তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৩১st মে ২০২০

তথ্যবিবরণী ৩১.০৫.২০২০

তথ্যবিবরণী                                                                                                  নম্বর : ১৯৮৫ 

 

বিশিষ্ট শিল্পপতি আব্দুল মোনেম খানের মৃত্যুতে মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীর শোক

 

ঢাকা, ১৭ জ্যৈষ্ঠ (৩১ মে):

 

          বাংলাদেশের নির্মাণ শিল্পের অন্যতম পথিকৃৎ বিশিষ্ট শিল্পপতি আব্দুল মোনেম খানের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের;  পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মোঃ শাহাব উদ্দিন; প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান ফজলুর রহমান; শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার;  নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহ্‌মুদ চৌধুরী এবং সংস্কৃতি  প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ । 

 

          আজ তাঁরা পৃথক শোকবার্তায় মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

 

          উল্লেখ্য, শিল্পপতি আব্দুল মোনেম খান আজ রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

 

#

নাছের/রাহাত/সঞ্জীব/আব্বাস/২০২০/২০৫২ ঘন্টা

তথ্যববিরণী                                                                                                   নম্বর : ১৯৮৪

গণপরিবহনের ভাড়া সমন্বয়ে প্রজ্ঞাপন জারি

ঢাকা, ১৭ জ্যৈষ্ঠ (৩১ মে):

          করোনা ভাইরাসজনিত রোগ (কোভিড-১৯) এর বিস্তার রোধকল্পে শর্ত সাপেক্ষে সীমিত পরিসরে নির্দিষ্ট সংখ্যক যাত্রী নিয়ে স্বাস্থ্য বিধি নিশ্চিতকল্পে সরকার আন্তঃজেলা ও দূরপাল্লার, ঢাকা মহানগর ও এর পার্শ্ববর্তী এলাকা এবং চট্টগ্রাম মহানগরে চলাচলকারী বাস ও মিনিবাসের সর্বোচ্চ ভাড়া পুনর্নির্ধারণ করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে।

          আন্তঃজেলা ও দূরপাল্লার রুটে বাস ও মিনিবাস চলাচলের ক্ষেত্রে বিদ্যমান ভাড়ার (প্রতি কিলোমিটার সর্বোচ্চ ১.৪২ টাকা) ৬০ শতাংশ; ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরীতে বাস ও মিনিবাস চলাচলের ক্ষেত্রে বিদ্যমান ভাড়ার (ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরীতে চলাচলরত বাস ও মিনিবাসের সর্বোচ্চ ভাড়া প্রতি কিলোমিটার যথাক্রমে ১.৭০ টাকা ও ১.৬০ টাকা। বাস ও মিনিবাসের ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন ভাড়ার বিদ্যমান হার ৭ টাকা ও ৫ টাকা) ৬০ শতাংশ; ঢাকা ট্রান্সপোর্ট কোঅর্ডিনেশন অথরিটি (ডিটিসিএ) এর আওতাধীন  নারায়ণগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ, গাজীপুর, মানিকগঞ্জ ও ঢাকা জেলার অভ্যন্তরে চলাচলকারী বাস ও মিনিবাস উভয় ক্ষেত্রে ভাড়ার হার প্রতি কিলোমিটার ১.৬০ টাকার ৬০ শতাংশ বৃদ্ধি করা হয়েছে।

          চলাচলের সময় একজন যাত্রীকে  বাস বা মিনিবাসের পাশাপাশি দুইটি আসনের একটি আসনে বসিয়ে অপর আসনটি অবশ্যই ফাঁকা রাখতে হবে। স্বাস্থ্য বিধি অনুসারে শারীরিক ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। কোনোভাবেই সংশ্লিষ্ট মোটরযানের রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেটে উল্লিখিত মোট আসন সংখ্যার অর্ধেকের বেশি যাত্রী বহন করা যাবে না এবং দাঁড়িয়ে কোনো যাত্রী বহন করা যাবে না বলে প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়েছে।  বিদ্যমান হারে প্রচলিত ভাড়ার সাথে সরকার কর্তৃক অনুমোদিত ভাড়া বৃদ্ধির হার যোগ করে নতুন ভাড়া নির্ধারিত হবে। এছাড়া স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তর কর্তৃক প্রদত্ত নির্দেশনা যথাযথভাবে অনুসরণপূর্বক বাস ও মিনিবাস পরিচালনা করতে হবে। অনুমোদিত ভাড়ার হার করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) জনিত সংকটকালের জন্য প্রযোজ্য হবে। এ সংকট দূর হলে  বিদ্যমান হারের ভাড়া পুনঃপ্রযোজ্য হবে।

 

          জনস্বার্থে জারিকৃত এ ভাড়ার হার ১ জুন হতে কার্যকর হবে বলে সড়ক পরিবহন ও সেতু বিভাগের প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়েছে।

 

#

জসিম/ফারহানা/রাহাত/সঞ্জীব/আব্বাস/২০২০/২১১৫ ঘন্টা

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                  নম্বর : ১৯৮৩ 

 

ঐতিহাসিক ৬ দফা দিবস উপলক্ষে আলোচনা অনুষ্ঠান ও কুইজ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে

 

 

ঢাকা, ১৭ জ্যৈষ্ঠ (৩১ মে):

 

          করোনা ভাইরাসজনিত বর্তমান বৈশ্বিক পরিস্থিতির কারণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী জনস্বাস্থ্যের বিষয়টি সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়ে জনসমাগম পরিহার করে ডিজিটাল পদ্ধতিতে এ বছর ঐতিহাসিক ৬ দফা দিবস উদ্‌যাপন করা হবে।

 

          সে অনুযায়ী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদ্‌যাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি আগামী ৭ই জুন ঐতিহাসিক ৬ দফা দিবস উদ্‌যাপন উপলক্ষে টেলিভিশন, বেতার, অনলাইন ও সোশ্যাল মিডিয়ায় সম্প্রচারের জন্য একটি বিশেষ আলোচনা অনুষ্ঠান এবং অনলাইনে একটি কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উক্ত আলোচনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন।

 

          অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক হিসেবে থাকবেন বিশিষ্ট কথাসাহিত্যিক অধ্যাপক ড. সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম। আলোচক হিসেবে থাকবেন কৃষিমন্ত্রী ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক এবং শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। ধারণকৃত আলোচনা অনুষ্ঠানটি সকল সম্প্রচার মাধ্যম, অনলাইন ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ৭ই জুন  সন্ধ্যা ৭টা হতে রাত ১০টার মধ্যে সুবিধাজনক সময়ে সম্প্রচার করা হবে। অনুষ্ঠানটি সম্প্রচারের সময়সূচি যথাসময়ে সংশ্লিষ্ট টেলিভিশন চ্যানেলসহ অন্যান্য সংবাদ মাধ্যমে প্রচার করা হবে।

 

          এছাড়া জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ৬ দফা আন্দোলন ও এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জন বিষয়ে সকলকে, বিশেষ করে তরুণ প্রজন্মকে নিবিড়ভাবে সম্পৃক্ত করার লক্ষ্যে আগামী ৭ই জুন রাত ৯টা হতে রাত ১০টা এই এক ঘণ্টাব্যাপী অনলাইনে একটি কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে। অনলাইন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণে আগ্রহীগণকে আগে থেকেই quiz.mujib100.gov.bd ওয়েব লিংকের মাধ্যমে অনলাইন নিবন্ধন করতে হবে। কুইজ প্রতিযোগিতায় ১০০ জন বিজয়ীকে পুরস্কার প্রদান করা হবে। ১ম পুরস্কার ৩ লাখ টাকা, ২য় পুরস্কার ২ লাখ টাকা, ৩য় পুরস্কার ১ লাখ টাকা, ৪র্থ পুরস্কার ৫০ হাজার টাকা, ৫ম পুরস্কার ২৫ হাজার টাকা এবং বিশেষ পুরস্কার ৯৫টি প্রতিটি ৫ হাজার টাকা।  

 

          সম্প্রচার মাধ্যম, অনলাইন ও সোশ্যাল মিডিয়ায় উক্ত আলোচনা অনুষ্ঠান দেখার জন্য এবং অনলাইন কুইজ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী
উদ্‌যাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির পক্ষ হতে সকলকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

 

#

লিপি/ফারহানা/সঞ্জীব/আব্বাস/২০২০/১৯১১ ঘন্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                  নম্বর : ১৯৮২ 

 

করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত নারী উদ্যোক্তা ও ব্যবসায়ীদের সহায়তা করা হবে

---মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা, ১৭ জ্যৈষ্ঠ (৩১ মে):

 

            করোনা ভাইরাসের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত নারী উদ্যোক্তা ও ব্যবসায়ীদের ক্ষতির পরিমাণ দ্রুত নিরুপণ করে তাদের আর্থিক ও টেকনিক্যাল সহায়তা প্রদানের নির্দেশ দিয়েছেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা।

           

            প্রতিমন্ত্রী আজ বাংলাদেশ সচিবালয়ে তাঁর অফিস কক্ষে মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাবৃন্দ, দপ্তর-সংস্থার প্রধান ও প্রকল্প পরিচালকদের সাথে আয়োজিত এক সভায় এসব নির্দেশনা প্রদান করেন।

 

            প্রতিমন্ত্রী বলেন, উপজেলা ও জেলা পর্যায়ের অফিস থেকে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে তথ্য সংগ্রহ করে  ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা তৈরি করতে হবে। পহেলা বৈশাখ ও  ঈদে নারী উদ্যোক্তা ও ব্যবসায়ীরা পোষাক এবং তাদের উৎপাদিত বিভিন্ন পণ্যসামগ্রী বিক্রি করতে পারেনি। অনলাইনে এ সব পণ্যসামগ্রী বিক্রির জন্য তাদের প্রযুক্তিগত সহায়তা ও প্রশিক্ষণ দিতে হবে। এসব উদ্যোক্তাদের ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে আজ থেকেই কাজ শুরু করতে হবে। উপকূলীয় জেলাগুলোর উপর দিয়ে সম্প্রতি বয়ে যাওয়া ঘূর্ণিঝড় আম্পানের আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত নারী ও শিশুদের সহায়তা ও পুনর্বাসনেরও নির্দেশ দেন তিনি। 

 

            প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, করোনা ভাইরাসের বাস্তবতাকে মেনেই সবাইকে কাজ করতে হবে। এই পরিস্থিতিতে জাতীয় শিশু পুরস্কার-২০২০ ও ৮ আগস্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিবের জন্মবার্ষিকী উদযাপনের বিষয়ে করণীয় ঠিক করতে সংশ্লিষ্ট সকলকে নির্দেশ দেন। তিনি বলেন, সরকারি-বেসরকারি সকল ধরনের অফিস খুলে দেওয়ায় শিশু দিবাযত্ন কেন্দ্রগুলো সর্বোচ্চ সতর্কতা ও স্বাস্থ্য বিধি মেনে চালু করতে হবে। এ ছাড়াও দীর্ঘদিন ছুটির পর কর্মজীবী মহিলা হোস্টেলে আগত বোর্ডারদের তাপমাত্রা পরীক্ষা ও স্বাস্থ্যবিধি কঠোরভাবে মেনে চলার নির্দেশ দেন।

 

            মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ফরিদা পারভীন, মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক পারভীন আকতার, শিশু একাডেমির মহাপরিচালক জ্যোতি লাল কুরী, জাতীয় মহিলা সংস্থার নির্বাহী পরিচালক মাকসুরা নূর  ও প্রকল্প পরিচালক ড. আবুল হোসেনসহ বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাবৃন্দ সভায় উপস্থিত ছিলেন ।

 

#

আলমগীর/ফারহানা/সঞ্জীব/আব্বাস/২০২০/১৮৪৫ ঘন্টা

 

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                  নম্বর : ১৯৮১ 

 

স্বাস্থ্যবিধি বজায় রেখে সুষ্ঠুভাবে দাপ্তরিক কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে

                                                 --- প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য

 

ঢাকা, ১৭ জ্যৈষ্ঠ (৩১ মে):

 

       পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য বলেছেন, করোনা পরিস্থিতির সংকটকালে সবাইকে আন্তরিকতা ও নিষ্ঠার সাথে স্বাস্থ্যবিধি বজায় রেখে সুষ্ঠুভাবে দাপ্তরিক কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে।

 

       প্রতিমন্ত্রী আজ পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের সম্মলেন কক্ষে পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের আওতাধীন বিভিন্ন দপ্তর সংস্থার প্রধানদের সাথে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মতবিনিময় সভায় সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে এ বিভাগের বিভিন্ন দপ্তর সংস্থা অত্যন্ত সক্রিয়ভাবে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে। সুষ্ঠুভাবে দায়িত্ব পালনের জন্য তিনি পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগ এবং এর আওতাধীন দপ্তর সংস্থায় কর্মরত সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীকে ধন্যবাদ জানান।

 

       প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রযুক্তির সর্বোচ্চ ব্যবহারের মাধ্যমে সবাইকে অগ্রসর হতে হবে। সমবায়ের উৎপাদিত পণ্য নগদ বা অনলাইন মাধ্যম ব্যবহার করে বিক্রয়ের ব্যবস্থা করতে হবে। দেশকে বাঁচাতে হবে, জাতিকে বাঁচাতে হবে। জীবনের সাথে জীবিকা একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। বর্তমান প্রতিকূল পরিস্থিতি হতে উত্তরণের জন্য  সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী সকল স্বাস্থ্যবিধি বজায় রেখে অফিস কার্যক্রম পরিচালনার জন্য নির্দেশনা প্রদান করেছেন। বিশ্বব্যাপী এই প্রতিকূল পরিস্থিতি খুব অল্প সময়ে সমাধান হবে না। যার জন্য আমাদেরকে পরিস্থিতির সাথে মোকাবিলা করে টিকে থেকে সকল কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে হবে।

 

       মতবিনিময় সভায় অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন দপ্তর সংস্থার প্রধানগণ তাঁদের দপ্তরের বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পে গৃহীত কার্যক্রম এবং অগ্রগতি সভায় অবহিত করেন।

 

       মতবিনিময় সভায় অংশগ্রহণ করেন পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের সচিব মোঃ রেজাউল আহসান, এছাড়া বিভিন্ন প্রকল্পের পরিচালকসহ অন্যান্য দপ্তর সংস্থার প্রধান এবং এ মন্ত্রণালয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

 

#

আহসান/ফারহানা/সঞ্জীব/আব্বাস/২০২০/১৮৩৬ ঘন্টা

 

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                              নম্বর : ১৯৮০ 

 

ত্রাণে অনিয়মে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার এক কাউন্সিলর ও শরীয়তপুর

জেলার আরশীনগর ইউপি চেয়ারম্যান বরখাস্ত

ঢাকা, ১৭ জ্যৈষ্ঠ (৩১ মে):

 

            ত্রাণ বিতরণে অনিয়ম ও চাল আত্মসাতের অভিযোগে  ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার ১২ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রফিকুল ইসলাম নেহার এবং শরীয়তপুর জেলার ভেদরগঞ্জ উপজেলার আরশীনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ শামসুদ্দোহা (ডঃ রতন)-কে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছে, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়। আজ স্থানীয় সরকার বিভাগ হতে এ সংক্রান্ত পৃথক প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।

 

            করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হবার পর এ নিয়ে মোট ৭৪ জন জনপ্রতিনিধিকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হলো। এদের মধ্যে ২৪ জন ইউপি চেয়ারম্যান, ৪৫ জন ইউপি সদস্য, ১ জন জেলা পরিষদ সদস্য, ৩ জন পৌর কাউন্সিলর এবং ১ জন উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান।

 

            প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়, ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার কাউন্সিলর রফিকুল ইসলাম নেহার এর বিরুদ্ধে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণের কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে কর্মহীন হয়ে পড়া দরিদ্র/নিম্নআয়ের মানুষের মধ্যে বিশেষ ওএমএস কার্যক্রমের আওতায় ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিতরণে অনিয়ম করে নিজের পরিবারের সচ্ছল সদস্য ও আত্মীয়স্বজনসহ ১৬ ব্যক্তির নাম ওএমএসের ভোক্তা তালিকায় অন্তর্ভুক্তকরণ এর অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে।  স্থানীয় সরকার (পৌরসভা) আইন, ২০০৯ এর ধারা ৩১(১) অনুযায়ী তাকে স্বীয় পদ থেকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হলো।

 

            পৃথক প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, শরীয়তপুর জেলার ভেদরগঞ্জ উপজেলার আরশীনগর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ শামসুদ্দোহা (ডঃ রতন) মৎস্যজীবীদের ভিজিএফের ৩৫ বস্তা চাল আত্মসাতের অভিযোগে গ্রেপ্তার হয়ে জেলহাজতে রয়েছেন এবং শরীয়তপুরের জেলা প্রশাসক আইনানুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করেছেন। কাজেই স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইন, ২০০৯ এর ৩৪(১) ধারা অনুযায়ী তাকে স্বীয় পদ থেকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে।

 

            একই ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে শরীয়তপুর জেলার ভেদরগঞ্জ উপজেলার আরশীনগর ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি সচিব মোঃ জাহাঙ্গীর আলমের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য শরীয়তপুর জেলা প্রশাসককে অনুরোধ করা হয়েছে।

 

            এছাড়া করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়ার পূর্বে এ বছরের ফেব্রুয়ারি ও মার্চ মাসে চাল বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ তদন্তে প্রমাণিত হওয়ায় সাতক্ষীরা জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার মৌতলা ইউনিয়ন পরিষদের ১ নং ওয়ার্ডের সদস্য মীর সালমান রহমান ডালিম এবং দিনাজপুর জেলার বিরল উপজেলাধীন ধর্মপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৮ নং ওয়ার্ডের সদস্য মোঃ মতিউর রহমান (মতি)-কে সাময়িকভাবে বরখাস্তকরণের প্রজ্ঞাপনও আজ জারি করা হয়েছে।

 

#

হাসান/ফারহানা/সঞ্জীব/আব্বাস/২০২০/১৮২৩ ঘন্টা

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                  নম্বর : ১৯৭৯  

 

কোভিড-১৯ (করোনা ভাইরাস) সংক্রান্ত সর্বশেষ প্রতিবেদন

 

ঢাকা, ১৭ জ্যৈষ্ঠ (৩১ মে):

 

          ন্যাশনাল ডিজাস্টার রেসপন্স কো-অর্ডিনেশন সেন্টার (এনডিআরসিসি) থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য ৬৪ জেলায় ইতোমধ্যে ১ লাখ ৯১ হাজার ৮ শত ১৭ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ করা হয়েছে। এছাড়া শিশু খাদ্য-সহ অন্যান্য সামগ্রী ক্রয়ের জন্য ১১০ কোটি ৩৭ লাখ ৭২ হাজার ২৬৪ টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে বরাদ্দকৃত এ সাহায্য দেশের সকল জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে বিতরণ করা হচ্ছে । ‌

 

          স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এবং রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)-এর তথ্যানুযায়ী আজ দেশে নতুন করে আরো ২ হাজার ৫৪৫ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ ধরা পড়েছে। এ নিয়ে বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৪৭ হাজার ১৫৩ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ৪০ জন-সহ এ পর্যন্ত ৬৫০ জন এ রোগে মৃত্যুবরণ করেছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় ১১ হাজার ৮৭৬ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

          এখন পর্যন্ত সর্বমোট ২৪ লাখ ৭০ হাজার ২টি পিপিই সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে মোট বিতরণ করা হয়েছে ২১ লাখ ৪ হাজার ৫৩৪টি এবং মজুত আছে ৩ লাখ ৬৫ হাজার ৪৬৮টি।

 

          সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনের জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে ৬২৯টি প্রতিষ্ঠান এবং এর মাধ্যমে তাৎক্ষণিকভাবে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনের সেবা প্রদান করা যাবে ৩১ হাজার ৯৯১ জনকে।

 

#

তাসমীন/নাইচ/আব্বাস/২০২০/১৮২৭ ঘন্টা

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                                        নম্বর : ১৯৭৮ 

 

খেটে খাওয়া মানুষের কথা ভাবেনা বিএনপি -তথ্যমন্ত্রী

 

ঢাকা, ১৭ জ্যৈষ্ঠ (৩১ মে):

 

            তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহ্‌মুদ বলেছেন, ‘বিএনপি খেটে খাওয়া মানুষের কথা ভাবেনা, সেজন্যই তারা সবকিছু বন্ধ করে দেয়ার মতো কথা বলতে পারে।’ 

 

            আজ রাজধানীতে বাংলাদেশ সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সংক্ষিপ্ত ব্রিফিংয়ে ‘লকডাউন’ খোলার বিরুদ্ধে বিএনপি’র বক্তব্য নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন। 

 

            মন্ত্রী বলেন, ‘মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর প্রতিদিন নানা কথা বলছেন। বিএনপি’র বক্তব্যে মনে হয়, তাদের চিন্তাধারা একপেশে। দেশের কোটি কোটি খেটে খাওয়া মানুষের কথা তারা মোটেও চিন্তা করে না। প্রতিদিনের আয়ের ওপরই যে কোটি কোটি মানুষের জীবন-জীবিকা চলে, তাদের মুখে আহার ওঠে, সেই কথাটা মোটেই তারা চিন্তা করে না। সেজন্যই তারা সবকিছু একেবারে বন্ধ করে দেয়ার মতো কথা বলতে পারে, কারফিউ দেয়ার কথাও মাঝেমধ্যে তারা বলে।’

 

            ‘আমাদের দেশ একটি খেটে খাওয়া মানুষের দেশ, এখানে কোটি কোটি মানুষ তাদের প্রতিদিনের উপার্জনের ওপর নির্ভর করে, তাদের কথা মাথায় রেখেই সরকার সঠিক পদক্ষেপ নিয়ে এগুচ্ছে’ বলেন ড. হাছান।

 

            জীবনরক্ষার জন্য জীবিকাকেও রক্ষা করতে হয় এবং সরকারকে জীবন ও জীবিকা দু’টিই রক্ষার জন্য কাজ করতে হয় উল্লেখ করে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘সেকারণেই পৃথিবীর উন্নত দেশগুলো অর্থনৈতিক কর্মকান্ড শুরু করেছে। যুক্তরাজ্যে মৃত্যুহার ১৪ শতাংশের বেশি, সেখানে বেশ আগেই সমস্ত কর্মকাণ্ড শুরু হয়েছে। বেলজিয়ামে মৃত্যুর হার ১৬ শতাংশের বেশি, সেখানে গত সপ্তাহে সবকিছু খুলে দেয়া হয়েছে। ইটালি, স্পেনে কি বিপর্যস্ত অবস্থা ছিল! সেখানেও অর্থনৈতিক কর্মকান্ড শুরু হয়েছে। ইউরোপের অন্যান্য দেশেও তা শুরু হয়েছে। পাকিস্তানে বেশ ক’দিন আগে সবকিছু খুলে দেয়া হয়েছে। ভারতে দু’সপ্তাহের বেশি সময় আগে ট্রেনসহ নানা গণপরিবহন চালু করা হয়েছে, বিভিন্ন রাজ্যে অর্থনৈতিক কর্মকান্ড শুরু হয়েছে। আর আমাদের দেশে সরকারের সঠিক পদক্ষেপের ফলে মৃত্যুর হার ১.৩৬ শতাংশ যা ভারত, পাকিস্তান ও ইউরোপ-আমেরিকার চেয়ে অনেক কম।’ 

 

            আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘বাংলাদেশেও মানুষের জীবন-জীবিকা রক্ষার জন্যই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ২৬ মার্চ থেকে ঘোষিত সাধারণ ছুটি আজকের পর আর প্রলম্বিত করেননি। কারণ আমাদের দেশ একটি খেটে খাওয়া মানুষের দেশ। এখানে মাসের পর মাস সবকিছু বন্ধ করে রাখা সম্ভব নয়। যেখানে ইউরোপের উন্নত দেশগুলো পারেনি, সেখানে প্রতিদিন এখনও বহুমানুষের মৃত্যু হচ্ছে, প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ আক্রান্ত হচ্ছে, তারপরও তারা অর্থনৈতিক কর্মকান্ড শুরু করেছে।’

 

            একইসাথে সতর্কবার্তা উচ্চারণ করে ড. হাছান বলেন, ‘তবে এই অর্থনৈতিক কর্মকান্ড শুরু করা কিম্বা ছুটি প্রলম্বিত না করার মানে এই নয় যে, আমরা করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়ার আগে যেভাবে চলতাম, সেভাবে চলবো। এখন অবশ্যই আমাদের স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে, সবাইকে মাস্ক পরতে হবে, জনসমাগম এড়িয়ে চলতে হবে, সব ধরণের শারীরিক দুরত্ব বজায় রাখতে হবে। আড্ডা থেকে শুরু করে সামাজিক মেলামেশা পরিহার করতে হবে।’

 

            ‘মনে রাখতে হবে, আমার সুরক্ষা আমার হাতে’ উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, শুধুমাত্র প্রয়োজনেই আমরা ঘর থেকে বের হবো ও কাজ করবো, অপ্রয়োজনীয় কোনো কিছু করবো না, তাহলেই আমরা আমাদেরকে সুরক্ষা দিতে পারবো। 

 

#

আকরাম/ফারহানা/আব্বাস/২০২০/১৭৫০ ঘন্টা

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                                         নম্বর :  ১৯৭৭

স্বাস্থ্যবিধি মেনে লঞ্চে যাত্রী চলাচলে নির্দেশনা মানতে সচেতনতা বাড়াতে হবে

                                                                   - নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী                                                                                   

ঢাকা, ১৭ জ্যৈষ্ঠ (৩১ মে):

            নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহ্‌মুদ চৌধুরী বলেছেন, কোন ধরণের কার্যক্রম না থাকলে কেউ যেন স্থানান্তর না হয়, কাজ না থাকলে ঢাকামুখী হওয়ার দরকার নেই। তিনি বলেন, আপনাদের-আমাদের সকলের করোনা ঝুঁকি রয়েছে। ঢাকা সদরঘাটে ‘জীবানুনাশক টানেল’ বসানো হয়েছে, শুধু ঢাকা সদরঘাট নয়, অন্যান্য বন্দরেও এ ধরণের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে লঞ্চে যাত্রী চলাচলে সর্বাত্মক চেষ্টা করব। নির্দেশনা মানতে সচেতনতা বাড়াতে হবে। লঞ্চ মালিক ও শ্রমিকদেরকে এ বিষয়ে সচেতন থাকতে হবে। করোনা আমাদের ভয় নয়; সচেতনতার মাধ্যমেই আমাদেরকে করোনা জয় করতে হবে।

            প্রতিমন্ত্রী আজ ঢাকা সদরঘাটে অভ্যন্তরীণ নৌযান/লঞ্চ চলাচল ও যাত্রী সুরক্ষার সার্বিক প্রস্তুতি পর্যবেক্ষনকালে এসব কথা বলেন।

            এসময় অন্যান্যের মধ্যে বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান কমোডর গোলাম সাদেক, বিআইডব্লিউটিসির চেয়ারম্যান খাজা মিয়া এবং নৌপরিবহন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কমোডর সৈয়দ আরিফুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

            প্রতিমন্ত্রী সেখানে জীবানুনাশক টানেল উদ্বোধন করেন এবং লঞ্চে যাত্রীদের সাথে কথা বলেন। লঞ্চের ডেকের যাত্রীদের জন্য মার্কিং করা হয়েছে। তিনি যাত্রীদেরকে মার্কিং অনুযায়ী বসার অনুরোধ করেন। লঞ্চেও হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা রয়েছে।

            প্রতিমন্ত্রী বলেন, টিকেট করে লঞ্চে উঠার বিষয়টি বাস্তবায়নের আমাদের এটাই হচ্ছে সুবর্ণ সুযোগ ও সময়। এটাকে বাস্তবায়ন করার যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

            খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, সাধারণ ছুটি ৬০ দিন অতিক্রম করেছি। ৬০ দিনে আল্লাহর রহমতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাহসী নেতৃত্বের কারণে বাংলাদেশে আইনশৃংখলার কোথাও কোন অবনতি ঘটেনি। এটা একটা বিরাট সাফল্য। এর মধ্যে ঘূর্ণিঝড় ‘আম্পান’ হয়েছে, মৌসুমী ঘূর্ণিঝড় হয়েছে এবং বিভিন্ন রকম কার্যক্রম থাকার পরও ৯৫ ভাগ মানুষ নির্দেশনা মেনে চলেছে। কিছু কিছু মানুষ মেনে চলেনি, তা ৫-৭ ভাগ হবে। কোথাও বিশৃংখলা হয়নি। তিনি বলেন, স্বাস্থ্য উপদেষ্টা ও জাতীয় পরামর্শক কমিটির সুপারিশে সাময়িক ছুটি বাতিল করে সরকার ১৫ তারিখ পর্যন্ত একটি সময়সীমা বেঁধে দিয়েছে। গণপরিবহন সীমিত আকারে খোলার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে এবং সে সিদ্ধান্তের আলোকে নৌপথে লঞ্চ চলাচল শুরু হয়েছে।

            প্রতিমন্ত্রী বলেন, লঞ্চ চলাচলে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি গ্রহণ করেছি। বিআইডব্লিউটিএ মার্চের প্রথম সপ্তাহে স্বাস্থ্যবিধি মেনে লঞ্চে যাত্রী চলাচলে লিফলেট বিতরণ ও প্রচারণা চালিয়েছে। হ্যান্ডস্যানিটাইজার ও টেম্পারেচার মাপার যন্ত্রের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছিল। মালিক-শ্রমিকদের সাথে স্বাস্থ্যবিধি মেনে লঞ্চে যাত্রী চলাচলের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলা। লকডাউনের কারনে সেটি বাস্তবায়ন সম্ভব হয়নি। সভায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে যথাযথ গুরুত্ব আরোপ করা হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে লঞ্চে যাত্রী চলাচলে শতভাগ বাস্তবায়নের জন্য মালিক, শ্রমিক ও যাত্রীদের প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানান তিনি।

            খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে সরকারের সিদ্ধান্তের আলোকে অভ্যন্তরীণ নৌযান/লঞ্চ চলাচলের বিষয়টি নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় বাস্তবায়ন করছে। করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় পরামর্শক কমিটি ও জাতীয় কমিটি রয়েছে। তাদের পরামর্শ ও সুপারিশগুলো আমরা বাস্তবায়ন করছি।

            ঢাকা সদরঘাটে ছয়টি ‘জীবানুনাশক টানেল’ বসানো হয়েছে। পর্যায়ক্রমে ১৪টি জীবনুনাশক টানেল বসানো হবে। আজ দুপুর পর্যন্ত স্বাস্থ্য ও নৌবিধি মেনে ঢাকা সদরঘাট থেকে চাঁদপুর, মুন্সিগঞ্জসহ বিভিন্ন রুটে ১৩টি লঞ্চ ছেড়ে গেছে। দুপুরের পর থেকে রাত পর্যন্ত দক্ষিণাঞ্চলের লঞ্চগুলো ছেড়ে যাবে।

#

জাহাঙ্গীর/অনসূয়া/পরীক্ষিৎ/গিয়াস/আসমা/২০২০/১৬০০ ঘণ্টা

 

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                               নম্বর : ১৯৭৬

মোনেম খান এর মৃত্যুতে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি'র শোক প্রকাশ

ঢাকা, ১৭ জ্যৈষ্ঠ (৩১ মে):

          দেশের বিশিষ্ট শিল্পপতি ও মোনেম গ্রুপের চেয়ারম্যান আব্দুল মোনেম খান এর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃপ্রকাশ করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

          আজ এক শোকবার্তায় বাণিজ্যমন্ত্রী মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

#

লতিফ/অনসূয়া/পরীক্ষিৎ/গিয়াস/আসমা/২০২০/১৫৩০ ঘণ্টা

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                       নম্বর :  ১৯৭৫

রপ্তানি বাণিজ্যে পাট দ্বিতীয় স্থানে

ঢাকা, ১৭ জ্যৈষ্ঠ (৩১ মে):

            প্রথমবারের মত বাংলাদেশের রপ্তানি বাণিজ্যে চামড়াকে ছাড়িয়ে দ্বিতীয় স্থান দখল করে নিল পাট খাত।

            বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী,বীরপ্রতীক বলেছেন, ‘নির্মল ও দূষণমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে বহুমুখী পাট ও পাটজাত পণ্যের উৎপাদন বৃদ্ধিতে সবধরনের সহায়তা করবে সরকার । এজন্য, দেশীয় ও আন্তর্জাতিক বাজারের চাহিদা বিবেচনায় পাট চাষীদের উদ্বুদ্ধকরণ ও পাট শিল্পের সম্প্রসারণে সরকার ঘোষিত প্রণোদনা সঠিক ও সুষ্ঠুভাবে ব্যবহারে তৎপর থাকবে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়।’

            কোভিড-১৯ এর বিস্তার রোধকল্পে সরকার ঘোষিত সাধারণ ছুটি শেষে আজ  রোববার মন্ত্রণালয়ে তাঁর অফিস কক্ষে মন্ত্রণালয় এবং এর অধীনস্থ দপ্তর/সংস্থাসমূহের কার্যক্রম পর্যালোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। সভায় মন্ত্রণালয়ের সচিব লোকমান হোসেন মিয়া ও অতিরিক্ত সচিব মোঃ আব

2020-05-31-21-30-0d6a01c8ced8f90ccd3245ce3c3a55c6.docx 2020-05-31-21-30-0d6a01c8ced8f90ccd3245ce3c3a55c6.docx

Share with :

Facebook Facebook