তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৭ জানুয়ারি ২০২০

তথ্যবিবরণী-7/1/2020

তথ্যবিবরণী                                                                                       নম্বর : ৭৯

 

গাজীপুরে অবৈধ ইটভাটায় ভ্রাম্যমাণ আদালত
৮টি ইটভাটা ধ্বংস ও ৫৯ লাখ টাকা অর্থদণ্ড
 

ঢাকা, ২৩ পৌষ (৭ জানুয়ারি) :

 

ঢাকা শহরের চারপাশের অবৈধ ইটভাটার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের অংশ হিসেবে আজ পরিবেশ অধিদপ্তর গাজীপুর জেলায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে। পরিবেশ অধিদপ্তরের এনফোর্সমেন্ট উইং এর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাকসুদ ইসলাম এবং গাজীপুর জেলার পরিবেশ অধিদপ্তরের উপপরিচালক আব্দুস সালামের পরিচালনায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে এদিন ৮ টি অবৈধ ইটভাটা ধ্বংস করা হয় এবং পাশাপাশি ৫৯ লাখ টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়।

 

সাতটি অবৈধ ইটভাটার মালিকের নিকট হতে ৩৯ লাখ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। এক অবৈধ ইটভাটার মালিক অর্থদণ্ড প্রদানে ব্যর্থ হওয়ায় তাকে দুই মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকারী নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জানান, অবৈধ ইটভাটার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ অব্যাহত থাকবে।

 

#

 

দীপংকর/নাইচ/রফিকুল/সেলিম/২০২০/২২৪০ ঘণ্টা

 




 

 

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                       নম্বর : ৭৮

 

১৩ তম এস এ গেমসে তায়্কায়ান্ডোতে পদকজয়ী খেলোয়াড়দের সংবর্ধনা

 

ঢাকা, ২৩ পৌষ (৭ জানুয়ারি) :

 

আজ জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের জিমন্যাশিয়ামে নেপালে অনুষ্ঠিত এস এ গেমসে  তায়কোয়ান্ডোর এক স্বর্ণজয়ী ও ১০ ব্রোঞ্জজয়ীর হাতে সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল।

 

          এ সময় বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসিয়েশন (বিওএ)-এর উপ-মহাসচিব আশিকুর রহমান মিকু, ফেডারেশনের সভাপতি কাজী মোর্শেদ কামাল, সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল ইসলাম রানা-সহ অন্য ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদকরা উপস্থিত ছিলেন।

 

কেবল নেপালই নয়, ২০০৬ সালে কলম্বো গেমসে সোনাজয়ী মিজানুর রহমান এবং ২০১০ সালে ঢাকা এসএ গেমসে স্বর্ণজয়ী দুই নারী ক্রীড়াবিদ শারমীন ফারজানা রুমি ও শাম্মী আক্তারের হাতেও ক্রেস্ট তুলে দেয়া হয়।

 

প্রধান অতিথির বক্তব্যে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বলেন,  সদ্য সমাপ্ত এস এ গেমসে বাংলাদেশ অতীতের সকল রেকর্ড ভেঙে সর্বোচ্চ সংখ্যক পদক অর্জন করেছে। এবারকার গেমসে তায়কোয়ান্ডো থেকে প্রথম স্বর্ণ এসেছে। এছাড়াও ১০ টি ব্রোন্জ অর্জন হয়েছে। তিনি প্রত্যেক পদকজয়ীকে আন্তরিক অভিনন্দন জানান। আজকের এ সংবর্ধনা আমাদের তায়কোয়ান্ডোকাদের আগামীতে আরো পদক জিততে উদ্বুদ্ধ করবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

 

#

 

আরিফ/নাইচ/রফিকুল/সেলিম/২০২০/২২৩০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                  নম্বর : ৭৭

উদ্বোধন করা হলো মুজিববর্ষ অ্যামেচার গলফ চ্যাম্পিয়নশিপ

ঢাকা, ২৩ পৌষ (৭ জানুয়ারি) :

          কুর্মিটোলা গলফ ক্লাবে আজ প্রধান অতিথি হিসেবে মুজিববর্ষ অ্যামেচার গলফ চ্যাম্পিয়নশিপের উদ্বোধন করেছেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল।

          প্রধান অতিথির বক্তব্যে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বলেন, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উদ্যাপন উপলক্ষে ক্রীড়াঙ্গনকে সাজানো হয়েছে নানা বর্ণিল কর্মসূচি দিয়ে। এ বছর আয়োজিত হবে প্রায় ১০০টি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট। এরই ধারাবাহিকতায় আজ শুরু হচ্ছে স্বাগতিক বাংলাদেশ-সহ ৮টি দেশ নিয়ে মুজিববর্ষ অ্যামেচার গলফ চ্যাম্পিয়নশিপ।

          বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে জাতীয় অ্যামেচার গলফ চ্যাম্পিয়নশিপকে মুজিববর্ষ হিসেবে নামকরণ করা হয়েছে।

          স্বাগতিক বাংলাদেশ-সহ আটটি দেশের ২০৫ জন গলফার অংশ নিচ্ছেন এই প্রতিযোগিতার। দেশগুলো হচ্ছে- আফগানিস্তান, ইরান, চীন, নেপাল, মালয়েশিয়া, শ্রীলঙ্কা ও ভুটান।

          বুধবার থেকে শুরু হওয়া এই টুর্নামেন্টের পর্দা নামবে ১১ জানুয়ারি।

#

আরিফ/নাইচ/রফিকুল/জয়নুল/২০২০/২১৫০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                  নম্বর : ৭৬

 

জয় বাংলা সেøাগানকে তরুণদের মধ্যে ছড়িয়ে দিতে মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রীর আহ্বান

ঢাকা, ২৩ পৌষ (৭ জানুয়ারি) :

          জয় বাংলা সেøাগানকে তরুণদের মধ্যে ছড়িয়ে দিতে মুক্তিযোদ্ধাদের মাঠ পর্যায়ে কাজ করতে আহ্বান জানিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। পাশাপাশি স্বাধীনতা বিরোধীদের কাছ থেকে দেশকে রক্ষা করতে মুক্তিযুদ্ধে স্বপক্ষের শক্তিকে সর্তক থাকারও আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

          মন্ত্রী আজ কুষ্টিয়ার কুমাখালী উপজেলার বাঁশশগ্রাম আলাউদ্দিন আহমেদ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের রজতজয়ন্তী উদ্যাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

          মন্ত্রী বলেন, মুক্তিযুদ্ধকালে জামায়াতে ইসলামি, রাজাকার, আলবদর ও আলশামস সদস্যরা পাকহানাদার বাহিনীর সাথে হাত মিলিয়ে এদেশের মুক্তিকামী মানুষকে নির্বিচারে হত্যা করেছে। তারা মা-বোনদের ওপর পাশবিক নির্যাতন চালিয়েছে। তাদের ভূমিকা পাঠ্যপুস্তকে লিপিবদ্ধ করতে হবে। তা না হলে মানুষ ইতিহাস ভুলে যাবে। ভুলে গেলে দেশপ্রেম থাকবে না।

          তিনি আরো বলেন, এ বছর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীতে সারাদেশে ১৪ হাজার অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের বাড়ি নির্মাণ করে দেওয়া হবে। প্রতিটি বাড়ি নির্মাণে ১৬ লাখ টাকা ব্যয় করা হবে।

          উল্লেখ্য এর আগে মন্ত্রী কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় অবস্থিত বংশিতলা স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তর্বক অর্পণ ও দুর্বাচারায় শহিদ মুক্তিযোদ্ধাদের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন ।

#

মারুফ/নাইচ/রফিকুল/জয়নুল/২০২০/২১৪০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                       নম্বর :  ৭৫

 

টুঙ্গিপাড়ায় স্কুল মিল কার্যক্রম উদ্বোধন করলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী

 

টুঙ্গিপাড়া (গোপালগঞ্জ), ২৩ পৌষ (৭ জানুয়ারি) :

 

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাকির হোসেন আজ টুঙ্গিপাড়ায়  মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে একদিন অন্তর রান্না করা খাবার ও উচ্চ পুষ্টিমান সমৃদ্ধ বিস্কুট সরবরাহ  স্কুল মিল কার্যক্রম উদ্বোধন করেন। ফলে দেশের ১৬টি উপজেলার ২ হাজার ১৬৬টি বিদ্যালয়ের ৪ লাখ ১০ হাজার ২৩৮ জন শিক্ষার্থীরা এ কার্যক্রমের আওতায় আসলো। আগামী ২০২০-২০২১ অর্থবছর থেকে পর্যায়ক্রমে দেশের সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের স্কুল ফিডিং প্রকল্পের  আওতায় আনার লক্ষ্যে ডিপিপি প্রণয়নের কার্যক্রম শেষ পর্যায়ে রয়েছে।


          গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ আকরাম- আল-হোসেন।


          প্রতিমন্ত্রী বলেন, দারিদ্র্যপীড়িত এলাকায় স্কুল ফিডিং প্রকল্প ২০১০ সালে শুধু গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়া ও কোটালীপাড়া উপজেলায় শুরু হয়। বর্তমানে ১০৪ টি উপজেলায় ২৮ লাখ ৭৫ হাজার শিক্ষার্থীর মাঝে প্রতি স্কুল দিবসে উপস্থিতির ভিত্তিতে প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে দৈনিক ৭৫ গ্রাম  ফর্টিফাইড বিস্কুট কার্যক্রম চলমান আছে।


          প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, বিদ্যালয়ে ঝরে পড়া রোধ, শ্রেণি কক্ষে শিক্ষার্থীদের ধরে রাখা এবং শিক্ষার মান বাড়াতে দারিদ্র্যপীড়িত এলাকায় স্কুল মিল  কার্যক্রমটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।


          এর আগে প্রতিমন্ত্রী টুঙ্গিপাড়ায় গিমাডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধু বুক কর্নার উদ্বোধন করেন।

 

#

 

রবীন্দ্রনাথ/মাহমুদ/সঞ্জীব/সেলিম/২০২০/১৯৩০ ঘণ্টা

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                  নম্বর : ৭৪

সকল কার্যক্রমে ডিজিটাইজেশনের বিকল্প নেই

--- গণপূর্ত মন্ত্রী

ঢাকা, ২৩ পৌষ (৭ জানুয়ারি) :

            গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের দোরগোড়ায় দাঁড়িয়ে মন্ত্রণালয় ও আওতাধীন দপ্তর-সংস্থার সকল কার্যক্রমে ডিজিটাইজেশনের কোনো বিকল্প নেই।

            আজ সচিবালয়ে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সরকারের এক বছর পূর্তিতে ‘স্বপ্নযাত্রার এক বছর’ শিরোনামে মন্ত্রণালয়ের বিগত এক বছরের কার্যক্রম পর্যালোচনা সভায় দিক-নির্দেশনামূলক বক্তব্যে মন্ত্রী এ মন্তব্য করেন।

            সভায় কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে মন্ত্রী বলেন, ‘নতুন বছরে মন্ত্রণালয়ের সকল প্রকল্পে কাজের গতি বাড়াতে হবে, নতুন নতুন উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহণ করতে হবে এবং অকারণে চলমান উন্নয়ন প্রকল্প বিলম্বিত করা যাবে না। পরিত্যক্ত সম্পত্তি উদ্ধারে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে। সরকারি সম্পত্তি অবৈধ দখলমুক্ত করে উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহণ করতে হবে। সম্মিলিত প্রচেষ্টা না থাকলে আমরা এগুতে পারবো না।’

            গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ শহীদ উল্লা খন্দকারের সভাপতিত্বে মন্ত্রণালয়ের সকল পর্যায়ের কর্মকর্তা ও আওতাধীন দপ্তর-সংস্থার প্রধানগণ সভায় উপস্থিত ছিলেন।

#

ইফতেখার/ফারহানা/রফিকুল/জয়নুল/২০২০/১৯৩০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                  নম্বর : ৭৩

 

এটলাসের নতুন মোটর সাইকেল সংযোজন প্লান্ট উদ্বোধন

 

ঢাকা, ২৩ পৌষ (৭ জানুয়ারি) :

            টঙ্গীতে এটলাস বাংলাদেশ লিমিটেড (এবিএল) স্থাপিত মোটর সাইকেলের আধুনিক সংযোজন প্লান্ট আজ উদ্বোধন করা হয়েছে। শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন প্রধান অতিথি হিসেবে এ প্লান্ট উদ্বোধন করেন।

            এটলাস বাংলাদেশ লিমিটেড এবং টিভিএস অটো বাংলাদেশ লিমিটেডের মধ্যে স্বাক্ষরিত কর্পোরেট পার্টনার চুক্তির আওতায় এ নতুন সংযোজন প্লান্ট স্থাপন করা হয়। এতে ব্যয় হয়েছে প্রায় ৩ কোটি ৬৪ লাখ টাকা। এ প্লান্টে দৈনিক টিভিএস ব্র্যান্ডের ২০০ মোটর সাইকেল সংযোজিত হবে। ফলে এবিএল এর নিজস্ব বাজার চাহিদা মিটিয়ে বছরে প্রায় ২০-২৫ হাজার মোটর সাইকেল টিভিএস অটো বাংলাদেশ লিমিটেডকে সরবরাহ করা যাবে। টিভিএস অটো প্রতিটি মোটর সাইকেল সংযোজন চার্জ বাবদ একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ ফি এবিএলকে প্রদান করবে। 

            এবিএল প্রাঙ্গণে বাংলাদেশ ইস্পাত ও প্রকৌশল কর্পোরেশন (বিএসইসি) এর চেয়ারম্যান শেখ মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার এবং গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোঃ জাহাঙ্গীর আলম বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন। এ সময় এবিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আ ন ম কামরুল ইসলাম, এবিএল শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি মোঃ মুজিবুর রহমান এবং শিল্প মন্ত্রণালয় ও বিএসইসি’র ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

            প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্পমন্ত্রী বলেন, ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য একটি সমৃদ্ধিশালী বাংলাদেশ বিনির্মাণ বর্তমান সরকারের অন্যতম লক্ষ্য। এ লক্ষ্য অর্জনে শ্রমিক-মালিক নির্বিশেষে সবাইকে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে। প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বে বর্তমান সরকার ষাটের দশকের পুরাতন ও বন্ধ কারখানা চালুর উদ্যোগ নিয়েছে। এসব কারখানা লাভজনক করে যুব সমাজের জন্য কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করা হবে। তিনি রাষ্ট্রায়ত্ত কারখানা লাভজনক করতে সবাইকে সর্বোচ্চ নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার সাথে কাজ করার আহ্বান জানান।

            বিশেষ অতিথির বক্তব্যে শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার আমদানি নির্ভরতা কমিয়ে এটলাসের উৎপাদন সক্ষমতা বৃদ্ধির আহ্বান জানিয়ে বলেন, মোটর সাইকেলের সকল কম্পোনেন্ট তৈরি সক্ষমতা এ প্রতিষ্ঠানকে অর্জন করতে হবে। শিল্প কারখানা ছাড়া দেশ এগিয়ে যেতে পারে না উল্লেখ করে তিনি এটলাসের খালি জমিতে নতুন কারখানা স্থাপনের প্রকল্প গ্রহণের জন্য বাংলাদেশ ইস্পাত প্রকৌশল কর্পোরেশনকে নির্দেশনা প্রদান করেন।

            গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোঃ জাহাঙ্গীর আলম এটলাস বাংলাদেশ লিমিটেডকে লাভজনক করার ক্ষেত্রে সর্বাত্মক সহায়তার আশ্বাস প্রদান করেন।

#

জলিল/মাহমুদ/রফিকুল/জয়নুল/২০২০/১৯২০ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                                                        নম্বর : ৭২

 

ধারাবাহিক সাফল্যের আরো এক বছর

নেতিবাচক রাজনীতি না থাকলে অগ্রগতি হতো আরো বেশি

                                                           -- তথ্যমন্ত্রী

 

ঢাকা, ২৩ পৌষ (৭ জানুয়ারি) :

 

আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকারের টানা তৃতীয় মেয়াদের প্রথম বছরকে ধারাবাহিক সাফল্যের আরো এক বছর বলে অভিহিত করেছেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহ্‌মুদ। সেইসাথে তিনি বলেন, নেতিবাচক রাজনীতি না থাকলে অগ্রগতি আরো বেশি হতো।

 

আজ দুপুরে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সরকারের তৃতীয় মেয়াদের প্রথম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব কামরুন নাহার ও প্রধান তথ্য অফিসার সুরথ কুমার সরকার এ সময় উপস্থিত ছিলেন। 

 

মন্ত্রী আরো বলেন, আওয়ামী লীগ নেতিবাচক রাজনীতি (Politics of Denial) ও সংঘর্ষের রাজনীতি (Politics of Confrontation) পরিহারের পক্ষে। কিন্তু একপক্ষ হাত প্রসারিত করলে তা সম্ভব নয়, বিরোধী পক্ষকেও এগিয়ে আসতে হবে।

 

দিনটি সম্পর্কে মন্ত্রী বলেন, ‘গতবছরের ৭ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা টানা তৃতীয় মেয়াদে জনগণের ম্যান্ডেট নিয়ে দেশ পরিচালনার দায়িত্ব গ্রহণ করেছিলেন। এদিন টানা তৃতীয়বার এবং দেশে চতুর্থবারের মতো প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করেছিলেন। একইসাথে মন্ত্রিপরিষদের সদস্যবৃন্দ শপথ গ্রহণ করেছিলেন। সেই হিসেবে সরকারের আজকে একবছর পূর্তি।’

 

দশ বছরের সাফল্যের ধারাবাহিকতা রক্ষা করে গতবছরও বাংলাদেশের জন্য আরেকটি সাফল্যের বছর ছিল, উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দায়িত্ব গ্রহণ করার পর ২০০৯ সালের দ্বিতীয়বার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করার পর বাংলাদেশ অব্যাহতভাবে, ধারাবাহিকভাবে অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাচ্ছে। সেই অভিযাত্রায় বাংলাদেশ এখন আর স্বল্পোন্নত নয়, ইতিমধ্যেই মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হয়েছে। বাংলাদেশ এখন আর খাদ্যঘাটতির দেশ নয়, খাদ্যে উদ্বৃত্তের দেশে রূপান্তরিত হয়েছে।

 

ড. হাছান বলেন, গত অর্থবছরে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ছিল ৮ দশমিক ১৫ শতাংশ, যেটি দেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ। একইসাথে মূল্যস্ফীতি ছিল ৬ শতাংশের নিচে এবং গত ১১ বছরে পৃথিবীর সমস্ত রাষ্ট্রসমূহের যদি অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি যোগফল নেয়া হয় তাহলে, বাংলাদেশে গত ১১ বছরে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ছিল পৃথিবীতে সর্বোচ্চ। জাতির জন্য  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এই অর্জন জাতিকে লক্ষ্যে পৌঁছানোর ক্ষেত্রে, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণের ক্ষেত্রে, স্বপ্ন পূরণের অভিযাত্রা দ্রুতগতিতে এগিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে অদম্য গতিতে এগিয়ে চলার স্বাক্ষর।

 

চলমান পাতা/২

-- ০২--

তথ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে মাথাপিছু আয় যেটি ২০০৮ সালে ছিল ৬০০ ডলার, সেটি গতবছর ২০০০ ডলারে উন্নীত হয়েছে। প্রবাসী আয় ১৮ শতাংশ প্রবৃদ্ধির মাধ্যমে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৮৩৩ কোটি ডলারে যা আগের বছর ছিল ১ হাজার ৫৫৩ কোটি ডলার। আজকে বাংলাদেশ সমস্ত অর্থনৈতিক ও সামাজিক সূচকে পাকিস্তানকে এবং কোনো কোনো ক্ষেত্রে ভারতকেও ছাড়িয়ে গেছে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বের সাফল্য সেখানেই, পাকিস্তানে টেলিভিশনে আলোচনা হয় পাকিস্তানকে যেন পাঁচ বছরের মধ্যে বাংলাদেশ বানানোর চেষ্টা করা হয়। এমনকি পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান তিনিও অকপটে স্বীকার করেছেন যে বাংলাদেশ আজকে সমস্ত সূচকে পাকিস্তানকে ছাড়িয়ে গেছে।

 

তথ্যমন্ত্রী আরো বলেন, শিক্ষা ক্ষেত্রে বাংলাদেশ অসামান্য সাফল্য অর্জন করেছে। বাংলাদেশে শিক্ষিতের হার প্রায় ৭৫ শতাংশে উন্নীত হয়েছে। বাংলাদেশে প্রতিবছর পহেলা জানুয়ারি শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিনামূল্যে বই বিতরণ করা হয়।  ৯৫ শতাংশ মানুষ আজ বিদ্যুৎ সুবিধার আওতায় এসেছে। মুজিববর্ষে আমরা আশা করছি দেশের শতভাগ মানুষ বিদ্যুৎ সুবিধা পাবে।

 

সরকার পৃথিবীর দীর্ঘতম সেতু পদ্মাসেতু নিজস্ব অর্থায়নে নির্মাণ করছে, উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, পদ্মাসেতুর ৮৪ দশমিক ৫ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে। উপমহাদেশের প্রথম নদীর তলদেশ দিয়ে মোটর টানেল কর্ণফুলী নদীর তলদেশ দিয়ে দ্রুত নির্মাণ হচ্ছে, যার ৪০ শতাংশের বেশি কাজ ইতোমধ্যেই শেষ হয়েছে। বিশ্বের অন্যতম জনবহুল শহর ঢাকায় চলাচলের সুবিধার্থে মেট্রোরেল নির্মাণের কাজ চলছে, যা ২০২১ সালের ১৬ ডিসেম্বর উন্মুক্ত হবে। ইতোমধ্যে চট্টগ্রামেও মেট্রোরেল নির্মাণের নির্দেশনা দিয়েছেন  প্রধানমন্ত্রী, বলেও জানান তিনি।

 

খাদ্য উৎপাদন নিয়ে মন্ত্রী বলেন, এখন আমরা বিশ্বের সবচেয়ে কম আয়তনের জনবহুল দেশ হওয়া সত্ত্বেও খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ ও উদ্বৃত্তের দেশ, যা শুধু অন্য দেশগুলোর কাছে নয়, বিশ্ব খাদ্যসংস্থা কাছেও বিস্ময়। বর্তমানে খাদ্যশস্য উৎপাদন ৪ কোটি ৪৪ লাখ মেট্রিক টন যা ২০০৬ সালের তুলনায় ৬১ ভাগ বেশি।

 

নিজ মন্ত্রণালয়ের অগ্রগতি তুলে ধরতে গিয়ে মন্ত্রী বলেন, ভারতে বাংলাদেশ টেলিভিশন দেখানো প্রচেষ্টা চালানো হয়েছিল কয়েক যুগ আগে থেকে। কিন্তু সেটি সম্ভবপর হয়নি। গত বছর ২ সেপ্টেম্বর থেকে দূরদর্শনের ফ্রি ডিশের মাধ্যমে সমগ্র ভারতে অফিসিয়ালি বাংলাদেশ টেলিভিশন প্রদর্শিত হচ্ছে। এ মাসেই বাংলাদেশ বেতারও সমগ্র ভারতে সম্প্রচারিত হবে। এক যুগেরও বেশি সময় ধরে টেলিভিশন চ্যানেলগুলো ক্রম নির্ধারণের জন্য বারংবার তাগাদা দেয়া হয়েছিল, যা গত বছর আমরা ঠিক করতে পেরেছি।

 

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ওপর তথ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে ভারত এবং বাংলাদেশের যৌথ প্রযোজনায় একটি চলচ্চিত্র নির্মিত হচ্ছে যার কাজ অনেক দূর এগিয়ে গেছে, জানান মন্ত্রী।

 

ড. হাছান বলেন, বিদেশি টেলিভিশনের মাধ্যমে দেশি বিজ্ঞাপন বন্ধ  করেছি। অনেকগুলো টেলিভিশনে বিদেশি সিরিয়াল কোনো অনুমতি ছাড়া প্রদর্শিত হচ্ছিল, যেটি আমরা একটি নিয়মনীতির মধ্যে এনেছি। অবৈধ ডিটিএইচ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে মোবাইল কোর্ট চলছে। চলচ্চিত্র শিল্পীদের দাবি ছিল একটি কল্যাণ ট্রাস্ট করা। সেই কল্যাণ ট্রাস্ট গঠন করতে ট্রাস্ট আইন প্রণয়নের কাজ চূড়ান্ত পর্যায়ে।

#

আকরাম/মাহমুদ/সঞ্জীব/সেলিম/২০২০/১৮৩০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                  নম্বর : ৭১

 

বঙ্গবন্ধু কৃষি পুরস্কার ট্রাস্টি বোর্ডের সভা অনুষ্ঠিত

                                              

ঢাকা, ২৩ পৌষ (৭ জানুয়ারি) :

          কৃষি ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য ও অনুকরণীয় অবদানের জন্য রাষ্ট্রীয় সর্বোচ্চ সম্মাননা ‘বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পুরস্কার’ আগের ন্যায় ১৪২৪ বঙ্গাব্দের পুরস্কার দেয়া হবে। মোট ২শ’ ৮৫টি আবেদনের মধ্য হতে সর্বশেষ ৪০টি আবেদনের মধ্য হতে ৩২ জন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে নির্বাচন করা হয়েছে।

          কৃষিমন্ত্রী ও বঙ্গবন্ধু কৃষি পুরস্কার ট্রাস্ট্রি বোর্ডের চেয়ারম্যান ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাকের সভাপতিত্বে আজ ঢাকায় মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে বঙ্গবন্ধু কৃষি পুরস্কার ট্রাস্টি বোর্ডের ৫ম সভায় এসব তথ্য জানানো হয়।

          সরকার খাদ্য উৎপাদনের জন্য আধুনিক, উন্নত ও টেকসই প্রযুক্তির উদ্ভাবন ও ব্যবহারকে শক্তিশালী করেছে। এছাড়া খাদ্য উৎপাদন খরচ হ্রাস করার জন্য সারের মূল্য একাধিকবার কমানো হয়েছে। কৃষি শতভাগ যান্ত্রিকীকরণ কাজ এগিয়ে চলছে। এর ফলে খাদ্য উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণ অর্জন করা-সহ ইতিমধ্যে রপ্তানিও করেছে বাংলাদেশ।

          অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন কৃষি সচিব মোঃ নাসিরুজ্জামান। অনুষ্ঠানে বোর্ডের সদস্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন  কমিটির সদস্য পরিবশে, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মোঃ শাহাব উদ্দিন, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী মোঃ আশরাফ আলী খান খসরু, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসিবৃন্দ এবং বঙ্গবন্ধু চেয়ার এর অধ্যাপক ড. আতিউর রহমান-সহ মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

#

গিয়াস/ফারহানা/সঞ্জীব/জয়নুল/২০২০/১৯১০ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                                       নম্বর : ৭০

স্বনির্ভর জাতি গঠনে তৃণমূল নারীর ক্ষমতায়ন জরুরি

                                                          -স্পিকার

ঢাকা, ২৩ পৌষ (৭ জানুয়ারি) :

          স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, তৃণমূল নারীর ক্ষমতায়নের মাধ্যমে স্বনির্ভর জাতি গড়া সম্ভব। একজন আত্মপ্রত্যয়ী ও স্বনির্ভর মা পরিবারের কল্যাণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারেন।

          তিনি আজ রাজধানীর রাজারবাগে বাংলাদেশ পুলিশ অডিটোরিয়ামে পুলিশ সপ্তাহ ২০২০ উপলক্ষে 'পুনাক বার্ষিক সমাবেশ ও আনন্দমেলা-২০২০' শীর্ষক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে এসব কথা বলেন।

          ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নারী উন্নয়নে ব্যাপক অগ্রগতি সাধিত হয়েছে। নারী পুলিশ সদস্যরা অত্যন্ত দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করছে। নারী উদ্যোক্তা তৈরি ও তাদের অর্থনৈতিক স্বাবলম্বিতা অর্জনে নারী পুলিশ কল্যাণ সমিতি (পুনাক) আরো অগ্রণি ভূমিকা পালন করবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

          স্পিকার বলেন, স্বনির্ভর নারী গঠনে বাংলাদেশ পুনাক উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখছে- যা প্রশংসনীয়। উন্নয়নের মূল স্রোতধারায় সম্পৃক্ত হয়ে পুনাক সদস্যরা কাজ করলে নারীর অর্থনৈতিক ক্ষমতায়ন বৃদ্ধি পাবে। নতুন ক্ষেত্রসমূহে উদ্ভাবনী শক্তি নিয়ে এগিয়ে যাওয়ার জন্য পুনাক সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি। নিজস্ব প্রচেষ্টায় সুযোগকে কাজে লাগিয়ে এগিয়ে গেলে অর্জিত হবে কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্য-অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি বলে তিনি মন্তব্য করেন।

          স্পিকার এ সময় কৃতি শিক্ষার্থীদের মাঝে মেধাবৃত্তি ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় উত্তীর্ণদের মাঝে পুরস্কার প্রদান করেন। পরে তিনি আনন্দমেলা উপলক্ষে আয়োজিত পুনাকের স্টল পরিদর্শন করেন।

          পুনাকের সভানেত্রী হাবিবা জাবেদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বিজিএমই-এর সভাপতি
ড. রুবানা হক বক্তব্য রাখেন।

#

তারিক/পরীক্ষিৎ/জুলফিকার/শামীম/২০২০/১৬২৭ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                      নম্বর : ৬৯

পর্যটনশিল্পের প্রসারে প্রয়োজন দক্ষ জনশক্তি

                           -পর্যটন প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা, ২৩ পৌষ (৭ জানুয়ারি) :

          বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মোঃ মাহবুব আলী বলেছেন, পর্যটনশিল্পের প্রসারে দক্ষ জনশক্তি প্রয়োজন। এ খাত থেকে সুফল ঘরে তুলতে হলে বেশি করে দক্ষ পর্যটন কর্মী তৈরি করতে হবে। দেশে পর্যটন শিল্পে এখনো প্রচুর বিদেশি কাজ করে, যেখানে দেশীয় লোকবলের কাজ করার সুযোগ রয়েছে। দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে চালু হওয়া পর্যটনবিষয়ক কোর্সসমূহ এখাতে  দক্ষ জনশক্তি তৈরিতে ভূমিকা পালন করবে।

          আজ রাজধানীর হোটেল প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও-এ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি বিভাগের নবীনবরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অথিতির বক্তব্যে একথা বলেন তিনি।

          প্রতিমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন তাদের ট্রেনিং সেন্টারের মাধ্যমে জনশক্তি তৈরিতে কাজ করছে। দক্ষ পর্যটন কর্মী গড়ে তোলার জন্য পর্যটন কর্পোরেশন পরিচালিত ন্যাশনাল হোটেল এন্ড ট্যুরিজম ট্রেনিং ইন্সটিটিউট এর ঢাকা অফিসের বাইরেও বরিশাল ও কক্সবাজারে দুইটি নতুন কেন্দ্র স্থাপন করা হচ্ছে। 

          মাহবুব আলী বলেন, বর্তমানে পৃথিবীতে প্রতি ১০ জনের মধ্যে ১ জন প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে পর্যটন সম্পর্কিত পেশার সাথে জড়িত। পর্যটনশিল্পের দ্রুত বিকাশের ফলে এ শিল্পে দেশের মানুষের কর্মসংস্থানের বড় সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। বেকারত্ব দূরীকরণে পর্যটনশিল্প গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। তিনি জানান ২০১৭ সালে বাংলাদেশে পর্যটনশিল্প প্রত্যক্ষভাবে ১১ লাখ ৭৮ হাজার ৫০০ লোকের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করেছে যা ২০২৮ সালে গিয়ে দাঁড়াবে ১৬ লাখ ৪৮ হাজারে। 

          প্রতিমন্ত্রী বলেন, পর্যটন যেকোন দেশের টেকসই উন্নয়নের হাতিয়ার। শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বে বাংলাদেশের বর্তমান সরকার অগ্রাধিকার খাত পর্যটনের উন্নয়নে সমন্বিত ও পরিকল্পিত কর্মকৌশলের ওপর গুরুত্বারোপ করেছে। পর্যটন খাতে বিনিয়োগের জন্য উদ্ভাবনী কর্মপরিকল্পনাসহ বেসরকারি খাতকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার ইতোমধ্যেই দেশে বিনিয়োগের পরিবেশ নিশ্চিত করেছে। ওয়ার্ল্ড ট্রাভেল এন্ড ট্যুরিজম কাউন্সিলের প্রতিবেদন অনুযায়ী বাংলাদেশে পর্যটন খাতে বিনিয়োগ ২০২৮ সালে  ১৬১ দশমিক ৮ বিলিয়ন টাকায় পৌঁছাবে। 

          ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক
ড. বদরুজ্জামান ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. ভুবন চন্দ্র বিশ্বাস।

#

তানভীর/পরীক্ষিৎ/রেজ্জাকুল/শামীম/২০২০/১৬০৭ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                         নম্বর : ৬৮

একনেক৭টি প্রকল্পের অনুমোদন

ব্যয় প্রায় সাড়ে ১১ হাজার কোটি টাকা

ঢাকা, ২৩ পৌষ (৭ জানুয়ারি) :

জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহি কমিটি (একনেক) প্রায় ১১ হাজার ৪২ কোটি ১৪ লাখ টাকা ব্যয় সম্বলিত ৭টি প্রকল্প অনুমোদন করেছে।

প্রধানমন্ত্রী এবং একনেক-এর চেয়ারপারসন শেখ হাসিনা-এর সভাপতিত্বে আজ শের

2020-01-07-22-50-eaec13654a32f8447c5ae53bf00b6a1c.docx 2020-01-07-22-50-eaec13654a32f8447c5ae53bf00b6a1c.docx

Share with :

Facebook Facebook