্রচার জগতের আধুনিক ও নিরাপদ ব্যবস্থাপনা নিয়ে আলোচনা করেন। 
 
সফর শেষে ৯ জুলাই মঙ্গলবার তথ্যমন্ত্রীর দেশে ফেরার কথা।
#
আকরাম/মাহমুদ/মোশারফ/আব্বাস/২০১৯/১৯২১ ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                                নম্বর : ২৪৬৭
 
ঈদুল আজহার আগেই শ্রমিকদের বেতন-বোনাস পরিশোধের আহ্বান শ্রম প্রতিমন্ত্রীর
 
ঢাকা, ২৪ আষাঢ় (৮ জুলাই) :
ঈদুল আজহার আগেই গার্মেন্টসসহ অন্যান্য শিল্প প্রতিষ্ঠানের শ্রমিকদের বেতন বোনাস পরিশোধের জন্য মালিকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ান।
আজ মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে প্রতিমন্ত্রীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ক্রাইসিস ম্যানেজমেন্ট কোর কমিটির ৪৩তম সভায় মালিক পক্ষের প্রতিনিধিদের প্রতি তিনি এ আহ্বান জানান।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, আগামী মাসের সম্ভাব্য ১২ তারিখে ঈদুল আজহা অনুষ্ঠিত হবে। তার আগে শ্রমিকদের জুলাই মাসের বেতন-ভাতা এবং বোনাস দিতে হবে। এজন্য প্রতিমন্ত্রী কারখানা মালিকসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে এ বিষয়ে সজাগ হওয়ার পরামর্শ প্রদান করেন।
মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব কেএম আলী আজম জানান, সভায় ঈদুল আজহার আগে বেতন বোনাস নিয়ে সার্বিক শ্রম পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর এবং শ্রম অধিদপ্তরে মনিটরিং সেল গঠনের সিদ্ধান্ত হয়েছে। ঈদুল আজহার আগে রাস্তায় যানবাহনের চাপ কমাতে পর্যায়ক্রমে ছুটি এবং সংশ্লিষ্ট এলাকায় ব্যাংক খোলা রাখার বিষয়ে ঈদের আগেই ক্রাইসিস ম্যানেজমেন্ট কোর কমিটির সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।
সভায় মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোল্লা জালাল, রেজাউল হক, সাকিউন নাহার, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব তপন কান্তি ঘোষ, শিল্প পুলিশের মহাপরিচালক আব্দুস সালাম, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের মহাপরিদর্শক শিবনাথ রায়, শ্রম অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোঃ মিজানুর রহমান, জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি শুক্কুর মাহমুদ, কার্যকারী সভাপতি ফজলুল হক মন্টু, বিজিএমইএ, বিকেএমইএ, বিটিএমইএ এবং বিইএফ এর প্রতিনিধি, ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ এবং গাজীপুরের জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের প্রতিনিধিগণ উপস্থিত ছিলেন।
#
 
আকতারুল/মাহমুদ/রফিকুল/জয়নুল/২০১৯/১৯২০ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                                নম্বর : ২৪৬৬
বাংলাদেশ ঋণ নেবে না, বরং অন্য দেশকে দেবে
                         --- নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী 
 
বিরল (দিনাজপুর), ২৪ আষাঢ় (৮ জুলাই) :
নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহ্মুদ চৌধুরী বলেছেন, বাংলাদেশ যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছে, তাতে আগামী ২০৩০ সালের পর বাংলাদেশ আর কোনো দেশের কাছ থেকে ঋণ গ্রহণ করবে না, বরং অন্য দেশকে ঋণ দেবে। 
প্রতিমন্ত্রী আজ দিনাজপুরের বিরল উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলা পরিষদ আয়োজিত ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী শিক্ষার্থীদের মাঝে বৃত্তি ও ক্রীড়াসামগ্রী, মেধাবী শিক্ষার্থী ও দুস্থদের মধ্যে বিভিন্ন ভাতাসহ উপহার সামগ্রী বিতরণ এবং কয়েকটি উন্নয়নমূলক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
খালিদ মাহ্মুদ চৌধুরী বলেন, রংপুর বিভাগের মধ্যে দিনাজপুরে প্রথম অর্থনৈতিক অঞ্চল হতে যাচ্ছে। এই অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে দিনাজপুর তথা এই অঞ্চলের সার্বিক উন্নয়ন ঘটবে এবং অনেক মানুষের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে। বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রাকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য তিনি সবার সহযোগিতা কামনা করেন। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের পরিচয় ছিল নদীমাতৃক দেশ হিসেবে। কিন্তু সেই নদীর ঐতিহ্য হারিয়ে যেতে বসেছিল। বর্তমান সরকার নদীর ঐতিহ্য পুনরুদ্ধারে মহাপরিকল্পনা গ্রহণ করেছে এবং ইতোমধ্যে নদীগুলোকে দখলমুক্ত করার কাজ শুরু হয়েছে। 
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এবিএম রওশন কবীরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিরল উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এ কে এম মোস্তাফিজুর রহমান বাবু, দিনাজপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহফুজ-উজ্জামান আশরাফ, বিরল উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এম আবদুল লতিফ এবং বিরল পৌরসভার মেয়র আলহাজ সবুজার সিদ্দিক সাগর । 
প্রতিমন্ত্রী বিরল উপজেলার ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা সহায়তা ও ক্রীড়াসামগ্রী বিতরণ, দুস্থ ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের মধ্যে ভাতাসহ উপহার সামগ্রী বিতরণ করেন। এর আগে তিনি বিরল উপজেলার ৫টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নতুন ভবন এবং ভান্ডারা ইউনিয়নের স্বর্ণপাড়া গুচ্ছগ্রাম উদ্বোধন করেন।
#
 
জাহাঙ্গীর/মাহমুদ/রফিকুল/জয়নুল/২০১৯/১৮৪০ ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                                নম্বর : ২৪৬৫
ব্রিটিশ আমলের ভূমি সম্পর্কিত আইন সংস্কার হচ্ছে
                                       --- ভূমিমন্ত্রী
ঢাকা, ২৪ আষাঢ় (৮ জুলাই) :
ব্রিটিশ আমলের ভূমি বিষয়ক আইন পর্যায়ক্রমে যুগোপযোগী করার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। নতুন আইন তৈরির পাশাপাশি পুরানো আইন সংস্কার করার মাধ্যমে ভূমি সেবা আরো গতিশীল করার উদ্দেশ্যে এ কার্যক্রম গ্রহণ করা হচ্ছে। 
আজ রাজধানীর কাঁটাবনে ভূমি প্রশাসন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে চার সপ্তাহের ১১ তম বেসিক ভূমি ব্যবস্থাপনা প্রশিক্ষণ কোর্সের উদ্বোধন করার সময় কোর্সে অংশগ্রহণকারী নবনিযুক্ত সহকারী কমিশনার (ভূমি)/এসি ল্যান্ডদের উদ্দেশে ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী এ কথা বলেন। 
মন্ত্রী বলেন, সরকার দুর্নীতির ব্যাপারে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি গ্রহণ করেছে। মন্ত্রণালয় থেকে মাঠ পর্যায়ের ভূমি অফিসের কর্মকা- পরিবীক্ষণ করার পাশাপাশি আকস্মিক পরিদর্শন করা হচ্ছে। দুর্নীতির প্রমাণ পেলেই আইন অনুযায়ী তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। এছাড়া কিছু দিনের মধ্যে হটলাইনের কার্যক্রম শুরু হবে এতে স্বচ্ছতা আরো বৃদ্ধি পাবে। 
প্রশিক্ষণার্থীদেরকে ভূমিমন্ত্রী দিকনির্দেশনা দিতে গিয়ে বলেন, নেতৃত্ব ও গুণাবলি প্রদর্শনের মাধ্যমে ভূমি অফিসে কর্মরত অধস্তনদের পরিচালনা করতে হবে। কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময় তাদের ওপর নির্ভর করে ভুল পথে চলা যাবে না। এসি ল্যান্ডরা যতদিন ভূমি মন্ত্রণালয়ের অধীনে কাজ করবেন ততদিন তাঁদের মূল দায়িত্ব জনগণকে ভূমি সেবা প্রদান করা। অতি জরুরি রাষ্ট্রীয় দায়িত্ব ব্যতীত অন্যান্য কর্মকা- যেমন সাধারণ প্রটোকলের দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে যেন নিয়মিত ভূমি সেবা প্রদানে বিঘœ না ঘটে তা তিনি স্মরণ করিয়ে দেন। 
বিশেষ অতিথি ভূমি সচিব মোঃ মাক্ছুদুর রহমান পাটওয়ারী বলেন, গতিশীল ও জনবান্ধব ভূমি সেবা প্রদান করাই ভূমি মন্ত্রণালয়ের বর্তমান লক্ষ্য এবং মাঠ পর্যায়ে তা বাস্তবায়িত করার গুরুদায়িত্ব আপনাদের। সচিব বলেন, ভূমি ব্যবস্থাপনার সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ শর্ত হচ্ছে স্বচ্ছতা, আপনারা দায়িত্বপালন করার সময় এর ওপর সর্বোচ্চ গুরুত্বারোপ করবেন।  
উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ভূমি প্রশাসন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের পরিচালক মোঃ আব্দুল হাই। প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের বিভিন্ন পর্যায়ের প্রশিক্ষক-সহ প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণকারী বিসিএস প্রশাসন ক্যাডারের ৩৩ এবং ৩৪ ব্যাচের এসি ল্যান্ড আজ সারদা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, ভূমিমন্ত্রীর উদ্যোগে এসি ল্যান্ডদের আরো নিবিড় প্রশিক্ষণ প্রদানের উদ্দেশ্যে দুই সপ্তাহের কোর্সটি এবার থেকে চার সপ্তাহব্যাপী অনুষ্ঠিত হবে।
#
 
নাহিয়ান/মাহমুদ/রফিকুল/জয়নুল/২০১৯/১৮১০ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                       নম্বর : ২৪৬৪ 
সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের অনুপস্থিতিতে প্রধান বিচারপতির দায়িত্ব পালন করবেন বিচারপতি ইমান আলী 
ঢাকা, ২৪ আষাঢ় (৮ জুলাই) :
প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন এর অনুপস্থিতিতে আগামী ১৪ হতে ১৯ জুলাই অথবা তাঁর বিদেশ যাত্রার তারিখ হতে পুনরায় কার্যভার গ্রহণ না করা পর্যন্ত বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের বিচারক বিচারপতি মোহাম্মদ ইমান আলীকে প্রধান বিচারপতির দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। সংবিধানের ৯৭ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী রাষ্ট্রপতি এ দায়িত্ব প্রদান করেন।  
৭ জুলাই রোববার আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আইন ও বিচার বিভাগ থেকে এ সম্পর্কিত প্রজ্ঞাপন জারী করা হয়েছে।  
#
রেজাউল/অনসূয়া/পরীক্ষিৎ/রেজ্জাকুল/আসমা/২০১৯/১৬১৬ ঘণ্টা   
তথ্যবিবরণী                                                                                    নম্বর : ২৪৬৩
সংসদে এসডিজি সেল গঠন করা হবে
                         -স্পিকার
ঢাকা, ২৪ আষাঢ় (৮ জুলাই) :
স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, জাতীয় সংসদে এসডিজি বিষয়ক একটি সেল গঠনের উদ্যোগ নেওয়া হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এসডিজি অর্জনে সঠিক পথেই এগুচ্ছে। অনেক ক্ষেত্রে এ অর্জন দৃশ্যমান। এমডিজি অর্জনে বাংলাদেশের সফলতা বিশ্বনন্দিত উল্লেখ করে তিনি বলেন এমডিজির ধারাবাহিকতায় এসডিজি লক্ষ্য অর্জনেও বাংলাদেশ সফল হবে।
স্পিকার আজ সংসদ ভবনের শপথ কক্ষে সংসদ সচিবালয় ও পরিকল্পনা কমিশন আয়োজিত ঙৎরবহঃধঃরড়হ চৎড়মৎধসসব ঋড়ৎ গবসনবৎং ড়ভ চধৎষরধসবহঃ: 'চধৎষরধসবহঃধৎু ঊহমধমবসবহঃ রিঃয ঃযব ঝঁংঃধরহধনষব উবাবষড়ঢ়সবহঃ এড়ধষং: ঞযব টংব ড়ভ ওঈঞ ঃড় অপপবষবৎধঃব অপযরবাবসবহঃ' শীর্ষক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। ডেপুটি স্পিকার মোঃ ফজলে রাব্বী মিয়া কর্মশালায় প্রশ্নোত্তর পর্ব সঞ্চালনা করেন।
ড. শিরীন শারমিন বলেন, এসডিজি অর্জনে সংসদ সদস্যদের ভূমিকা রাখার অবারিত সুযোগ রয়েছে। তিনি এসডিজি লক্ষ্য বাস্তবায়নে সংসদ সদস্যদের নিজ নিজ সংসদীয় এলাকায় জোরালো ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান।
স্পিকার বলেন, দশম জাতীয় সংসদে এসডিজি নিয়ে কাজ শুরু হয়। তিনি বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদের সদস্যদের এসডিজি বিষয়ে প্রশিক্ষিত করতে ইউএনডিপির সাথে দুই বছরের জন্য সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করা হয়েছে। ২০৩০ সালের মধ্যে এসডিজি বাস্তবায়নে সংসদ সদস্যগণ কিভাবে যুক্ত হবেন তা তাঁরা নিজেরাই নির্ধারণ করবেন। তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে এসডিজি বাস্তবায়নকে আরো গতিশীল করতে সংসদ সদস্যগণের প্রতি তিনি আহ্বান জানান।
সংসদ সচিবালয়ের সিনিয়র সচিব ড. জাফর আহমেদ খান অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন ইউএনডিপি’র কান্ট্রি ডিরেক্টর সুদীপ্ত মুখার্জী। ইউএনডিপি সদর দপ্তরের প্রতিনিধি চার্লস চাওভেল, সিঙ্গাপুরের ই-গর্ভমেন্ট লিডারশিপ সেন্টার ডাইরেক্টর অশোক কুমার সেশন পরিচালনা করেন। প্রশ্নোত্তর পর্বে তাঁরা সংসদ সদস্যদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন। কর্মশালায় ৭৫ জন সংসদ সদস্য ও সংসদ সচিবালয়ের ৩০ জন কর্মকর্তা অংশ নেন।
#
তারিক/অনসূয়া/পরীক্ষিৎ/নাছির/রবি/শামীম/২০১৯/১৫১৫ ঘণ্টা 
Todays handout (11).docx Todays handout (11).docx

Share with :

Facebook Facebook