তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১১ জানুয়ারি ২০১৭

তথ্যবিবরণী 11 January 2017

তথ্যবিবরণী                                                                       নম্বর : ১২৩

স্পিকারের সাথে যুক্তরাজ্যের ব্রেন্ট কাউন্সিলের মেয়রের সাক্ষাৎ

ঢাকা, ২৮ পৌষ (১১ জানুয়ারি) :
স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সাথে আজ তাঁর কার্যালয়ে যুক্তরাজ্যের ব্রেন্ট কাউন্সিলের মেয়র পারভেজ আহমেদ সাক্ষাৎ করেন। 
     সাক্ষাৎকালে তাঁরা লন্ডনসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বসবাসকারী বাংলাদেশিদের অবস্থা, বাংলাদেশের উৎপাদিত সর্বোৎকৃষ্ট সামগ্রীগুলো ‘বাংলাদেশ ব্রান্ড’ হিসেবে বিশ্বে বিভিন্ন ফোরামে তুলে ধরা, বিদেশে সরকারি কর্মক্ষেত্র ও জনপ্রতিনিধি হিসেবে বাংলাদেশের জনগণের অবস্থান আরো সুদৃঢ় করার বিষয়ে আলোচনা করেন।  
স্পিকার বাংলাদেশি হিসেবে যুক্তরাজ্যের ব্রেন্ট কাউন্সিলের মেয়র নির্বাচিত হওয়ায় তাঁকে অভিনন্দন জানান। তিনি বলেন, বিদেশে অবস্থানরত বাংলাদেশিরা ইতোমধ্যে সে দেশের সরকারি কর্মক্ষেত্র ও জনপ্রতিনিধি হিসেবে যোগ্যতার স্বাক্ষর রাখছে। ভবিষ্যতে এই অংশগ্রহণ আরো বাড়বে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
সফররত মেয়র বলেন, বিদেশে অবস্থানরত বাংলাদেশি জনগনের সেদেশের সরকারী কর্মক্ষেত্র ও জনপ্রতিনিধি হিসেবে অংশগ্রহণ বাড়ছে। তিনি বিদেশে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের বাংলাদেশের বিষয়গুলো সেদেশে আরো জোরালোভাবে তুলে ধরার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

কামাল/মাহমুদ/আলী/সঞ্জীব/জয়নুল/২০১৭/২০০০ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                            নম্বর :  ১২২

স্পিকারের সাথে ইউএনএইচসিআর আবাসিক প্রতিনিধির সাড়্গাৎ

ঢাকা, ২৮ পৌষ (১১ জানুয়ারি) : 

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সাথে আজ তাঁর কার্যালয়ে বাংলাদেশে জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক হাইকমিশনের আবাসিক প্রতিনিধি শিনজি কুবো (ঝযরহলর কঁনড়) সাড়্গাৎ করেন। 
     
সাড়্গাৎকালে তারা বিশ্ব মানবাধিকার, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে শরণার্থীদের অবস'া, দেশহীন মানুষের দুর্দশা, বিশ্ব মানুষের সংহতি বিষয়ে আলোচনা করেন। 

আবাসিক প্রতিনিধি বলেন, বাংলাদেশের বর্তমান সরকার মানবাধিকারসহ সাধারণ মানুষের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করতে অত্যনত্ম যত্নশীল। সরকার সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির মাধ্যমে সমাজের অসহায় মানুষকে সহায়তা করে যাচ্ছে। এ সময়ে তিনি ইউএনএইচসিআর কর্তৃক প্রকাশিত ‘ন্যাশনালিটি এন্ড স্টেটলেসনেস হ্যান্ডবুক  ফর পার্লামেন্টেরিয়ান’ শীর্ষক পুসত্মকের বাংলা সংস্করণ প্রকাশের আগ্রহ প্রকাশ করেন।

স্পিকার বলেন, ইউএনএইচসিআর বাংলাদেশের স্বাধীনতা লগ্ন থেকেই এ দেশের মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছে। তিনি ‘ন্যাশনালিটি এন্ড স্টেটলেসনেস হ্যান্ডবুক ফর পার্লামেন্টেরিয়ান’ পুসত্মকের বাংলা সংস্করণ প্রকাশের উদ্যোগের জন্য আবাসিক প্রতিনিধিকে ধন্যবাদ জানান।

পরে আবাসিক প্রতিনিধি বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামকালীন ইউএনএইচসিআর এর কর্মকা-ের একটি ফটো এলবাম স্পিকারের কাছে হসত্মানত্মর করেন।

সাড়্গাতের জন্য স্পিকার আবাসিক প্রতিনিধিকে ধন্যবাদ জানান, ইউএনএইচসিআর আবাসিক প্রতিনিধিও  সাড়্গাতে সময় প্রদানের জন্য স্পিকারের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

#

কামাল/মাহমুদ/সেলিম/আলী/সেলিমুজ্জামান/২০১৭/১৯৪০ ঘণ্টা 

 

তথ্যবিবরণী                                                                       নম্বর : ১২১

নির্বাচন কমিশন গঠনে রাষ্ট্রপতির সাথে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের আলোচনা

ঢাকা, ২৮ পৌষ (১১ জানুয়ারি) :
    রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদের সাথে আজ বঙ্গভবনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ১৯ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল নির্বাচন কমিশন গঠন সংক্রান্ত আলোচনায় অংশগ্রহণ করে।
    রাষ্ট্রপতি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ প্রতিনিধিদলকে বঙ্গভবনে স্বাগত জানিয়ে নির্বাচন কমিশন গঠন সংক্রান্ত আলোচনায় অংশগ্রহণের জন্য ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, নির্বাচনের জন্য নির্বাচন কমিশনের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। অবাধ নির্বাচনের জন্য সুষ্ঠু আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি ও রাজনৈতিক দলগুলোর সহযোগিতা খুবই জরুরি। রাষ্ট্রপতি আশা প্রকাশ করেন, সকল রাজনৈতিক দলের সহযোগিতায় একটি শক্তিশালী নির্বাচন কমিশন গঠন সম্ভব হবে। 
    নির্বাচন কমিশন গঠন সংক্রান্ত আলোচনায় আমন্ত্রণ জানানোর জন্য বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রপতিকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, রাষ্ট্রপতি প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও অন্যান্য নির্বাচন কমিশনার নিয়োগদানের সিদ্ধান্ত নেবেন। এ ক্ষেত্রে রাষ্ট্রপতি যেরকম উপযুক্ত বিবেচনা করবেন সেই প্রক্রিয়ায় প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও অন্যান্য নির্বাচন কমিশনার নিয়োগ প্রদান করবেন। এ ব্যাপারে রাষ্ট্রপতির উদ্যোগের প্রতি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সার্বিক সমর্থন থাকবে। তিনি নির্বাচনকে স্বচ্ছ করতে ভোট প্রদানের ক্ষেত্রে ই-ভোটিং সিস্টেম চালুর প্রস্তাব করেন। নির্বাচন কমিশন গঠনে স্থায়ী ভিত্তি প্রদানের লক্ষ্যে নির্বাচন কমিশন গঠন সংক্রান্ত আইন প্রণয়নেও তিনি দলের পক্ষ থেকে আগ্রহ ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন, ভবিষ্যতে নির্বাচন নিয়ে কোন বিতর্ক হোক আওয়ামী লীগ তা চায় না। জনগণ যাকে চাইবে তারা নির্বাচিত হয়ে সরকার পরিচালনা করবে- সেটাই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রত্যাশা।  
    আলোচনাকালে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক-ওবায়দুল কাদের, উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য-আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত, আবুল মাল আবদুল মুহিত, এইচ টি ইমাম, সভাপতিমন্ডলীর সদস্য-মোহাম্মদ নাসিম, উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য-অ্যাড. ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, সভাপতিমন্ডলীর সদস্য-বেগম মতিয়া চৌধুরী, অ্যাড. সাহারা খাতুন, সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক-ডা. দীপু মনি, জাহাঙ্গীর কবির নানক, আইন বিষয়ক সম্পাদক-অ্যাড. আব্দুল মতিন খসরু, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক-ড. হাছান মাহমুদ, আইনমন্ত্রী অ্যাড. আনিসুল হক, উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য-অ্যাম্বাসেডর মোহাম্মদ জমির এবং দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ উপস্থিত ছিলেন। 
    রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের সচিব সম্পদ বড়–য়া, রাষ্ট্রপতির সামরিক সচিব মেজর জেনারেল মো. সরোয়ার হোসেন এবং রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব মো. জয়নাল আবেদীন এ সময় উপস্থিত ছিলেন।


হাসান/মাহমুদ/আলী/সঞ্জীব/জয়নুল/২০১৭/১৯৫০ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                            নম্বর :  ১২০

যুক্তরাজ্যের ব্রেন্টের মেয়রকে তথ্যমন্ত্রী
প্রবাসীরা বাংলাদেশের ‘স্বর্ণপ্রবাসী’

ঢাকা, ২৮ পৌষ (১১ জানুয়ারি) : 

    তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, প্রবাসীরা বাংলাদেশের সম্পদ এবং স্বর্ণপ্রবাসী স্বরূপ। তথ্য মন্ত্রণালয় তাদের পাশে রয়েছে।

    আজ সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে বাংলাদেশ সফররত যুক্তরাজ্যের লন্ডন সিটির ব্রেন্ট শহরের মেয়র পারভেজ আহমেদের সাথে বৈঠককালে তিনি এ কথা বলেন। তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব মরতুজা আহমদ এবং প্রবাসী বাংলাদেশিদের বিষয়ে গবেষণা সংস'া সেন্টার ফর এনআরবি’র চেয়ারপারসন এম এস সেকিল চৌধুরী এ সময় উপসি'ত ছিলেন।

    বৈঠকে যুক্তরাজ্যের বাজারে রন্ধন ও খাদ্য পরিবেশন শিল্পে দক্ষ বাংলাদেশিদের নিয়োগ, সে দেশের স'ানীয় সরকারের কাঠামো ও কার্যপদ্ধতি গণমাধ্যম মারফত বাংলাদেশী জনগণ ও নেতৃবৃন্দের কাছে তুলে ধরা এবং প্রবাসীদের পরিবার, আত্মীয়স্বজন ও সম্পত্তির নিরাপত্তা বিধানের ওপর গুরম্নত্বারোপ করার পাশাপশি  তথ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে প্রবাসীদের বিনিয়োগকে উৎসাহ ও সুরক্ষা দিতে সরকার বদ্ধপরিকর।      

    যুক্তরাজ্যের কোনো শহরের মেয়রের তথ্য মন্ত্রণালয়ে প্রথমবারের মতো আনুষ্ঠানিক আগমন উপলক্ষে মেয়র পারভেজকে স্বাগত জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, নিঃসন্দেহে এ সফর যুক্তরাজ্যের সাথে বাংলাদেশের সম্পর্ককে ঘনিষ্ঠতর করে তুলবে। যুক্তরাজ্যপ্রবাসীরা সে দেশের নাগরিকত্ব পেলেও একইসাথে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব বজায় রাখতে আনত্মরিক হওয়ার বিষয়টি ভূয়সী প্রশংসার দাবি রাখে। 

    যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনের উপকন্ঠে সাড়ে তিন লক্ষাধিক নাগরিক অধ্যুষিত ব্রেন্ট শহরের প্রথম বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত মেয়র পারভেজ আহমেদ বলেন, ব্রেক্সিট উত্তরকালে ব্রিটেনে বহু নতুন কর্মসংস'ান তৈরি হচ্ছে। প্রয়োজন যোগ্য কর্মীর। সেইসাথে বাংলাদেশ দূতাবাসের সেবাদান পদ্ধতির  উন্নয়নও একানত্ম প্রয়োজন। এছাড়া বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশ দূতাবাসগুলোতে যোগ্য প্রেস অফিসার নিয়োগ ছাড়া যে বিশ্বে বাংলাদেশের সঠিক প্রতিফলন সম্ভব নয়, তা প্রধানমন্ত্রী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে বৈঠকেও আলোচনা হয়েছে। 

    এ সময় দূতাবাসগুলোতে প্রেস অফিসার নিয়োগের বিষয়টি নিয়ে তথ্য মন্ত্রণালয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সাথে কাজ করছে বলে বৈঠকে জানান তথ্যসচিব মরতুজা আহমদ। 
    
#

আকরাম/মাহমুদ/সঞ্জীব/সেলিমুজ্জামান/২০১৭/১৮৩০ ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                       নম্বর : ১১৯

৭ম আন্তর্জাতিক কৃষি প্রযুক্তি মেলা শুরু 

ঢাকা, ২৮ পৌষ (১১ জানুয়ারি) :র্
    স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, স্বাধীনতা উত্তর সঙ্কটকালে বাঙালি জাতির দূরদর্শী মহান নেতা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দেশের কৃষির উন্নয়নে সময়োপযোগী কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করেছিলেন। এরই ধারাবাহিকতায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার খাদ্য নিরাপত্তা ও স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জনে সক্ষম হয়েছে। বর্তমানে দেশের খাদ্যের চাহিদা মিটিয়ে উদ্বৃত্ত খাদ্য রপ্তানির জন্য বহির্বিশে^ বাজার খোঁজা হচ্ছে।
মন্ত্রী আজ রাজধানীর আন্তর্জাতিক কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় পল্লী উন্নয়ন একাডেমি (আরডিএ), বগুড়া এবং লিমরা ট্রেড ফেয়ারস্ এন্ড এক্সিবিশনস্ এর যৌথ উদ্যোগে ৩ দিনব্যাপী আয়োজিত ‘৭ম আন্তর্জাতিক কৃষি প্রযুক্তি মেলা’ ২০১৭-এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের সচিব ড. প্রশান্ত কুমার রায়ের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নান ও মোঃ হাবিবর রহমান, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের অতিরিক্ত সচিব সরদার আবুল কালাম, আরডিএ মহাপরিচালক প্রকৌশলী এম এ মতিন, সিরডাপ মহাপরিচালক টিভিটা জি বসিওয়াকা ট্যাগিনাভোলু, প্রকৌশলী মোঃ নজরুল ইসলাম খান এবং কাজী সারোয়ার উদ্দিন।
মন্ত্রী বলেন, খাদ্যশস্যের পাশাপাশি বিভিন্ন অর্থকরী ফসল উৎপাদন ও গবেষণায় বাংলাদেশ বিশ্বে উজ্জ¦ল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। ইতোমধ্যে পাটের জীবন রহস্য উদ্ঘাটন করা হয়েছে, অন্যান্য ফসলেরও জীবন রহস্য উদ্ঘাটনের গবেষণা চলমান রয়েছে। তিনি বলেন, বর্তমান বিশ্ব প্রযুক্তিনির্ভর। কৃষিক্ষেত্রেও একবিংশ শতাব্দীতে প্রযুক্তিগত বিপ্লব ঘটেছে। বর্তমান সরকার বাংলাদেশেও কৃষিতে প্রাচীন চাষাবাদ ব্যবস্থার বদলে আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার শুরু করেছে।
মন্ত্রী বলেন, কৃষিকে মূল খাত হিসেবে চিহ্নিতকরণের পাশাপাশি কৃষকের বিশেষত ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকের কাছে কৃষি উপকরণের সহজলভ্য করার লক্ষ্যে বেশ কিছু মৌলিক কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়েছে। কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধি, কৃষককে স্বাবলম্বী করা এবং তাদের দারিদ্র্য কমিয়ে আনার লক্ষ্যে কৃষি খাতকে অগ্রাধিকার দেয়া হয়েছে। মেলায় প্রদর্শিত কৃষি যন্ত্রপাতি ও প্রযুক্তি কৃষক সমাজকে কৃষি যান্ত্রিকীকরণে উৎসাহ প্রদান করবে, যা লাভজনক ও টেকসই কৃষি উৎপাদন ব্যবস্থা নিশ্চিত করবে। এছাড়া দেশের প্রাচীন চাষাবাদ ব্যবস্থায় কায়িক শ্রমের বদলে আধুনিক প্রযুক্তিনির্ভর ব্যবস্থা চালু ও কৃষিতে গতিশীলতা আসবে।
মেলায় দেশীয় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপ, ভারত, চীন, থাইল্যান্ড, ফিলিপাইন, তাইওয়ান, দক্ষিণ কোরিয়া, জাপান ও কানাডাসহ ১৯টি দেশের স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠানের কৃষি প্রযুক্তি নির্ভর যন্ত্রপাতি, খাদ্য ও কৃষি পণ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ যন্ত্রপাতি, জ¦ালানি শক্তি, উদ্যান ফসলের উন্নয়ন প্রযুক্তি, গবাদি পশু-পাখির খাদ্য ও পুষ্টি উৎপাদন প্রযুক্তির ৩৬৫টি স্টল স্থান পেয়েছে।
পরে মন্ত্রী মেলা ঘুরে দেখেন।

আহসান/মাহমুদ/সেলিম/সঞ্জীব/জয়নুল/২০১৭/১৯১০ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                            নম্বর : ১১৮

সোনালী আঁশের সুদিন ফিরে এসেছে 
                        -- পাট মন্ত্রী

ঢাকা, ২৮ পৌষ (১১ জানুয়ারি) : 

     বস্ত্র ও পাট  মন্ত্রী মুহা. ইমাজ উদ্দিন প্রামাণিক বলেছেন, বাংলাদেশকে আবারও সোনালী আঁশের দেশ হিসেবে রূপানত্মর করে পাটের হারানো ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে সড়্গম হয়েছে সরকার । ‘পণ্যে পাটজাত মোড়কের বাধ্যতামূলক ব্যবহার আইন-২০১০’ সুষ্ঠুভাবে  শতভাগ বাসত্মবায়ন করা  হয়েছে।  অতি দ্রম্নত আরো ১১টি পণ্য মোড়কীকরণের ড়্গেত্রে পাটজাত পণ্যের ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে। এছাড়াও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পাটকে কৃষিপণ্য হিসেবে ঘোষণা করেছেন।

    মন্ত্রী আজ ঢাকায় বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সভাকড়্গে পাট বিষয়ক উপদেষ্টা কমিটির সভায় এসব কথা বলেন। 

    বস্ত্র ও পাট  প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম, বিজেএমসি’র চেয়ারম্যান  ড. মাহমুদুল হাসান ছাড়াও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, অর্থ মন্ত্রণালয়, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ ব্যাংক, পরিকল্পনা কমিশন, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড এবং পাট বিষয়ক উপদেষ্টা কমিটির সদস্যবৃন্দ সভায় উপসি'ত ছিলেন।

    সভায় পাটজাত পণ্যকে কৃষিপণ্য ও প্রক্রিয়াজাত কৃষিপণ্যের তালিকাভুক্ত করার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণাকে জরম্নরিভিত্তিতে বাসত্মবায়ন বিষয়ে অগ্রগতি পর্যালোচনা হয়। পাটশিল্পের বস্নক ঋণ ফেরত দেয়ার সময় ৫ বছর থেকে বৃদ্ধি করে ১০ বছর করার বিষয়ে আলোচনা হয়। ইডিএফ ফান্ডের ন্যায় পাটশিল্পের জন্য ২ ভাগ সুদে ৫ হাজার কোটি টাকার পুনঃঅর্থায়ন তহবিল তৈরি করার বিষয়ে আলোচনা হয়। এ ছাড়াও পাটশিল্পকে বাংলাদেশ ব্যাংকের গ্রিন ফান্ডিং এর আওতায় নিয়ে আসা, ব্যাংক ঋণের সুদের হার কমিয়ে একক অংকে আনয়ন করাসহ সরকারি ও বেসরকারি ব্যাংকের সুদের হার সমতায় আনার বিষয়ে আলোচনা হয়।

    প্রতিমন্ত্রী বলেন, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের জেডিপিসিতে বহুমুখী পাট পণ্যের অত্যাধুনিক ডিসপেস্ন সেন্টারের কাল উদ্বোধন হওয়ার পরই দ্রততার সাথে দেশের সব বিভাগীয় ও জেলা শহরে অত্যাধুনিক ডিসপেস্ন সেন্টার স'াপন করার প্রক্রিয়া নেয়া হচ্ছে। বর্তমান সরকারের গৃহীত নীতিমালা ও পরিকল্পনাকে কাজে লাগিয়ে পাট ও বস্ত্রখাতের রপ্তানি বাজার সম্প্রসারণ, বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন, পরিবেশ রড়্গা এবং কর্মসংস'ান সৃষ্টির মাধ্যমে বাংলাদেশকে ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত করার ড়্গেত্রে এ মন্ত্রণালয় সফল হবে।

#

সৈকত/মাহমুদ/সঞ্জীব/সেলিমুজ্জামান/২০১৭/১৭৩০ ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                        নম্বর : ১১৭

বাংলাদেশে উগ্র সাম্প্রদায়িকতার স্থান নেই
         -- দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী

মাগুরা, ২৮ পৌষ (১১ জানুয়ারি) :
    দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, বীরবিক্রম বলেছেন, বাংলাদেশে জঙ্গিবাদ ও উগ্র সাম্প্রদায়িকতার স্থান নেই। ধর্মের নামে জঙ্গিবাদ ও সংখ্যালঘুদের উপর হামলা সরকার সমূলে উৎপাটন করবে। ইতোমধ্যে জঙ্গিদের ডানা ভেঙ্গে দেয়া হয়েছে। 
    তিনি আজ মাগুরায় হাজরা তলাস্থ শংকর বেদান্ত মঠ ও মিশনে সনাতন হিন্দু ধর্মের সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন। ভারতের পশ্চিম বাংলার স্টেট বিজেপির সভাপতি শ্রী দিলীপ ঘোষ, এমএলএ, বাংলাদেশে ভারতের  রাষ্ট্রদূত হর্ষবর্ধন শ্রীংলা, বিজেপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য শ্রী অরুণ হালদার, সংসদ সদস্য মেজর জেনারেল (অব.) এটিএম আব্দুল ওয়াহাব, সংসদ সদস্য শ্রী রনজিত রায়, প্রধানমন্ত্রীর সহকারী একান্ত সচিব সাইফুজ্জামান শিখর, মাগুরার জেলা প্রশাসক মাহবুবুর রহমান প্রমুখ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন।
    দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী বলেন, সেক্যুলার রাষ্ট্রের স্বপ্ন নিয়ে বাংলাদেশের স্বাধীনতা আন্দোলন শুরু হয়। ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে সবাই সে যুদ্ধে অংশ নিয়েছে। তাই বাংলাদেশের সংবিধানের মূলনীতিতে ধর্ম নিরপেক্ষতা গ্রহণ করা হয়েছে। তিনি বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে জঙ্গিবাদের যে উত্থান হয়েছিল সরকার কঠোর হস্তে তা দমন করেছে। সরকারের এ প্রচেষ্টায় শামিল হতে মহল্লাভিত্তিক জঙ্গিবাদ প্রতিরোধ কমিটি গঠন করতে তিনি উপস্থিত সকলের প্রতি আহ্বান জানান। 
    মন্ত্রী বলেন, ‘ধর্ম যার যার, উৎসব সবার’ এ নীতির ওপর বিশ^াস রেখে সকল ধর্মীয় উৎসবে সকল ধর্মের অনুসারীরা আন্তরিকভাবে অংশ নিচ্ছে। ধর্মের অপব্যাখ্যা দিয়ে যারা বিভিন্ন ধর্মে বিভেদ সৃষ্টির পাঁয়তারা করছে তাদের সমাজ থেকে উৎখাতের আহ্বান জানান মন্ত্রী। তিনি আরো বলেন, ধর্মীয় সম্প্রীতির হাজার বছরের সংস্কৃতি বাংলাদেশ সব সময় লালন করবে। জঙ্গিবাদ ও ধর্মীয় উগ্রতার বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার ওপর তিনি গুরুত্বারোপ করেন।

ওমর ফারুক দেওয়ান/মাহমুদ/সঞ্জীব/জয়নুল/২০১৭/১৮১৫ঘণ্টা 


তথ্যবিবরণী                                                                        নম্বর : ১১৬

১ম বর্ষ ¯œাতক (সম্মান) প্রফেশনাল 
১ম মেধা তালিকার ভর্তির ফরম পূরণের সময় বৃদ্ধি 

ঢাকা, ২৮ পৌষ (১১ জানুয়ারি) :
    জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৬-২০১৭ শিক্ষাবর্ষে ১ম বর্ষ ¯œাতক (সম্মান) প্রফেশনাল শ্রেণির ভর্তি কার্যক্রমে ১ম মেধা তালিকায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের ভর্তি ফরম পূরণের সময় ১৭ জানুয়ারি ২০১৭ তারিখ পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হয়েছে। 
    এ সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি বিষয়ক ওয়েবসাইট িি.িধফসরংংরড়হং.হঁ.বফঁ.নফ   অথবা  হঁ.বফঁ.নফ/ধফসরংংরড়হং থেকে পাওয়া যাবে।

 

ফয়জুল/মাহমুদ/সঞ্জীব/জয়নুল/২০১৭/১৮১০ঘণ্টা 


তথ্যবিবরণী                                                                        নম্বর : ১১৫

বস্ত্র ও পাট মন্ত্রীর সাথে প্যালেস্টাইনের রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ

ঢাকা, ২৮ পৌষ (১১ জানুয়ারি) :
    বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী মুহা: ইমাজ উদ্দিন প্রামাণিকের সাথে আজ সচিবালয়ে তাঁর অফিস কক্ষে বাংলাদেশে প্যালেস্টাইনের রাষ্ট্রদূত ইউসুফ এস ওয়াই রমজান সাক্ষাৎ করেন।
    এ সময় বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ে অতিরিক্ত সচিব গোপাল কৃষ্ণ ভট্টাচার্য্যসহ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
    সাক্ষাৎকালে দু’দেশের পাট শিল্পের দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ও এর অগ্রগতি নিয়ে আলোচনা করা হয়। 
    রাষ্ট্রদূত বলেন, ‘বাংলাদেশ ও প্যালেস্টাইনের বন্ধুত্বের সম্পর্ক ঐতিহাসিক। প্যালেস্টাইন আন্তরিকভাবে বিশ্বাস করে বাংলাদেশ তাদের বন্ধুপ্রতিম দেশ। দু’দেশের নিয়মিত বাণিজ্য বৃদ্ধির মাধ্যমে এ সম্পর্ক আরো জোরদার হচ্ছে। সেজন্য তারা পাটখাতে বাংলাদেশের সাথে ব্যবসায় বাণিজ্য সম্প্রসারণ ঘটাতে চায়।’
    মুহা: ইমাজ উদ্দিন প্রামাণিক বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পাটশিল্পের প্রতি খুবই আন্তরিক। ‘পণ্যে পাটজাত মোড়কের বাধ্যতামূলক ব্যবহার আইন-২০১০’ প্রায় শতভাগ বাস্তবায়ন হওয়ায় পাটকলসমূহ দ্রুতই লাভজনক প্রতিষ্ঠানে পরিণত হবে। এছাড়াও পুরাতন মেশিনের পরিবর্তে আধুনিক মেশিন সংযুক্তকরণে কাজ দ্রুত করা হবে।’

সৈকত/মাহমুদ/সঞ্জীব/জয়নুল/২০১৭/১৮০০ঘণ্টা


তথ্যবিবরণী                                                                                             নম্বর : ১১৪

রাসায়নিক পদার্থের জন্য একটি শিল্পনগরী গড়ে তোলা হবে
                                                   -- শিল্পমন্ত্রী 
ঢাকা, ২৮ পৌষ (১১ জানুয়ারি) : 
শিল্প উৎপাদনে ব্যবহৃত কেমিক্যাল বা রাসায়নিক পদার্থের জন্য একটি কেমিক্যাল শিল্পনগরী গড়ে তোলার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু। তিনি বলেন, ইতোমধ্যে এ শিল্পনগরীর জন্য জমি অধিগ্রহণ করা হয়েছে। রাজধানীতে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা কেমিক্যাল কারখানাগুলো এতে স'ানানত্মর করা হবে। এছাড়া, ধোলাইখালের হালকা প্রকৌশল, প্রিন্টিং, পস্ন্লাস্টিক এবং অটোমোবাইল শিল্পখাতের জন্যও পৃথক শিল্পনগরী গড়ে তোলা হবে। 
ঢাকা জেলা প্রশাসন আয়োজিত ‘উন্নয়ন মেলা-২০১৭’ এর সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্পমন্ত্রী এ তথ্য জানান। রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে এ মেলার আয়োজন করা হয়। 
ঢাকা জেলা প্রশাসক মো. সালাহ্‌ উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আনিসুল হক, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব হেদায়েতুল্লাহ আল মামুন, ঢাকা জেলার পুলিশ সুপার এবং অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক বক্তব্য রাখেন। 
আমির হোসেন আমু বলেন, পরিকল্পিত শিল্পায়নের মাধ্যমে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য অর্জনের পথে বাংলাদেশ দ্রম্নত এগিয়ে যাচ্ছে। ইতোমধ্যে জাতীয় আয়ে শিল্পখাতের অবদান ৩০ দশমিক ৪২ শতাংশে উন্নীত হয়েছে। জ্ঞানভিত্তিক শিল্পায়নের অভিযাত্রা গতিশীল করতে সরকার জাতীয় শিল্পনীতি-২০১০ ও জাতীয় শিল্পনীতি-২০১৬ প্রণয়ন করেছে। এর পাশাপাশি উদ্যোক্তাদের সুবিধার্থে শিল্প পস্ন্লট বরাদ্দ নীতিমালা-২০১০, রাষ্ট্রপতির শিল্প উন্নয়ন পুরস্কার প্রদান নির্দেশনাবলি-২০১৩, ভৌগোলিক নির্দেশক আইন-২০১৩, শিপ ব্রেকিং ও শিপ রিসাইক্লিং রম্নলস্‌-২০১১ এবং জাতীয় লবণনীতি-২০১১ প্রণয়ন করা হয়েছে। রাষ্ট্রায়ত্ত চিনিকলগুলো লাভজনক করতে সুগার বিট থেকে চিনি, চিনিকলের উপজাত থেকে বায়োগ্যাস ও জৈবসার উৎপাদনের প্রকল্প বাসত্মবায়ন করা হয়েছে বলে তিনি জানান। 
শিল্পমন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকারের সময়োপযোগী পদক্ষেপ ও নীতি সহায়তার কারণে জনগণের খাদ্য নিরাপত্তা জোরদার করা সম্ভব হয়েছে। ২০১৪ ও ২০১৫ সালে হরতাল ও অবরোধের নামে বিএনপি-জামাতের জ্বালাও-পোড়াও সত্ত্বেও চাষী পর্যায়ে নিরবচ্ছিন্ন সার সরবরাহ নিশ্চিত করা হয়েছে। ফলে অভ্যনত্মরীণ চাহিদা মিটিয়ে বাংলাদেশ এখন খাদ্য রপ্তানি করছে। তিনি সরকারের উন্নয়ন রোডম্যাপ বাসত্মবায়নে সকলের সহায়তা কামনা করেন। 
উল্লেস্নখ্য, তিন দিনব্যাপী আয়োজিত এ মেলায় বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, সেনাবাহিনী, নৌ-বাহিনী, বিমানবাহিনী, পুলিশ, আনসার, আধা-সরকারি ও বেসরকারি সংস'াসহ মোট প্রতিষ্ঠানের ৮০টি স্টল স'ান পেয়েছে। এসব স্টলে অংশগ্রহণকারীরা নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন কার্যক্রম, বর্তমান সরকারের আমলে জনকল্যাণে বাসত্মবায়িত কর্মসূচি, উন্নয়ন চিত্র এবং সরকারের বিভিন্ন ধরণের সেবা তুলে ধরেছেন। 
#
জলিল/মাহমুদ/সঞ্জীব/সেলিমুজ্জামান/২০১৭/১৭০০ ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                        নম্বর :১১৩ 

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সাবেক সচিবের মৃত্যুতে প্রতিমন্ত্রীর শোক

ঢাকা, ২৮ পৌষ (১১ জানুয়ারি) :
    
    পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সাবেক সচিব মো. সাখাওয়াত হোসেন গতকাল পরলোক গমন করেন। তাঁর মৃত্যুতে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উ শৈ সিং গভীর শোকপ্রকাশ করেছেন ।
    এক শোকবার্তায় প্রতিমন্ত্রী বলেন, মো: শাখাওয়াত হোসেনের মৃত্যুতে পার্বত্যবাসী একজন অকৃত্রিম বন্ধু ও সহযোদ্ধাকে হারালো। ঐতিহাসিক শান্তি চুক্তি স্বাক্ষর তথা পার্বত্য চট্টগ্রামের সার্বিক উন্নয়নে তাঁর অবদান পার্বত্যবাসী কৃতজ্ঞতার সাথে স্মরণ করবে। তাঁর মৃত্যুতে যে শূন্যতা সৃষ্টি হলো তা পূরণ হবার নয়।
    প্রতিমন্ত্রী মরহুমের পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান এবং তাঁর বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করেন।


#
জুলফিকার/অনসূয়া/নুসরাত/রেজ্জাকুল/শামীম/২০১৭/১৬০৫ ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                                     নম্বর : ১১১ 

সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠক  
ঢাকা, ২৮ পৌষ (১১ জানুয়ারি) :  

জাতীয় সংসদের সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির ২৬তম বৈঠক আজ জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত হয়। কমিটির সভাপতি মো. মোজাম্মেল হোসেনের সভাপতিত্বে কমিটির সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল, আয়েশা ফেরদাউস, মো. আব্দুল মতিন ও বেগম লুৎফা তাহের বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন। 
বৈঠকে বেসরকারি এতিমখানার ক্যাপিটেশন গ্র্যান্ট প্রদান এবং শ্রীমঙ্গল উপজেলায় স্থায়ী কমিটি কর্তৃক পরিদর্শিত চা বাগানে অবস্থিত বন্ধ হয়ে যাওয়া হাসপাতাল পুনরায় চালু, প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয় স্থাপন, বিদ্যুৎ, বিশুদ্ধ পানি ও স্যানিটেশন ব্যবস্থার উন্নয়ন ও খাদ্য বিতরণ কর্মসূচির আওতায় উপকারভোগীর সংখ্যা বৃদ্ধির বিষয়ে আলোচনা করা হয়।
কমিটি শ্রীমঙ্গল উপজেলায় স্থায়ী কমিটি কর্তৃক পরিদর্শিত চা বাগানে অবস্থিত বন্ধ হয়ে যাওয়া হাসপাতাল পুনরায় চালু এবং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় স্থাপনের সুপারিশ করে।
সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব, সমাজসেবা অধিদপ্তরের মহাপরিচালকসহ মন্ত্রণালয় ও  জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।  
#

মৌমিতা/অনসূয়া/নুসরাত/রেজ্জাকুল/আসমা/২০১৭/১৪৩০ ঘণ্টা  


তথ্যবিবরণী                                                                        নম্বর :১১২ 
বিশ্ব ইজতেমা (১ম পর্যায়) উপলক্ষে রেলওয়ের বিশেষ ট্রেন
ঢাকা, ২৮ পৌষ (১১ জানুয়ারি) :
    টঙ্গীতে অনুষ্ঠিতব্য আসন্ন বিশ্ব ইজতেমায় অংশগ্রহণকারী মুসল্লি¬গণের ভ্রমণের সুবিধার্থে বাংলাদেশ রেলওয়ে আগামী ১৩ থেকে ১৫ জানুয়ারি, ২০১৭ পর্যন্ত বিভিন্ন গন্তব্যে  বেশ কিছু বিশেষ ট্রেন চলাচলের ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।
    ১৩ ও ১৪ জানুয়ারি ২০১৭ জামালপুর-টঙ্গী স্পেশাল ট্রেন সকাল ৯.১৫ মিনিটে জামালপুর হতে ছেড়ে দুপুর২.১৫ মিনিটে টঙ্গীতে পৌঁছবে। ১৩ জানুয়ারি ঢাকা-টঙ্গী জুম্মা স্পেশাল ট্রেন ঢাকা হতে সকাল ১০.২০ মিনিটে ছেড়ে টঙ্গীতে সকাল ১১.২০ মিনিটে পৌঁছাবে এবং ট্রেনটি টঙ্গী হতে দুপুর ১২.৫০ মি. ছেড়ে ঢাকায় দুপুর ৩.৫০ মিনিটে পৌঁছাবে। ১৪ জানুয়ারি লাকসাম-টঙ্গী স্পেশাল ট্রেনটি লাকসাম হতে সকাল ১০টায় ছেড়ে টঙ্গীতে ৩.৪০ মিনিটে পৌঁছাবে। 
    ১৫ জানুয়ারি রবিবার আখেরি মোনাজাতের দিন ভোর ৫.৪৫ মি. মোনাজাত স্পেশাল ট্রেন-১ ঢাকা থেকে ছেড়ে সকাল ৬.১৫ মি. টঙ্গী পৌঁছাবে। মোনাজাত স্পেশাল ট্রেন-২ সকাল ৭.১৫ মি. ঢাকা থেকে ছেড়ে সকাল ৮.১০ মি. টঙ্গী পৌঁছাবে। মোনাজাত স্পেশাল ট্রেন-৩ ঢাকা থেকে সকাল ৭.৩০ ছেড়ে সকাল ৮.৩০ মি. টঙ্গী পৌঁছাবে। মোনাজাত স্পেশাল ট্রেন-৪ ঢাকা থেকে সকাল ৯ টায় ছেড়ে সকাল ১০ টায় টঙ্গী পৌঁছাবে। মোনাজাত স্পেশাল ট্রেন-৫ ঢাকা থেকে সকাল ৯ টায় ছেড়ে সকাল ১০ টায় টঙ্গী পৌঁছাবে। মোনাজাত স্পেশাল ট্রেন-৬ ঢাকা থেকে সকাল ১০.৫০ মি. ছেড়ে সকাল ১১.৪০ মি. টঙ্গী পৌঁছাবে। মোনাজাত স্পেশাল ট্রেন-৭ ঢাকা থেকে সকাল ১০.৫০ মি. ছেড়ে সকাল ১১.৪০ মি. টঙ্গী পৌঁছাবে। টঙ্গী-আখাউড়া-লাকসাম স্পেশাল ট্রেন টঙ্গী থেকে দুপুর ১২.৫০ মি. ছেড়ে বিকাল ৫.৫০ মি. লাকসাম পৌঁছাবে। টঙ্গী-আখাউড়া স্পেশাল-১ টঙ্গী থেকে দুপুর ০২.৫৫ মি. ছেড়ে সন্ধ্যা ৬.১৫ মি. আখাউড়া পৌঁছাবে। টঙ্গী-ময়মনসিংহ-১ টঙ্গী থেকে দুপুর ১২.২০ মি. ছেড়ে বিকাল ৩.৩০ মি. ময়মনসিংহ পৌঁছাবে। টঙ্গী-ময়মনসিংহ-২ টঙ্গী থেকে দুপুর ১২.৪০ মি. ছেড়ে বিকাল ৩.৫৫ মি. ময়মনসিংহ পৌঁছাবে। টঙ্গী-ময়মনসিংহ-৩ টঙ্গী থেকে দুপুর ২.১০ মি. ছেড়ে বিকাল ৪.৫৫ মি. ময়মনসিংহ পৌঁছাবে। টঙ্গী-ময়মনসিংহ-৪ টঙ্গী থেকে রাত ১০.৩০ মি. ছেড়ে রাত ১.০০টায় ময়মনসিংহ পৌঁছাবে। টঙ্গী-ঢাকা স্পেশাল ট্রেন ১ ও ২ টঙ্গী থেকে দুপুর ১২.৪০ মি. ছেড়ে দুপুর ১.৩৫ মি. ঢাকায় পৌঁছাবে। টঙ্গী-ঢাকা স্পেশাল ট্রেন ৩ টঙ্গী থেকে দুপুর ১.১০ মি. ছেড়ে দুপুর ২.০৫ মি. ঢাকায় পৌঁছাবে। টঙ্গী-ঢাকা স্পেশাল ট্রেন ৪ টঙ্গী থেকে দুপুর ২.১৫ মি. ছেড়ে দুপুর ৩.১০ মি. ঢাকায় পৌঁছাবে। টঙ্গী-ঢাকা স্পেশাল ট্রেন ৫ টঙ্গী থেকে সন্ধ্যা ৬.৫৫ মি. ছেড়ে রাত ৭.৫৫ মি. ঢাকায় পৌঁছাবে। টঙ্গী-ঢাকা স্পেশাল ট্রেন ৬ টঙ্গী থেকে রাত ৭.২০ মি. ছেড়ে রাত ৮.২০ মি. ঢাকায় পৌঁছাবে। টঙ্গী-ঢাকা স্পেশাল ট্রেন ৭ টঙ্গী থেকে রাত ৯.৩০ মি. ছেড়ে রাত ১০.২০ মি. ঢাকায় পৌঁছাবে।
         বিশ্ব ইজতেমায় আগত মুসল্লি¬দের সুবিধার্থে ১০ জানুয়ারি দুপুরের পর থেকে ১৫ জানুয়ারি আখেরি মোনাজাতের পূর্ব দিন পর্যন্ত ঢাকা অভিমুখী সকল ট্রেনের টঙ্গী স্টেশনে ২ মিনিট বিরতি থাকবে। আগামী ১৩ জানুয়ারি শুক্রবার সুবর্ণ এক্রাপ্রেস ও ১৫ জানুয়ারি রবিবার মহানগর এক্রাপ্রেস ট্রেন সাপ্তাহিক ব›েধর দিনও চলাচল করবে। ১৫ জানুয়ারি রবিবার আখেরি মোনাজাতের দিন সুবর্ণ এক্সপ্রেস, মহুয়া এক্সপ্রেস এবং তুরাগ এক্সপ্রেস-১, ২, ৩, ৪ এবং ঢাকা-কুমিল্লা, ঢাকা-টঙ্গী, ঢাকা-জয়দেবপুর ও ঢাকা-নারায়নগঞ্জের মধ্যে ডেমু (কমিউটার)  ট্রেনসমুহ চলাচল ব›ধ থাকবে। 
       আখেরি মোনাজাতের পরের দিন অর্থাৎ ১৬ জানুয়ারি তারিখ টিকেটধারী মুসল্লিগণের টঙ্গী স্টেশন থেকে ট্রেনে আরোহণের সুবিধার্থে সুন্দরবন, পারাবত, ধুমকেতু, এগারসিন্দুর প্রভাতী, অগ্নি¬বীণা, একতা, কিশোরগঞ্জ, জয়ন্তীকা, সিল্কসি

Todays handout (7).docx Todays handout (7).docx

Share with :