তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৭ মে ২০১৮

তথ্যবিবরণী 27/05/2018

তথ্যবিবরণী                                                                                                           নম্বর : ১৫৯০
 
তথ্য অধিকার বাস্তবায়ন কর্মশালায় তথ্যমন্ত্রী
প্রশাসনের কর্মচারীদের কর্মসম্পাদনে মানসিকতার পরিবর্তন আনতে হবে  
 
ঢাকা, ১৩ জ্যৈষ্ঠ (২৭ মে ) :
তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘প্রশাসনের কর্মচারীদের কর্মসম্পাদনে মানসিকতার পরিবর্তন আনতে হবে এবং সরকার ও জনগণের মাঝে সেতুবন্ধ হিসেবে কাজ করতে হবে। মনে রাখতে হবে, প্রশাসনে নজরদারির মাধ্যমে রাষ্ট্রীয় জনসেবার কাজে  পরিছন্নতা বজায় রাখতেই বর্তমান সরকার ২০০৯ সালে ক্ষমতায় আসার পরই তথ্য অধিকার আইন পাস করে।’ 
আজ ঢাকার শেরে বাংলা নগরে তথ্য কমিশনের সভাকক্ষে প্রধান তথ্য কমিশনার মরতুজা আহমদের সভাপতিত্বে ‘তথ্য অধিকার আইন বাস্তবায়নে করণীয়’ শীর্ষক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন। কর্মশালায় বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন তথ্যসচিব আবদুল মালেক।
তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার গণতন্ত্রে বিশ্বাসী। আর গণতন্ত্র মানে আইনের শাসন। সে কারণে এ সরকার বিচার বহির্ভূত হত্যাকা-ের অনুমতি দেয় না। একাত্তরের গণহত্যা, বঙ্গবন্ধু হত্যা, ২১ শে আগস্টের গ্রেনেড হামলাকারীদের মধ্যে স্বীকৃত খুনিদেরও বিনাবিচারে হত্যা করা হয়নি, বহুবছর পরে হলেও  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারই তাদের বিচারের আওতায় এনেছে।’
‘অপরদিকে বঙ্গবন্ধু হত্যাকারীদের দায়মুক্তির আইন করে জিয়া তাদের পুরস্কৃত করেছিল আর খালেদা জিয়া ক্লিনহার্ট অপারেশনে আশিজনের অধিক মানুষ হত্যার দায়মুক্তির আইন করেছিল’, বলেন ইনু। 
তথ্য গোপন করলে জনগণের মধ্যে বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়, তাই তথ্যের অবাধ প্রবাহ নিশ্চিতের মাধ্যমে জনগণের মাঝ থেকে বিভ্রান্তি দূর করে জঙ্গি, মাদক ও দুর্নীতিমুক্ত দেশ গড়তে সকলকে একযোগে কাজ করতে হবে, বলেন হাসানুল হক ইনু।
প্রধান তথ্য কমিশনার মরতুজা আহমদ বলেন, ‘তথ্যই শক্তি। ব্রিটিশ আমল থেকে তথ্য না দেওয়ার যে সংস্কৃতি কর্মকর্তাদের মাঝে তৈরি হয়েছে সেখান থেকে বের হয়ে এসে তথ্য প্রদানের মনোভাব তৈরি করতে হবে এবং 
স্বপ্রণোদিতভাবেই তথ্য প্রকাশ করতে হবে। রাষ্ট্রযন্ত্রের সকল স্তরে স্বচ্ছতা আনা, জবাবদিহিতা নিশ্চিত এবং দুর্নীতিদমনের মাধ্যমে সুশাসন প্রতিষ্ঠায় তথ্য অধিকার আইন অনবদ্য ভূমিকা পালন করতে পারে।’
তথ্যসচিব আবদুল মালেক বলেন, বিভিন্ন সহযোগী প্রতিষ্ঠান ও গণমাধ্যমের সহযোগিতা নিয়ে তথ্য অধিকার আইনের ব্যাপক প্রচার প্রয়োজন। প্রত্যেক অফিসে তথ্য প্রাপ্তির আবেদন ফরম সহজলভ্য করার প্রস্তাব করেন তিনি।
তথ্য কমিশনার নেপাল চন্দ্র সরকার তথ্য অধিকার আইনের উৎপত্তি, লক্ষ্য, উদ্দেশ্য, তথ্য প্রকাশের পদ্ধতি, তথ্য সরবরাহ নিশ্চিতে কর্তৃপক্ষের করণীয়, তথ্য কমিশন কর্তৃক এ পর্যন্ত গৃহীত পদক্ষেপসমূহ প্রভৃতি বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন।  
প্রধান তথ্য অফিসার কামরুন নাহার, তথ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আবুয়াল হোসেনসহ কর্মশালায় অংশ নেয়া ত্রিশটি সরকারি দপ্তরের প্রতিনিধিবৃন্দ তথ্য অধিকার আইন বাস্তবায়নে কর্মপরিকল্পনা প্রস্তুতির লক্ষ্যে যে প্রস্তাবনা উপস্থাপন করেন, তা কমিশনের ভবিষ্যৎ কর্মপন্থা নির্ধারণে অত্যন্ত সহায়ক হবে, বলে জানিয়েছেন তথ্য কমিশন সচিব মোঃ মুহিবুল হোসাইন।  
#
আকরাম/ফারহানা/মোশারফ/জয়নুল/২০১৮/২১০০ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                          নম্বর : ১৫৮৯ 

এসডিজি বিষয়ক কর্মশালায় শিক্ষামন্ত্রী
জঙ্গিবাদ ও মাদক থেকে শিক্ষার্থীদের রক্ষা করতে হবে
ঢাকা, ১৩ জ্যৈষ্ঠ (২৭ মে ):

শিক্ষামন্ত্রী নূরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, জঙ্গিবাদ ও মাদক থেকে শিক্ষার্থীদের রক্ষা করতে হবে। এজন্য শিক্ষকদের দায়-দায়িত্ব রয়েছে। তারাই ভাল মানুষ তৈরির কারিগর। তরুণ প্রজন্মকে জঙ্গিবাদ ও মাদকাসক্তি থেকে রক্ষা করতে শিক্ষক-অভিভাবক সবাইকে সচেতন হতে হবে। 

মন্ত্রী আজ রাজধানীর বাংলামটরে বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র মিলনায়তনে মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তর আয়োজিত ‘এসডিজি-৪ এর লক্ষ্য অর্জনে মাদরাসা পর্যায়ে মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে কার্যকর মনিটরিং ব্যবস্থার ভূমিকা এবং বাস্তবায়নের উপায়’ শীর্ষক প্রশিক্ষণ কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, মাদরাসার বিভিন্ন পরীক্ষা যাতে নকলমুক্ত হয়, সেজন্য সংশ্লিষ্ট  শিক্ষক-কর্মকর্তাদের প্রতিশ্রুতিবদ্ধ ও আন্তরিক হতে হবে। মনিটরিং আরো জোরদার করতে হবে। তাহলেই মাদরাসা শিক্ষায় কাক্সিক্ষত মান অর্জন করে এসডিজি’র লক্ষ্য পূরণ সম্ভব হবে। তিনি বলেন, মাদরাসা শিক্ষার মান উন্নয়নে সরকার ব্যাপক কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে। মাদরাসা ব্যবস্থার ক্ষেত্রে বড় ধরনের পরিবর্তন নিয়ে আসা হয়েছে। শিক্ষকদের বেতন ও মর্যাদা বাড়ানো হয়েছে। মাদরাসা শিক্ষার জন্য আলাদা অধিদপ্তর স্থাপন করা হয়েছে। মাদরাসার শিক্ষার্থীদের পর্যাপ্ত বৃত্তি প্রদান করা হচ্ছে। ইসলামি শিক্ষার সাথে আধুনিক শিক্ষার সমন্বয় করা হয়েছে। 

মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তর মহাপরিচালক মোঃ বিল্লাল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মোঃ আলমগীর এবং অতিরিক্ত সচিব সফিউদ্দিন আহমদ বক্তব্য রাখেন। প্রশিক্ষণ কর্মশালায় বিভাগীয় ও জেলা শিক্ষা অফিসার, বিভিন্ন মাদরাসার সুপারিনটেনডেন্ট ও অধ্যক্ষগণ এবং মাদরাসা শিক্ষক প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের কর্মকর্তাগণ অংশগ্রহণ করেন।

#

আফরাজুর/সেলিম/সঞ্জীব/রেজাউল/২০১৮/১৮২৬ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                       নম্বর: ১৫৮৮  

দেশের কল্যাণে একসাথে কাজ করতে হবে

                      -- জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

কেশবপুর (যশোর), ১৩ জ্যৈষ্ঠ (২৭ মে):

দেশের কল্যাণে সকলকে একসাথে কাজ করতে হবে। সাধারণ মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে যার যার অবস্থান থেকে সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করে যেতে হবে। জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমাত আরা সাদেক আজ যশোরের কেশবপুরে পাঁজিয়া ইউনিয়ন কমপ্লেক্স ভবনের নির্মাণ কাজ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে দেশের সকল সেক্টরে নজিরবিহীন উন্নতি ও অগ্রগতি সাধিত হয়েছে। এসব উন্নয়নের সুফল সাধারণ মানুষ ভোগ করছে। তাদের আর্থসামাজিক অবস্থার ব্যাপক পরিবর্তন হয়েছে।

#

 

মাসুম/সেলিম/সঞ্জীব/রেজাউল/২০১৮/১৮২৫ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                       নম্বর: ১৫৮৭

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রীর ইস্তোনিয়ার উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ

ঢাকা, ১৩ জ্যৈষ্ঠ (২৭ মে):

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক আজ উত্তর ইউরোপের দ্বীপরাষ্ট্র ইস্তোনিয়ার উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করেছেন। তিনি আগামী ২৯-৩০ মে ইস্তোনিয়ার রাজধানী তাল্লিনে অনুষ্ঠিতব্য “Tallinn e-Governance Conference-2018” এ যোগদান করবেন।

          ইস্তোনিয়ার প্রেসিডেন্ট Keristi Kaljulaid এ সম্মেলন উদ্বোধন করবেন। এতে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের শীর্ষ স্থানীয়  ই-গর্ভনেন্স বিশেষজ্ঞ, নীতি নির্ধারক ও সিভিল সোসাইটির বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ অংশগ্রহণ করবেন। সম্মেলনে ই-গর্ভনেন্স অ্যাপ্লিকেশন এর উন্নয়ন ও বাস্তবায়নে সরকারের সহায়তার বিষয়ে কর্মকৌশল নিয়ে নীতি নির্ধারণী আলোচনা হবে।

প্রতিমন্ত্রী আগামী ১ জুন দেশে ফিরবেন বলে আশা করা যাচ্ছে।

#

 

মজুমদার/সেলিম/রফিকুল/রেজাউল/২০১৮/১৬৪৬ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                          নম্বর : ১৫৮৬
 
বাংলাদেশ ভারোত্তোলন ফেডারেশনের সভাপতি হলেন সাফিনুল ইসলাম
ঢাকা, ১৩ জ্যৈষ্ঠ (২৭ মে ) :
জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ আইন, ১৯৭৪ (হালনাগাদ সংশোধিত) এর ২০ ধারার প্রদত্ত  ক্ষমতাবলে সরকার বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ এর মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. সাফিনুল ইসলাম, এনডিসি, পিএসসি-কে বাংলাদেশ ভারোত্তোলন ফেডারেশনের সভাপতি পদে নিয়োগ দিয়েছে। 
 
গত ২৪ মে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় এ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারী করেছে।
 
#
 
শফিকুল/অনসূয়া/রেজ্জাকুল/শামীম/২০১৮/১৪৪৭ ঘণ্টা 
 
 
তথ্যবিবরণী                                                                                          নম্বর : ১৫৮৫
 
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রি পাস ও সার্টিফিকেট কোর্স ১ম বর্ষ পরীক্ষার সংশোধিত সময়সূচি 
ঢাকা, ১৩ জ্যৈষ্ঠ (২৭ মে ) :
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৭ সালের ডিগ্রি পাস ও সার্টিফিকেট কোর্স ১ম বর্ষ পরীক্ষার পূর্ব ঘোষিত সময়সূচির আগামী ২ জুন হতে ১৩ জুন পর্যন্ত অনুষ্ঠিতব্য পরীক্ষাসমূহ অনিবার্য কারণে আগামী ২৪ জুন হতে ৫ জুলাই ২০১৮ তারিখ পর্যন্ত সংশোধিত সময়সূচি অনুযায়ী প্রতিদিন ১:৩০ টা থেকে অনুষ্ঠিত হবে। 
এ সংক্রান্ত বিস্তারিত সময়সূচি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট িি.িহঁ.বফঁ.নফ থেকে জানা যাবে।
#
ফয়জুল/অনসূয়া/জসীম/রেজ্জাকুল/শামীম/২০১৮/১৪৪৪ ঘণ্টা 
 
তথ্যবিবরণী                                                                                          নম্বর : ১৫৮৪
 
পাঠ্যপুস্তকে তামাকের ক্ষতিকর দিক তুলে ধরা হবে
                                          -শিক্ষামন্ত্রী
ঢাকা, ১৩ জ্যৈষ্ঠ (২৭ মে ) :
শিক্ষামন্ত্রী নূরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, তামাকের কুফল সম্পর্কে সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে। শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের মধ্যে সচেতনতা তৈরি করতে পাঠ্যপুস্তকে তামাকের ক্ষতিকর দিক তুলে ধরা হবে।
 
শিক্ষামন্ত্রী আজ ঢাকায় সিরডাপ মিলনায়তনে  ’প্রজ্ঞা তামাক নিয়ন্ত্রণ সাংবাদিকতা পুরস্কার’ প্রদান এবং বিশ্ব তামাকমুক্ত দিবস উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন। বেসরকারি সংস্থা প্রজ্ঞা এবং এন্টি টোব্যাকো মিডিয়া এলায়েন্স (আত্মা) এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।
 
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, পাঠ্যপুস্তকে মাদকের কুফল সম্পর্কে উল্লেখ আছে। তামাকের বিষয়টি আলাদাভাবে উল্লেখ নেই। ২০২০ সালের পাঠ্যপুস্তকে তামাক ব্যবহারের ক্ষতিকর বিষয়গুলো পাঠ্যপুস্তকে স্পষ্টভাবে উল্লেখ করে অন্তর্ভুক্ত করা হবে। তিনি আরো বলেন, তামাক নিয়ন্ত্রণে বেশ কিছু আইন আছে। এই আইন কঠোরভাবে প্রয়োগ করতে হবে। ছেলেমেয়েদের সচেতন করতে হবে। তামাকের ব্যবহার শূন্যের কোটায় নামিয়ে আনতে হবে।
 
বিশিষ্ট সাংবাদিক মোজাম্মেল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন অভ্ বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা জাতীয় অধ্যাপক ব্রিগেডিয়ার (অব.) আব্দুল মালিক, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ, এন্টি-টোব্যাকো মিডিয়া এলায়েন্সের আহবায়ক মর্তুজা হায়দার লিটন এবং প্রজ্ঞার নির্বাহী পরিচালক এবিএম জুবায়ের।
 
অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী পুরস্কারপ্রাপ্ত পাঁচজন সাংবাদিকের হাতে পুরস্কার হিসেবে ক্রেস্ট, সার্টিফিকেট ও ৫০ হাজার টাকার চেক তুলে দেন। বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে ’প্রজ্ঞা তামাক নিয়ন্ত্রণ সাংবাদিকতা পুরস্কার’ ২০১৮ বিজয়ীরা হলেন: সেরা জাতীয় প্রিন্ট/অনলাইন মিডিয়া বিভাগে দ্য ফিনান্সিয়াল এক্স্রপ্রেসের বিশেষ প্রতিনিধি দৌলত আক্তার মালা, কালের কন্ঠের সিনিয়র রিপোর্টার আবুল কাশেম, সেরা টিভি রিপোর্টে এনটিভি’র এস এম আতিক, সেরা স্থানীয় পত্রিকা রিপোর্টে  দৈনিক সিলেটের ডাক-এর চিফ রিপোর্টার সিরাজুল ইসলাম এবং বিশেষ বিভাগে গোলাম মর্তুজা জুয়েল।
#
আফরাজুর/অনসূয়া/রেজ্জাকুল/শামীম/২০১৮/১৪৪২ ঘণ্টা 
 
 
তথ্যবিবরণী                                                                                         নম্বর : ১৫৮৩ 
নিরাপদ মাতৃত্ব দিবসে প্রধানমন্ত্রীর বাণী
 
ঢাকা, ১৩ জ্যৈষ্ঠ (২৭ মে ) :
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২৮ মে নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস উপলক্ষে নি¤েœাক্ত বাণী প্রদান করেছেন :
“প্রতিবছরের মতো এবারও ২৮ শে মে বাংলাদেশে ‘নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস’ পালন করা হচ্ছে জেনে আমি আনন্দিত।
দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য ‘কমাতে হলে মাতৃমৃত্যু হার, মিডওয়াইফ পাশে থাকা একান্ত দরকার’ অত্যন্ত সময়োপযোগী হয়েছে বলে আমি মনে করি।
জাতীয় উন্নয়নে মা ও শিশু স্বাস্থ্য সুরক্ষা অপরিহার্য। আওয়ামী লীগ সরকার গর্ভবতী মা ও নবজাতকের মানসম্মত পরিচর্যা এবং রোগ প্রতিরোধে ব্যাপক কর্মসূচি বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে। নিরাপদ প্রসব নিশ্চিত এবং মাতৃমৃত্যু হ্রাসে মিডওয়াইফগণ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে। এজন্য আমরা মিডওয়াইফারি শিক্ষা ও সার্ভিসকে গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করে আসছি।
আমরা স্বাস্থ্যসেবা মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে বদ্ধপরিকর। প্রতি ৬ হাজার জনগণের জন্য ১টি করে কমিউনিটি ক্লিনিকের কার্যক্রম চালু করা হয়েছে। মা ও শিশুর মানসম্মত সেবাদানে ইউনিয়ন সাব-সেন্টার ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রশিক্ষিত মিডওয়াইফ নিয়োগ দেওয়া হয়েছে এবং পর্যায়ক্রমে আরো নিয়োগ দেওয়া হবে। উন্নতমানের মাতৃ ও নবজাতকের সেবা প্রদানের জন্য প্রয়োজন আন্তর্জাতিকমানের প্রশিক্ষিত মিডওয়াইফ, উন্নতমানের সেবা, জনগণের সক্রিয় অংশগ্রহণ ও স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারীদের অঙ্গীকার। এ লক্ষ্যে নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদপ্তরের অধীনে মিডওয়াইফারি কোর্সসহ ওয়েব বেইজড মাস্টার্স ও পিএইচডি প্রোগ্রাম চালু করা হয়েছে। সরকারি ও বেসরকারি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, নার্সিং ইনস্টিটিউট ও নার্সিং কলেজের সংখ্যা উল্লেখযোগ্য হারে বৃদ্ধি করা হয়েছে। আমরা শিশু মৃত্যুহার কমিয়ে এসডিজি লক্ষ্য অর্জনে সক্ষম হয়েছি। এজন্য ২০১০ সালে জাতিসংঘ আমাদের এসডিজি অ্যাওয়ার্ড প্রদান করে। বর্তমানে আমরা এসডিজি লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের পথে এগিয়ে চলেছি।
আমি আশা করি, মিডওয়াইফগণ নিরাপদ প্রসব নিশ্চিত এবং মাতৃমৃত্যু হার হ্রাসের মাধ্যমে একটি সুস্থ জাতি গঠনে ভূমিকা পালন করবেন।
আমি ‘নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস-২০১৮’ উপলক্ষে গৃহীত সকল কর্মসূচির সার্বিক সাফল্য কামনা করি। 
                                                                               জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু
            বাংলাদেশ চিরজীবী হোক।”
 
#
ইমরুল/অনসূয়া/সুবর্ণা/রেজ্জাকুল/শামীম/২০১৮/১০৫২ ঘণ্টা 
 
 
তথ্যবিবরণী                                                                                  নম্বর : ১৫৮২
নিরাপদ মাতৃত্ব দিবসে রাষ্ট্রপতির বাণী
ঢাকা, ১৩ জ্যৈষ্ঠ (২৭ মে) 
রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ ২৮ মে নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস উপলক্ষে নি¤েœাক্ত বাণী প্রদান করেছেন: 
“স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের উদ্যোগে দেশব্যাপী ‘নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস’ উদ্যাপন একটি প্রশংসনীয় উদ্যোগ। 
১৯৯৭ সাল থেকে ২৮ মে ‘নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস’ হিসেবে পালিত হয়ে আসছে। মা ও শিশু মৃত্যুহার কমানোর জন্য বর্তমান সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। নতুন নতুন হাসপাতাল স্থাপন, হাসপাতালের শয্যা সংখ্যা বৃদ্ধি, আধুনিক যন্ত্রপাতি সরবরাহ, দক্ষ জনবল তৈরি এবং গ্রাম পর্যায়ে কমিউনিটি ক্লিনিক স্থাপন স্বাস্থ্যখাতের উন্নয়নে বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখছে। বর্তমানে সারাদেশে ১৩ হাজার ৫০০টি কমিউনিটি ক্লিনিকের মাধ্যমে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর দোরগোড়ায় স্বাস্থ্য, পরিবারকল্যাণ ও পুষ্টিসেবা পৌঁছে দেয়া হচ্ছে। পাশাপাশি সরকারি ও বেসরকারি পর্যায়ে উল্লেখযোগ্য হারে প্রশিক্ষিত মিডওয়াইফ তৈরির শিক্ষা কার্যক্রম অব্যাহত আছে। নিরাপদ প্রসবের ক্ষেত্রে প্রশিক্ষিত ও দক্ষ মিডওয়াইফ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। তাই নিরাপদ মাতৃত্ব দিবসের এবারের প্রতিপাদ্য ‘কমাতে হলে মাতৃমৃত্যু হার, মিডওয়াইফ পাশে থাকা একান্ত দরকার’- বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে যথার্থ হয়েছে বলে আমি মনে করি। 
টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (ঝউএং) অর্জনের লক্ষ্যে বর্তমান সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। স্বাস্থ্যখাতের উন্নয়নে বাংলাদেশ আজ বিশ্বে রোলমডেল। মাতৃমৃত্যু ও নবজাতকের মৃত্যুহার কমানোর জন্য প্রয়োজন জনসচেতনতা, প্রসবপূর্ব, প্রসবকালীন ও প্রসব পরবর্তী মানসম্মত সেবা এবং প্রশিক্ষিত মিডওয়াইফ। স্বাস্থ্যখাতের উন্নয়নে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি সংস্থা, সমাজের নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিবর্গ, সুশীল সমাজ, পেশাজীবী সংগঠন এবং সর্বস্তরের জনগণকে এগিয়ে আসতে হবে। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় মা ও শিশুস্বাস্থ্যের উন্নয়নে বাংলাদেশ আরো এগিয়ে যাক - এ প্রত্যাশা করি।  
আমি নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস উপলক্ষে গৃহীত সকল কর্মসূচির সার্বিক সাফল্য কামনা করছি। 
খোদা হাফেজ, বাংলাদেশ চিরজীবী হোক।”
#
আজাদ/অনসূয়া/জসীম/সুবর্ণা/শামীম/২০১৮/১০৫৪ ঘণ্টা 
 
Todays handout (4).docx Todays handout (4).docx

Share with :

Facebook Facebook