তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৭ জুলাই ২০১৯

তথ্যবিবরণী - 6/7/2019

তথ্যবিবরণী                                                                                      নম্বর : ২৪৫৬
 
বর্তমান সরকার দেশের জনশক্তিকে জনসম্পদে রূপান্তর করতে চায়
                                         -- প্রবাসী কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী
 
গোয়াইনঘাট (সিলেট), ২২ আষাঢ় (৬ জুলাই) :
 
প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী ইমরান আহমদ বলেছেন, বর্তমান সরকার দেশের জনশক্তিকে জনসম্পদে রূপান্তর করতে চায়। সে লক্ষ্যে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় নানা কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে। প্রতিমন্ত্রী বলেন, দেশের বেকার জনগোষ্ঠীর জন্য প্রবাসী কল্যাণ ও  বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের রয়েছে বিভিন্ন প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা। প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে নিজের দক্ষতা বৃদ্ধি করে প্রবাসে গেলে নিজ পরিবারের পাশাপাশি বাংলাদেশ সরকারের প্রবৃদ্ধি বৃদ্ধি পাবে। 
 
আজ গোয়াইনঘাট উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে গোয়াইনঘাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিশ্বজিত কুমার পালের সভাপতিত্বে এবং উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক ফারুক আহমদ ও তরুণ আওয়ামী লীগ নেতা কামরুল হাসানের যৌথ পরিচালনায় প্রতিমন্ত্রী প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। 
 
সেমিনারে উপস্থিত ছিলেন গোয়াইনঘাট উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ ইব্রাহিম, জৈন্তাপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কামাল আহমদ, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার গোয়াইনঘাট সার্কেল মোঃ নজরুল ইসলাম, গোয়াইনঘাট উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আফিয়া বেগম, পূর্ব জাফলং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা লুৎফর রহমান লেবু, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডার আব্দুল হক প্রমুখ।
 
#
 
রাশেদ/ইসরাত/মোশারফ/সেলিম/২০১৯/২১৪০ ঘণ্টা
 
 
 
তথ্যবিবরণী                                                                                      নম্বর : ২৪৫৫
 
আইসিটি-সহ বিভিন্ন খাতে বিনিয়োগ করতে দেশি-বিদেশি 
বিনিয়োগকারীদের প্রতি প্রতিমন্ত্রী পলকের আহ্বান
 
ঢাকা, ২২ আষাঢ় (৬ জুলাই) :
 
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, বাংলাদেশে বিনিয়োগের অনুকূল পরিবেশ রয়েছে। তিনি বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি-সহ বিভিন্ন খাতে বিনিয়োগ করে সরকার প্রদত্ত সুযোগ-সুবিধা গ্রহণ করতে যুক্তরাজ্যসহ দেশি-বিদেশি বিনিয়োগকারীদের প্রতি আহ্বান জানান। 
 
প্রতিমন্ত্রী গতকাল লন্ডনস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনে ‘পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ কর্তৃপক্ষ’ আয়োজিত এক বিনিয়োগ সভায় বক্তৃতাকালে এ আহ্বান জানান। অনুষ্ঠানে যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশ হাইকমিশনার সাইদা মুনা তাসনিম সভাপতিত্ব করেন।
 
অনুষ্ঠানে পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ কর্তৃপক্ষের কর্মকর্তারা এবং বিভিন্ন খাতের দেশি-বিদেশি বিনিয়োগকারীগণ ও হাইকমিশনের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
 
প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত রূপকল্প বাস্তবায়নে দেশকে চারটি মৌলিক স্তম্ভের ওপর দাঁড় করানো হচ্ছে। সেগুলো হচ্ছে মানবসম্পদ উন্নয়ন, ইন্টানেটের সংযোগ, ই-গভর্নেন্স এবং তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পখাত গড়ে তোলা। এই চারটি মূল লক্ষ্য বা পিলারের মাধ্যমে ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণ করা হচ্ছে। ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে সরকারের বিভিন্ন কার্যক্রম তুলে ধরে প্রতিমন্ত্রী বলেন, গত দশ বছরে আইসিটি খাতে দশ লাখ লোকের কর্মসংস্থান হয়েছে, আগামী পাঁচ বছরে আরো দশ লাখ কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা হবে।
 
প্রতিমন্ত্রী বিগত ১০ বছরে ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকার কর্তৃক গৃহীত বিভিন্ন কার্যক্রম বিশেষ করে আইসিটি খাতে বিনিয়োগকারীদের জন্য হাইটেক পার্ক স্থাপন, আমদানি-রপ্তানির ওপর শুল্ক হ্রাস/প্রত্যাহার, প্রণোদনাসহ বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধার বিষয়ে বিনিয়োগকারীদের অবহিত করেন।
 
#
 
শহীদুল/ইসরাত/মোশারফ/সেলিম/২০১৯/২১২০ ঘণ্টা
 
তথ্যবিবরণী                                                                                      নম্বর : ২৪৫৪
 
বাস্তব প্রশিক্ষণে দক্ষতা অর্জনই নিরাপদ অভিবাসনের উপায়
                                 -- প্রবাসী কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী
 
কোম্পানীগঞ্জ (সিলেট), ২২ আষাঢ় (৬ জুলাই) :
 
গতকাল কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত ‘বৈদেশিক কর্মসংস্থানের জন্য দক্ষতা ও সচেতনতা’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী ইমরান আহমদ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিজেন ব্যানার্জী।
 
প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রবাসীদের সকল সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করা হবে। সরকার প্রবাসীদের কল্যাণে কাজ করছে। তিনি বলেন, ‘সবার সহযোগিতায় সমন্বিত উদ্যোগে প্রবাসীদের কল্যাণে সব চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করবো।’ তিনি বলেন, “সরকার ‘ভিশন ২০২১’ বাস্তবায়নে নিরলসভাবে কাজ করছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে প্রবাসীদের কল্যাণে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে।”
 
প্রতিমন্ত্রী বলেন, স্বল্পব্যয়ে নিরাপদ অভিবাসন এবং সুষ্ঠু ও নিয়মিত বৈদেশিক কর্মসংস্থানে সরকার বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। দেশের অর্থনীতিতে প্রবাসীদের রেমিটেন্সের ভূমিকা অপরিসীম উল্লেখ করে ইমরান আহমদ বলেন, ‘রেমিটেন্স বৃদ্ধির অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে প্রয়োজনীয় সব উদ্যোগ নেওয়া হবে।’ তিনি আরো বলেন, বিদেশে যাওয়ার আগে রিক্রুটিং এজেন্সির খোঁজ-খবর নিয়ে যাওয়া উচিত। অবৈধভাবে বিদেশে যাওয়ার চেষ্টা করবেন না। রেমিটেন্সের মাধ্যমে দেশে টাকা পাঠাতে প্রবাসীদের প্রতি অনুরোধ জানান তিনি। পরে তিনি ১১ জন দুস্থের মাঝে হুইল চেয়ার বিতরণ করেন। এর আগে গৌরিনগর ও বর্নি গ্রামে দু’টি নতুন রাস্তার উদ্বোধন করেন প্রতিমন্ত্রী।
 
দলইরগাওস্থ কারিগরি কলেজের নবীনবরণ অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী বলেন, গোয়াইনঘাট, জৈন্তাপুর ও কোম্পানীগঞ্জের উন্নয়নে বর্তমান সরকার খুবই আন্তরিক। এখনো যে সকল প্রতিষ্ঠানে উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি, সে সকল প্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন এই সরকারের আমলেই ঘটবে। তিনি আরো বলেন, কোম্পানীগঞ্জের ইমরান আহমদ কারিগরি কলেজকে পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে রুপান্তরিত করা হবে।
 
#
 
রাশেদ/ইসরাত/মোশারফ/সেলিম/২০১৯/১৯৪০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                     নম্বর : ২৪৫৩

 
 লোক নাট্যদল প্রতিষ্ঠার পেছনে ছিল প্রধানমন্ত্রীর উৎসাহ ও অনুপ্রেরণা 
                                                        --সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী
 
ঢাকা, ২২ আষাঢ় (৬ জুলাই) :  
 
সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেছেন, বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় থিয়েটার দল লোক নাট্যদল প্রতিষ্ঠার পেছনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উৎসাহ ও অনুপ্রেরণা ছিল। ১৯৮১ সালে তাঁর পরামর্শে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক নাট্যজন লিয়াকত আলী লাকী এ থিয়েটার দলটি প্রতিষ্ঠা করেন। জীবনঘনিষ্ঠ ও নিরীক্ষাধর্মী নাটক মঞ্চায়নে অঙ্গীকারবদ্ধ লোক নাট্যদল এ পর্যন্ত ২৯টি নাটক প্রযোজনা করেছে। এর মধ্যে ২০টি মঞ্চনাটক, ৮টি পথনাটক ও ১টি সংগীতালেখ্য। নাটক নিয়ে লিয়াকত আলী লাকীর কর্মপরিধি ব্যাপক ও বিস্তৃত।  
 
প্রতিমন্ত্রী আজ রাজধানীর বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালা মিলনায়তনে লোক নাট্যদল প্রতিষ্ঠার ৩৮ বছর পূর্তি উপলক্ষে ‘লোক নাট্যদল স্বর্ণপদক ২০১৯’ প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
 
প্রতিমন্ত্রী বলেন, লোক নাট্যদলের যে দুইটি অসাধারণ প্রযোজনা ব্যাপক দর্শকপ্রিয়তা পেয়েছে সেগুলো হল কঞ্জুস ও সোনাইমাধব। কঞ্জুসের ৭০০তম মঞ্চায়ন সত্যিই বিস্ময়কর। অন্যদিকে ময়মনসিংহ গীতিকার ওপর ভিত্তি করে রচিত নাটক সোনাইমাধবও দেশ-বিদেশে দর্শক নন্দিত হয়েছে। তিনি আরো বলেন, জন্মভূমি বলে হয়তো ময়মনসিংহের কথা শুনলে সবসময় প্রাণের ছোঁয়া খুঁজে পাই।
 
বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক ও লোক নাট্যদলের অধিকর্তা লিয়াকত আলী লাকীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথির বক্তৃতা করেন অধ্যাপক সৈয়দ মঞ্জুরুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে নাট্যচর্চায় অসামান্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ তিনজন বরেণ্য নাট্য ব্যক্তিত্ব কল্যাণ মিত্র, অধ্যাপক আবদুস সেলিম ও তারিক আনাম খানকে ‘লোক নাট্যদল স্বর্ণপদক ২০১৯’ প্রদান করে সম্মানিত করা হয়। 
 
উল্লেখ্য, লোক নাট্যদল সৎ, নিবেদিত ও একনিষ্ঠ নাট্যকর্মীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর জন্য ১৯৯১ সাল থেকে লোক নাট্যদল স্বর্ণপদক প্রবর্তন করেছে।
 
#
ফয়সল/ইসরাত/মোশারফ/আব্বাস/২০১৯/২১১৮ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                      নম্বর : ২৪৫২

 
অধ্যাপক মেসবা উল বার চৌধুরীর মৃত্যুতে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর শোক
 
ঢাকা, ২২ আষাঢ় (৬ জুলাই) :
 
পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার কৃতী সন্তান অধ্যাপক মেসবা উল বার চৌধুরীর (এমবি চৌধুরী) মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন। 
 
মন্ত্রী আজ এক শোকবার্তায় বলেন, অধ্যাপক মেসবা উল বার চৌধুরী ছিলেন একজন সৎ, দৃঢ় ব্যক্তিত্ব, বিনয়ী ও নির্ভীক চরিত্রের অধিকারী। তিনি জ্ঞান চর্চা ও জ্ঞান বিতরণে নিজেকে উৎসর্গ করেছেন। তাঁর মৃত্যুতে জাতি একজন দেশ বরেণ্য শিক্ষাবিদকে হারালো। 
 
ড. মোমেন মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং তাঁর শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।
 
#
 
তৌহিদুল/ইসরাত/মোশারফ/সেলিম/২০১৯/১৯৪০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                     নম্বর : ২৪৫১

 
বরেন্দ্র এলাকায় শস্য বহুমুখীকরণের মাধ্যমে ফসল উৎপাদন করতে হবে
---কৃষিমন্ত্রী
 
রাজশাহী, ২২ আষাঢ় (৬ জুলাই) : 
কৃষির জন্য বরেন্দ্র এলাকা একটা চ্যালেঞ্জ, তাই শস্য বহুমুখীকরণের মাধ্যমে ফসল উৎপাদন করতে হবে। কৃষিতেই সমৃদ্ধ হচ্ছে এ অঞ্চলের অর্থনীতি। সংরক্ষণশীল কৃষি প্রযুক্তি এ অঞ্চলের কৃষিতে নতুন মাত্রা যুক্ত করেছে। 
 
আজ মন্ত্রী ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক রাজশাহীর বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিএমডিএ)’র কনফারেন্স হলে আয়োজিত ২য় বরেন্দ্র এগ্রো-ইকো ইনোভেশন রিসার্চ প্লাটফর্ম কনফারেন্সে এসব কথা বলেন।
 
মন্ত্রী বলেন, বরেন্দ্র অঞ্চলের কৃষিতে ফসলের বৈচিত্র্যকরণ এবং খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে স্বল্প ও দীর্ঘ মেয়াদি পরিকল্পনা গ্রহণ করা হবে। প্রকল্প গ্রহণের মাধ্যমে এসডিজির আলোকে টেকসই কৃষি ব্যবস্থাপনা  এবং ফসল উৎপাদনে সমন্বিত পানিসম্পদ ব্যবস্থাপনায় বিএমডিএ-কে অবদান রাখতে হবে।
 
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী পরিচালক প্রকৌশলী 
আঃ রশিদ। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তৃতা করেন বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান আকরাম হোসেন।
 
#
গিয়াস/ইসরাত/মোশারফ/আব্বাস/২০১৯/২০১২ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                               নম্বর : ২৪৫০

 
আধুনিক প্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে সমন্বিতভাবে চাষাবাদ করুন 
                                          -- স্থানীয় সরকার মন্ত্রী
 
বগুড়া, ২২ আষাঢ় (৬ জুলাই) :
 
স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম কৃষিকাজে আধুনিক প্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে সমন্বিতভাবে চাষাবাদ করার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, জমির আইল উঠিয়ে দিয়ে আধুনিক কৃষি প্রযুক্তি ব্যবহার করে সমন্বিতভাবে চাষাবাদ করতে পারলে ফসল উৎপাদন যেমন বৃদ্ধি পাবে তেমনি উৎপাদন খরচও কমে আসবে।
 
মন্ত্রী আজ পল্লী উন্নয়ন একাডেমি (আরডিএ) বগুড়ার কার্যক্রম পরিদর্শন করে সেখানে ‘আমার গ্রাম আমার শহর’ বিষয়ক গবেষণা সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
 
পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের সচিব কামাল উদ্দিন তালুকদারের সভাপতিত্বে সেমিনারে অন্যান্যের মধ্যে পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য এবং সংসদ সদস্য হাবিবুর রহমান উপস্থিত ছিলেন। 
 
এর আগে মন্ত্রী রংপুরের তারাগঞ্জে বাস্তবায়নাধীন আরডিএ, রংপুর এবং রংপুর শহরে গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর জন্য নির্মাণাধীন ‘পল্লী জনপদ’ প্রকল্প পরিদর্শন করেন। 
 
এছাড়া মন্ত্রী রংপুরের পীরগঞ্জে বিশিষ্ট পরমাণু বিজ্ঞানী মরহুম ওয়াজেদ মিয়ার কবরে ফাতেহা পাঠ ও মোনাজাত করেন।
 
#
 
 
হাসান/ইসরাত/সঞ্জীব/সেলিম/২০১৯/১৯০০ ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                            নম্বর : ২৪৪৯ 

নদীর তীর পুনর্দখলের চেষ্টা করবেন না
                           ---স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী
ঢাকা, ২২ আষাঢ় (৬ জুলাই) :
নদীর তীর পুনর্দখল রোধে নদীর তীরভূমিতে সীমানা পিলার স্থাপন, ওয়াকওয়ে, কিওয়াল, ওয়াকওয়ে অন পাইল ইত্যাদি নির্মাণের কাজ শুরু হয়েছে। কাজ বাস্তবায়নে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) একটি প্রকল্প গ্রহণ করেছে। নদীর তীরভূমির অবৈধ দখল রোধ, দখলমুক্ত অংশের সৌন্দর্য বৃদ্ধি, পরিবেশগত উন্নয়ন, ওয়াকওয়ে নির্মাণ এই প্রকল্পের  মূল উদ্দেশ্য।
আজ ঢাকার কামরাঙ্গীরচরস্থ খোলামোড়া ঘাটে সীমানা পিলার, ওয়াকওয়ে, নদীর তীর রক্ষায় কিওয়াল, ওয়াকওয়ে অন পাইল নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান এবং নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহ্মুদ চৌধুরী। 
এ সময় অন্যান্যের মধ্যে সংসদ সদস্য এ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, সংসদ সদস্য হাজী মোঃ সেলিম, নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ আবদুস সামাদ, পরিবেশবিদ সৈয়দ আবুল মকসুদ, বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান এম মাবুবব উল ইসলাম এবং প্রকল্প পরিচালক নুরুল আলম উপস্থিত ছিলেন।
প্রথম পর্যায়ে (৬ জুলাই থেকে) ঢাকা নদী বন্দর এলাকায় ৩ হাজার ৮০৩টি আরসিসি সীমানা পিলার, রামচন্দ্রপুর হতে বসিলা ও রায়েরবাজার খাল হতে কামরাঙ্গীরচর পর্যন্ত এক কিলোমিটার ওয়াকওয়ে, এক কিলোমিটার কিওয়াল, দু’ দশমিক পাঁচ কিলোমিটার ওয়াকওয়ে অন পাইল নির্মাণ/স্থাপন করা হবে। ৩ হাজার ৮০৩টি আরসিসি সীমানা পিলারের মধ্যে ২ হাজার ৩৪০টি সিঙ্গেল পাইলের এবং ১ হাজার ৪৬৩টি ডাবল পাইলের হবে। ২০২০ সালের মধ্যে এসব স্থাপনার কাজ শেষ হবে।
উল্লেখ্য, বিআইডব্লিউটিএ প্রকল্পের আওতায় বুড়িগঙ্গা, তুরাগ, শীতলক্ষ্যা ও বালু নদীর তীরভূমিতে সীমানা পিলার স্থাপন, ওয়াকওয়ে, কিওয়ালসহ বিভিন্ন অবকাঠামো নির্মাণ করা হবে। নদীর তীরভূমিতে ৫২ কিলোমিটার ওয়াকওয়ে নির্মাণ, নদীর তীরভূমিতে পাইলের ওপর ১২ কিলোমিটার ওয়াকওয়ে, ১০ হাজার ৮২০টি সীমানা পিলার স্থাপন, তিনটি ইকোপার্ক নির্মাণ, দু’টি পর্যটনবান্ধব দৃষ্টিনন্দন পার্ক, ১৯টি আরসিসি জেটি, ১০০টি আরসিসি সিঁড়ি, ৪০ কিলোমিটার কিওয়াল ইত্যাদি নির্মাণ করা হবে। 
স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী বলেন, বুড়িগঙ্গাসহ দেশের সকল নদী দখলমুক্ত করে বাংলাদেশের নদীমাতৃক রূপ তুলে ধরা হবে। তিনি বলেন, নদীর তীর পুনর্দখলের চেষ্টা করবেন না। কেউ দখল করার চেষ্টা করলে তাদের আইনের আওতায় আনা হবে। তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী বুড়িগঙ্গাকে পুরোনো রূপে ফিরিয়ে আনার নির্দেশনা দিয়েছেন। তাঁর নির্দেশনা অনুযায়ী কাজ করে যাচ্ছি। স¦রাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ঢাকার চারপাশে সার্কুলার নৌপথ চালু করলে যাত্রী ও মালামাল পরিবহন সহজতর হবে। বুড়িগঙ্গাকে হাতিরঝিলের ন্যায় নয়নাভিরাম করা হবে। বুড়িগঙ্গা হবে আনন্দ ও বিনোদনের কেন্দ্র।
 নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী বলেন, বুড়িগঙ্গাকে দূষণমুক্ত করে মানুষের ব্যবহার উপযোগী করতে চাই। মানুষের জীবিকার জন্য নদী ব্যবহৃত হবে, সরকার সে রকম পরিবেশ গড়ে তুলবে। তিনি বলেন, ঢাকার চারপাশের নদীগুলোকে দখল ও দূষণমুক্ত করতে কাজ করছে সরকার। তিনি নদী রক্ষায় সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।
#
জাহাঙ্গীর/ইসরাত/সঞ্জীব/আব্বাস/২০১৯/১৮৩১ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                     নম্বর : ২৪৪৮

ইস্টার্ন কেবল্স লিমিটেডের আধুনিকায়নের উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে
                                                          ---শিল্পমন্ত্রী
চট্টগ্রাম, ২২ আষাঢ় (৬ জুলাই) :
 
শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন বলেছেন, ইস্টার্ন কেবল্স লিমিটেডের আধুনিকায়নের উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে। ১৯৬৭ সালে নির্মিত এই কারখানাটি এখনও চলমান আছে। এটি নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবিদার।
 
শিল্পমন্ত্রী আজ চট্টগ্রামের পতেঙ্গায় অবস্থিত ইস্টার্ন কেবল্স লিমিটেডের কারখানা পরিদর্শন শেষে কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন।
 
শিল্পমন্ত্রী বলেন, ইস্টার্ন কেবল্স লিমিটেড যাতে বাজারে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে পারে সেই উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে। মূলধন, টেন্ডারে অংশগ্রহণ ও ভ্যাট-ট্যাক্স সংক্রান্ত সমস্যাগুলোর সমাধান করা হবে।  এ প্রতিষ্ঠানে একদিন সুদিন আসবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
 
ইস্টার্ন কেবল্স লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী ঊষাময় চাকমার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ইস্পাত ও প্রকৌশল কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান। সভায় ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইস্টার্ন কেবল্স লিমিটেডের প্রাঙ্গণে একটি পূর্ণাঙ্গ কপার তার উৎপাদন কারখানা স্থাপনের প্রস্তাব করেন। 
 
#
মাসুম/ইসরাত/সঞ্জীব/আব্বাস/২০১৯/১৭১৭ ঘণ্টা

Handout                                                                                                         Number : 2447

China to encourage Myanmar to start the repatriation of the Rohingyas

                                                                        ---Chinese Foreign Minister

 

Dhaka, 6 July:

State Councilor and Foreign Minister of China Wang Yi assured Foreign Minister Dr. A. K. Abdul Momen that China will encourage Myanmar to start the repatriation of the displaced persons to the Rakhine State. He also said, China will continue to host trilateral meetings among China, Bangladesh and Myanmar to provide platform for dialogue to ensure the early return of the displaced people.

Chinese Foreign Minister made the remarks during his bilateral meeting with Dr. Momen in Beijing yesterday. The meeting took place on the sideline of Prime Minister Sheikh Hasina’s ongoing visit to Beijing.

Wang Yi said, ‘China will enhance and strengthen bilateral relations with Bangladesh to realize the objectives of Strategic Partnership of Cooperation as was decided at Bangladesh–China Leaders’ Summit held in Dhaka in October 2016.’ Chinese Foreign Minister mentioned that President Xi Jinping hosted a banquet in honour of Prime Minister Sheikh Hasina where both leaders had free exchange of thoughts. He also said that the Summit talks reflected mutual trust and friendship currently existing between Bangladesh and China.

Both Foreign Ministers agreed that solution to the Rohingya crisis will contribute to the peace and stability in the region. Dr. Momen asserted that Myanmar needs to create conducive conditions like assurances of safety and security for the displaced people to start return of the Rohingyas.

 

#

Tohidul/Israt/Sanjib/Abbas/2019/1708 Hours

 

Todays handout (9).docx Todays handout (9).docx

Share with :

Facebook Facebook