তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১১ জানুয়ারি ২০২০

তথ্যবিবরণী - ১১.০১.২০২০

তথ্যবিবরণী                                                                                            নম্বর : ১৩২

 

কলকাতায় বাংলাদেশ উপ-হাইকমিশনে Ôসোনার বাংলা আর্ট-ক্যাম্প ২০২০’ শুরু হলো

 

কলকাতা (ভারত), ২৭ পৌষ (১১ জানুয়ারি) :

 

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদ্‌যাপন উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাকে উপজীব্য করে কলকাতাস্থ বাংলাদেশ উপ-হাইকমিশন প্রাঙ্গণে আজ দু’দিনব্যাপী Ôসোনার বাংলা আর্ট ক্যাম্প ২০২০’ শুরু হলো।

 

এ আর্ট ক্যাম্পে চিত্রকর্ম নিয়ে একটি প্রদর্শনী বাংলাদেশ উপ-হাইকমিশনের Ôবাংলাদেশ গ্যালারিতে ১৩-১৭ জানুয়ারি-২০২০’ প্রতিদিন বিকেল সাড়ে ৩টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত দর্শকদের জন্য খোলা থাকবে। এ চিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন হবে আগামী ১২ জানুয়ারি ২০২০ রবিবার বিকেল ৫টায়। উপ-হাইকমিশনার তৌফিক হাসানের শুভেচ্ছা বক্তব্যের পর বরেণ্য চিত্রশিল্পী শাহাবুদ্দিন আহমেদ বলেন, বাঙালি জাতির গর্ব বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীতে তাঁর স্বপ্নের সোনার বাংলাকে ভিত্তি করে আয়োজিত  Ôসোনার বাংলা আর্ট ক্যাম্প -২০২০’ এর গুরুত্ব অত্যধিক এবং আজকে ভারত-বাংলাদেশের শিল্পীদের রং তুলিতে যা ঘটবে এক সময় তা ইতিহাস হয়ে থাকবে।

 

Ôসোনার বাংলা আর্ট ক্যাম্প-২০২০’ এ বাংলাদেশ ও ভারতের প্রথিতযশা যে চিত্র শিল্পীবৃন্দ ছবি আঁকলেন তাঁরা হলেন- বাংলাদেশের শাহাবুদ্দিন আহমেদ, জামাল আহমেদ, রোকেয়া সুলতানা, আহমেদ শামসুদ্দোহা, শেখ আফজাল হোসেন, সৈয়দ হাসান মাহমুদ, আতিয়া ইসলাম, কনক চাপা চাকমা, আনিসুজ্জামান, শাহজাহান আহমেদ বিকাশ ও দুলালা চন্দ্র গাইন এবং ভারতের গণেশ হালুই, বাদল পাল, ইশা মোহাম্মদ, শ্যামশ্রী বসু, শুভাপ্রসন্ন, ওয়াসিম কাপুর,  সোহিনী ধর, মনোজ দত্ত, আদিত্য বসাক, সুব্রত গঙ্গোপাধ্যায়, চন্দ্র ভট্টাচার্য, ছত্রপতি দত্ত ও অতিন বসাক।

 

#

 

মোফাকখারুল/নাইচ/মোশারফ/সেলিম/২০২০/২২৪০ ঘণ্টা

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                            নম্বর : ১৩১

 

জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী

উপলক্ষে হাতিরঝিলে বর্ণিল অনুষ্ঠান সম্পন্ন

 

ঢাকা, ২৭ পৌষ (১১ জানুয়ারি) :

 

          অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, সরকারের একটাই লক্ষ্য বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়া। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়ন হলেই দেশ উন্নত হবে। বঙ্গবন্ধু আমাদের একটা স্বাধীন দেশ দিয়েছেন, আমাদের নিজস্ব পরিচয় দিয়েছেন। দেশের সকল উন্নয়ন পরিকল্পনার সূচনা বঙ্গবন্ধুর হাত ধরেই। তার হাত ধরেই সংবিধান পেয়েছি।

 

আজ ঢাকায় হাতিরঝিলের এমফিথিয়েটারে অনুষ্ঠিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে  আয়োজিত অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী এসব কথা বলেন। এই  আনন্দ উৎসবের আয়োজন করে  অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ (ইআরডি)। অনুষ্ঠান থেকে একযোগে বাংলাদেশের সকল উপজেলায় এবং কেন্দ্রীয়ভাবে উৎসব পালন ও বর্ণিল আতশবাজি করা হয়। বঙ্গবন্ধুর ইতিহাস ও বর্তমান সরকারের  উন্নয়ন চিত্র তুলে ধরা হয় অনুষ্ঠানে।

 

অর্থমন্ত্রী আরো বলেন, আমাদের জীবনে বেদনার দিন একটাই বঙ্গবন্ধুকে হারাতে হয়েছে । বঙ্গবন্ধুর রেখে যাওয়া কাজ সম্পন্ন করতে হবে।  জাতির পিতার স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে হবে। বঙ্গবন্ধুকে আমাদের মধ্যে আজীবন বাঁচিয়ে রাখতে তরুণদের এগিয়ে আসতে হবে। 

 

#

 

গাজী তৌহিদুল/নাইচ/সঞ্জীব/রশীদ/২০২০/১৯৪০ ঘণ্টা

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                     নম্বর : ১৩০

 

কৃষি উৎপাদনে উদ্যোক্তা সৃষ্টি করতে হবে

                                    --কৃষিমন্ত্রী

 

 

 

ঢাকা, ২৭ পৌষ (১১ জানুয়ারি) :

 

কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, কর্মকর্তাদের কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধিতে সহায়তাসহ উদ্যোক্তা সৃষ্টিতে ভূমিকা রাখতে হবে। দেশের বিভিন্ন প্রান্তে অনেক উদ্যোক্তা রয়েছে যাদের পৃষ্ঠপোষকতা দিলে এগিয়ে যেতে পারবে; তাদের জন্য সরকারের পক্ষ হতে সবধরনের সহায়তা দেয়া হবে।

 

 

মন্ত্রী আজ রাজধানীর কৃষি গবেষণা কাউন্সিল অডিটোরিয়ামে বাংলাদেশ একাডেমি অভ্ এগ্রিকালচার (বাগ) আয়োজিত Award Giving Ceremony and 26th Annual General Meeting এ এসব কথা বলেন।

 

 

মন্ত্রী বলেন, বিদেশে কোন দেশে কী কী প্রযুক্তি ও উন্নত জাত রয়েছে এবং কোনগুলো আমাদের জন্য উপযোগী তা নির্ণয় করে দেশে আনতে হবে । কৃষিতে সমবায়ভিত্তিক কাজ করার অনেক সুযোগ রয়েছে যা করা গেলে সার্বিকভাবে লাভজনক হবে।

 

 

গবেষকদের উদ্দেশ্যে বলেন, বাগকে শক্তিশালী করতে হবে এবং এর জন্য প্রয়োজনে সরকারি সহযোগিতা করা হবে। আমাদের দেশের বিভিন্ন জায়গায় অপ্রচলিত মূল্যবান ফসল আবাদ হচ্ছে এবং এগুলোর উৎপাদনও ভালো, এগুলোর বাজারজাত নিশ্চিত করতে হবে । কৃষিকে এগিয়ে নিতে হবে। সবাইকে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে ।

#

 

 

গিয়াস/নাইচ/সঞ্জীব/রশীদ/২০২০/১৭৪০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                              নম্বর :  ১২৯

 

বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী অসুস্থ

সুস্থতার জন্য তাঁর পরিবারের পক্ষ থেকে দেশবাসীর কাছে দোয়া কামনা


ঢাকা, ২৭ পৌষ (১১ জানুয়ারি) :

 

          বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে গত ৬ জানুয়ারি থেকে ঢাকার আজগর আলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। শারীরিক অবস্থা কিছুটা অবনতি হওয়ায় আজ দুপুর থেকে তাকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

 

          উন্নত চিকিৎসার জন্য আগামীকাল সকালে  এয়ার এ্যাম্বুলেন্স যোগে মন্ত্রীকে সিঙ্গাপুরের জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হবে। মন্ত্রীর সুস্থতার জন্য তাঁর পরিবারের পক্ষ থেকে দেশবাসীর কাছে দোয়া কামনা করা হয়েছে। 

 

#

 

সৈকত/নাইচ/সঞ্জীব/সেলিম/২০২০/২০৩০ ঘণ্টা

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর :  ১২৮

 

১৮ বছরের কম বয়সের মেয়েদের বিনামূল্যে স্যানিটারি ন্যাপকিন দেয়া হবে
                                                        -- স্বাস্থ্যমন্ত্রী


ঢাকা, ২৭ পৌষ (১১ জানুয়ারি) :

 

          স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, Ô১৮ বছরের কম বয়সের মেয়েদের বিনামূল্যে স্যানিটারি ন্যাপকিন দেয়া হবে। বিশেষত গ্রামে থাকা নারীরা এই স্যানিটারি ন্যাপকিন কিনতে না পারার কারণে নানা ধরনের অসুখে পড়েন। তাই, সরকারিভাবে এই স্যানিটারি ন্যাপকিন প্রদানের ফলে দেশের দূর-দূরান্তে ছড়িয়ে থাকা অসহায় দরিদ্র নারীরা খুব বেশি উপকৃত হবে।’


          স্বাস্থ্যমন্ত্রী আজ রাজধানীর এফডিসিতে নারীর মর্যাদা অক্ষুণ্ন রাখতে যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য অধিকার বিষয়ক বিতর্ক প্রতিযোগিতার গ্র্যান্ড ফাইনাল ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।


          ডিবেট ফর ডেমোক্রেসি এর সভাপতি হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের সচিব আলী নূর, ব্রাকের নির্বাহী পরিচালক আসিফ সালেহ-সহ অন্যান্য অতিথি।


#

 

মাইদুল/নাইচ/সঞ্জীব/সেলিম/২০২০/২০০০ ঘণ্টা

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                            নম্বর : ১২৭

 

পরিবেশ রক্ষায় সরকারি সংস্থাগুলোর আরো যত্নবান হওয়া প্রয়োজন                                                                             

      -- তথ্যমন্ত্রী

 

ঢাকা, ২৭ পৌষ (১১ জানুয়ারি) :

 

যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নের নামে চট্টগ্রামে পাহাড় কাটার ঘটনায় অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ড. হাছান মাহ্‌মুদ । আজ শনিবার চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) ইনস্টিটিউট অভ্ ফরেস্ট্রি এন্ড এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্সে এর পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন তিনি ।

 

তথ্যমন্ত্রী বলেন, পরিবেশ রক্ষায় সরকারি সংস্থাগুলোর আরো যত্নবান হওয়া প্রয়োজন। অনেক সরকারি প্রতিষ্ঠান পরিবেশ রক্ষার বিষয়টি খেয়াল করে না। আমি অত্যন্ত আশ্চর্য হয়েছি, সিডিএ (চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ)-এর মতো একটি প্রতিষ্ঠান রাস্তা বানাতে গিয়ে এশিয়ান উইমেন ইউনিভার্সিটির পাশে ৩০০ ফুট পাহাড় কেটে সমতল করে ফেলেছে, এটি আমাকে প্রচণ্ড পীড়া দিয়েছে । 

 

মন্ত্রী বলেন, চট্টগ্রাম শহরের সৌন্দর্য হচ্ছে পাহাড়। সেই পাহাড়কে সংরক্ষণ করে, পাহাড়কে বজায় রেখে উন্নয়ন কর্মকাণ্ড করা যায়। কিন্তু সিডিএ'র মতো একটি প্রতিষ্ঠান, আজ থেকে দেড়-দুই বছর আগে যেভাবে পাহাড় কেটে সেখানে রাস্তা করেছে, এটি কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য নয় ।

 

চট্টগ্রামে উন্নয়ন কর্মকাণ্ড করার সময় পরিবেশ রক্ষার বিষয়টি ভাবার অনুরোধ জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ভবন বানাতে গিয়ে, উন্নয়ন কর্মকাণ্ড করতে গিয়ে যেন এই পরিবেশ-প্রকৃতি নষ্ট না হয়, এই নান্দনিকতা যেন হারিয়ে না যায়, সেটি মাথায় রাখতে হবে । 

 

দেশে বনভূমির বাইরে ও ভেতরে গাছের সংখ্যা বেড়েছে জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, আজ থেকে ১১-১২ বছর আগে বাংলাদেশের বৃক্ষ আচ্ছাদিত এলাকার পরিমাণ ছিল ১৯ শতাংশের নিচে, এখন সেটি ২৪ শতাংশের বেশি। মানুষ বেড়েছে গত ১১ বছরে, মানুষের জন্য নতুন বসতি নির্মাণ করতে হয়েছে, শহরগুলোর আকার বেড়েছে, একইসাথে অবকাঠামোগত উন্নয়ন হয়েছে, দুই লেনের রাস্তা চার লেন হয়েছে, শিল্পায়ন হয়েছে, এরপরও বৃক্ষ আচ্ছাদিত এলাকার পরিমাণ বেড়েছে। এর কারণ হচ্ছে, মানুষের মধ্যে গাছ লাগানোর চেতনা জাগ্রত হয়েছে । আগে আমাদের বনভূমিতেই শুধু গাছ ছিল। এখন দেখা যায়, বনভুমির বাইরেও লোকালয়ে প্রচুর গাছ আছে, লাগানো হচ্ছে । 

 

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে গাছ লাগানোর প্রস্তাব দিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, আমার তিন সন্তানের মধ্যে দু্ই সন্তানের জন্ম হয়েছে বেলজিয়ামে। জন্মের কয়েকদিন পর আমরা পৌর কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে চিঠি পেলাম, সেখানে লেখা তোমাদের সন্তানদের নিয়ে অমুক দিন অমুক জায়গায় হাজির হতে হবে। সেখানে একটি গাছ লাগানো হবে এবং একটি নেমপ্লেট দেয়া হবে। সেই গাছটি থেকে যাবে, নেমপ্লেটটিও থেকে যাবে। অর্থাৎ প্রতি সন্তান জন্মলাভের পর সেখানে সন্তানের নামে একটি গাছ লাগানো হয়। সেই গাছটি থেকে যাই। সেটি কাটা হয় না। সে যখন বড় হয়, তখন সে নেমপ্লেট থাকায় গাছটাকে খুঁজে পায় । 

 

‘আমি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়কে অনুরোধ জানাবো, ফরেস্টি ডিপার্টমেন্ট সেক্ষেত্রে সহায়তা করতে পারে, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে যত নবজাতকের জন্ম হবে, তাদের নামে যেন একটি করে গাছ লাগানো হয়, সেজন্য একটি এলাকাকে নির্ধারণ করে দেয়া হয়। এটি যদি আপনারা করেন, আপনারা বাংলাদেশে প্রথম কর্তৃপক্ষ হবেন, এই কাজটি করার ক্ষেত্রে।

 

সাবেক বন ও পরিবেশ মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, মানুষ যেভাবে নির্বিচারে কার্বন নিঃসরণ ঘটাচ্ছে, প্যারিস চুক্তিতে বিভিন্ন দেশ যে প্রতিশ্রুতিগুলো দিয়েছে, সেই প্রতিশ্রুতিগুলো যদি পুরোপুরি বাস্তবায়নও হয়, পৃথিবীর তাপমাত্রা সাড়ে ৩ থেকে ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস বাড়বে। এক ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা বাড়ার কারণে যেখানে ভয়াবহ পরিস্থিতির মুখোমুখি আমরা দাঁড়িয়েছি। সেখানে তাপমাত্রা সাড়ে ৩ থেকে ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস বাড়লে কী পরিস্থিতি দাঁড়াবে সেটি অনুমান করাও কঠিন ।

 

জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় বাংলাদেশের সক্ষমতার কথা তুলে ধরে হাছান মাহ্‌মুদ বলেন, আমরা ইতিমধ্যে জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে সৃষ্ট দুর্যোগের মোকাবেলা করছি। জলবায়ু পরিবর্তন এখানে বাস্তবতা, হুমকি নয় । 

 

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর শিরীন আখতার, সেনাবাহিনীর ২৪ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি মেজর জেনারেল এস. এম. মতিউর রহমান, নেদারল্যান্ডে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত শেখ মোহাম্মদ বেলাল, চবি ইনস্টিটিউট অভ ফরেস্ট্রি এন্ড এনভায়নমেন্টাল সায়েন্সের জ্যেষ্ঠ শিক্ষক প্রফেসর গিয়াস উদ্দিন, ফরেস্ট্রি এলামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. জসিম উদ্দিন প্রমুখ ।

 

বান্দরবানে শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন তথ্যমন্ত্রী

 

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহ্‌মুদ আজ বান্দরবান জেলা সদরে সর্বসাধারণের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করেছেন। 

 

বান্দরবান ডিসি অফিসসংলগ্ন বঙ্গবন্ধু মঞ্চ থেকে আওয়ামী লীগ আয়োজিত এ শীতবস্ত্র বিতরণকালে মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সকল স্থানে শীতার্ত মানুষকে শীতবস্ত্র দেবার নির্দেশ দিয়েছেন, তার নির্দেশেই এখানে আসা। 

 

আগামী ৪ বছরের মধ্যে দেশের সকল গ্রামে শহরের সুবিধা পৌঁছানো নিশ্চিত করছে সরকার, জানান মন্ত্রী ।

 

আওয়ামী  লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, বান্দরবান জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্য শৈ হ্লা, ডেপুটি কমিশনার মোহাম্মদ দাউদুল ইসলাম, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকির হোসেন মজুমদার একুশে পত্রিকার সম্পাদক আজাদ তালুকদার প্রমুখ এ সময় উপস্থিত ছিলেন। 

#

 

আকরাম/নাইচ/সঞ্জীব/রশীদ/২০২০/১৭৪০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                              নম্বর :  ১২৬

 

কেমিক্যাল মিশ্রিত টমেটো বিক্রয় বন্ধের নির্দেশ খাদ্যমন্ত্রীর

 

গোদাগাড়ী (রাজশাহী), ২৭ পৌষ (১১ জানুয়ারি) :

 

          রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে টমেটোতে ইথানল নামক এক ধরনের কেমিক্যাল স্প্রে করার সময় বিষয়টি খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদারের নজরে আসে। পথিমধ্যে গোদাগাড়ী মহাসড়কের পাশে তিনি টমেটো তুলে স্প্রে করতে দেখে কৃষকদেরকে টমেটোর প্রক্রিয়াজাতকরণ সম্পর্কে জিজ্ঞেস করলে তারা কোনো সন্তোষজনক জবাব দিতে পারেনি। যে সব শ্রমিক টমেটোতে ইথানল ব্যবহার করছিল তাদের বেশিরভাগই  এর ব্যবহার বিধি সম্পর্কে  ধারণা নেই। 

 

          পরে মন্ত্রী নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলেন এবং তাদের বিশেষজ্ঞ টিমকে উক্ত মাঠে এসে টমেটোর নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করার নির্দেশ দেন। রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত এ কেমিক্যাল মিশ্রিত টমেটো যাতে বাজারজাত না হয় সেজন্য গোদাগাড়ী উপজেলার ইউএনও এবং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেন।

 

#

 

সুমন/নাইচ/মোশারফ/সেলিম/২০২০/১৯৩০ ঘণ্টা

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                 নম্বর : ১২৫

 

মুজিববর্ষের ক্ষণ গণনার উদ্বোধন

বছরব্যাপী মুজিব জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠান আয়োজনের ঘোষণা রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমার

 

নিউইয়র্ক, ১১ জানুয়ারি :

 

          সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীতে জাতিসংঘকে সম্পৃক্ত করে বছরব্যাপী নানা অনুষ্ঠান আয়োজন করা হবে মর্মে ঘোষণা দিলেন জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা।

 

          গতকাল জাতিসংঘে বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনের বঙ্গবন্ধু মিলনায়তনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উদ্যাপন এবং মুজিববর্ষের ক্ষণ গণনার উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে একথা বলেন রাষ্ট্রদূত।

 

          অনুষ্ঠানের শুরুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর বাণী পাঠ করা হয়। এরপর জাতির পিতার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন ও জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণ গণনা সংক্রান্ত একটি ভিডিও প্রদর্শন করা হয়। স্থায়ী প্রতিনিধির বক্তব্য শেষে রাজধানী ঢাকায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ক্ষণ গণনা অনুসরণ করে নিউইয়র্কস্থ স্থায়ী মিশনেও জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণ গণনার উদ্বোধন করা হয়।

 

          স্থায়ী প্রতিনিধি তাঁর বক্তব্যে বলেন, ‘১৯৭২ সালে জাতির পিতার স্বাধীন বাংলাদেশে প্রত্যাবর্তনের এই দিনটি নিছক ফিরে আসা ছিল না, সেটি ছিল স্বাধীনতার পূর্ণতা প্রাপ্তি’। জাতির পিতার স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের এই শুভদিনে তাঁর জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণ গণনাকে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ অভিহিত করে তিনি বলেন, ‘জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী বা মুজিববর্ষ শুধু আনুষ্ঠানিকতাই নয়, এটি একটি দর্শন। এই দর্শন আমরা চর্চা করবো, আমার চিন্তায় ও মননে প্রোথিত রাখবো; এই দর্শন ধারণ করে আমরা দেশ ও জাতির উন্নয়নে কাজ করবো’।

 

          স্থায়ী প্রতিনিধির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ আলোচনা সভায় মিশনের সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ এবং জাতিসংঘের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

 

#

 

স্থায়ী মিশন, নিউইয়র্ক/নাইচ/মোশারফ/সেলিম/২০২০/১৯২০ ঘণ্টা

 

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                               নম্বর : ১২৪

 

মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ, গণহত্যা ও যুদ্ধাপরাধ বন্ধে

কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের আহ্বান রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমার

 

নিউইয়র্ক, ১১ জানুয়ারি :

 

          মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ, গণহত্যা ও যুদ্ধাপরাধ বন্ধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের আহ্বান জানালেন জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা।

 

          গতকাল জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে ‘আন্তর্জাতিক শান্তি ও নিরাপত্তা রক্ষার্থে জাতিসংঘ সনদকে সমুন্নত রাখা’ শীর্ষক এক উন্মুক্ত আলোচনায় বক্তব্য প্রদানকালে এ আহ্বান জানান রাষ্ট্রদূত।

 

          স্থায়ী প্রতিনিধি জাতিসংঘের প্রতি বাংলাদেশের অটল প্রতিশ্রুতির পুনর্ব্যক্ত করেন। তিনি জাতিসংঘে দেওয়া জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রথম ভাষণ থেকে উদ্ধৃত করে বলেন, ‘জাতিসংঘ সনদে যে মহান আদর্শের কথা বলা হয়েছে তা আমাদের জনগণের আদর্শ এবং এ আদর্শের জন্য তারা চরম ত্যাগ স্বীকার করেছেন’।

 

          রাষ্ট্রদূত আরো বলেন, জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে বাংলাদেশ যে নেতৃস্থানীয় ভূমিকা পালন করে চলেছে তা এসেছে জাতির পিতার উদ্ধৃত ঐ আদর্শ থেকেই। এক মিলিয়নেরও বেশি বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের আশ্রয়দানের ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে মানবিকতা ও সাহসী নেতৃত্ব প্রদর্শন করেছেন তা তুলে ধরেন স্থায়ী প্রতিনিধি। তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়ার ফলে এই অঞ্চল একটি অস্থিতিশীলতা থেকে রক্ষা পেয়েছে আর এই আশ্রয়দান জাতিসংঘ সনদের প্রতি আমাদের প্রতিশ্রুতিরই বহিঃপ্রকাশ।

 

          অরাষ্ট্রীয় অপশক্তি দ্বারা সৃষ্ট অসম নিরাপত্তা হুমকি, সাইবার জগতে নতুন চ্যালেঞ্জ-সহ জলবায়ু পরিবর্তন, দারিদ্র্য, অসমতা, সন্ত্রাসবাদ, সহিংস উগ্রবাদ ও মানব বাস্তুচ্যুতির মতো উদীয়মান চ্যালেঞ্জসমূহের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করেন রাষ্ট্রদূত ফাতিমা। বর্তমান ও ভবিষ্য প্রজন্মের প্রত্যাশা পূরণে এ সকল চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় তিনি বহুপাক্ষিকতাবাদ ও জাতিসংঘ সনদকে সমুন্নত রাখার ওপর জোর দেন।

 

          জাতিসংঘ সনদের ৭৫তম বর্ষপূর্তিকে সামনে রেখে এটি ছিল নিরাপত্তা পরিষদের এ বছরের প্রথম উন্মুক্ত আলোচনা। ভিয়েতনামের উপ-প্রধানমন্ত্রী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফ্যাম বিন মিন এই উন্মুক্ত আলোচনায় সভাপতিত্ব করেন। এতে একশ’টিরও বেশি সদস্যরাষ্ট্র বক্তব্য প্রদান করে। জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেজ এবং চেয়ার অভ্ দ্য এলডার্স ম্যারি রবিনসন উদ্বোধনী বক্তব্য প্রদান করেন।

 

#

 

স্থায়ী মিশন, নিউইয়র্ক/নাইচ/সঞ্জীব/সেলিম/২০২০/১৯২০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                              নম্বর :  ১২৩

 

অবৈধ দখলে থাকা রেলওয়ে সম্পত্তি ফিরিয়ে আনার পরিকল্পনা নেয়া হচ্ছে

                                                                       -- রেলপথ মন্ত্রী

 

চট্টগ্রাম, ২৭ পৌষ (১১ জানুয়ারি) :

          রেলপথ মন্ত্রী মোঃ নূরুল ইসলাম সুজন বলেছেন, রেলওয়ে একটি বড় প্রতিষ্ঠান। এর অনেক সম্পত্তি  অবৈধ দখল হয়ে আছে। সরকারের লক্ষ্য হচ্ছে অবৈধ দখলে থাকা রেলওয়ের সম্পত্তি ফিরিয়ে এনে ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে তা সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা করা।

 

          মন্ত্রী আজ চট্টগ্রামে রেলওয়ে অফিসার্স ক্লাব মাঠে আয়োজিত রেলওয়ে পরিবার সুহৃদ সংসদ  আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

 

          রেলপথ মন্ত্রী কিছু প্রকল্পের কথা উল্লেখ করে বলেন, পদ্মা সেতু  রেল সংযোগ প্রকল্প , খুলনা-মোংলা রেল সংযোগ ,বগুড়া সিরাজগঞ্জ রেল লাইন নির্মাণ, যমুনা নদীর উপর সেতু নির্মাণ,  বিদ্যমান  সিঙ্গেল লাইনকে ডুয়েল গেজ ডাবল  লাইনে রূপান্তর,  ইলেকট্রিক ট্রাকশনে রূপান্তর,  হাইস্পিড ট্রেন ঢাকা চট্টগ্রাম হয়ে কক্সবাজার পর্যন্ত নির্মাণ-সহ অনেক প্রকল্পের কাজ চলমান।

 

          মন্ত্রী  এ সময় বলেন, ঢাকা চট্টগ্রামের মধ্যে আখাউড়া এবং লাকসামের মধ্যে ডাবল লাইনের কাজ চলমান। এ অংশটুকুর কাজ সমাপ্ত হলে ঢাকা-চট্টগ্রামের মধ্যে অধিক পরিমাণ ট্রেন চালানো সম্ভব হবে। এছাড়া পর্যায়ক্রমে যেখানে মিটারগেজ  আছে সেখানে ডুয়েলগেজে রূপান্তর করা হচ্ছে যেন  ব্রডগেজের সুবিধা পেতে পারি ।

 

          রেলমন্ত্রী উল্লেখ করেন আগামী প্রজন্মের জন্য উন্নত ও সমৃদ্ধ দেশ গড়ার লক্ষ্যে প্রত্যেককে কাজ করতে হবে। রেলওয়ে সুহৃদ পরিবারকে তিনি আগামী দিনের একটা বড় সংগঠন হিসেবে আখ্যায়িত করে বলেন, রেলের উন্নয়নে সংগঠনটি অনেক বড় অবদান রাখতে পারবে বলে আমি আশা করছি।

 

#

 

শরিফুল/নাইচ/সঞ্জীব/সেলিম/২০২০/১৮৩০ ঘণ্টা

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                         নম্বর : ১২২

 

মুজিববর্ষে বিশেষভাবে সক্ষমদের জন্য আধুনিক জব পোর্টাল চালু করা হবে

                                                          -- আইসিটি প্রতিমন্ত্রী পলক

 

ঢাকা, ২৭ পৌষ (১১ জানুয়ারি) :

 

            তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক বলেছেন, বিশেষভাবে সক্ষমদের জন্য আইসিটি বিভাগ হতে মুজিব বর্ষে একটি আধুনিক জব পোর্টাল  চালু করা হবে। এর মাধ্যমে বিশেষভাবে সক্ষম তার যোগ্যতা অনুযায়ী চাকরির আবেদন করতে পারবেন। অন্যদিকে বিভিন্ন চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠান ভিডিও কলের মাধ্যমে দেশের বা বিদেশের যে কোনো স্থান থেকে ইন্টারভিউ গ্রহণ করতে পারবে। এছাড়াও বিশেষভাবে সক্ষমদের সাথে চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠানের সাথে সংযোগ সৃষ্টি হবে ।

 

প্রতিমন্ত্রী আজ ঢাকায় আগারগাঁওস্থ এনজিও বিষয়ক ব্যুরো মিলনায়তনে ‘প্রতিবন্ধীদের চাকুরি মেলা ২০২০’ এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন উপলক্ষে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

 

প্রতিমর্ন্ত্রী বলেন, সরকার বিশেষভাবে সক্ষমদের মর্যাদা ও অধিকার নিশ্চিত করতে ‘প্রতিবন্ধী সুরক্ষা আইন’ প্রণয়ন-সহ বিভিন্ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করেছে।

 

          প্রযুক্তির মাধ্যমে সমাজের বিভিন্ন বৈষম্য দূর করা সম্ভব উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, দেশের ২৮টি হাইটেক পার্কে ‘ডিজিটাল সার্ভিস এন্ড ট্রেনিং সেন্টার’ প্রতিষ্ঠা করা হবে। এতে বিশেষভাবে সক্ষমগণ প্রশিক্ষণের জন্য অগ্রাধিকার পাবেন ।

 

বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের নির্বাহী পরিচালক পার্থপ্রতিম দেবের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের  সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম, এনজিও বিষয়ক ব্যুরোর মহাপরিচালক কে এম আব্দুস সালাম এবং দেশীয় এনজিও সিএস আইডি এর নির্বাহী পরিচালক খন্দকার জহিরুল আলম ও প্রকল্প পরিচালক এনামুল কবির ।

 

#

 

শহিদুল/নাইচ/সঞ্জীব/সেলিম/২০২০/১৭৪০ ঘণ্টা

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                         নম্বর : ১২১

 

রাতকানা রোগ এখন এক ভাগেরও নিচে

                            -- স্বাস্থ্যমন্ত্রী

 

ঢাকা, ২৭ পৌষ (১১ জানুয়ারি) :

 

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, সরকারের যথাসময়ে সঠিক কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করার ফলেই দেশে পোলিও নির্মূলসহ রাতকানা রোগ এখন এক ভাগেরও নিচে নেমে এসেছে । সরকারের দূরদর্শিতায় আজ দেশে রাতকানা রোগ আর নেই বললেই চলে । এ সাফল্য ধরে রাখতে টিকাদান কর্মসূচিকে সফল করতে হবে।

 

 

আজ রাজধানীর শিশু হাসপাতালে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইনে টিকাদান কর্মসূচি উদ্বোধনকাল মন্ত্রী এসব কথা বলেন ।

 

 

স্বাস্থ্যমন্ত্রী এর আগে ছোট ছোট শিশুদের মুখে লাল ও নীল রঙের ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানোর মধ্য দিয়ে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণা করেন । সে অনুযায়ী আজ থেকেই ৬ মাস থেকে ৫ বছর বয়সী প্রায় ২ কোটি ১০ লাখ শিশুকে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো কার্যক্রম আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়েছে । উল্লেখ্য, টিকাদান কর্মসূচি বাস্তবায়ন করতে দেশব্যাপী ১ লাখ ২০ হাজার স্থায়ী কেন্দ্রসহ অতিরিক্ত আরো ২০ হাজার অস্থায়ী ও ভ্রাম্যমাণ কেন্দ্রের মাধ্যমে এ কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে ।

 

#

 

মাইদুল/নাইচ/সঞ্জীব/রশীদ/২০২০/১৭৪০ ঘণ্টা

 

 

 

2020-01-11-22-46-e0fc1d03abe99bfe44b07bcb1f506525.docx 2020-01-11-22-46-e0fc1d03abe99bfe44b07bcb1f506525.docx

Share with :

Facebook Facebook