তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

তথ্যবিবরণী ২৫/৯/২০১৮

তথ্যবিবরণী                                                                                  নম্বর : ২৬২৭
 
বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটিতে নয়টি বিনিয়োগকারী শিল্প প্রতিষ্ঠানকে জমি বরাদ্দ 
 
ঢাকা, ১০ আশ্বিন (২৫ সেপ্টেম্বর) :
 
তথ্যপ্রযুক্তি খাতের যথাযথ বিকাশে বর্তমান সরকার দেশের নয়টি বিনিয়োগকারী শিল্প প্রতিষ্ঠানকে গাজীপুরের কালিয়াকৈরে বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটিতে মোট ২০ দশমিক ৫০ একর জমি বরাদ্দ প্রদান করা হয়েছে। বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলনকেন্দ্রে কোম্পানিসমূহের মধ্যে জমি বরাদ্দের বিষয়ে আজ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। 
 
চুক্তিস্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্্মেদ পলক। আইসিটি বিভাগের সচিব জুয়েনা আজিজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন হাইটেক পার্কের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম।
 
মোস্তাফা জব্বার বলেন, আইটি শিল্প স্থাপনের জন্য হাইটেক সিটিতে জমি বরাদ্দ প্রদান আইসিটি খাতের উন্নয়ন ও বিকাশকে আরো ত্বরান্বিত করবে। তিনি বলেন, সরকার বেসরকারি খাতের আইটি বিনিয়োগকারীদের আইটি শিল্প প্রতিষ্ঠান স্থাপনে হাইটেক পার্কে জমি বরাদ্দসহ বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা প্রদান করছে। এ ব্যাপারে ১০ বছরের ট্যাক্স হলিডে, রপ্তানিকারকদের ১০ শতাংশ ক্যাশ ইনসেন্টিভ প্রদানসহ বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা প্রদানের কথা উল্লেখ করেন।
 
জমি বরাদ্দপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠানসমূহ হচ্ছে রবি আজিয়াটা লিমিটেড, ফেয়ার ইলেক্ট্রনিক্স লিমিটেড, বিজেআইটি বাংলাদেশ লিমিটেড, কেডিএস গ্রুপ, ইন্টার ক্লাউড, জেনেক্স ইনফোসিস লিমিটেড, নাজডাক টেকনোলজিস লিমিটেড, জেআর এন্টারপ্রাইজ এবং বিজনেস অটোমেশন লিমিটেড।
 
#
 
শহিদুল/ফারহানা/পারভেজ/জয়নুল/২০১৮/২২১০ঘণ্টা  
তথ্যবিবরণী                                                                                       নম্বর : ২৬২৬
 
মোংলা বন্দরের আউটারবারে ড্রেজিং কাজ শুরু করতে নৌপরিবহন মন্ত্রীর নির্দেশ
 
ঢাকা, ১০ আশ্বিন (২৫ সেপ্টেম্বর) :
 
মোংলা বন্দরকে আরো গতিশীল করার লক্ষ্যে জেটি এলাকায় দু’লাখ ঘনমিটার, হিরণ পয়েন্টের নীলকমল খালে ৪০ হাজার ঘনমিটার মাটি খনন করা হয়েছে। এছাড়া শিরোমনিঘাট ও নোয়াপাড়া নদী বন্দরে নদীর নাব্যতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ড্রেজিং কার্যক্রম চলমান রয়েছে। শিরোমনিঘাট ও নোয়াপাড়া নদী বন্দর এলাকায় এ পর্যন্ত ১০ লাখ ঘনমিটার মাটি খনন করা হয়েছে। অবশিষ্ট ১৫ লাখ ঘনমিটার মাটি খনন কাজ চলতি অর্থবছরের মধ্যে শেষ করা হবে।
 
আজ ঢাকায় নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের উন্নয়ন, আর্থিক ও প্রশাসনিক সভায় এসব তথ্য জানানো হয়। নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন। 
 
মন্ত্রী মোংলা বন্দরের আউটারবারে ড্রেজিং কার্যক্রম দ্রুত শুরু করতে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন। 
 
উল্লেখ্য, মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ ২০১৭-১৮ অর্থবছরে ৭৮৪টি জাহাজ হ্যান্ডলিং করেছে। ২০১৬-১৭ অর্থবছরে জাহাজ এসেছিল ৬২৩টি। 
 
সভায় অন্যান্যের মধ্যে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ আবদুস সামাদ ও মোংলা বন্দরের চেয়ারম্যান কমডোর এ কে এম ফারুক হাসান উপস্থিত ছিলেন। 
 
#
 
জাহাঙ্গীর/নাইচ/পারভেজ/জয়নুল/২০১৮/২০৫৫ ঘণ্টা  
তথ্যবিবরণী                                                                             নম্বর : ২৬২৫
 
প্রত্যেক  নেতাকর্মীকে সরকারের উন্নয়ন কর্মকা- বিভিন্ন মাধ্যমে তুলে ধরতে হবে
                                                                           --- পরিকল্পনামন্ত্রী
 
কুমিল্লা, ১০ আশ্বিন (২৫ সেপ্টেম্বর) :
পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করে সারা বিশ্বের কাছে মাথা উঁচু করে দিয়েছেন, আমরা তা ধরে রাখতে চাই। এ জন্য দলের প্রতিটি কর্মীকে বর্তমান সরকারের উন্নয়ন কর্মকা- বিভিন্ন মাধ্যমে তুলে ধরতে হবে। সেই সাথে নারী, শিশু ও প্রবীণদের প্রতি সংবেদনশীল হতে হবে। বাংলাদেশকে মাদকমুক্ত করার দৃঢ়প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী, তাই সে বিষয়েও আমাদের আন্তরিকভাবে কাজ করে যেতে হবে।
মন্ত্রী আজ তাঁর নির্বাচনী এলাকা কুমিল্লা-১০ এ ছাত্রলীগের কর্মী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, কাউকেই দলের শৃঙ্খলা ভঙ্গ করা চলবে না। আমরা পরিবার থেকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে দলের শৃঙ্খলা ঠিক রেখে রাজনীতি করার শিক্ষা পেয়েছি। আমাদের নিজ নিজ অবস্থানে থেকে সঠিক দায়িত্ব পালন করতে হবে। আমরা যে লক্ষ্যে যাচ্ছি, যেভাবে যাচ্ছি তাতে ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরাম ও বিজনেস ইনসাইডারের গবেষণায় বেরিয়ে এসেছে ৫ম এশিয়ান টাইগার হবে বাংলাদেশ। এই বছরের শেষ নাগাদ ৮ শতাংশের ওপরে প্রবৃদ্ধি হবে। আইএমএফ-ওয়ার্ল্ড ব্যাংক যেটি অনুসরণ করে সেই ক্রয়ক্ষমতা সমতার দিক থেকে (পারচেজিং পাওয়ার প্যারিটি- পিপিপি) ২০২৩ সালের মধ্যে বাংলাদেশ দক্ষিণ আফ্রিকা, সংযুক্ত আরব আমিরাত, সিঙ্গাপুর, ইরাক, কলম্বিয়ার মতো দেশগুলোকে পিছনে ফেলে অর্থনৈতিকভাবে সামনের দিকে এগিয়ে যাবে। ২০৪১ এর সোনার বাংলা নির্মাণে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রীকে সহযোগিতা করে বাংলাদেশকে উন্নত দেশের কাতারে এগিয়ে নেওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন মন্ত্রী।
#
 
তৌহিদুল/ফারহানা/নাইচ/পারভেজ/রফিকুল/সেলিমুজ্জামান/২০১৮/২২১০ ঘণ্টা  
 
তথ্যবিবরণী                                                                                   নম্বর : ২৬২৪
 
এবছর ৫৮৪টি যুব সংগঠনকে এক কোটি ২০ লাখ টাকা অনুদান দেয়া হবে
 
ঢাকা, ১০ আশ্বিন (২৫ সেপ্টেম্বর) :
চলতি অর্থবছরে যুব কল্যাণ তহবিল থেকে সারাদেশে ৫৮৪টি যুব সংগঠনকে এক কোটি ২০ লাখ টাকা অনুদান প্রদান করা হবে।
আজ যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী ড. শ্রী বীরেন শিকদারের সভাপতিত্বে যুব কল্যাণ তহবিলের ৪০তম বোর্ড সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়।
সভায় জানানো হয়, প্রতি জেলায় সর্বোত্তম সংগঠনকে ২৫ হাজার এবং বাকি সংগঠনগুলোকে ২০ হাজার টাকা করে প্রদান করা হবে। সংগঠনগুলোর প্রকল্পভিত্তিক জনকল্যাণে কাজের স্বীকৃতি হিসেবে অনুদানের পরিমাণ বৃদ্ধি করা হবে।
সভায় চলতি অর্থবছরের প্রস্তাবিত ১ কোটি ৯৮ লাখ ৫শ’ টাকার বাজেট অনুমোদন দেয়া হয়।
#
 
আকতারুল/নাইচ/সঞ্জীব/জয়নুল/২০১৮/২০১০ঘণ্টা 
তথ্যবিবরণী                                                                                    নম্বর : ২৬২৩
বিদ্যুৎ খাতে বাংলাদেশ-ভারত সহযোগিতা সংক্রান্ত যৌথ স্টিয়ারিং কমিটির সভা অনুষ্ঠিত
সিলেট, ১০ আশ্বিন (২৫ সেপ্টেম্বর) :
আজ (মঙ্গলবার) সিলেটের স্থানীয় একটি হোটেলে বিদ্যুৎ খাতে সহযোগিতা সংক্রান্ত বাংলাদেশ-ভারত যৌথ স্টিয়ারিং কমিটির পঞ্চদশ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বাংলাদেশের পক্ষে নেতৃত্ব দেন বিদ্যুৎ সচিব ডঃ আহমদ কায়কাউস এবং ভারতের পক্ষে নেতৃত্ব দেন ভারতের বিদ্যুৎ সচিব শ্রী অজয় কুমার ভাল্লা। সভায় বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে বিদ্যুৎ খাতে পারস্পারিক সহযোগিতা সংক্রান্ত বিরাজমান বিষয়সমূহ নিয়ে আলোচনা হয়। 
সভায় ভেড়ামারা ও ত্রিপুরা ইন্টারকানেকশনের মাধ্যমে বিদ্যুৎ আমদানির বর্তমান অবস্থা, ভেড়ামারা ইন্টারকানেকশনের মাধ্যমে দীর্ঘমেয়াদী চুক্তির আওতায় ২৫০ মেঃওঃ বিদ্যুৎ আমদানির অগ্রগতি, এইচভিডিসি  ২য় ব্লক নির্মাণের মাধ্যমে অতিরিক্ত ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানি, সূর্যমনি-কুমিল্লা নর্থ লিংকের মাধ্যমে জি টু জি-এর আওতায় এনটিপিসি’র বিদ্যুৎ কেন্দ্রসমূহ থেকে দীর্ঘমেয়াদী চুক্তিতে আরো ৩৪০ মেঃওঃ বিদ্যুৎ আমদানি, প্রস্তাবিত কাটিহার-পার্বতীপুর-বড়পুকুরিয়া-বরানগর ৭৬৫ কেভি গ্রিড ইন্টারকানেকশন, বহরমপুর-ভেড়ামারা ৪০০ কেভি ২য় ট্রান্সমিশন লাইন ও সূর্যমনি-কুমিল্লা নর্থ লিংকের মাধ্যমে আরো বিদ্যুৎ আমদানির লক্ষ্যে কুমিল্লায় ব্যাক টু ব্যাক এইচভিডিসি সাবস্টেশন নির্মাণের বিষয়ে আলোচনা হয়।
সভায় ভারত থেকে বিদ্যুৎ আমদানির ক্ষেত্রে সকল ধরনের সিডি, ট্যাক্স ও ভ্যাট থেকে অব্যাহতি প্রদান, রাজনৈতিক কারণে বা ভারতীয় আইন পরিবর্তন জনিত আর্থিক সংশ্লেষের উদ্ভব হলে তা থেকে অব্যাহতি প্রদানসহ ভবিষ্যতে বাংলাদেশ থেকে ভারতে বিদ্যুৎ রপ্তানির বিষয়ে ফলপ্রসূ আলোচনা হয়। 
স্টিয়ারিং কমিটির সভায় অন্যান্য বিষয়ের মধ্যে ভারতীয় কর্পোরেট প্রতিষ্ঠানের বাংলাদেশের বিদ্যুৎ খাতে অংশগ্রহণ, বাংলাদেশ-ভারত যৌথ উদ্যোগে ভারতে বিদ্যুৎ উৎপাদন প্রকল্প বাস্তবায়নের সম্ভাবনা ও বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠানের ভারতের বিদ্যুৎ উৎপাদনখাতে অংশগ্রহণের বিষয় পর্যালোচনা ছাড়াও জিএমআর কর্তৃক নেপালে উৎপাদিত জল বিদ্যুৎ ভারতের এনভিভিএন এর মাধ্যমে বাংলাদেশে আমদানি, ভুটানের হাইড্রো পাওয়ার প্রজেক্টে বাংলাদেশ, ভারত ও ভুটানের যৌথ বিনিয়োগ ও এই প্রজেক্ট থেকে উৎপাদিত বিদ্যুৎ বাংলাদেশে আমদানিসহ বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে নবায়নযোগ্য জ্বালানি ও জ্বালানি দক্ষতা বৃদ্ধিতে সহযোগিতার বিষয়সমূহ বিস্তারিত পর্যালোচনা করা হয়েছে।
এছাড়া সভায় রামপালে বাস্তবায়নাধীন মৈত্রী সুপার থারমাল বিদ্যুৎ প্রকল্পের কাজের অগ্রগতি বিষয়েও আলোচনা হয়েছে। সভায় রামপালে বাস্তবায়নাধীন ১৩২০ মেগাওয়াট মৈত্রী সুপার থারমাল প্রকল্পের অগ্রগতিতে সন্তোষ প্রকাশ ও বিদ্যুৎখাতে বাংলাদেশ-ভারত সহযোগিতা উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করা হয়। 
উল্লেখ্য, বিদ্যুৎখাতে সহযোগিতা সংক্রান্ত বাংলাদেশ-ভারত জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপের ১৫ তম সভা গতকাল একই স্থানে অনুষ্ঠিত হয়। এতে বাংলাদেশের পক্ষে নেতৃত্ব দেন বিদ্যুৎ বিভাগের যুগ্মসচিব শেখ ফয়েজুল আমিন এবং ভারতের পক্ষে নেতৃত্ব দেন ভারতের বিদ্যুৎ মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব ভারতী (ইযধৎধঃর)। 
#
আসলাম/অনসূয়া/জসীম/সেলিনা/শামীম/২০১৮/১৫৪২ ঘণ্টা  
 
তথ্যবিবরণী                       নম্বর: ২৬২২ 
ডিজিটাল হলো মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের বেতন বিল কার্যক্রম
ঢাকা, ১০ আশ্বিন (২৫ সেপ্টেম্বর):
মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সকল কর্মকর্তার বেতন এখন থেকে অনলাইনে সাবমিট করতে হবে। আজ সকালে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নাছিমা বেগম এনডিসি মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে তাঁর বেতনবিল অনলাইনে সাবমিট করে এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। 
নাছিমা বেগম বলেন, এই কার্যক্রমের মাধ্যমে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় পেপারলেস অফিসের যুগে প্রবেশ করল। তিনি বলেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রায় সব ফাইলই এখন ই-ফাইলিং করা হয়। বেতন বিল আগে কাগজে লিখে সাবমিট করা হতো। এখন থেকে আর কাগজের বিল সাবমিট করা হবে না। ইন্টারনেটের মাধ্যমে কর্মকর্তারা তাদের বেতন বিল সাবমিট করবেন। 
উল্লেখ্য অর্থ মন্ত্রণালয় সর্বপ্রথম অনলাইনে কর্মকর্তাদের বেতন বিল কার্যক্রম শুরু করে। মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় দ্বিতীয় মন্ত্রণালয় হিসাবে অনলাইনে বেতন বিল সাবমিটের কার্যক্রম শুরু করল। 
মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মাহমুদা শারমিন বেনু, অতিরিক্ত সচিব মোঃ আব্দুল করিম এনডিসিসহ মন্ত্রণালয়ের সকল কর্মকর্তা এবং অর্থ মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি এসময় উপস্থিত ছিলেন। 
#
খায়ের/অনসূয়া/জসীম/সেলিনা/আসমা/২০১৮/১৫৩০ ঘণ্টা 
 
তথ্যবিবরণী                                                                       নম্বর : ২৬২১
উন্নয়ন কার্যক্রমসমূহ দ্রুত সমাপ্ত করতে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রীর আহ্বান 
কেশবপুর, ১০ আশ্বিন (২৫ সেপ্টেম্বর) :
জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমাত আরা সাদেক সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রমসমূহ দ্রুত সমাপ্ত করার জন্য নির্দেশনা প্রদান করেছেন। তিনি আজ যশোরের কেশবপুরে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলা পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এই নির্দেশনা প্রদান করেন। 
প্রতিমন্ত্রী বলেন, জনগণের কষ্ট কিভাবে দূর করা যায়, কিভাবে তাদের মঙ্গল করা যায় সেই ব্যাপারে সরকার অত্যন্ত আন্তরিক। জনগণের ভাগ্য উন্নয়নে আগামীতে উন্নয়নের চলমান ধারাকে আরো শক্তিশালী করা হবে।
প্রতিমন্ত্রী চলমান উন্নয়ন প্রকল্পসমূহের অগ্রগতির খোঁজখবর নেন এবং প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা প্রদান করেন। পরে তিনি উপজেলার গৌরিঘোনা ইউনিয়নের বিভিন্ন উন্নয়ন কার্যক্রম পরিদর্শন করেন।
সভায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মিজানুর রহমানসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কর্মকর্তাগণ, গৌরিঘোনা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান প্রমূখ এসময় উপস্থিত ছিলেন।    
#
মাসুম/অনসূয়া/জসীম/শামীম/২০১৮/১৫১৫ ঘণ্টা   
 
তথ্যবিবরণী                                নম্বর: ২৬২০
ডিজিটাল অপরাধ প্রতিরোধে ফেসবুক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে কর্মশালা
অতীতের যে কোন সময়ের তুলনায় বর্তমানে ফেসবুকের সাথে চমৎকার সম্পর্ক বিদ্যমান: টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী
ঢাকা, ১০ আশ্বিন (২৫ সেপ্টেম্বর): 
ডিজিটাল অপরাধ প্রতিরোধে বিশেষ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে সকল ধরনের ডিজিটাল অপরাধ প্রতিরোধ, দমন, নিয়ন্ত্রণ, মনিটরিং এবং আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ বিষয়ক এক কর্মশালা আজ রাজধানীর বিটিআরসির অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়। ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়, বিটিআরসি এবং ফেসবুক যৌথভাবে এ কর্মশালার আয়োজন করে। ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার প্রধান অতিথি হিসেবে কর্মশালার উদ্বোধন করেন।
উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব জুয়েনা আজিজ, ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো: আজিজুল ইসলাম, ফেসবুকের দক্ষিণ এবং মধ্য এশিয়া বিষয়ক হেড অভ্ কানেক্টিভিটি পলিসি অংযধিহর জধহধ, বিটিআরসির চেয়ারম্যান মো: জহিরুল হক বক্তৃতা করেন।  
মন্ত্রী ফেসবুকের অপপ্রচার ও গুজব প্রতিরোধে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণে ফেসবুক কর্তৃপক্ষের সহযোগিতা প্রত্যাশা করে বলেন, ফেসবুক ব্যবহারকারীদের প্রকৃত পরিচয় শনাক্ত করতে পারলে সমস্যার সমাধান সম্ভব। অপরাধীরা অপরাধ নিজের আসল পরিচয় গোপন  রেখে করে থাকে। অপরাধ নিয়ন্ত্রণের  লক্ষ্যে মন্ত্রী ফেসবুক  আইডিতে মোবাইল নাম্বার সংযোজন এবং ফেসবুক কর্তৃপক্ষ সরকারের সহায়তায় জাতীয় পরিচয়পত্র ভেরিফাই করে ফেসবুক আইডি  নিশ্চিত করার প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। এছাড়া গুজব ও অপরাধপ্রবণ কন্টেইন গুলো শনাক্ত করে তাৎক্ষণিক তা প্রত্যাহারেও ফেসবুক ভূমিকা নিতে পারে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।
মোস্তাফা জব্বার বলেন, অতীতের যে কোন সময়ের তুলনায় বর্তমানে ফেসবুকের সাথে আমাদের চমৎকার সম্পর্ক গড়ে উঠেছে। তিনি বলেন ফেসবুকে অনেক বাংলা ভাষা ব্যবহৃত হয়। বাংলা কন্টেইনে কিছু সমস্যা পরিলক্ষিত হচ্ছে। তিনি আশা করেন, এ সমস্যা সমাধানে  ফেসবুক কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণ করবে।
#
শেফায়েত/অনসূয়া/জসীম/আসমা/২০১৮/ ঘণ্টা 
 
তথ্যবিবরণী                                                                                   নম্বর : ২৬১৯
 
সরকার পর্যটন শিল্পের প্রতি সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিচ্ছে 
                                  --- পর্যটন মন্ত্রী
 
ঢাকা, ১০ আশ্বিন (২৫ সেপ্টেম্বর) :
বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী একেএম শাহজাহান কামাল বলেছেন, দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন, কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও দারিদ্র্য দূরীকরণে পর্যটন শিল্পের গুরুত্ব অপরিসীম। তাই বর্তমান  সরকার পর্যটন শিল্পের বিকাশের প্রতি গুরুত্বারোপ করেছে। জাতীয় শিল্পনীতি-২০১০ এ পর্যটন শিল্পকে অগ্রাধিকারমূলক খাত হিসেবে চিহ্নিতকরণ, জাতীয় পর্যটন নীতিমালা-২০১০ প্রণয়ন, বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের প্রতিষ্ঠা, পর্যটন মহাপরিকল্পনা প্রণয়নের উদ্যোগ গ্রহণ, প্রতœতাত্ত্বিক নিদর্শনগুলোর উন্নয়ন, সড়ক, রেল ও বিমান পরিবহণ ব্যবস্থার সম্প্রসারণ ও উন্নয়ন, কক্সবাজার বিমানবন্দরকে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উন্নীতকরণ, মেরিন ড্রাইভের সম্প্রসারণ এবং কক্সবাজারের টেকনাফে ঊীপষঁংরাব ঞড়ঁৎরংঃ তড়হব (ঊঞত) গড়ে তোলার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। 
মন্ত্রী আজ বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের (বিটিবি) সম্মেলনকক্ষে আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর ‘বিশ্ব পর্যটন দিবস-২০১৮’ উপলক্ষে আয়োজিত প্রেস কনফারেন্সে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। এবারের বিশ্ব পর্যটন দিবসের প্রতিপাদ্য ‘ঞড়ঁৎরংস ধহফ ঃযব উরমরঃধষ ঞৎধহংভড়ৎসধঃরড়হ’ অর্থাৎ ‘পর্যটন শিল্পের বিকাশে তথ্যপ্রযুক্তি’। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিটিবি’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন। 
মন্ত্রী বলেন, প্রযুক্তির ব্যবহারের ফলে মানুষের আর্থসামাজিক উন্নয়নের পাশাপাশি জীবন হয়েছে পূর্বের তুলনায় সহজতর ও স্বাচ্ছন্দ্যময়। ভ্রমণসংশ্লিষ্ট সকল সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহারের ফলে পর্যটকরা অতি সহজেই তাদের ভ্রমণের গন্তব্য নির্বাচন করতে পারছে। বিমান টিকেট বুকিং, রেলের টিকেট বুকিং, হোটেল বুকিং, মিউজিয়ামের টিকেট ক্রয়সহ ভ্রমণ সংক্রান্ত বিভিন্ন সেবাসমূহ পর্যটকরা এখন অতি দ্রুত ও সহজেই গ্রহণ করতে পারছে। এটি সম্ভব হচ্ছে শুধু তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারের কারণে। 
#
 
তুহিন/ফারহানা/নাইচ/পারভেজ/রফিকুল/জয়নুল/২০১৮/২১০০ঘণ্টা
 
Todays handout (4).docx Todays handout (4).docx

Share with :

Facebook Facebook