তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২nd জুলাই ২০১৮

তথ্যবিবরণী ২ জুলাই ২০১৮

তথ্যবিবরণী                                                                                        নম্বর : ১৮৬৬
 
স্থানীয় সরকার ব্যবস্থাকে শক্তিশালী করা হবে
    ---এলজিআরডি মন্ত্রী
 
ঢাকা, ১৮ আষাঢ় (২ জুলাই):  
 
স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, দেশের চলমান উন্নয়ন অগ্রযাত্রার সুফল জনগণের কাছে পৌঁছে দিতে স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানসমূহের সক্ষমতা বাড়াতে কাজ করছে সরকার। স্থানীয় সরকার ব্যবস্থা শক্তিশালী হলে দেশের উন্নয়ন কর্মকা- ত্বরান্বিত হবে।
 
মন্ত্রী আজ সচিবালয়স্থ পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের সম্মেলন কক্ষে জাতীয় স্থানীয় সরকার ইনস্টিটিউট (এনআইএলজি)-এর পরিচালনা বোর্ডের ৪৯ তম সভায় সভাপতিত্বকালে এসব কথা বলেন।
 
সভায় স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব ড. জাফর আহমেদ খান, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের (এলজিইডি) প্রধান প্রকৌশলী মোঃ আবুল কালাম আজাদ এবং এনআইএলজি’র মহাপরিচালক ও অতিরিক্ত সচিব তপন কুমার কর্মকারসহ পরিচালনা বোর্ডের অন্যান্য সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
 
স্থানীয় সরকার ব্যবস্থার সবচেয়ে তৃণমূল স্তর ইউনিয়ন পরিষদের সক্ষমতা বাড়াতে তাদের আয় বৃদ্ধির বিষয়ে জোর দিয়ে মন্ত্রী বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ সরাসরি গ্রামীণ জনগণকে সেবা দিয়ে থাকে। তাদের রাজস্ব আয় কিভাবে বাড়ানো যায় সে উপায় বের করতে একটি উচ্চ পর্যায়ের কমিটি গঠন করা হবে। তিনি স্থানীয় সরকার ব্যবস্থা আগের চেয়ে আরো জনকল্যাণকরভাবে কাজ করছে উল্লেখ করে বলেন, জনপ্রতিনিধি ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের যথাযথ প্রশিক্ষণ দিয়ে দক্ষ করে গড়ে তুলতে হবে যাতে তারা আরো বেশি জনকল্যাণে সম্পৃক্ত হতে পারে।
 
মন্ত্রী ভবিষ্যতে দেশের উন্নয়নের কেন্দ্রবিন্দু হিসেবে স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানসমূহ কাজ করবে বলে আশা প্রকাশ করেন।
 
#
জাকির/মাহমুদ/ফারহানা/রফিকুল/আব্বাস/২০১৮/২০১০ ঘণ্টা  
তথ্যবিবরণী                                                                                          নম্বর : ১৮৬৫
কৃষিমন্ত্রীর সাথে আফগান এবং বিশ্ব খাদ্য ও কৃষি সংস্থার প্রতিনিধিদলের সাক্ষাৎ  
ঢাকা, ১৮ আষাঢ় (২ জুলাই) :
কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরীর সাথে আজ মন্ত্রণালয়ে তাঁর অফিস কক্ষে আফগানিস্তান থেকে শিক্ষা সফরে আগত এবং বিশ্ব খাদ্য ও কৃষি সংস্থা (ঋঅঙ) এর এক প্রতিনিধিদল সাক্ষাৎ করে। ১৩ সদস্যের প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন আফগানিস্তানের কৃষি ও পশু সম্পদ বিষয়ক উপমন্ত্রী (উবঢ়ঁঃু গরহরংঃবৎ) ঐধসফঁষষধয  ঐধসফবৎফ.
মন্ত্রী  প্রতিনিধিদলকে বাংলাদেশের কৃষিক্ষেত্রে উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরেন।  তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ, দূরদর্শী ও অগ্রসর নেতৃত্বের ফলে কৃষির আধুনিকায়নে বাংলাদেশ বিশ্বের অনেক দেশ থেকেই এগিয়ে আছে। বাংলাদেশের বিজ্ঞানীরা তাদের মেধা ও দক্ষতা দিয়ে ক্ষতিকারক পোকার প্রতিরোধক জিন সন্নিবেশ করে নতুন বেগুনের জাত উদ্ভাবন করতে সক্ষম হয়েছে। বিজ্ঞানীরা পাটের জিনোম এবং পাটের কা-পচা রোগের জন্য দায়ী ছত্রাকের জিনোম সিকোয়েন্সে সক্ষম হয়েছে। এর ফলে ভবিষ্যতে মজবুত আঁশযুক্ত পাট বা কা-পচা রোগ প্রতিরোধী জাতের উদ্ভাবন সহজতর হবে। জলবায়ু পরিবর্তনের সাথে খাপ খাইয়ে খাদ্য উৎপাদন বহাল রাখতে জীবপ্রযুক্তির জ্ঞান অর্জনের প্রতি গুরুত্ব দেয়া হয়েছে ।
মন্ত্রী আরো বলেন, বাংলাদেশের কৃষকদের উদ্ভাবনী চিন্তার ফলে এখন দেশের জমি সাড়ে তিন ফসলি। স্বাস্থ্যসম্মত নিরাপদ সবজির ওপর সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়ে স্বাস্থ্য ও কৃষি খাতে  বায়োটেকনোলজি বা জীবপ্রযুক্তিবিদ্যার ব্যবহারের দিকে অগ্রসর হচ্ছে বাংলাদেশ। ফলে বাংলাদেশের খাদ্যে দীর্ঘস্থায়ী স্বয়ংসম্পূর্ণতা ও সুলভ মূল্যে ঔষধ এবং প্রতিষেধকের নিশ্চয়তার সম্ভাবনা বৃদ্ধি পাবে।  
#
 
গিয়াস/মাহমুদ/নাইচ/মোশারফ/রেজাউল/২০১৮/১৯৪০ ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                             নম্বর : ১৮৬৪
 
ঢাবি’র সাবেক রেজিস্ট্রার আবু জায়েদ শিকদারের মৃত্যুতে তথ্যমন্ত্রীর শোক
 
ঢাকা, ১৮ আষাঢ় (২ জুলাই) :
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক রেজিস্ট্রার আবু জায়েদ শিকদারের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন তথ্যমন্ত্রী ও জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু।
আজ রাজধানীর গ্রীন রোডে নিজ বাসায় ইন্তেকাল করেন জায়েদ শিকদার।
তথ্যমন্ত্রী তার শোকবার্তায় বলেন, সাবেক জাসদ নেতা আবু জায়েদ শিকদার ষাটের দশকে বাঙালি জাতীয়তাবাদী ছাত্র আন্দোলন, স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধে বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করেন।
হাসানুল হক ইনু প্রয়াত সাবেক জাসদ নেতা আবু জায়েদ শিকদারের কন্যা অধ্যাপক লুৎফা হাসিন রোজী, অধ্যাপক নাজমা শাহিন ও পুত্র অধ্যাপক আরিফ মহিউদ্দীন শিকদারসহ পরিবারের সকল সদস্যের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান ও তার আত্মার শান্তি কামনা করেন।
#
 
আকরাম/মাহমুদ/সঞ্জীব/জয়নুল/২০১৮/১৯৩০ঘণ্টা 
তথ্যবিবরণী                                                                                             নম্বর : ১৮৬৪
 
ঢাবি’র সাবেক রেজিস্ট্রার আবু জায়েদ শিকদারের মৃত্যুতে তথ্যমন্ত্রীর শোক
 
ঢাকা, ১৮ আষাঢ় (২ জুলাই) :
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক রেজিস্ট্রার আবু জায়েদ শিকদারের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন তথ্যমন্ত্রী ও জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু।
আজ রাজধানীর গ্রীন রোডে নিজ বাসায় ইন্তেকাল করেন জায়েদ শিকদার।
তথ্যমন্ত্রী তার শোকবার্তায় বলেন, সাবেক জাসদ নেতা আবু জায়েদ শিকদার ষাটের দশকে বাঙালি জাতীয়তাবাদী ছাত্র আন্দোলন, স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধে বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করেন।
হাসানুল হক ইনু প্রয়াত সাবেক জাসদ নেতা আবু জায়েদ শিকদারের কন্যা অধ্যাপক লুৎফা হাসিন রোজী, অধ্যাপক নাজমা শাহিন ও পুত্র অধ্যাপক আরিফ মহিউদ্দীন শিকদারসহ পরিবারের সকল সদস্যের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান ও তার আত্মার শান্তি কামনা করেন।
#
 
আকরাম/মাহমুদ/সঞ্জীব/জয়নুল/২০১৮/১৯৩০ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                        নম্বর : ১৮৬২

সাংবাদিক আনিস আহমেদের মৃত্যুতে তথ্যমন্ত্রীর শোক

ঢাকা, ১৮ আষাঢ় (২ জুলাই):  
সাংবাদিক আনিস আহমেদের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। 
আজ সকাল সাড়ে আটটায় রাজধানীর মোহাম্মদপুরে নিজ বাসায় ইংরেজি দৈনিক দ্য ডেইলি অবজারভারের নির্বাহী সম্পাদক আনিস আহমেদ (৬৪) ইন্তেকাল করেন। 
তথ্যমন্ত্রী আজ এক শোকবার্তায় বলেন, বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা ও আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থা রয়টার্সসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করে আনিস আহমেদ এদেশের সাংবাদিকতায় উৎকর্ষের নজির রেখে গেছেন। 
হাসানুল হক ইনু প্রয়াত আনিস আহমেদের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান ও তাঁর আত্মার শান্তি কামনা করেন। 
#
তথ্যবিবরণী                                                                                          নম্বর : ১৮৬৩

অসুস্থ সাংবাদিক মোশতাক হোসেনের পাশে তথ্যমন্ত্রী

ঢাকা, ১৮ আষাঢ় (২ জুলাই): 
তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু আজ দুপুরে রাজধানীর জাতীয় কিডনী ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সাংবাদিক মোশতাক হোসেনকে দেখতে যান। 

দৈনিক ভোরের ডাকের বিশেষ সংবাদদাতা হিসেবে কর্মরত মোশতাক হোসেনকে বাংলাদেশের রাজনীতির একজন যুগসাক্ষী হিসেবে অভিহিত করে তথ্যমন্ত্রী তার চিকিৎসার খোঁজখবর নেন এবং চিকিৎসকদের কাছে মোশতাক হোসেনের শারীরিক উন্নতির কথা জেনে সন্তোষ প্রকাশ করেন। সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট থেকে মোশতাক হোসেনের চিকিৎসার জন্য দুই লাখ টাকা বরাদ্দের কথাও জানান হাসানুল হক ইনু। 

হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক ডাঃ মোঃ নূরুল হুদা, মোশতাক হোসেনের স্ত্রী আলেয়া বেগম, সহযোগী অধ্যাপক ডাঃ বাবুল আলম, সহকারী অধ্যাপক ডাঃ মারিয়াম মোবাশ্বেরাসহ কর্তব্যরত চিকিৎসকবৃন্দ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

#
আকরাম/মাহমুদ/সঞ্জীব/আব্বাস/২০১৮/১৯০৬ ঘণ্টা  

তথ্যবিবরণী                                                                                                      নম্বর : ১৮৬১
 
সরকার দেশে ব্যবসাবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টিতে সক্ষম হয়েছে
                                             --- শিল্পমন্ত্রী
 
ঢাকা, ১৮ আষাঢ় (২ জুলাই) :
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিচক্ষণ নেতৃত্বে বর্তমান সরকার দেশে ব্যবসা-বাণিজ্য, বিনিয়োগ ও শিল্পবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টিতে সক্ষম হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু। তিনি বলেন, দেশীয় ও আমদানি বিকল্প শিল্পের প্রসারে নতুন বাজেটে শুল্ক ও কর কাঠামোতে ইতিবাচক পরিবর্তন আনা হয়েছে। এর পাশাপাশি সরকার ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল স্থাপন এবং অবকাঠামোগত উন্নয়নে ১০টি অগ্রাধিকার মেগা প্রকল্প  বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে। এর ফলে বিশে^র অনেক দেশের খ্যাতনামা উদ্যোক্তারা বাংলাদেশে বিনিয়োগের আগ্রহ প্রকাশ করছে বলে তিনি জানান। 
শিল্পমন্ত্রী আজ ঢাকার ঐতিহ্যবাহী জেবি মার্কেটের ১০তলা বিশিষ্ট নতুন ভবনের ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন উপলক্ষে আয়োজিত ব্যবসায়ী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। রাজধানীর নবাবপুরে এ অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়। 
বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সিরাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে এফবিসিসিআইয়ের পরিচালক খন্দকার মঈনুর রহমান জুয়েল, নবাবপুর দোকান মালিক সমিতির সাবেক সভাপতি জামাল উদ্দিন রাজা, ওয়ারী থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি চৌধুরী আশিকুর রহমান লাভলু, সাধারণ সম্পাদক হাজী আবুল হোসেন এবং জেবি মার্কেট প্রতিষ্ঠাতার কন্যা শিউলী আহমেদ বক্তব্য রাখেন। 
আমির হোসেন আমু বলেন, টেকসই শিল্পায়নের লক্ষ্য অর্জনে সরকার হালকা প্রকৌশল শিল্প প্রসারের ওপর বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে। এ শিল্পের পরিকল্পিত উন্নয়নের জন্য ইতোমধ্যে কেরানীগঞ্জে পৃথক শিল্পনগরী গড়ে তোলা হচ্ছে। এর পাশাপাশি কেমিক্যাল, প্লাস্টিক মুদ্রণসহ অন্যান্য শিল্পখাতের জন্য আলাদা শিল্পনগরী স্থাপনের কাজ এগিয়ে চলছে। দেশের বিভিন্ন এলাকায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা শিল্প কারখানাগুলোকে এসব পরিকল্পিত শিল্পনগরীতে স্থানান্তর করা হবে। একই সাথে এসব শিল্পনগরীর কারখানাগুলোতে গ্যাস, বিদ্যুৎ, পানিসহ প্রয়োজনীয় ইউটিলিটি সেবা নিশ্চিত করা হবে। দেশের হালকা প্রকৌশল শিল্পখাতে গড়ে ওঠা মাঝারি ও বৃহৎ শিল্প কারখানার গুণগত মানোন্নয়ন ও প্রসারে জেবি মার্কেট অগ্রণী অবদান রাখবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।   
উল্লেখ্য, প্রায় ১৫ কোটি টাকা ব্যয়ে জেবি মার্কেট নির্মাণ করা হচ্ছে। ১০তলা বিশিষ্ট এ নতুন মার্কেটে  
২ শতাধিক হার্ডওয়্যার, টুলস্ ও মেশিনারিজের দোকান থাকবে। এতে উন্নতমানের হার্ডওয়্যার, টুলস্, মেশিনারিজ ও খুচরা যন্ত্রাংশ বিক্রি হবে। এতে সরাসরি ১ হাজার লোকের এবং পরোক্ষভাবে আরো ১ হাজার লোকের কর্মসংস্থান হবে। এর ফলে বাংলাদেশে উৎপাদনমুখী হালকা প্রকৌশল শিল্পখাত বিকশিত হবে। বাংলাদেশের হালকা প্রকৌশল শিল্পখাতের গুণগত পরিবর্তনে এ মার্কেট ইতিবাচক অবদান রাখবে বলে আশা করা হচ্ছে।
#
জলিল/মাহমুদ/সঞ্জীব/জয়নুল/২০১৮/১৮৪০ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                         নম্বর : ১৮৬০
 
পরিবার পরিকল্পনা কার্যক্রম জোরদার করতে মাঠ কর্মীদের তৎপর হতে হবে
                                                                  -- স্বাস্থ্যমন্ত্রী
ঢাকা, ১৮ আষাঢ় (২ জুলাই) :
মাঠ পর্যায়ে পরিবার পরিকল্পনা কার্যক্রমকে জোরদার করে দৃশ্যমান সাফল্য অর্জনের জন্য মাঠ কর্মীদেরকে তৎপর হওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। তিনি বলেন, মাঠ কর্মীদের স্বাস্থ্যকেন্দ্রে বসে থাকলে হবে না। বাড়ি বাড়ি গিয়ে পরিবার পরিকল্পনা সম্পর্কে সচেতনতা বাড়ানোর উদ্যোগ নিতে হবে।
মন্ত্রী আজ সচিবালয়ে পরিবার পরিকল্পনা কার্যক্রম সংক্রান্ত এক সভায় সভাপতিত্বকালে এসব কথা বলেন।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, গত নয় বছরে পরিবার পরিকল্পনা কর্মসূচির ক্ষেত্রে দেশে অনেক সাফল্য অর্জিত হয়েছে। বিশেষ করে মা ও শিশু স্বাস্থ্যের উন্নয়নের অর্জন বিশ^ব্যাপী দৃষ্টান্ত হিসেবে স্বীকৃত হয়েছে। এই সাফল্যকে ধরে রেখে দক্ষ মানবসম্পদ সৃষ্টির লক্ষ্যে সকলকে আরো কার্যকর ভূমিকা রাখতে হবে। 
মাঠ কর্মীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে কর্মসূচি বাস্তবায়নের কার্যক্রমকে কঠোর নজরদারির আওতায় আনার জন্য উপজেলা, জেলা এবং বিভাগীয় কর্মকর্তাদের প্রতি নির্দেশ দিয়ে মন্ত্রী বলেন, বাড়ি বাড়ি গিয়ে মাঠ কর্মীরা কাজ করছে কি না তা তদারকি করা কর্মকর্তাদের দায়িত্ব। এই দায়িত্বে অবহেলা কোনোভাবেই মেনে নেওয়া হবে না। পরিবার পরিকল্পনা কার্যক্রমের সাথে সংশ্লিষ্টদেরকে নির্দিষ্ট পোশাক পরিধান করার জন্যও এসময় তিনি নির্দেশ দেন।
সভায় অন্যান্যের মাঝে স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ সচিব জি এম সালেহ উদ্দিন, পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. কাজী মোস্তফা সারোয়ারসহ মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। 
#
পরীক্ষিৎ/মাহমুদ/ফারহানা/সঞ্জীব/রেজাউল/২০১৮/১৮৩৫ ঘণ্টা
Todays handout (6).docx Todays handout (6).docx

Share with :

Facebook Facebook