তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১০ ডিসেম্বর ২০১৫

তথ্যবিবরণী ১০/১২/১৫

তথ্যবিবরণী                                                                                   নম্বর : ৩৬৬১

প্লাস্টিকের ব্যাগের উৎপাদন ও ব্যবহার নিয়ন্ত্রণে ৯ সদস্যের কমিটি গঠন

ঢাকা, ২৬ অগ্রহায়ণ (১০ ডিসেম্বর) :

    বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় পণ্যে পাটজাত মোড়কের বাধ্যতামূলক ব্যবহার আইন-২০১০ বাস্তবায়নে ওভেন পলি প্রপাইল (ডব্লিউপিপি) ব্যাগের উৎপাদন ও ব্যবহার নিয়ন্ত্রণে নয় সদস্যের বিশেষ কমিটি গঠন করেছে।    

    বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, শিল্প মন্ত্রণালয়, বিনিেেয়াগ বোর্ড, রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো, পরিবেশ অধিদপ্তর, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড, আমদানি ও রপ্তানি প্রধান নিয়ন্ত্রকের কার্যালয় ও  বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস এন্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউট থেকে একজন করে প্রতিনিধি নিয়ে এ কমিটি গঠন করা হয়েছে।

    আন্তঃমন্ত্রণালয় সভার সিদ্ধান্তের আলোকে ডব্লিউপিপি ব্যাগের চাহিদা নির্ধারণ, উৎপাদন, কাঁচামাল আমদানি, অভ্যন্তরীণ ব্যবহার, আমদানির ক্ষেত্রে ডিউটি ট্যাক্স ইত্যাদি বিষয় পর্যালোচনাপূর্বক ডব্লিউপিপি ব্যাগের উৎপাদন ও ব্যবহার নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যে সুপারিশ প্রণয়নের জন্য এ কমিটি গঠিত হয়েছে।

    কমিটির কার্যপরিধি হবে ডব্লিউপিপি ব্যাগের চাহিদা নির্ধারণ সংক্রান্ত বিষয়াদি, ডব্লিউপিপি ব্যাগ উৎপাদনের ক্ষেত্রে ছাড়পত্র ও অনুমোদন, উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ও উৎপাদনের পরিমাণ, রপ্তানি ও অভ্যন্তরীণ ব্যবহারের পরিমাণ সংক্রান্ত বিষয়াদি,  ডব্লিউপিপি কাঁচামাল আমদানি ও ব্যবহারের ক্ষেত্রে শর্তাদি, আমদানির পরিমাণ, আমদানিকারকদের তালিকা ও আমদানির পরিমাণ সংক্রান্ত তথ্যাদি পর্যালোচনা ও বিশ্লেষণপূর্বক ৩০ ডিসেম্বরের মধ্যে ডব্লিউপিপি উৎপাদন ও ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ বিষয়ে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ে প্রতিবেদন দাখিল করবে। কমিটি প্রয়োজনে বিষয়সংশ্লিষ্ট সদস্য কোঅপ্ট করতে পারবে।

#

সৈকত/মিজান/মোশারফ/সেলিম/২০১৫/২১৩০ ঘণ্টা
 
তথ্যবিবরণী                                                                                   নম্বর : ৩৬৬০

নারী নির্যাতন প্রতিরোধে প্রয়োজনে পাড়া মহল্লায় কমিটি করতে হবে
                 -- মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা, ২৬ অগ্রহায়ণ (১০ ডিসেম্বর) :

মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি বলেছেন, নারীর প্রতি সহিংসতা অমার্জনীয়। এ সহিংসতা অবশ্যই প্রতিরোধ করতে হবে। প্রয়োজনে পাড়া মহল্লায় নির্যাতন বিরোধী কমিটি গঠন করতে হবে।

প্রতিমন্ত্রী আজ রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ও বিশ্ব মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মাল্টি সেক্টরাল প্রকল্প ও প্লান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত আলোচনাসভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন।

মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নাছিমা বেগমের সভাপতিত্বে আলোচনাসভায় অন্যান্যের মধ্যে আমরাই পারি পারিবারিক নির্যাতন প্রতিরোধ জোটের জাতীয় সমন্বয়ক জিনাত আরা হক, ইউএনএফপিএ’র বাংলাদেশের কান্ট্রি রিপ্রেজেন্টেটিভ আর্জেন্টিনা মেটাভেল পিকসিন (অৎমবহঃরহধ গধঃধাবষ চরপপরহ), প্লান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের কান্ট্রি ডাইরেক্টর সেনেট গেব্রেজজিয়াভার (ঝবহধরঃ এবনৎবমুরধনযবৎ) এবং আমেরিকান এম্বেসির কনসাল জেনারেল এলিজাবেথ পি গারলে (ঊষরুধনবঃয চ. এড়ঁৎষবু) বক্তব্য রাখেন। আলোচনা অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন নারী নির্যাতন প্রতিরোধকল্পে মাল্টিসেক্টরাল প্রকল্পের পরিচালক ড. আবুল হোসেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বিয়ের সর্বনি¤œ বয়স ১৮ই থাকবে। এ বিষয়ে সন্দেহের কোনো সুযোগ নেই। নারী প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দের বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের সাথে আলোচনা করা হবে বলে তিনি জানান।

#

খায়ের/মিজান/মোশাররফ/সঞ্জীব/সেলিম/২০১৫/২০৪০ ঘণ্টা

 

তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ৩৬৫৯ 

ডিজিটালাইজেশনে জোর দিয়েছে তথ্য মন্ত্রণালয়

ঢাকা, ২৬ অগ্রহায়ণ (১০ ডিসেম্বর) :
    তথ্য মন্ত্রণালয় ও এর অধীন সংস্থাগুলোতে ডিজিটালাইজেশনের ওপর জোরালো গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। আজ মন্ত্রণালয়ের বার্ষিক উন্নয়ন প্রকল্পসমূহের মাসিক পর্যালোচনা সভা পরিচালনাকালে তথ্যসচিব মরতুজা আহমদ আগামী মাসে অনুষ্ঠেয় সভার পূর্বেই মন্ত্রণালয়াধীন সকল সংস্থাকে এ বিষয়ে তাদের অগ্রগতি ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা দাখিল করার নির্দেশ দেন। 
    সভার সভাপতি তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেন, প্রতিটি সংস্থায় একটি তথ্যভা-ার থাকবে। দৈনিক হাজিরা হতে হবে ডিজিটাল, যাতে করে ডিজিটাল নেটওয়ার্কের মাধ্যমে মন্ত্রণালয় কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উপস্থিতি জানতে পারে। দপ্তরগুলোর ওয়েবসাইট হালনাগাদ এবং ই-টেন্ডারসহ সম্প্রচার পদ্ধতিকে ডিজিটাল পদ্ধতিতে রূপান্তর করতে হবে বলে তিনি জানান। 
    তথ্যসচিব অধিদপ্তরগুলোতে ডিজিটালাইজেশন প্রক্রিয়ার পূর্ণপ্রতিবেদন মন্ত্রণালয়ের পরিকল্পনা শাখায় জমা দেয়ার নির্দেশ দেন। সভায় মন্ত্রণালয়ের অনুমোদিত ১০২ কোটি ৭৪ লাখ টাকা ব্যয়সাপেক্ষ ৬টি প্রকল্পের অগ্রগতির বিষয়ে বিশদ আলোচনা হয়। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে প্রকল্প বাস্তবায়নের পদক্ষেপ গ্রহণের ওপর তিনি সর্বাধিক গুরুত্বারোপ করেন।

#


আকরাম/মিজান/মোশাররফ/রফিকুল/জয়নুল/২০১৫/২১৪৫ঘণ্টা 
 
তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ৩৬৫৮ 

তথ্যমন্ত্রীর সাথে ফিলিস্তিনী চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্সের সাক্ষাৎ

ঢাকা, ২৬ অগ্রহায়ণ (১০ ডিসেম্বর) :
    আজ বাংলাদেশ সচিবালয়ে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু এর সাথে ঢাকায় ফিলিস্তিন দূতাবাসের নবাগত চার্জ দ্য এফেয়ার্স ইওসেফ রামাদান সাক্ষাৎ করেন। বাংলাদেশিদের হƒদয়ে ফিলিস্তিনের জনগণের জন্য যে ভালোবাসা রয়েছে তা দেখে মুগ্ধ হতে হয় বলে চার্জ দ্য এফেয়ার্স মন্তব্য করেন। 
    সাক্ষাৎকালে তথ্যমন্ত্রী ১৯৮১ সালে বাগদাদে এবং ১৯৯৭ সালে ঢাকায় ফিলিস্তিনের কিংবদন্তি নেতা ইয়াসির আরাফাতের সাথে তাঁর সাক্ষাতের কথা স্মরণ করেন। 
    মন্ত্রী বলেন, ফিলিস্তিনী জনগণের স্বাধীনতা ও ন্যায্য দাবি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশ সদা সোচ্চার। সাক্ষাতে বাংলাদেশ ও ফিলিস্তিনের মধ্যে তথ্য আদান প্রদান, বাণিজ্যের প্রসার এবং ফিলিস্তিনের প্রকৃত অবস্থা বাংলাদেশের মানুষের কাছে তুলে ধরার বিষয়ে আলোচনা হয়।
#

আকরাম/মিজান/মোশাররফ/নবী/রফিকুল/জয়নুল/২০১৫/২১২০ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                             নম্বর : ৩৬৫৭
 
বাংলাদেশ শিক্ষাক্ষেত্রে লিঙ্গ বৈষম্য দূর করতে সক্ষম হয়েছে
                                          -- স্থানীয় সরকার মন্ত্রী
নয়াদিল্লি (ভারত), ১০ ডিসেম্বর : 
    স্থানীয় সরকার, পল্লিউন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, বাংলাদেশ প্রাথমিক ও মাধ্যমিক এবং বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে শিক্ষার ক্ষেত্রে লিঙ্গ বৈষম্য দূরসহ নিরাপদ খাবার পানির সুবিধা নিশ্চিত করেছে। বাংলাদেশ সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার (এমডিজি) তিনটি লক্ষ্য ইতোমধ্যে অর্জন করেছে বলে তিনি উল্লেখ করেন। 
মন্ত্রী আজ ভারতের নয়াদিল্লিতে  ‘খরাবষরযড়ড়ফং অংরধ ঝঁসসরঃ ২০১৫’ এ বক্তৃতাকালে একথা বলেন।
ভারতের সংখ্যালঘু বিষয়ক মন্ত্রী নাজমা এ হেপতুল্লাহ সম্মেলনের উদ্বোধন করেন। এক্সেস ডেভেলপমেন্ট সার্ভিস আয়োজিত এ সম্মেলনের পৃষ্ঠপোষক ব্র্যাক বাংলাদেশ। বাংলাদেশ হচ্ছে এ সম্মেলনের ফোকাস কান্ট্রি।
সম্মেলনের মূললক্ষ্য হচ্ছে নীতি প্রণয়ন প্রভাবিত করা, সর্বোত্তম রীতির প্রদর্শন এবং গুরুত্বপূর্ণ চ্যালেঞ্জসমূহ মোকাবিলা করা। বাংলাদেশসহ এশিয়ার ৮টি দেশ থেকে ৬শ’ প্রতিনিধি এবারের সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেন।
খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, বাংলাদেশের বর্তমান সরকার জনগণের আকাক্সক্ষাকে তুলে ধরতে ভিশন-২০২১ ও ভিশন-২০৪১ গ্রহণ করেছে। দারিদ্র্যমুক্ত মধ্যমআয়ের একটি দেশ হয়ে ওঠার লক্ষ্য নিয়ে এ দু’টি রূপকল্পে কয়েকটি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এসব লক্ষ্যমাত্রার মধ্যে রয়েছে নতুন জীবিকার সুযোগ তৈরির মাধ্যমে দক্ষ ও সৃজনশীল মানবসম্পদ তৈরি করা। বর্তমান সরকার দারিদ্র্যদূরীকরণকে বিশেষভাবে গুরুত্ব দিচ্ছে। তিনি বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশের টেকসই জীবিকার অভিজ্ঞতা রয়েছে। দেশের জনগণের মাথাপিছু আয় ১ হাজার ৩১৪ ডলার। 
স্থানীয় সরকার মন্ত্রী আরো বলেন, সাসটেইনেবল রুর‌্যাল লাইভলিহুড কাঠামো অনুযায়ী কৃষি সম্প্রসারণ হচ্ছে জীবিকা কৌশলের অন্যতম যা বাংলাদেশে খাদ্য উৎপাদনের সাথে সরাসরি সম্পৃক্ত। তিনি বলেন, বাংলাদেশ বর্তমানে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ একটি দেশ। মঙ্গাকে লক্ষ্য করে গ্রামের গরিবদের জন্য বিকল্প জীবিকার সুযোগ নিশ্চিত করতে সরকার বিভিন্ন কর্মসূচি ও প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছে। সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ নেয়ায় বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চল এখন মঙ্গামুক্ত হয়েছে।
তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ সরকার জীবিকার বৈচিত্র্যের ক্ষেত্রে সমন্বিত পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। এক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগ সহযোগিতামূলক সেবা প্রদান বিশেষ করে প্রশিক্ষণ ও ঋণ প্রদানের মাধ্যমে জীবিকার সুযোগ সৃষ্টিতে বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মসূচি গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করছে।
#
শহিদুল/মিজান/মোশাররফ/রফিকুল/সেলিম/২০১৫/১৯৫০ ঘণ্টা
 
তথ্যবিবরণী                                                                                   নম্বর : ৩৬৫৬

বাংলাদেশি জলজ খাবারের নিরাপত্তা মান ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের সমকক্ষ
                                                                   -- শিল্পমন্ত্রী

ঢাকা, ২৬ অগ্রহায়ণ (১০ ডিসেম্বর) : 

     শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বাংলাদেশের মৎস্যসহ জলজ খাবারের নিরাপত্তা মান সম্প্রতি ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের (ইইউ) মানের সমপর্যায়ে পৌঁছেছে বলে জানিয়েছেন । তিনি বলেন, ইইউ, নোরাড এবং ইউনিডো’র সহায়তায় বেটার ওয়ার্ক অ্যান্ড স্ট্যান্ডার্ডস প্রোগ্রাম (বিইএসটি) এবং বাংলাদেশ কোয়ালিটি সাপোর্ট প্রোগ্রাম (ইছঝচ) প্রকল্প বাস্তবায়নের ফলে বাংলাদেশি মান ব্যবস্থার এ উন্নয়ন সম্ভব হয়েছে। 

    শিল্পমন্ত্রী আজ রাজধানীর একটি হোটেলে শিল্প মন্ত্রণালয় আয়োজিত বিইএসটি প্রকল্পের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন। 
    
    শিল্পমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের অর্থনীতি দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে। বর্তমানে বাংলাদেশ বিশ্ব বাণিজ্য ও অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে।  এদেশের রপ্তানিও দিন দিন বাড়ছে। শিল্পখাতের চাহিদা মেটাতে বাংলাদেশ প্রচুর পরিমাণে মৌলিক কাঁচামাল আমদানি করছে। আমদানি ও রপ্তানির ক্ষেত্রে পণ্য ও সেবার গুণগত মান বজায় রাখতে সরকার ‘পণ্য ও সেবার জাতীয় গুণগতমান নীতি ২০১৫ (ঘধঃরড়হধষ ছঁধষরঃু চড়ষরপু ভড়ৎ মড়ড়ফং ধহফ ঝবৎারপবং, ২০১৫)’ প্রণয়ন করছে বলে তিনি জানান। 

বিইএসটি প্রকল্পের পরিচালক ও শিল্প মন্ত্রণালয়ের যুগ্মপ্রধান মো. লুৎফর রহমান তরফদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে শিল্পসচিব মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া, বাংলাদেশে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের রাষ্ট্রদূত ও ডেলিগেশন প্রধান পিয়েরে মায়াদুন (চরবৎৎব গধুধঁফড়হ) বক্তব্য রাখেন। 

    পরে মন্ত্রী ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের প্রকল্পের আওতায় বিভিন্নখাতে অর্জিত গুণগত মানোন্নয়নের ওপর আয়োজিত প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন। তিনি বিভিন্ন আলোকচিত্র ঘুরে দেখেন। 

#

জলিল/মিজান/মোশাররফ/সঞ্জীব/সেলিম/২০১৫/২০৩০ ঘণ্টা
 
তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ৩৬৫৫ 

নারী নির্যাতন রোধে দেশে সুদৃঢ় আইনি কাঠামো রয়েছে
                                                -- স্পিকার
ঢাকা, ২৬ অগ্রহায়ণ (১০ ডিসেম্বর) :
স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, নারীর প্রতি সহিংসতা রোধে বাংলাদেশে সুদৃঢ় আইনি কাঠামো রয়েছে। এই আইনের প্রায়োগিক দিক আরো কার্যকর করতে হবে এবং নারীদের এ বিষয়ে সচেতন করতে সকলকে একযোগে কাজ করতে হবে। 
স্পিকার আজ জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় নারীর প্রতি সহিংসতা রোধে ইউএন উইমেন আয়োজিত ১৬  দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালার সমাপনী ও মানববন্ধন কর্মসূচিতে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন। 
স্পিকার বলেন, নারী নির্যাতন রোধে দেশের আইন সম্পর্কে নারীদের সচেতন করতে হবে এবং তারা যাতে আইনের আশ্রয় নিতে পারে তা নিশ্চিত করতে হবে। তিনি নারীর প্রতি সহিংসতা রোধে শিক্ষা এবং নারীর অর্থনৈতিক ক্ষমতায়নের ওপর গুরুত্বারোপ করেন। 
তিনি বলেন, নারী নির্যাতন প্রতিরোধ এবং সকল প্রকার আইনি সহায়তা প্রদানে সরকার বদ্ধপরিকর। স্পিকার সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি সংস্থাসমূহকেও এ বিষয়ে আরো কার্যকর ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান। 
স্পিকার বলেন, শুধুমাত্র বছরের নির্দিষ্ট সময়ে নারী নির্যাতন প্রতিরোধে কর্মসূচি পালন না করে বছরের প্রতিটি দিন নারীর প্রতি সহিংসতা রোধে কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে।  
অনুষ্ঠানে ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়া বলেন, নারী নির্যাতন প্রতিরোধে আমরা সংসদে ভূমিকা রাখছি। এ বিষয়ে তিনি ভবিষ্যতে আরো জোরদার কার্যক্রম পরিচালনার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন।  
অনুষ্ঠানে সংসদ সদস্যবৃন্দসহ ইউএন উইমেন এর কান্ট্রি রিপ্রেজেন্টেটিভ ক্রিশ্চিন হান্টার, ইউএন এর রেসিডেন্ট কো-অর্ডিনেটর রবার্ট ওয়াটকিনস, ইউএনএফপিএ’র কান্ট্রি রিপ্রেজেন্টেটিভ আর্জেন্টিন মেটাভেল বক্তব্য রাখেন। 
#

শিবলী/মিজান/সঞ্জীব/জয়নুল/২০১৫/২০৪৫ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ৩৬৫৪ 

স্পিকারের সাথে সার্বিয়ার রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ

ঢাকা, ২৬ অগ্রহায়ণ (১০ ডিসেম্বর) :
স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সাথে আজ তাঁর সংসদভবন কার্যালয়ে সার্বিয়ার রাষ্ট্রদূত ভøাদিমির মারিক (ঠষধফরসরৎ গধৎরপ) সাক্ষাৎ করেন। 
সাক্ষাৎকালে তাঁরা দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক, উভয় দেশের সংসদীয় কার্যক্রমসহ নানা বিষয়ে আলোচনা করেন। তাঁরা সার্বিয়া ও বাংলাদেশের সম্পর্ক উন্নয়নে উভয় দেশের পার্লামেন্টের প্রতিনিধিদের সফর বিনিময়ের উপর গুরুত্বারোপ করেন। তাঁরা এ সময় বাংলাদেশের বাণিজ্য, বিনিয়োগ ও উন্নয়নের বিভিন্ন দিক নিয়েও আলোচনা করেন। দু’দেশের সহযোগিতা এবং বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ভবিষ্যতে আরো দৃঢ় হবে বলে তাঁরা আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
    বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সাথে তৎকালীন যুগোস্লাভিয়ার মার্শাল টিটোর বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের কথা উল্লেখ করে রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশের সাথে সার্বিয়ার ঐতিহাসিক সম্পর্ক বিরাজমান। এরই ধারাবাহিকতায় তিনি বর্তমান সার্বিয়ার সাথে বাংলাদেশের সম্পর্ক আরো সূদৃঢ় করার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
    স্পিকার বলেন, সম্পর্ক উন্নয়নের ক্ষেত্রে দু’দেশের সংসদের অনন্য ভূমিকা পালনের সুযোগ রয়েছে। জাতীয় সংসদ হলো একটি দেশের গণতন্ত্রের কেন্দ্রবিন্দু। সংসদের মাধ্যমে জনগণের মতামতের প্রতিফলন ঘটে। সরকারের পাশাপাশি সংসদ সদস্যগণ দেশের উন্নয়নে অসামান্য ভূমিকা পালন করছে বলে তিনি জানান। 
#


শিবলী/মিজান/মোশারফ/জয়নুল/২০১৫/২০৩০ঘণ্টা 
তথ্যবিবরণী                                                                                                    নম্বর : ৩৬৫৩ 

বাংলাদেশ ব্যাংককে পুঁজিবাজারবান্ধব নীতি গ্রহণ করতে হবে
                                                   -- বাণিজ্যমন্ত্রী
ঢাকা, ২৬ অগ্রহায়ণ (১০ ডিসেম্বর) :
    বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, বাংলাদেশ ব্যাংককে আরও নমনীয় ও পুঁজিবাজারবান্ধব নীতি গ্রহণ করতে হবে। বাংলাদেশ ব্যাংক শুধু ব্যাংকিং খাত নয়, পুরো আর্থিক খাতের অভিভাবক। মুদ্রাবাজারের মতো পুঁজিবাজারও আর্থিক খাতের অংশ। তাই মুদ্রাবাজার ও পুঁজিবাজার নিবিড়ভাবে সম্পৃক্ত। পুঁজিবাজারে ব্যাংকের বাড়তি বিনিয়োগ বা ওভার এক্সপোজার সংক্রান্ত জটিলতা প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে সমন্বয়ের মাধ্যমে সমাধান করা সম্ভব। 
    বাণিজ্যমন্ত্রী আজ ঢাকায়  ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে অনলাইন বিজনেস নিউজ পোর্টাল অর্থসূচক এর উদ্যোগে আয়োজিত তিনদিনব্যাপী “বাংলাদেশ ক্যাপিটাল মার্কেট এক্সপো-২০১৫” এর উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন।
    মন্ত্রী বলেন, পুঁজিবাজার গতিশীল হলে শিল্পবাণিজ্য আরো গতিশীল হবে। বাজারে বহুজাতিক কোম্পানি অনেক মুনাফা করলেও দেশের মানুষ তার কোনো লভ্যাংশ পাচ্ছে না। দেশি ও বহুজাতিক ভালো কোম্পানিকে বাজারে নিয়ে আসতে সরকারের পাশাপাশি স্টক এক্সচেঞ্জকে ভূমিকা রাখতে হবে। পুঁজিবাজারে প্রাণ ফেরাতে নতুন বিনিয়োগকারীদের আকৃষ্ট করতে হবে।
    বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, দেশের পুঁজিবাজারের ইতিহাসে এই প্রথম সব স্টেকহোল্ডার উৎসবমুখর পরিবেশে একসঙ্গে সমবেত হয়েছে। আমাদের পুঁজিবাজারের জন্য এটি একটি বড় ও বিরল ঘটনা। এ ধরনের ইন্টারেকশনের মধ্য দিয়ে আর্থিক বাজারের বিভিন্ন রেগুলেটরের মধ্যে নৈকট্য আরো বাড়বে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। 
    মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ এখন অর্থনৈতিক, সামাজিকসহ সকল ক্ষেত্রে এগিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশের ৫০ বছর পূর্তিতে আগামী ২০২১ সালে রপ্তানি ৬০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে উন্নীত করার লক্ষ্য নিয়ে সরকার কাজ করে যাচ্ছে। তৈরিপোশাক খাতে রপ্তানির লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৫০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। দেশের সকল অর্থনৈতিক সূচক ঊর্ধ্বগামী। বর্তমান সরকার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন বাস্তবায়নে সফলভাবে কাজ করে যাচ্ছে।  
     অর্থসূচকের সম্পাদক জিয়াউর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ লি. এর চেয়ারম্যান বিচারপতি ছিদ্দিকুর রহমান, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ লি. এর চেয়ারম্যান ড. এম এ মজিদ এবং ডিএসই ব্রোকার এসোসিয়েশন অভ্ বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট আহসানুল ইসলাম টিটু বক্তব্য রাখেন। 
    বাংলাদেশ ক্যাপিটাল মার্কেট এক্সপোতে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ৬৫টি স্টল রয়েছে।
#

বকসী/মিজান/মোশাররফ/মোশারফ/জয়নুল/২০১৫/২০২০ঘণ্টা 
তথ্যবিবরণী                                                                                             নম্বর : ৩৬৫২

                        বর্ধিত বেতন সুবিধা  পেলেন  শিক্ষা ক্যাডারের ৬৭৩ কর্মকর্তা

ঢাকা, ২৬ অগ্রহায়ণ (১০ ডিসেম্বর) : 

    শিক্ষা ক্যাডারের ৫৩৭ প্রভাষককে ৭ম গ্রেডে এবং ১৩৬ সহকারী অধ্যাপককে ৫ম গ্রেডে সিলেকশন গ্রেড প্রদান করা হয়েছে ।

    শিক্ষা মন্ত্রণালয় বুধবার এ সংক্রান্ত দু’টি পৃথক  আদেশ জারি করে। বিস্তারিত প্রজ্ঞাপন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের িি.িসড়বফঁ.মড়া.নফ   ওয়েবসাইটে পাওয়া যাচ্ছে ।

    এর আগে সিলেকশন গ্রেডপ্রাপ্ত প্রভাষকগণ জাতীয় বেতনস্কেলে ৯ম গ্রেডে এবং সহকারী অধ্যাপকগণ ৬ষ্ঠ গ্রেডে বেতন পেতেন। 

#

সাইফুল্লাহ/মিজান/মোশারফ/সেলিম/২০১৫/১৮৫০ ঘণ্টা
 
তথ্যবিবরণী                                                                                             নম্বর : ৩৬৫১ 

শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত

ঢাকা, ২৬ অগ্রহায়ণ (১০ ডিসেম্বর) :
    জাতীয় সংসদের শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির ১০ম বৈঠক আজ কমিটির সভাপতি মন্নুজান সুফিয়ান এর সভাপতিত্বে সংসদভবনে অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে কমিটির সদস্য শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক (চুন্নু), মো. রুহুল আমিন, মো. রেজাউল হক চৌধুরী এবং রোকসানা ইয়াসমিন ছুটি অংশগ্রহণ করেন।
    বৈঠকে তাজরিন ফ্যাশন ও রানা প্লাজা দুর্ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ এবং ঝুঁকিপূর্ণ শিশুশ্রম বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়।
বৈঠকে জানানো হয়, তাজরিন ফ্যাশনে অগ্নিদুর্ঘটনায় ১১১ জন নিহত শ্রমিকের প্রত্যেককে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলসহ বিভিন্ন মাধ্যম থেকে ৭ লাখ টাকা এবং রানা প্লাজা দুর্ঘটনায় নিহত ১ হাজার ১৩৬ জন শ্রমিকের মধ্যে ডিএনএ পরীক্ষার মাধ্যমে শনাক্তকৃত ৯৭৮ জনের পরিবারকে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে ১ থেকে ৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ প্রদান করা হয়েছে।
ঝুঁকিপূর্ণ শিশুশ্রম থেকে দেশের শিশুদের রক্ষা এবং তাদের কল্যাণের জন্য ২০০৫ সালের জুলাই থেকে ২০১৪ সালের জুন পর্যন্ত শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের ‘বাংলাদেশে ঝুঁকিপূর্ণ কাজে নিয়োজিত শিশুশ্রম নিরসন প্রকল্প’ এর ৩টি পর্যায়ে মোট ৯০ হাজার শিশু শ্রমিককে ১৮ মাসব্যাপী উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ও ৬ মাসব্যাপী দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে কর্মক্ষম করে তোলা হয়েছে বলে জানানো হয়। 
     বৈঠকে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিবসহ মন্ত্রণালয় এবং জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
#

মিজানুর/মিজান/মোশারফ/জয়নুল/২০১৫/১৯৩৫ঘণ্টা
 
তথ্যবিবরণী                                                                                            নম্বর :  ৩৬৫০
বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের প্রতি শিক্ষামন্ত্রী
শিক্ষার্থীদের টিউশন ফি নির্ধারণে উদার দৃষ্টিভঙ্গি গ্রহণের আহ্বান

ঢাকা, ২৬ অগ্রহায়ণ (১০ ডিসেম্বর) : 
    শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ শিক্ষার্থীদের টিউশন ফিসহ বিভিন্ন ব্যয় নির্ধারণে উদার দৃষ্টিভঙ্গি গ্রহণের জন্য বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।
    শিক্ষামন্ত্রী আজ রাজধানীতে ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির তৃতীয় সমাবর্তনে বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ মনোনীত প্রতিনিধি হিসেবে সভাপতিত্বকালে এ আহ্বান জানান।
    মিরপুরে পুলিশ স্টাফ কলেজ কনভেনশন হলে আয়োজিত এ সমাবর্তনে অন্যান্যের মধ্যে সমাবর্তন বক্তা অধ্যাপক ড. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. কে এম মোহসীন এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অভ্ ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান ডা. মুহম্মদ শহীদুল কাদির পাটোয়ারী বক্তৃতা করেন।
    জনাব নাহিদ তাঁর বক্তৃতায় জনগণের আর্থসামাজিক অবস্থা বিবেচনা করে শিক্ষার্থীদের সকল প্রকার ব্যয় একটি সীমা পর্যন্ত নির্ধারিত রাখার আহ্বান জানিয়ে বলেন, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়সমূহকে ব্যবসা ও মুনাফার চিন্তা ত্যাগ করে সেবার মনোভাব নিয়ে জনকল্যাণে শিক্ষাক্ষেত্রে অবদান রাখতে এগিয়ে আসতে হবে।
    শিক্ষামন্ত্রী বলেন, যে সকল বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় মুনাফার উদ্দেশ্যে তাদের কার্যক্রম শুরু করেছিল, সরকার ইতোমধ্যে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। তিনি আরো  বলেন, যেসব বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ব্যবসা ও প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে স্বার্থ হাসিল করতে চাইবে, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইন ২০১০  অনুযায়ী  তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
    শিক্ষামন্ত্রী বলেন, দেশে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়সমূহ বিপুলসংখ্যক শিক্ষার্থীর উচ্চশিক্ষার সম্ভাবনার যে দ্বার উন্মোচন করেছে, তা সফল করে তুলতে হবে। বর্তমানে দেশে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের চেয়ে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের সংখ্যা ও শিক্ষার্থী সংখ্যা অনেক বেশি। সরকার সরকারি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নকারী ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে কোনো পার্থক্য করে না উল্লেখ করে তিনি বলেন, তারা সকলে আমাদের সন্তান, জাতির ভবিষ্যৎ। তাদের সকলের জন্যই আমরা মানসম্মত শিক্ষা ও প্রয়োজনীয় সকল সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করতে চাই।
#
সাইফুল্লাহ/মিজান/নবী/সঞ্জীব/সেলিম/২০১৫/১৮০০ ঘণ্টা
 
তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ৩৬৪৯ 

২০১৯ সালের মধ্যে মধ্যমআয়ের দেশে পরিণত হবে বাংলাদেশ
                                                         -- ভূমিমন্ত্রী

ঢাকা, ২৬ অগ্রহায়ণ (১০ ডিসেম্বর) :
    ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ বলেছেন, সর্বাধুনিক প্রযুক্তি জ্ঞানসম্পন্ন ডিজিটাল বাংলাদেশ উপহার দিতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে ২০১৯ সালের মধ্যে মধ্যমআয়ের দেশে পরিণত হবে বাংলাদেশ এবং ২০৪১ সালের আগেই এদেশ বিশ্বের মধ্যে একটি উন্নত দেশে পরিণত হবে।
    ভূমিমন্ত্রী আজ রাজধানীর শাহবাগ কেন্দ্রীয় পাবলিক লাইব্রেরির শওকত ওসমান মিলনায়তনে বিশ্ব মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে বিশ্ব মানবাধিকার সম্মেলন ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন।
    ভূমিমন্ত্রী বলেন, এদেশের শিক্ষা, উন্নয়ন ও নারীর কর্মসংস্থানসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে স্বল্পতম সময়ে প্রধানমন্ত্রী  তাঁর প্রজ্ঞা, বুদ্ধিমত্তা, যোগ্যতা, দক্ষতা ও বিজ্ঞ সিদ্ধান্ত দিয়ে উন্নয়ন ঘটিয়ে যাচ্ছেন। ’৭১ এ বঙ্গবন্ধুর ডাকে বাঙালি জাতি যেভাবে সাড়া দিয়ে এদেশকে স্বাধীন করেছিল, একইভাবে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে ডিজিটাল বাংলাদেশ ও উন্নত বাংলাদেশ নির্মাণে তিনি সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানান।
    হিউম্যান রাইটস রিভিউ সোসাইটির চেয়ারম্যান এডভোকেট মোহাম্মদ সাঈদুল হক সাঈদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে মুক্তিযোদ্ধা ড. রফিকুল ইসলাম, নেভাল কমান্ডো মোহাম্মদ আমির হোসেন ও লায়ন এইচ এম ইব্রাহিম ভূঁইয়া বক্তব্য রাখেন।

#

রেজুয়ান/মিজান/সঞ্জীব/জয়নুল/২০১৫/১৭৫০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ৩৬৪৮ 

আন্তর্জাতিক পর্বত দিবস উপলক্ষে গৃহীত কর্মসূচি  

ঢাকা, ২৬ অগ্রহায়ণ (১০ ডিসেম্বর) : 

    ১১ ডিসেম্বর জাতিসংঘ ঘোষিত আন্তর্জাতিক পর্বত দিবস উদ্যাপনের লক্ষ্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয় ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। আজ সচিবালয়ে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা এক প্রেস কনফারেন্সে এসব কর্মসূচি অবহিত করেন।  
    এ বছর দিবসটির প্রতিপাদ্য ‘চৎড়সড়ঃরহম গড়ঁহঃধরহ চৎড়ফঁপঃং’ দিবসটি উপলক্ষে ১১ ডিসম্বের শুক্রবার, সকাল ৯ টায় ৩৩, বেইলি রোডস্থ পার্বত্য চট্টগ্রাম কমপ্লেক্স (অফিসার্স ক্লাবের পার্শ্বে) প্রাঙ্গণে 
৩ দিনব্যাপি  পার্বত্য মেলার উদ্বোধন করা হবে। ব্যতিক্রমধর্মী এ মেলায় অর্ধশতাধিক স্টলে টেক্সটাইল, হ্যান্ডিক্রাফট, ঐতিহ্যবাহী পোশাক ও খাবারসহ বিভিন্ন পার্বত্য পণ্যের  প্রদর্শনী ও বিক্রি করা হবে। 
    ঐ দিন সকাল ৯.৩০ টায় বেইলি রোডস্থ পার্বত্য চট্টগ্রাম কমপ্লেক্স থেকে সিরডাপ (জাতীয় প্রেসক্লাব সংলগ্ন) পর্যন্ত বর্ণাঢ্য র‌্যালির আয়োজন করা হয়েছে। 
    একই দিন সকাল ১০.৩০ টায় সিরডাপ মিলনায়তনে এ উপলক্ষে আন্তর্জাতিক সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে। সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন  বেসামরিক বিমান পরিবহণ ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন এমপি, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর ঊশৈ সিং এমপি ও পার্বত্য চট্টগ্রাম মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি র আ ম ওবায়দুল মুক্তাদির চৌধুরী এমপি। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন উৎ. ঝঁৎবহফৎধ জধল ঔড়ংযর, এ ছাড়াও এ উপলক্ষে বান্দরবানের রুমায় ট্রেকিং, মাউন্টেন বাইকিং ও ক্যাম্পিং অনুষ্ঠিত হবে। 
    পার্বত্য এলাকায় বসবাসরত মানুষের উন্নয়নে  জাতিসংঘ ২০০২ সালে ১১ ডিসেম্বরকে আন্তর্জাতিক পর্বত দিবস হিসেবে ঘোষণা করে। সেই থেকে বিশ্বব্যাপি দিবসটি পালিত হয়ে আসছে। বাংলাদেশে দিবসটি তৃতীয়বারের মত পালন করা হচ্ছে। 
#

মাহবুবুর/অনসূয়া/খাদীজা/শুকলা/আসমা/২০১৫/১৫০০ ঘণ্টা
 
তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ৩৬৪৭ 

১২ থেকে ১৪ ডিসেম্বর ঢাকায় প্রতিবন্ধিতা ও দুর্যোগ 
ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা বিষয়ে আন্তর্জাতিক সম্মেলন 

ঢাকা, ২৬ অগ্রহায়ণ (১০ ডিসেম্বর) : 

    প্রতিবন্ধিতা ও দুর্যোগ ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা বিষয়ে আন্তর্জাতিক সম্মেলন আগামী ১২ থেকে ১৪ ডিসেম্বর ঢাকায় অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সম্মেলনে ২২টি দেশের ৭০ জন প্রতিনিধিসহ শতাধিক এনজিওর পাঁচ শতাধিক প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করবেন।  
    ১২ ডিসেম্বর সকাল নয়টায় ফার্মগেট কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনে উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর কন্যা সায়মা হোসেন, চেয়ারপারসন, ন্যাশনাল এডভাইজরি কমিটি অন অটিজম এবং মেম্বার, ওয়ার্ল্ড হেলথ এক্সপার্টস এডভাইজরি প্যানেল অন মেন্টাল হেলথ, প্রধান বক্তা হিসেবে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় এবং সিডিডি যৌথভাবে এ সম্মেলনের আয়োজন করছে। জাত

Todays handout (9).doc Todays handout (9).doc

Share with :

Facebook Facebook