তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১st মার্চ ২০২০

তথ্যবিবিরণী ১ মার্চ ২০২০

Handout                                                                                                                  Number : 770

Dhaka selected as the OIC Youth Capital 2020

Dhaka, 1 March :

            Foreign Minister Dr. A K Abdul Momen and Minister for Youth and Sports Md. Zahid Ahasan Russel jointly launched the OIC Youth Capital website at the Capital today. The address is: www.dhakaoyc2020.org.

            Bangladesh won the title of ‘OIC Youth Capital 2020’ marking a significant recognition for the country in the youth sector. This victory came after a year long concerted effort by Ministry of Youth & Sports and Ministry of Foreign Affairs for projecting the strengths and opportunities that Bangladesh offers to the youth. Islamic Cooperation Youth Forum (ICYF), an international institution affiliated to the Organization of Islamic Cooperation (OIC) made this declaration on 25 December 2019.

            Foreign Minister in his remark told that Bangladesh would like take a leadership role amongst the Muslim nation and Bangladesh would like to exhibit itself to the world as the land of opportunities and growth possibilities. The Foreign Minister stressed on the projection of Bangladesh’s emphasis on dialogues and reconciliation as a measure for peace and stability.

            State Minister for Youth and Sports told that the selection of Dhaka as the ‘OIC Youth Capital 2020’ will play a significant role to reflect a positive brand image of Bangladesh globally specially among the youth. He further mentioned that the convergence of the yearlong events with the grand celebration of Bangabandhu Birth Centenary has amplified its significance to a great extent. Ten mega-events have been designed for celebrating ‘OIC Youth Capital 2020’. Youth from the OIC member states will participate in these events. It will inject a great momentum, inspiration and motivation among the vast young population of Bangladesh and the OIC member states as well. The grand celebration will be implemented by eight lead Ministries and Twenty co-lead Ministries round the year.

            Both the Ministers have stressed on the role of media and journalist to make the yearlong events successful. 

            The website launched today will act as a platform for the registration and for providing all relevant information regarding the programs and activities.

#

 

Tohidul/Farhana/Rahat/Sanjib/Rezaul/2020/2030  hours

তথ্যবিবরণী                                                                                                      নম্বর : ৭৬৮

 

গড়তে হবে আরো শক্তিশালী ও সুবিধাবাদীমুক্ত আওয়ামী লীগ 

                                             -- রাজশাহীতে তথ্যমন্ত্রী

ঢাকা, ১৭ ফাল্গুন (১ মার্চ) :

            তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহ্‌মুদ বলেছেন, ‘জননেত্রী শেখ হাসিনা ২০৪১ সাল নাগাদ উন্নয়নের যে স্বপ্ন দেখেছেন, দেশকে সেই স্বপ্নের ঠিকানায় পৌঁছে দিতে হলে সংগঠনকে আরো শক্তিশালী এবং সুবিধাবাদীদের হাত থেকে রক্ষা করতে হবে।’ 

            আজ রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ সম্মেলনে দেওয়া বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘বিএনপি আমাদের রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ হলেও আজ তাদের রাজনীতি বেগম জিয়ার অসুস্থতা আর স্কাইপের মধ্যে আটকে আছে। তাদের বক্তব্যের একমাত্র বিষয় বেগম জিয়ার অসুস্থতা আর  বেগম জিয়ার পুত্র তারেক রহমান লন্ডন থেকে স্কাইপের মাধ্যমের বিএনপির সভায় সভাপতিত্ব করেন।’

            একইসাথে কিছু দলীয় সদস্যের উদ্ধত আচরণ ও সুবিধবাদীদের বিষয়ে সতর্কবাণী উচ্চারণ করে ড. হাছান বলেন, ‘আমাদের অপর প্রতিপক্ষ হচ্ছে আমাদেরই কিছু নেতাকর্মীর উদ্ধত আচরণ। রাষ্ট্রক্ষমতায় থেকে উদ্ধত আচরণ করলে জনসমর্থন কমে। তাদের লাগাম টেনে ধরতে হবে, তাদের উদ্ধত আচরণের দায়-দায়িত্ব দল নেবে না। আর পরপর তিনবার রাষ্ট্রক্ষমতায় থাকার কারণে আমাদের মধ্যে কিছু সুযোগসন্ধানী-সুবিধাবাদী ঢুকে পড়েছে। এদের হাত থেকে সংগঠনকে রক্ষা করতে হবে।’

            রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র খায়রুজ্জামান লিটনের সভাপতিত্বে রাজশাহী মাদ্রাসা মাঠে আয়োজিত এ সম্মেলনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের প্রধান অতিথি এবং আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, জাতীয় সংসদের হুইপ ও আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ এবং রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। 

            তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘যে পাকিস্তান বাংলাদেশের স্বাধীনতা লাভের পর মনে করতো যে বাংলাদেশ রাষ্ট্র হিসেবে এগিয়ে যেতে পারবে না, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আজকে আমরা অর্থনৈতিক-সামাজিক-মানব উন্নয়নসহ সমস্ত সূচকে সেই পাকিস্তানকে পেছনে ফেলেছি। পাকিস্তানের মানুষ আজ তাদের প্রধানমন্ত্রীকে বলে ১০ বছরের মধ্যে পাকিস্তানকে সুইডেন নয়, বাংলাদেশ বানানোর চেষ্টা করুন, যা সে দেশের প্রধানমন্ত্রীও অকপটে স্বীকার করেন। কিন্তু বাংলাদেশের এই উন্নয়নের অগ্রযাত্রা ধরে রাখতে আওয়ামী লীগের রাষ্ট্রক্ষমতায় থাকা প্রয়োজন এবং আমরা জনগণের ম্যান্ডেট নিয়েই ক্ষমতায় থাকতে চাই।’

            এশিয়ার নিকটবর্তী উন্নত দেশের উদাহরণ দিয়ে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান বলেন, ‘১৯৬৩ সাল থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত মালয়েশিয়ায় একই দল ক্ষমতায় ছিল। ১৯৬৫ সালে সিঙ্গাপুর স্বাধীনতা অর্জন করেছে।  আজ পর্যন্ত একই দল রাষ্ট্র পরিচালনা করছে। সিঙ্গাপুরের নেতা লি কুয়ান ৪০ বছর রাষ্ট্র পরিচালনা করেছেন। আজকে তার পুত্র রাষ্ট্র পরিচালনা করছেন। আমরা একদিনও জনগণের ম্যান্ডেট ব্যতিরেকে ক্ষমতা থাকতে চাই না। দেশের উন্নয়ন অগ্রগতি ধরে রাখতে অব্যাহতভাবে রাষ্ট্র পরিচালনা করতে আজকের যে অগ্রগতি শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অর্জিত হয়েছে, তা মানুষের কাছে নিয়ে যেতে হবে। তাহলেই জনগণ আমাদেরকে অব্যাহতভাবে সমর্থন জানাবেন। আমরাও জনগণের ম্যান্ডেট নিয়ে মালয়েশিয়া-সিঙ্গাপুরের মতো দেশ পরিচালনার দায়িত্ব অব্যাহত রাখতে পারবো।’ 

            বক্তব্যের শুরুতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান বলেন, বঙ্গবন্ধু ও আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে বাঙালির স্বাধিকার থেকে বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে যেমন আমরা জয়ী হয়েছি, আজ জননেত্রী শেখ হাসিনা, যার ধমনী-শিরায় বঙ্গবন্ধুর রক্তস্রোত প্রবহমান, তাঁরই নেতৃত্বে জাতি অদম্যগতিতে এগিয়ে গিয়ে পৃথিবীর সামনে উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত হয়েছে। 

#

 

আকরাম/ফারহানা/সঞ্জীব/রেজাউল/২০২০/২০০৫ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                      নম্বর : ৭৬৭

 

পথনাটক সমাজে বার্তা পৌঁছানোর সহজ মাধ্যম

                                 -- সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

 

ঢাকা, ১৭ ফাল্গুন (১ মার্চ) :

 

          সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেছেন, পথনাটক সমাজে বার্তা পৌঁছানোর সহজ মাধ্যম। জাতির যে কোনো সমস্যা-সংকটে সর্বাগ্রে পথ দেখিয়েছে পথনাটক। স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলন-সহ সকল গণতান্ত্রিক আান্দোলনে সোচ্চার ভূমিকা পালন করেছে পথনাটক ও এর সক্রিয় কর্মীরা।

 

          প্রতিমন্ত্রী আজ রাজধানীর কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে বাংলাদেশ পথনাটক পরিষদ আয়োজিত সপ্তাহব্যাপী (০১-০৭ মার্চ) ‘বাংলাদেশ পথনাটক উৎসব ২০২০’ এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

 

          কে এম খালিদ বলেন, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় পথনাটক উৎসব আয়োজনে সহযোগিতার হাত সম্প্রসারণ করেছে এবং ভবিষ্যতেও এ ধারা অব্যাহত থাকবে। তিনি বলেন, শিল্প-সংস্কৃতি চর্চা এক ধরনের নেশা। আমাদের শিল্পী-সংস্কৃতি কর্মীদের এ নেশা, আত্মত্যাগ ও নিঃস্বার্থ কর্মযজ্ঞের মধ্য দিয়ে আমাদের সংস্কৃতি বেঁচে আছে, বেঁচে থাকবে।

 

          বাংলাদেশ পথনাটক পরিষদের সভাপতি মান্নান হীরার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ, সহ-সভাপতি ঝুনা চৌধুরী, বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের সেক্রেটারি জেনারেল কামাল বায়েজিদ, নাট্যকার মাসুম বিল্লাহ, বাংলাদেশ পথনাটক পরিষদ এর সহ-সভাপতি মিজানুর রহমান এবং কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য হামিদুর রহমান পাপ্পু। স্বাগত বক্তৃতা করেন বাংলাদেশ পথনাটক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আহম্মেদ গিয়াস।

 

#

 

ফয়সল/ফারহানা/মোশারফ/রেজাউল/২০২০/১৯৫০ ঘণ্টা

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                      নম্বর : ৭৬৬

 

জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের সমন্বয়ে উন্নয়ন কর্মকাণ্ড এগিয়ে নিতে হবে

                                                            -- স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

 

ঢাকা, ১৭ ফাল্গুন (১ মার্চ) :

 

          স্হানীয় সরকার মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম বলেছেন, স্হানীয় সরকারের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি ও  প্রশাসনের সমন্বয়ে দেশের সামগ্রিক উন্নয়ন কর্মকাণ্ড এগিয়ে নিতে হবে। তিনি বলেন, গণতন্ত্রে বিশ্বাসী বর্তমান সরকার মানুষের ন্যায্য অধিকার  প্রতিষ্ঠায় বদ্ধপরিকর। অবকাঠামো যোগাযোগ বিদ্যুৎসহ সকল খাতে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। অর্থনৈতিক সকল সূচকে বাংলাদেশের অগ্রগতি দৃশ্যমান। রূপকল্প-২০৪১ বাস্তবায়নে দেশের উন্নয়নের এ ধারা  অব্যাহত রাখতে হবে। এজন্য সকলকে দেশের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে অংশগ্রহণ করতে হবে।

 

          আজ ঢাকায় সিরডাপ মিলনায়তনে ‘উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদে হস্তান্তরিত কার্যক্রম এবং বাস্তবতা: গবেষণার আলোকে পর্যালোচনা’ শীর্ষক এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

 

          গণতন্ত্র বিকেন্দ্রীকরণে স্হানীয় সরকারের গুরুত্ব অপরিসীম উল্লেখ করে মন্ত্রী স্হানীয় সরকারের ক্ষমতায়নে ও শক্তিশালী করতে সম্মিলিত প্রয়াস  চালিয়ে যেতে সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানান।

 

          গভর্নেন্স এডভোকেসি ফোরাম আয়োজিত এ সভায় সংসদ সদস্য অরোমা দত্ত, গভর্নেন্স এডভোকেসি ফোরামের সমন্বকারী ও ওয়েভ ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক মহসিন আলী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. এম এম আকাশ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

 

#

 

হাসান/ফারহানা/সঞ্জীব/রেজাউল/২০২০/১৯২৮ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                    নম্বর : ৭৬৫ 

 

দুর্যোগ সহনীয় জাতি গঠনে কাজ করছে সরকার

                                      ---ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী

                                                                     

ঢাকা, ১৭ ফাল্গুন ( ১ মার্চ) : 

 

          দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মোঃ এনামুর রহমান বলেছেন, দুর্যোগ সহনীয় জাতি গঠনে কাজ করছে সরকার । তিনি বলেন, ভূমিকম্পের মতো দুর্যোগ মোকাবেলায় ভূমিকম্প সহনীয় ভবন ও অবকাঠামো নির্মাণে জাপান সরকার এবং জাইকার আর্থিক ও কারিগরি সহযোগিতা নেওয়া হবে ।

 

          আজ ঢাকায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর মিলনায়তনে আয়োজিত জাতীয় দুর্যোগ প্রস্তুতি দিবস ২০২০ উপলক্ষে ভূমিকম্পে করণীয় বিষয়ে গোলটেবিল আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন ।  

 

          প্রতিমন্ত্রী বলেন, ভৌগোলিক অবস্থানগত কারণে  বাংলাদেশ অত্যন্ত ভূমিকম্প ঝুঁকিপূর্ণ একটি দেশ। মাঝারি থেকে বড় মাত্রার ভূমিকম্প হলে যে ধ্বংসযজ্ঞ হবে তা কল্পনাতীত এবং ইহা কাটিয়ে উঠা আমাদের জন্য অত্যন্ত কঠিন হবে । তাই ভূমিকম্প সহনীয় অবকাঠামো নির্মাণের বিকল্প নেই । এ কার্যক্রম বাস্তবায়নে সরকার একটি দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে । এর অংশ হিসেবে পুরাতন ভবনগুলোকে ভূমিকম্প সহনীয় করে গড়ে তোলা হবে । এ লক্ষ্যে আমাদের দেশের প্রকৌশলী ও স্থপতিদের প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা নেওয়া হবে যেন তারা ভূমিকম্প সহনীয় ভবন , স্থাপনা ও অবকাঠামো  নির্মাণে কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারেন। ।

 

          অনুষ্ঠানে আরো বক্তৃতা করেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মোঃ শাহ কামাল এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোঃ মহসিন ।

 

#

সেলিম/ফারহানা/মোশারফ/আব্বাস/২০২০/১৯১৬ ঘণ্টা

তথ্যববিরণী                                                                                            নম্বর : ৭৬৪

কাগজবিহীন হচ্ছে তথ্য ব্যবস্থাপনা কার্যক্রম 
                                 -- স্বাস্থ্যমন্ত্রী
ঢাকা, ১৭ ফাল্গুন (১ র্মাচ) : 

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, ‘বর্তমান সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশ করার ঘোষণা দিয়েছিল এখন সেই ঘোষণা বাস্তবরূপ নিয়েছে। দেশ ডিজিটাল করা হয়েছে। সরকারি কাগজপত্রগুলোও ডিজিটাল হয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় আজ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে টাঙ্গাইল জেলার পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের কার্যক্রম পেপারলেস করা হলো। ক্রমান্বয়ে অন্যান্য জেলাগুলোও পেপারলেসের আওতায় আনা হবে।’

আজ ঢাকায় হোটেল সোনারগাঁওয়ে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে টাঙ্গাইল জেলার পরিবার পরিকল্পনা, মা-শিশু স্বাস্থ্য এবং প্রজনন স্বাস্থ্যসেবা কার্যক্রমের তথ্য উপাত্ত ব্যবস্থাপনা পরিপূর্ণভাবে কাগজবিহীনভাবে পরিচালনা করার ঘোষণা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

 উল্লেখ্য, চতুর্থ স্বাস্থ্য, জনসংখ্যা ও পুষ্টি সেক্টর প্রোগ্রামের আওতায় পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের এমআইএস ইউনিটের অপারেশন প্ল্যানের আধুনিক ও যুগোপযোগী প্রযুক্তির সুষ্ঠু ব্যবহার এবং গুণগত ও মানসম্মত তথ্য উপাত্তের মাধ্যমে, প্রমাণনির্ভর সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়ায় সহায়ক, একটি নির্ভরযোগ্য তথ্য ব্যবস্থাপনা পদ্ধতি নিশ্চিত করার উদ্দেশ্যে কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়েছে। গৃহীত কার্যক্রমগুলোর প্রথমে রয়েছে পরিবার কল্যাণ সহকারী, পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা এবং উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসারের মাধ্যমে প্রদেয় পরিবার পরিকল্পনা, মা-শিশু স্বাস্থ্য ও প্রজনন স্বাস্থ্যসেবা কার্যক্রম মনিটরিং এবং তথ্য সংগ্রহ ও সংরক্ষণের মান উন্নয়নে সারা দেশে চলমান কার্যক্রমের তথ্য উপাত্ত ই-রেকর্ডিং ও রিপোর্টিং পদ্ধতির আওতায় নিয়ে আসা।

পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কাজী আ খ ম মহিউল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব মো. আসাদুল ইসলাম, স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব মোঃ আলী নূর, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ, স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরসহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাগণ, বিভিন্ন অধিদপ্তরের মহাপরিচালকগণ, উন্নয়ন সহযোগী সংস্থার প্রতিনিধিবৃন্দ, প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার প্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 

#

মাইদুল/ফারহানা/সঞ্জীব/রেজাউল/২০২০/১৮৪৮ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                    নম্বর : ৭৬৩

আইনের শাসন সমুন্নত রাখতে জনগণের দোরগোড়ায় সেবা পৌঁছে দিতে হবে

                                                  -- পানিসম্পদ উপমন্ত্রী

ঢাকা, ১৭ ফাল্গুন (১ মার্চ) :

          পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম বলেছেন, সুশাসন নিশ্চিতকল্পে পুলিশের ভূমিকা রাখতে হবে। মেধা, দক্ষতা ও পেশাদারিত্ব দিয়ে পুলিশ এখন আগের চেয়ে বেশি সম্মানের জায়গায়।

          আজ ২০০৭ থেকে ২০১৮ পর্যন্ত কর্তব্যরত অবস্থায় জীবন উৎসর্গকৃত সদস্যদের স্মরণে শরীয়তপুর জেলা পুলিশ আয়োজিত ‘পুলিশ মেমোরিয়াল ডে ২০২০’ অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

          মহান মুক্তিযুদ্ধে পুলিশের গৌরবোজ্জ্বল আত্মত্যাগের কথা স্মরণ করে উপমন্ত্রী বলেন, পুলিশিং পেশার উন্নয়নে সরকার বেতন বৃদ্ধি, ঝুঁকি ভাতা-সহ আজীবন রেশনিং ব্যবস্থা চালু করছেন। সুবিধা বাড়লে সেবাও বাড়াতে হবে। আইনের শাসন সমুন্নত রাখতে পুলিশিং সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে হবে। পুলিশিং সেবা সহজীকরণে সরকার ইতোমধ্যে প্রায় ৫০ হাজার সদস্য নিয়োগ দিয়েছেন। পুলিশ এখন চাকরিসন্তুষ্টি নিয়ে কাজ করে।

          এ সময় শরীয়তপুর জেলার কর্তব্যরত অবস্থায় প্রাণ হারানো ১২জন পুলিশ সদস্যের পরিবারের হাতে উপমন্ত্রী ও পুলিশ সুপার যৌথভাবে ১৫ হাজার করে নগদ অর্থ তুলে দেন। ভবিষ্যতে প্রতিবছর পুলিশ সদস্যদের পরিবারের মেধাবী ২০ জন শিক্ষার্থীদেরকে উপমন্ত্রী আশ্রাফুননেসা ফাউন্ডেশন থেকে বৃত্তি প্রদানের আশ্বাস দেন।

          পুলিশ সুপার (শরীয়তপুর) এস এম আশরাফুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন সংসদ সদস্য ইকবাল হোসেন অপু, জেলা ও দায়রা জজ প্রশান্ত কুমার বিশ্বাস, জেলা প্রশাসক কাজী আবু তাহের, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ছাবেদুর রহমান খোকা সিকদার-সহ জেলা পর্যায়ের অন্যান্য কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

#

আসিফ/ফারহানা/সঞ্জীব/রেজাউল/২০২০/১৮০৬ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                      নম্বর : ৭৬২

মুজিববর্ষে ৫০ লাখ নারীকে তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে ক্ষমতায়ন করা হবে

                                          -- মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা, ১৭ ফাল্গুন (১ মার্চ) :

          মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা বলেছেন, জাতির পিতা দেশ স্বাধীনের পরপরই সংবিধানে  নারীর অধিকার ও সমতা নিশ্চিত করেন। বর্তমান সরকারই এ দেশে নারী উন্নয়ন ও ক্ষমতায়নে কল্যাণকর বিভিন্ন আইন ও নীতি প্রণয়ন করেছে। এ সময় তিনি আরো বলেন, মুজিববর্ষে ৫০ লাখ প্রান্তিক ও সুবিধাবঞ্চিত নারীকে তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে ক্ষমতায়ন করা হবে।

          আজ ঢাকায় হোটেল সোনারগাঁওয়ে আগামী ৯ থেকে ২০ মার্চ নিউইয়র্কে জাতিসংঘের উদ্যোগে কমিশন অন দ্য স্টাটাস অভ্ উইমেন এর ৬৪ তম অধিবেশনের মূল আলোচ্য বিষয় “Review and appraisal of the implementation of Beijing Declaration and Platform for Action” বিষয়ে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় ও ইউএন উইমেন বাংলাদেশের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন। 

          প্রতিমন্ত্রী বলেন, সরকার গত ১০ বছরে নারীর উন্নয়ন ও ক্ষমতায়নের লক্ষ্য  নারী উদ্যোক্তা সৃষ্টি, কর্মসংস্থান, সমতা প্রতিষ্ঠা ও বৈষম্য হ্রাসের বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে যার ফলে সমতাভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ার শীর্ষে।

          সভায় কমিশন অন দ্য স্ট্যাটাস অভ্ উইমেনের ৬৪তম সভায় আলোচিত হতে যাওয়া বেইজিং প্লাটফর্ম ফর একশনের ফলাফল, নারীর অন্তর্ভুক্তিমুলক উন্নয়ন, শোভন কর্মপরিবেশ, দারিদ্র্য হ্রাস, সহিংসতা প্রতিরোধ, সর্বস্তরে নারীর ক্ষমতায়ন ও অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে নারীর সমতা অর্জন বিষয়ে আলোচনা হয়। এছাড়া বেইজিং ঘোষণা পরবর্তী ২৫ বছরে দেশে নারী উন্নয়ন ও ক্ষমতায়নের চিত্র তুলে ধরা হয়।  

          মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব কাজী রওশন আক্তারের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইউএন উইমেনের কান্ট্রি রিপ্রেজেনটেটিভ শোকো ইশিকাওয়া ও দিপ্ত ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক জাকিয়া কে হাসান। সভায় বেসরকারি ও উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা এবং নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিরা অংশগ্রহণ করেন।

#

আলমগীর/ফারহানা/সঞ্জীব/রেজাউল/২০২০/১৭৩০ ঘণ্টা

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                      নম্বর : ৭৬১

বিজিবি’র অভিযানে ফেব্রুয়ারি মাসে ৭৫ কোটি ১৮ লাখ টাকার চোরাচালান ও মাদক দ্রব্য জব্দ

ঢাকা, ১৭ ফাল্গুন (১ মার্চ) :

          বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) গত ফেব্রুয়ারি-২০২০ মাসে দেশের সীমান্ত এলাকা-সহ অন্যান্য স্থানে অভিযান চালিয়ে সর্বমোট ৭৫ কোটি ১৮ লাখ ৫ হাজার টাকা মূল্যের বিভিন্ন প্রকারের চোরাচালান ও মাদক দ্রব্য জব্দ করতে সক্ষম হয়েছে।

          জব্দকৃত মাদকের মধ্যে রয়েছে ৫ লাখ ৮৯ হাজার ৫৩৩ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ৪০ হাজার ৪৯৪ বোতল ফেনসিডিল, ১০ হাজার ৪৭১ বোতল বিদেশি মদ, ৭৮৮ লিটার বাংলা মদ, ৯৮৬ ক্যান বিয়ার, ৮৫৭ কেজি গাঁজা, ১ কেজি ২৭ গ্রাম হেরোইন, ১ হাজার ৭৩টি ইনজেকশন, ৮ লাখ ৪৩ হাজার ৯৮৭টি অন্যান্য ট্যাবলেট এবং ৯৮৪টি এ্যানেগ্রা/সেনেগ্রা ট্যাবলেট।

          জব্দকৃত অন্যান্য চোরাচালান দ্রব্যের মধ্যে রয়েছে ৬ কেজি ১৪ গ্রাম স্বর্ণ, ১০১ কেজি ৭৫ গ্রাম রুপা, ৪ হাজার ৯৩২টি ইমিটেশন গহনা, ১ লাখ ৩৬ হাজার ৮৮৪টি কসমেটিক্স সামগ্রী, ৯৬৫টি শাড়ি, ৯৬৪টি থ্রিপিস/শার্টপিস, ১ হাজার ২টি তৈরিপোশাক, ৩৪২ মিটার থান কাপড়, ৯ হাজার ১৮২ ঘনফুট কাঠ, ২ হাজার ৫৯৬ কেজি চা পাতা, ১১টি ট্রাক, ৪টি পিকআপ, ৩০টি সিএনজি/ইঞ্জিন চালিত অটোরিকশা এবং ৭৬টি মোটর সাইকেল। উদ্ধারকৃত অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে ২টি পিস্তল, ১টি বন্দুক, ৪টি বিভিন্ন প্রকার গান এবং ৬ রাউন্ড গুলি।

          এছাড়াও সীমান্তে বিজিবি’র অভিযানে ইয়াবা-সহ বিভিন্ন প্রকার মাদক পাচার ও অন্যান্য চোরাচালানে জড়িত থাকার অভিযোগে ৩০৩ জন চোরাচালানীকে এবং অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রমের দায়ে ৫৪ জন বাংলাদেশি নাগরিক ও ৭৩ জন ভারতীয় নাগরিককে আটকের পর ৭ জনকে থানায় সোপর্দ করে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে এবং ৬৬ জনকে ভারতে ফেরত প্রদান করা হয়েছে।  

#

শরিফুল/ফারহানা/সঞ্জীব/রেজাউল/২০২০/১৭২৮ ঘণ্টা

2020-03-01-20-51-0eaf9e05b1de8b37762b2e010a0b54ed.docx 2020-03-01-20-51-0eaf9e05b1de8b37762b2e010a0b54ed.docx

Share with :

Facebook Facebook