তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

তথ্যবিবরণী 27.2.2018

তথ্যবিবরণী                                                                                 নম্বর : ৬৪১
 
ডিইউজে দ্বিবার্ষিক সভায় তথ্যমন্ত্রী
শেখ হাসিনার সরকার চায় জীবন্ত-সক্রিয় গণমাধ্যম
 
ঢাকা, ১৫ ফাল্গুন (২৭ ফেব্রুয়ারি) :
তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, ‘শেখ হাসিনার সরকার পোষা কিংবা হলুদ সাংবাদিকতা চায় না, সমালোচনাকে ভয় পায় না। সরকার চায় জীবন্ত, সক্রিয় ও গতিশীল গণমাধ্যম।’
আজ ঢাকায় জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) দ্বিবার্ষিক সাধারণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন। ইউনিয়নের সভাপতি শাবান মাহমুদের সভাপতিত্বে প্রধানমন্ত্রীর তথ্য বিষয়ক উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, সাংবাদিক মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল ও ওমর ফারুক বিশেষ অতিথি হিসেবে সভায় যোগ দেন।
গণমাধ্যমকর্মীদের জন্য চারটি বিষয় সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বলে উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী এসময় বলেন, সাংবিধানিক অধিকার হিসেবে আইন অনুযায়ী স্বাধীন সাংবাদিকতা, চাকুরীর নিরাপত্তা, অর্থনৈতিক নিরাপত্তা ও কল্যাণ গণমাধ্যমকর্মীদের জন্য অপরিহার্য।
হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘এ চারটি বিষয় নিশ্চিত করার জন্যই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু ১৯৭৪ সালে এ বিষয়ে আইন প্রণয়ন করেছিলেন। কিন্তু বেগম খালেদা জিয়ার আমলে সে আইন বাতিল করে গণমাধ্যমকর্মীদেরকে মজুর হিসেবে গণ্য করা হয়। শেখ হাসিনার সরকার ইলেক্ট্রনিক গণমাধ্যমকর্মীদের অন্তর্ভুক্ত করে আইনটিকে হালনাগাদ করার কাজে হাত দিয়েছে।’
‘অটিস্টিক শিশুরা কেমন হয়’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন
 
এর আগে সকালে রাজধানীর কাকরাইলে বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউট সেমিনার হলে কিশোর লেখিকা নানজিবা খান রচিত ‘অটিস্টিক শিশুরা কেমন হয়’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু ও সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর।
কিশোর লেখিকা নানজিবা খানের দু’বছরের গবেষণাপ্রসূত ৯৬ পৃষ্ঠার এ বইটি প্রকাশ করেছে অন্বেষা প্রকাশন।
#
 
আকরাম/মাহমুদ/সঞ্জীব/জয়নুল/২০১৮/২০৩০ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                             নম্বর : ৬৪০
 
বাংলাদেশ ছাত্রলীগ (জাসদ) কেন্দ্রীয় সম্মেলনে তথ্যমন্ত্রী
জঙ্গিবাদ-দুর্নীতি-বৈষম্য নির্মূল করবে ছাত্র-শিক্ষক-বুদ্ধিজীবী 
 
ঢাকা, ১৫ ফাল্গুন (২৭ ফেব্রুয়ারি) :
 
তথ্যমন্ত্রী ও জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু বলেছেন, ‘জঙ্গিবাদের বিপদ আর দুর্নীতি ও বৈষম্যের আপদ থেকে দেশকে মুক্ত রাখতে ছাত্র-শিক্ষক ও বুদ্ধিজীবীদের একসাথে কাজ কাজ করতে হবে।’ 
 
আজ ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ে অপরাজেয় বাংলার সামনে সবুজ চত্বরে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ (জাসদ) এর দু’দিনব্যাপী কেন্দ্রীয় সম্মেলনের উদ্বোধনী সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী একথা বলেন। 
 
‘ছাত্রলীগ ইতিহাস গড়েছিল, আবার ইতিহাস গড়বে, সমাজতন্ত্রের লাল পথ গড়বে’ উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সমাজতন্ত্রের পতাকা হাতে বাংলাদেশকে জঙ্গিমুক্ত করে বৈষম্য ও দুর্নীতির অবসান ঘটিয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন করবে ছাত্রলীগ।’
 
শিক্ষাঙ্গনকে দেশের আলোকবর্তিকা বলে বর্ণনা করে জাসদ সভাপতি ইনু বলেন, ‘রাজনীতি, সমাজনীতি, অর্থনীতিসহ যে কোনো ক্ষেত্রে দেশ যখন হোঁচট খায়, শিক্ষাঙ্গনের আলো তখন পথ দেখায়। তাই শিক্ষাঙ্গনকে দলবাজি-ক্ষমতাবাজি-দালালি থেকে মুক্ত রাখতে হবে।’ 
 
হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘পঁচাত্তরে জাতির পিতাকে নির্মমভাবে হত্যা করে যে সামরিক-সাম্প্রদায়িক-স্বৈর অপশক্তি বাংলাদেশকে দখল করে নিয়েছিল, তারাই এখন দেশকে পাকিস্তান-আফগানিস্তানের পথে ঠেলে দেয়ার চক্রান্তে লিপ্ত। এদের বিরুদ্ধে ছাত্রসমাজকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে, জঙ্গি দমনের যুদ্ধে সামনে থাকতে হবে।’ 
 
ছাত্রলীগ সভাপতি সামছুল ইসলাম সুমনের সভাপতিত্বে জাসদের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার, দলের কার্যনির্বাহী পরিষদ সভাপতি এডভোকেট রবিউল আলম ও সহ-সভাপতি ড. আনোয়ার হোসেন বিশেষ অতিথি হিসেবে সভায় যোগ দেন। 
 
#
 
আকরাম/মাহমুদ/ফারহানা/সঞ্জীব/সেলিমুজ্জামান/২০১৮/১৯৫০ ঘণ্টা 
 
তথ্যবিবরণী                                                                                নম্বর : ৬৩৯
 
শিক্ষার্থীদের প্রকৃত মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে শিক্ষক সমাজের বড় ভূমিকা রয়েছে
-- সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী
 
ঢাকা, ১৫ ফাল্গুন (২৭ ফেব্রুয়ারি) :
 
সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেছেন, আমাদের সময়ে শিক্ষকগণ দরিদ্র ছিলেন বটে; কিন্তু তাঁরা সন্তানের মতো ভালোবাসা দিয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে জ্ঞান বিলিয়ে দিয়েছেন যেটা বর্তমান যুগের শিক্ষকদের মাঝে অনেকটাই অনুপস্থিত। শিক্ষার্থীরা যতটা সময় পরিবারের সাথে কাটায়, তার চেয়ে বেশি সময় কাটায় শিক্ষকদের সাথে। সুতরাং, শিক্ষার্থীদের প্রকৃত মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে শিক্ষক সমাজের বড় ভূমিকা রয়েছে।
 
মন্ত্রী আজ রাজধানীর বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন স্ফূরণ আয়োজিত “১৪তম শিশু-কিশোর চিত্রাংঙ্কন প্রতিযোগিতা ২০১৮’’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
 
স্ফূরণ এর সভাপতি রুহুল লোহানী আকাশের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন প্রতিযোগিতার প্রধান বিচারক বরেণ্য শিল্পী মুস্তাফা মনোয়ার এবং কৃষি উন্নয়ন ও গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব শাইখ সিরাজ। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন স্ফূরণ এর প্রধান উপদেষ্টা মোবাশ্বের হোসেন।
 
আসাদুজ্জামান নূর বলেন, এখন শিশুদের যন্ত্র তথা রোবটের মতো করে বড় করা হচ্ছে যা মোটেও কাম্য নয়। আমরা চাই, শিশুরা সুস্থ ও সুন্দর জীবনযাপন করুক। সুন্দর মনের মানুষ হিসেবে গড়ে উঠুক। তাঁদের বাইরে বেড়ানোর সুযোগ করে দিতে হবে; বাইরের পৃথিবীর সাথে পরিচিত করে দিতে হবে। তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মানবিক গুণাবলিসম্পন্ন একটি সোনার বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখেছিলেন। বঙ্গবন্ধুর সে স্বপ্ন বাস্তবায়নে শুধু সরকার একা নয়, দলমত নির্বিশেষে সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে এগিয়ে আসতে হবে।
 
চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় ঢাকা শহরের ৪০টি স্কুলের প্রায় ৭০০জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে।
 
#
 
ফয়সল/মাহমুদ/ফারহানা/সঞ্জীব/সেলিমুজ্জামান/২০১৮/১৯৪০ ঘণ্টা 
তথ্যবিবরণী                                                                                নম্বর : ৬৩৮
 
২০১৬-১৭ অর্থবছরে ইলিশের উৎপাদন ৫ লাখ মেট্রিক টন  
 
ঢাকা, ১৫ ফাল্গুন (২৭ ফেব্রুয়ারি) :
 
ঐতিহ্যের ধারক ও বাহক জাতীয় মাছ ইলিশ অনাদিকাল থেকেই আমাদের জাতীয় অর্থনীতি, কর্মসংস্থান ও আমিষ জাতীয় খাদ্য সরবরাহে অনন্য ভূমিকা পালন করে আসছে। দেশের মোট মৎস্য উৎপাদনে ইলিশের অবদান প্রায় ১২ শতাংশ এবং ২০১৬-১৭ অর্থবছরে বার্ষিক উৎপাদন প্রায় ৪ লাখ ৯৬ হাজার মেট্রিক টন, যার বাজারমূল্য প্রায় ২০ হাজার কোটি টাকা। জিডিপিতে ইলিশ মাছের অবদান প্রায় ১ শতাংশ। 
 
বিগত কয়েক দশকে বিভিন্ন প্রাকৃতিক ও মনুষ্যসৃষ্ট পরিবেশের যেমন নদ-নদীর নাব্যতা হ্রাস, পরিবেশ বিপর্যয়, নির্বিচারে জাটকা নিধন ও অধিকমাত্রায় ডিমওয়ালা ইলিশ আহরণ ইত্যাদির কারণে ইলিশের উৎপাদন দ্রুত হ্রাস পাচ্ছিল। কিন্তু সরকারের জাটকা এবং প্রজননক্ষম ইলিশ ধরার ওপর নিষেধাজ্ঞা কার্যক্রম বাস্তবায়ন, অভয়াশ্রম প্রতিষ্ঠা এবং নিষিদ্ধ সময়ে জেলেদের বিকল্প কর্মসংস্থানের ব্যবস্থাসহ বিভিন্ন প্রচেষ্টার ফলে ২০১৬-১৭ সালে যেমন ইলিশের উৎপাদন দ্বিগুণ হয়েছে, তেমনই লক্ষ্যমাত্রা অতিক্রম করে মৎস্য উৎপাদনেও বাংলাদেশ স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।
 
দেশে ইলিশের প্রধান চারটি প্রজননক্ষেত্র যেমন ঢলচর, মনপুরা, মৌলভীরচর ও কালিরচর দ্বীপে সমন্বিতভাবে প্রায় ৭ হাজার বর্গকিলোমিটার এলাকায় প্রতি বৎসর ইলিশের প্রজনন মৌসুমে আশ্বিন মাসের বড়পূর্ণিমার সময়, বড়পূর্ণিমার ৪দিন আগে ও এর ১৭দিন পরে মোট ২২ দিন ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ করার মাধ্যমে তা বাস্তবায়িত হয়ে আসছে। প্রতি বৎসর নভেম্বর হতে জুনমাস পর্যন্ত জাটকা ধরার মৌসুম হলেও মার্চ ও এপ্রিল মাসে সর্বোচ্চ পরিমাণে অর্থাৎ শতকরা ৬০-৭০ ভাগ জাটকা ধরা পড়ে। তাই নভেম্বর হতে জুন মাস পর্যন্ত অভয়াশ্রম ঘোষণার প্রয়োজন হলেও জেলেদের আর্থসামাজিক অবস্থা, বিকল্প কর্মসংস্থান ও অন্যান্য বিষয় বিবেচনা করে ঘোষিত ৫টি অভয়াশ্রমে উল্লিখিত সময়ে মাছ ধরা নিষিদ্ধ করা হয়।
 
প্রজনন মৌসুমে ২০১৭ সালে ২২দিন ইলিশ আহরণ নিষিদ্ধ থাকায় প্রায় ২ কোটি ৫৫ লাখ ইলিশ আহরণ হতে রক্ষা পেয়েছে। আহরণমুক্ত ইলিশ হতে প্রায় ৬ লাখ ৭৬ হাজার ৩৯৫ কেজি ডিম প্রাকৃতিকভাবে উৎপাদিত হয়েছে। উৎপাদিত ডিমের পরিস্ফুটনের হার শতকরা ৫০ ভাগ হিসেবে প্রায় ৩ লাখ ৩৮ হাজার ১৯৭ কেজি রেণু উৎপাদিত হয়েছে। উক্ত রেণুর বাঁচার হার ১০ শতাংশ হিসেবে প্রায় ৪২ হাজার ২৭৪ কোটি পোনা বা জাটকা চলতি বৎসর ইলিশ জনতায় নতুনভাবে সংযুক্ত হবে বলে ধারণা করা যায়।  
 
#
 
শাহআলম/মাহমুদ/ফারহানা/রফিকুল/সেলিমুজ্জামান/২০১৮/১৯২০ ঘণ্টা 
তথ্যবিবরণী                                                                                 নম্বর : ৬৩৭
 
বিদেশে কর্মী  নিয়োগ প্রক্রিয়াকে অটোমেশন করা হবে
                              --- নুরুল ইসলাম বিএসসি
 
ঢাকা, ১৫ ফাল্গুন (২৭ ফেব্রুয়ারি) :
অভিবাসন ব্যয় কমানো ও অভিবাসন প্রক্রিয়াকে স্বচ্ছ ও জবাবদিহিতার অধীনে আনার জন্য বাংলাদেশ সরকার বিদেশে কর্মী প্রেরণে নিয়োগ প্রক্রিয়াকে অটোমেশন করার প্রক্রিয়া গ্রহণ করেছে। এরই অংশ হিসেবে বিদেশ গমনেচ্ছু কর্মীদের ডেটাবেইজ তৈরি, বর্হিগমন ছাড়পত্র প্রদান, স্মার্ট কার্ড প্রদানসহ ফিঙ্গারপ্রিন্ট কার্যক্রমকে ডিজিটালাইজেশন করা হয়েছে। এছাড়া সেবা সহজীকরণের লক্ষ্যে ফিঙ্গারপ্রিন্ট ও বহির্গমন ছাড়পত্র প্রদানসহ স্মার্ট কার্ড প্রদান কার্যক্রমকে বিকেন্দ্রীকরণ করা হয়েছে। 
প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি আজ ঢাকার একটি হোটেলে ঙাবৎংবধং ঊসঢ়ষড়ুসবহঃ ঝবৎারপব চৎড়ারফবৎং-অষষরধহপব ড়ভ অংরধহ অংংড়পরধঃরড়হং (ঙঊঝচঅঅঅ) এর দুই দিনব্যাপী পঞ্চম আঞ্চলিক সম্মেলনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। 
মন্ত্রী বলেন, অভিবাসন খাতের নেতৃত্বকারী হিসেবে ঙঊঝচঅঅঅ কে বিদেশে কর্মী প্রেরণে নৈতিক নিয়োগ  প্রক্রিয়াকে  আরো জোরালোভাবে দেখাতে হবে। 
সম্মেলনে স্বাগত বক্তব্য রাখেন আইওএম বাংলাদেশ এর ডেপুটি চিফ অভ্ মিশন আব্দুসাত্তার ইসোভ (অনফঁংধঃঃড়ৎ ঊংড়বা)। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ঙঊঝচঅঅঅ এর চেয়ার ও বায়রা সভাপতি বেনজির আহমেদ এবং উন্নয়ন সহযোগী সংগঠনের পক্ষে মাইগ্রেশন এন্ড ডেভেলপমেন্ট সাউথ এন্ড সাউথইস্ট, এম্বাসি অভ্ সুউজারল্যান্ড টু বাংলাদেশ এর প্রোগ্রাম অফিসার অহরহফুধ উঁঃঃধ। 
সম্মেলনে এশিয়ার বিদেশে কর্মী প্রেরণকারী ১২টি দেশের সংগঠন ঙঊঝচঅঅঅ এর ২৪ জন প্রতিনিধি অংশগ্রহন করেন। আইওএম বাংলাদেশ এ সম্মেলনের সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করে। সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেন আফগানিস্থান, বাংলাদেশ, কম্বোডিয়া, চীন, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, নেপাল, পাকিস্তান, ফিলিপাইন, শ্রীলংকা, থাইল্যান্ড এবং ভিয়েতনাম। উল্লেখ্য, ঙঊঝচঅঅঅ এর বর্তমান চেয়ার বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অভ্ ইন্টারন্যাশনাল রিক্রুটিং এজেন্সিস (বায়রা)। ২০০৮ সাল থেকে ঙঊঝচঅঅঅ এর কার্যক্রম চালু হয়। 
#
 
জাহাঙ্গীর/মাহমুদ/রফিকুল/জয়নুল/২০১৮/১৯৪০ঘণ্টা  
তথ্যবিবরণী                                                                                 নম্বর : ৬৩৬
 
নৌপরিবহণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠক
                                           
ঢাকা, ১৫ ফাল্গুন (২৭ ফেব্রুয়ারি) :
জাতীয় সংসদের নৌপরিবহণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির ৫১তম বৈঠক আজ কমিটির সভাপতি মেজর (অব.) রফিকুল ইসলাম, বীর উত্তমের সভাপতিত্বে সংসদভবনে অনুষ্ঠিত হয়। কমিটির সদস্য নৌপরিবহণ মন্ত্রী শাজাহান খান, মোঃ আব্দুল হাই, এম আব্দুল লতিফ, মোঃ আনোয়ারুল আজীম এবং মমতাজ বেগম এড্ভোকেট বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন।
বৈঠকে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ, বাংলাদেশ স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষ এবং বাংলাদেশ শিপিং কর্পোরেশনের কার্যক্রম সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা হয়।
চট্টগ্রাম বন্দরের কার্যক্রমের গতিশীলতা বৃদ্ধি করতে জেটির সংখ্যা বাড়ানোর জন্য এবং চট্টগ্রাম বন্দরের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সংস্কারের জন্য কমিটি সুপারিশ করে। বৈঠকে উল্লেখ করা হয়, বেনাপোল স্থলবন্দরের মাধ্যমে আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রমে গতিশীলতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে বেনাপোল স্থলবন্দরকে অটোমেশনের আওতায় আনার কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে। ইতোমধ্যে অটোমেশন কার্যক্রমের পাইলটিং কার্যক্রম চালু করা হয়েছে। শীঘ্রই পূর্ণাঙ্গ অটোমেশন চালু হবে।
বাংলাদেশ স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষের আওতায় সিলেট জেলার নবঘোষিত শেওলা স্থলবন্দর এবং খাগড়াছড়ি জেলার  রামগড় স্থলবন্দর উন্নয়নের জন্য বিশ^ব্যাংকের আর্থিক সহযোগিতায় প্রায় ২০০ কোটি টাকা ব্যয়ের উন্নয়ন প্রকল্প অনুমোদিত হয়েছে যা বাস্তবায়নাধীন রয়েছে বলে বৈঠকে উল্লেখ করা হয়। এছাড়া, কমিটি বাংলাদেশ শিপিং কর্পোরেশনকে যে কোনো পরিস্থিতিতে সরবরাহের জন্য প্রয়োজনীয় অয়েল ট্যাংকার সংরক্ষণের সুপারিশ করে।
নৌপরিবহণ মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব, চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এবং স্থল বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যানসহ মন্ত্রণালয় ও জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।
#
 
সাব্বির/মাহমুদ/রফিকুল/জয়নুল/২০১৮/১৯৩৫ঘণ্টা 
তথ্যবিবরণী                                                                                 নম্বর : ৬৩৫
 
অধস্তন আদালতের বিচারকদের উদ্দেশে আইনমন্ত্রী
মামলা জট কমাতে জনগণকে এডিআর পদ্ধতি ব্যবহারে উৎসাহিত করুন 
 
ঢাকা, ১৫ ফাল্গুন (২৭ ফেব্রুয়ারি) :
 
মামলা জট কমাতে বিচারপ্রার্থী জনগণকে আদালতের বাইরে বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তি (এডিআর) পদ্ধতি ব্যবহারে উৎসাহিত করার আহ্বান জানিয়েছেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক। 
 
মন্ত্রী আজ রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলনকেন্দ্রে জাতিসংঘের উন্নয়ন সংস্থা ইউএনডিপি আয়োজিত ন্যাশনাল জাসটিস কোঅর্ডিনেশন কমিটির কার্যক্রমের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় অধস্তন আদালতের বিচারকদের উদ্দেশে এই আহ্বান জানান। 
 
আনিসুল হক বলেন, এডিআর পদ্ধতিকে কাজে লাগালে অনেক দ্রুততার সঙ্গে মামলা জট কমিয়ে স্বল্প সময়ে ও স্বল্প খরচে বিচারিক সেবা প্রদান করা সম্ভব হবে। এতে করে আদালতের ওপর মামলার চাপ কমবে। সে লক্ষ্যেই দেওয়ানি কার্যবিধি এবং অর্থঋণ আদালত আইন সংশোধন করে এতে এডিআরের বিধান অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।  
 
আদালতে মামলা জট কমাতে সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণের কথা উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, বিচার কার্যক্রমকে সঠিকভাবে ও দ্রুত সম্পন্ন করার লক্ষ্যে কারিগরি সহায়তা প্রদানের জন্য সরকার ইউএনডিপি ও যুক্তরাজ্য সরকারের উন্নয়ন সংস্থা ডিএফআইডির সহায়তায় ইতঃপূর্বে জাস্টিস সেক্টর ফ্যাসিলিটি প্রকল্প বাস্তবায়ন করে। এই প্রকল্প বাস্তবায়নের অভিজ্ঞতার আলোকে বাংলাদেশে বিচার ব্যবস্থায় কিছু সমস্যা চিহ্নিত করা সম্ভব হয়েছে। 
 
মন্ত্রী বলেন, বর্তমানে মামলা জটের অন্যতম কারণ হচ্ছে বিচার ব্যবস্থার সাথে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের যোগাযোগের সমন্বয় ও সহযোগিতার অভাব। তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার, এই বিপুল সংখ্যক মামলার জট কমিয়ে নারী, শিশু ও সাধারণ নাগরিকের জন্য সহজে ন্যায়বিচার প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।
 
আইন ও বিচার বিভাগের সচিব আবু সালেহ্্ শেখ মোঃ জহিরুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে পুলিশের অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক মোখলেছুর রহমান, সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল (ভারপ্রাপ্ত) ড. মোঃ জাকির হোসেন, কারা মহাপরিদর্শক সৈয়দ ইফতেখার উদ্দিন এবং ইউএনডিপি বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর সুদীপ্ত মুখার্জী প্রমুখ বক্তৃতা করেন।
 
#
 
রেজাউল/মাহমুদ/ফারহানা/সঞ্জীব/রফিকুল/সেলিমুজ্জামান/২০১৮/১৮৩০ ঘণ্টা 
তথ্যবিবরণী                                                                                 নম্বর : ৬৩৪
 
ওবায়দুল কাদেরের মাতার মৃত্যুতে পার্বত্য প্রতিমন্ত্রীর শোক
 
বান্দরবান, ১৫ ফাল্গুন (২৭ ফেব্রুয়ারি) :
সড়ক পরিবহণ ও সেতু মন্ত্রী এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের মাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছার মৃত্যুতে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উ শৈ সিং গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। 
আজ এক শোকবার্তায় প্রতিমন্ত্রী বেগম ফজিলাতুন্নেছার আত্মার শান্তি কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানান।
#
 
জুলফিকার/মাহমুদ/সঞ্জীব/জয়নুল/২০১৮/১৮২০ঘণ্টা 
তথ্যবিবরণী                                                                                 নম্বর : ৬৩৩
 
মার্চে নির্দিষ্ট প্রকল্পের অধীনে মসজিদের নির্মাণ কাজ শুরু হবে
                                                 -- ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রী
 
ঢাকা, ১৫ ফাল্গুন (২৭ ফেব্রুয়ারি) :
 
ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অগ্রাধিকারমূলক প্রকল্প হিসেবে বাংলাদেশ সরকারের নিজস্ব অর্থায়নে ‘প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় একটি করে ৫৬০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সংস্কৃতিক কেন্দ্র স্থাপন’ শীর্ষক প্রকল্পের কার্যক্রম দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলছে। এ প্রকল্পের প্রথম ১১টি মসজিদের নির্মাণ কাজ মার্চের মাঝামাঝিতে শুরু হবে। 
 
মন্ত্রী আজ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ২০১৭-১৮ অর্থবছরের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিভুক্ত প্রকল্পসমূহের জানুয়ারি মাসের অগ্রগতি পর্যালোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। 
 
মতিউর রহমান জানান, এ প্রকল্পের প্রাক্কলিত ব্যয় ধরা হয়েছে ৮ হাজার ৭২২ কোটি ৫ লাখ ৮ হাজার টাকা। মডেল মসজিদসমূহের জন্য জেলা পর্যায়ে ৪ তলা বিশিষ্ট এবং উপজেলা পর্যায়ে ৩ তলা বিশিষ্ট শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত ভবন নির্মাণ হবে। মহিলাদের জন্য নামাজের আলাদা কক্ষ বরাদ্দ থাকবে। ইতোমধ্যে ১১টি মসজিদের স্থান চূড়ান্তভাবে নির্বাচন করে নির্মাণ কাজ শুরুর জন্য প্রশাসনিক নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে। 
 
সভায় জানানো হয়, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আওতায় বর্তমানে বাস্তবায়নাধীন অনুমোদিত প্রকল্পের সংখ্যা মোট ১১টি। মন্ত্রী বলেন, নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে যে কোনো মূল্যে উন্নয়ন প্রকল্পসমূহের কাজ সম্পন্ন করতে হবে। এক্ষেত্রে কোনো ধরণের সমস্যা হলে সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে সহযোগিতা প্রদান করা হবে। 
 
ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব জনাব মোঃ আনিছুর রহমান, অতিরিক্ত সচিব মোঃ হাফিজুর রহমান, ওয়াকফ্্ প্রশাসক জনাব মোঃ শহিদুল ইসলাম, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব মোঃ হাফিজ উদ্দিন, যুগ্মসচিব ড. মোয়াজ্জেম হোসেন, যুগ্মসচিব মোঃ জহির আহমদ, ৫৬০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সংস্কৃতিক কেন্দ্র স্থাপন শীর্ষক প্রকল্পের পরিচালক, মুঃ আঃ হামিদ জমাদ্দারসহ বিভিন্ন প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ও সংস্থার প্রতিনিধিবৃন্দ সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন। 
 
#
 
আনোয়ার/মাহমুদ/ফারহানা/রফিকুল/জয়নুল/২০১৮/১৮০০ ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                 নম্বর : ৬৩২
 
বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রীর সাথে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ
 
ঢাকা, ১৫ ফাল্গুন (২৭ ফেব্রুয়ারি) :
বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদের সাথে বাংলাদেশে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্শা এস বার্নিকাট (গধৎপরধ ঝ ইবৎহরপধঃ) আজ সচিবালয়ে সাক্ষাৎ করেছেন। এসময় তারা পারস্পরিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন। 
রাষ্ট্রদূত জানান, যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি ও বেসরকারি খাতের কোম্পানিসমূহ বাংলাদেশের বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাত সম্পর্কে আগ্রহ দেখাচ্ছে। এক্সিলারেট, সানএডিসন, জিই ইত্যাদিসহ কয়েকটি কোম্পানি জ্বালানি ও বিদ্যুৎ খাতে কাজ করতে চাচ্ছে। তিনি জানান, চেনারি (ঈযবহরবৎব) সহ বেশ কয়েকটি কোম্পানি এলএনজি নিয়ে কাজ করতে ইচ্ছুক। জিই সহ সরকারি ও বেসরকারি কয়েকটি প্রতিষ্ঠান বিদ্যুৎ উৎপাদনেও আগ্রহ দেখাচ্ছে। তিনি মাতারবাড়ি, কক্সবাজার, পটুয়াখালী, চট্টগ্রাম, আশুগঞ্জ এলাকায় ৯ঐঅ গ্যাস টার্বাইন, স্টিম টার্বাইন, হিট রিকভারি স্টিম জেনারেটর ব্যবহার করে জিই বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের ইচ্ছা পোষণ করেন।
প্রতিমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রের আগ্রহকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, অন্যান্য দেশের তুলনায় বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে যুক্তরাষ্ট্রের বিনিয়োগ খুবই কম। বিপুল সম্ভাবনাময় এখাতে যুক্তরাষ্ট্রের বিনিয়োগ বাড়ানোর উদ্যোগ নেয়ার জন্য রাষ্ট্রদূতের সহযোগিতা কামনা করেন। প্রতিমন্ত্রী এসময় বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের বর্তমান, ভবিষ্যৎ ও সম্ভাবনা রাষ্ট্রদূতকে অবহিত করে উৎপাদন, সঞ্চালন, নবায়নযোগ্য জ্বালানি, সোলার, বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ ইত্যাদি বিষয়ে বিনিয়োগের উৎকর্ষতা ও সম্ভাবনা তুলে ধরেন। বিদ্যুৎ খাতে বাংলাদেশে প্রতিবছর ৩ দশমিক ৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ হচ্ছে। এ অঞ্চলেই বিনিয়োগের বিশাল সম্ভাবনা সৃষ্টি হয়েছে। প্রযুক্তি ও বিনিয়োগ নিয়ে আমেরিকা এগিয়ে আসলে রিহ-রিহ পরিস্থিতিতে উভয় দেশের সমৃদ্ধি বাড়বে।  
সাক্ষাৎকালে অন্যান্যের মাঝে বিদ্যুৎ সচিব ড. আহমেদ কায়কাউস ও ইউএস কমার্স বিভাগের আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক ম্যালকম বার্ক (গধষপড়ষস ইঁৎশব)  উপস্থিত ছিলেন। 
#
 
আসলাম/মাহমুদ/সঞ্জীব/জয়নুল/২০১৮/১৭৪০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                                    নম্বর : ৬৩১

টাঙ্গাইলের দেলদুয়ারে তথ্য প্রতিমন্ত্রীর জনসংযোগ

ঢাকা, ১৫ ফাল্গুন (২৭ ফেব্রুয়ারি) :

তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন এমন একজন রাজনীতিবিদ যিনি ১ হাজার ১০৫টি শব্দের ১৮মিনিটের একটি বক্তৃতায় এ জাতির ২৭ বছরের বঞ্চনার ইতিহাস তুলে ধরে মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন। তিনি জীবনে ৪ হাজার ৬৭৫টি দিন কারাগারে কাটিয়েছেন এবং ১৯৬৯ সালের
৫ ডিসেম্বর তিনি এ দেশের নাম দিয়েছেন বাংলাদেশ।

প্রতিমন্ত্রী গতকাল টাঙ্গাইলের দেলদুয়ার উপজেলার অটিয়ায় ভরডুবিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে মহিলা সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

তারানা হালিম বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ হবে ক্ষুধা, দারিদ্র্যমুক্ত ও তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর সুখী সমৃদ্ধ সোনার বাংলা। বাংলাদেশ সর্বক্ষেত্রে দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে।  বাংলাদেশ এখন আর তলাবিহীন ঝুড়ি নয়। বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল। বাংলাদেশের অর্থনীতি এখন যে কোনো সময়ের চেয়ে শক্তিশালী। তিনি উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে আগামী নির্বাচনে পুনরায় আওয়ামী লীগকে ভোট দেয়ার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে দেলদুয়ার উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খন্দকার ফজলুল হক, সধারণ সম্পাদক লায়ন মোঃ শিবলী সাদিক, অটিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম মল্লিকসহ স্থানীয় রাজনৈতিক ও গণমাধ্যম ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে প্রতিমন্ত্রী অটিয়ায় নান্দরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা উপভোগ করেন এবং বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন।

#

এনায়েত/মাহমুদ/সঞ্জীব/রেজাউল/২০১৮/১৭৩৮ ঘণ্টা

 
তথ্যবিবরণী                                                                                 নম্বর : ৬৩০
 
তরুণ প্রজন্মকে নিজেদের শেকড়কে জানতে হবে
                         --- বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী
 
ঢাকা, ১৫ ফাল্গুন (২৭ ফেব্রুয়ারি) :
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান বলেছেন, তরুণ প্রজন্মকে ভাষা আন্দোলন এবং মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস ও নিজেদের শেকড়কে জানতে হবে। পুরাতনকে জানার পাশাপাশি এসবের চেতনাকেও ধারণ করতে হবে। 
‘একুশে ফেব্রুয়ারি ১৯৫২: ছাত্র হত্যাকা-, এলিস কমিশন রিপোর্ট’ বইয়ের প্রকাশনা উৎসবে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন। তরুণ লেখক রাশেদ রাহম রচিত বইটির প্রকাশনা উৎসব আজ শাহবাগে বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের বোর্ডরুমে অনুষ্ঠিত হয়। 
মন্ত্রী আরো বলেন, এ ধরনের ইতিহাসনির্ভর বই প্রকাশের উদ্যোগ নতুন প্রজন্মের মাঝে সঠিক ইতিহাস জানতে ও চেতনাবোধ জাগাতে সাহায্য করবে। 
তরুণ লেখক রাশেদ রাহম ভাষা আন্দোলনের হত্যাকা-ের ওপর বিচার বিভাগীয় এলিস কমিশন রিপোর্টকে কেন্দ্র করে বইটি লিখেছেন। জাতীয় জাদুঘরের মহাপরিচালক ফয়জুল লতিফ চৌধুরীর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন বইটির লেখক রাশেদ রাহম এবং জাদুঘরের পরিচালক ড. শিহাব শাহরিয়ার।
#
 
কামরুল/মাহমুদ/সঞ্জীব/জয়নুল/২০১৮/১৭৩০ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                 নম্বর : ৬২৯
তরুণ প্রজন্মকে ভাষা আন্দোলন এবং মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস জানতে হবে
ঢাকা, ১৫ ফাল্গুন (২৭ ফেব্রুয়ারি) :
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান বলেছেন, তরুণ প্রজন্মকে ভাষা আন্দোলন এবং মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস ও নিজেদের শেকড়কে জানতে হবে। পুরাতনকে জানার পাশাপাশি এসবের চেতনাকেও ধারণ করতে হবে। ‘একুশে ফেব্রুয়ারি ১৯৫২ : ছাত্র হত্যাকা-, এলিস কমিশন রিপোর্ট’ বইয়ের প্রকাশনা উৎসবে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন।  
মন্ত্রী বলেন, এ ধরনের ইতিহাসনির্ভর বই প্রকাশের উদ্যোগ নতুন প্রজন্মের মাঝে সঠিক ইতিহাস  জানতে ও চেতনাবোধ জাগাতে সাহায্য করবে। 
তরুণ লেখক রাশেদ রাহম রচিত বইটির প্রকাশনা উৎসব আজ শাহবাগে বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের বোর্ডরুমে অনুষ্ঠিত হয়। 
রাশেদ রাহম ভাষা আন্দোলনের হত্যাকা-ের ওপর বিচার বিভাগীয় এলিস কমিশন রিপোর্টকে কেন্দ্র করে বইটি লিখেছেন। 
জাতীয় জাদুঘরের মহাপরিচালক ফয়জুল লতিফ চৌধুরীর সভাপতিত্বে বইটির লেখক রাশেদ রাহম এবং জাদুঘরের পরিচালক ড. শিহাব শাহরিয়ার বক্তব্য রাখেন ।
#
কামরুল/রিফাত/রেজ্জাকুল/শামীম/২০১৮/১৫৪২ ঘণ্টা 
তথ্যববিরণী                                নম্বর : ৬২৮
সেতুমন্ত্রীর মাতার মৃত্যুতে সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীর শোক
ঢাকা, ১৫ ফাল্গুন (২৭ ফব্রেুয়ার)ি :
সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের মাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছার মৃত্যুতে জাতীয় সংসদের সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী গভীর শোক প্রকাশ করছেনে। বেগম ফজিলাতুন্নেছা গতরাতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করনে (ইন্নালল্লিাহ.ি....রাজউিন)। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়ছেলি ৯২ বছর।
 এক শোকর্বাতায় সংসদ উপনেতা বলনে, তাঁর মৃত্যুতে দেশ একজন রতœগর্ভা মাকে হারালো।
সংসদ উপনেতা মরহুমার আত্মার শান্তি কামনা করনে ও শোকসন্তপ্ত পরবিাররে প্রতি গভীর সমবদেনা জানান।
#
কামাল/রিফাত/রেজ্জাকুল/আসমা/২০১৮/১৫০০ ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                          নম্বর : ৬২৭
সেতু মন্ত্রীর মাতার মৃত্যুতে স্পিকার, ডেপুটি স্পিকার ও চিফ হুইপের শোক
ঢাকা, ১৫ ফাল্গুন (২৭ ফেব্রুয়ারি) :
সড়ক পরিবহণ ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের মাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা গতরাতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেছেন (ইন্না লিল্লাহে ........রাজিউন)। তাঁর  মৃত্যুতে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া ও চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ গভীর শোকপ্রকাশ করেছেন।
স্পিকার, ডেপুটি স্পিকার ও চিফ হুইপ এক শোকবার্তায় বলেন, বেগম ফজিলাতুন্নেছা  দেশপ্রেমিক, গুণী ও রতœগর্ভা ছিলেন। তাঁর মৃত্যুতে দেশের যে ক্ষতি হলো তা পূরণ হবার নয়। তারা মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান। 
#
নুরুল/রিফাত/রেজ্জাকুল/শামীম/২০১৮/১৪৪৮ ঘণ
Todays handout (8).docx Todays handout (8).docx

Share with :

Facebook Facebook