তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৯ August ২০১৯

তথ্যবিবরণী - 29/8/2019

তথ্যবিবরণী                                                                                                             নম্বর :  ৩২৭৫

 

বঙ্গবন্ধুকে আনুষ্ঠানিকতার মধ্যে সীমাবদ্ধ না রেখে তাঁর আদর্শকে ধারণ করতে হবে

                                                                              -- শিক্ষা উপমন্ত্রী

 

ঢাকা, ১৪ ভাদ্র (২৯ আগস্ট) :

 

শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্মরণ করার বিষয়কে কেবল আনুষ্ঠানিকতার মধ্যে সীমাবদ্ধ না রেখে তাঁর আদর্শকে ধারণ করতে হবে। বঙ্গবন্ধুর দর্শন ছড়িয়ে দিয়ে দেশের কল্যাণে আত্মনিয়োগ করলে তাঁর প্রতি প্রকৃত শ্রদ্ধা নিবেদন করা হবে।

 

উপমন্ত্রী আজ রাজধানীর কাকরাইলে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের অডিটোরিয়ামে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের উদ্যোগে  আয়োজিত জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা ও দোয়া মাহফিলে অংশ নিয়ে এসব কথা বলেন।

 

উপমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু সব সময় তরুণদের দক্ষতাভিত্তিক শিক্ষায় শিক্ষিত হতে বলেছেন, কেননা তিনি চেয়েছিলেন দেশের মানুষকে মানব সম্পদে পরিণত করতে। এক্ষেত্রে কারিগরি শিক্ষা হতে পারে অন্যতম হাতিয়ার।

 

            অনুষ্ঠানে অন্যানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সিনিয়র সচিব সোহরাব হোসাইন এবং কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মুনশী শাহাবুদ্দীন আহমেদ এবং কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক রওনক মাহমুদ।

 

#

 

জাহিদ/মাহমুদ/রফিকুল/সেলিম/২০১৯/২১৪০ ঘণ্টা

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                             নম্বর :  ৩২৭৪

 

বঙ্গবন্ধু সাধারণ মানুষকে প্রতিনিধিত্বের আসনে আসীন করে গেছেন

                                                        -- সমাজকল্যাণ মন্ত্রী

 

ঢাকা, ১৪ ভাদ্র (২৯ আগস্ট) :

           

সমাজকল্যাণ মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ বলেছেন, বাংলাদেশের যা কিছু  অর্জন তা সম্ভব হয়েছে শুধু বঙ্গবন্ধুর জন্য। বঙ্গবন্ধু সাধারণ মানুষকে প্রতিনিধিত্বের আসনে আসীন করে গেছেন।

 

মন্ত্রী আজ ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের হাজী মুহম্মদ মুহসীন হল মিলনায়তনে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ হাজী মুহম্মদ মুহসীন হল শাখা আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

 

বাংলাদেশ ছাত্রলীগ হাজী মুহম্মদ মুহসীন হল শাখার সভাপতি জহিরুল ইসলাম সরকারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মেঘনা পেট্রোলিয়ামের পরিচালক ইশতিয়াক আহমেদ শিমুল, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় শাখার সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস ও বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন প্রমুখ।

 

মন্ত্রী বলেন, বাঙালি ও বাংলার স্বাধীনতার প্রশ্নে বঙ্গবন্ধু ছিলেন দুর্গম হিমালয় শৃঙ্গের  মতো অনড় ও অনন্য। পৃথিবীর এমন কোনো নেতা নেই, যিনি বঙ্গবন্ধুর মতো সাহসিকতার সাথে স্বাধীনতার কথা উচ্চারণ করতে পারেন। তিনি সারা পৃথিবীকে চমকে দিয়েছিলেন।  সাড়ে সাত কোটি বাঙালি তাঁর তর্জনীর ইশারায় পাকিস্তানি শাসকদের বিরুদ্ধে সশস্ত্র সংগ্রামের মাধ্যমে দেশের স্বাধীনতা ছিনিয়ে এনেছিল। তিনি বাঙালি ও বাংলার স্বার্থ রক্ষায় এতটাই উজ্জীবিত ছিলেন যে মরুভূমির নিষ্কলুষ সূর্যোদয়ও যেন তাঁর কাছে ম্লান হয়ে যায়।

 

#

 

জাকির/মাহমুদ/মোশারফ/সেলিম/২০১৯/২১৩০ ঘণ্টা

 

 

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                             নম্বর :  ৩২৭৩

 

জাতির সূর্যসন্তান মতিউর ছিলেন বঙ্গবন্ধুর প্রেরণায় উজ্জীবিত

                                                -- বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী

 

ঢাকা, ১৪ ভাদ্র (২৯ আগস্ট) :

 

জাতির সূর্যসন্তান বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমান জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রেরণায় উজ্জীবিত হয়েই দেশপ্রেমের চূড়ান্ত বহিঃপ্রকাশ দেখিয়েছিলেন বলে মন্তব্য করেছেন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী, বীরপ্রতীক।

 

আজ ঢাকায় জাতীয় জাদুঘরের সুফিয়া কামাল অডিটোরিয়ামে বীরশ্রেষ্ঠ ফ্লাইট লেফট্যানেন্ট মতিউর রহমানের ৪৮তম শাহাদতবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত এক স্মরণসভায় মন্ত্রী এ মন্তব্য করেন।

 

মন্ত্রী বলেন, বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমানের সবচেয়ে বড় পরিচয় তিনি দেশপ্রেমিক। এ কারণেই তিনি এতটা সাহসী হয়ে উঠতে পেরেছিলেন, দেশের জন্য নিজের জীবনকে উৎসর্গ করতে পেরেছিলেন। আমরা যারা মুক্তিযুদ্ধ করেছি, আমাদের সবাইকেই মুক্তির স্বপ্ন দেখিয়েছিলেন এই মহান নেতা।

 

গোলাম দস্তগীর গাজী বলেন, মুক্তিযুদ্ধে শহিদ বীরশ্রেষ্ঠরা যেভাবে নিজেদের জীবনের বিনিময়ে স্বাধীন বাংলাদেশের জন্ম দিয়েছেন, তা পৃথিবীর ইতিহাসে অতুলনীয়। তাঁদের সম্মানে ঐক্যবদ্ধ হয়েই আমাদের বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে হবে।

 

স্মরণসভায় আরো বক্তব্য রাখেন বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমানের ভাই আব্দুর রহমান সামাদ, বোন জাহানারা ইসলাম, ড. মনিরুজ্জামান ও বাংলাদেশ রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)-এর চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন অভিনেতা শাহরিয়ার নাজিম জয়।

 

#

 

সৈকত/মাহমুদ/রফিকুল/সেলিম/২০১৯/২১২০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                                                            নম্বর : ৩২৭২
 
সংস্কৃতি অঙ্গনের জন্য প্রয়োজনীয় সবই করা হচ্ছে
                                      --- সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী
 
 
ঢাকা, ১৪ ভাদ্র (২৯ আগস্ট) :
সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেছেন, সংস্কৃতি অঙ্গনের জন্য যা যা প্রয়োজন মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে তার সবই করা হচ্ছে। মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকা-ের বিবরণ দিয়ে বলেন, হাতিরঝিলে সিডনী অপেরা হাউজের ন্যায় প্রায় ৭ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে ঢাকা অপেরা হাউজ নির্মিত হতে যাচ্ছে; কপিরাইট আইন প্রণয়ন-সহ অসচ্ছল শিল্পীদের অনুদান বৃদ্ধি করা হচ্ছে; সকল উপজেলায় সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্পের ডিজাইন অনুমোদিত হয়েছে ও ডিপিপি চূডান্ত হওয়ার পথে।
আজ বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালা মিলনায়তনে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় ও ঢাকাস্থ ইরান কালচারাল সেন্টারের সহযোগিতায় চন্দ্রকলা থিয়েটারের ১৮তম প্রযোজনা ‘শেখ সাদী নাটকের উদ্বোধনী মঞ্চায়ন’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।
চন্দ্রকলা থিয়েটারের সভাপতি মামুনুর রশীদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ, ঢাকাস্থ ইরান কালচারাল সেন্টারের কাউন্সিলর ড. মাহদী হোসেইনি ফায়েক ও বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের সেক্রেটারি জেনারেল কামাল বায়েজীদ।
উল্লেখ্য, শেখ সাদী নাটকটি রচনা করেছেন অপূর্ব কুমার কুন্ডু এবং এতে একক অভিনয় ও নির্দেশনা দিয়েছেন এইচ আর অনিক।
#
ফয়সল/মাহমুদ/ইসরাত/মোশারফ/জয়নুল/২০১৯/২১৪৫ঘণ্টা
 
  
তথ্যবিবরণী                                                                                                                                                            নম্বর : ৩২৭১
 
শিল্পখাতের বিকাশ ঘটাতে সরকার কাজ করছে
        ---শিল্প প্রতিমন্ত্রী
 
ঢাকা, ১৪ ভাদ্র (২৯ আগস্ট) :
শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার বলেছেন, শিল্পখাতের বিকাশ ঘটিয়ে দেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নে সরকার আন্তরিকভাবে কাজ করছে। তিনি বলেন, নতুন প্রজন্মকে দেশ পরিচালনার যোগ্যতা অর্জন করতে হবে। আগামী দিনে জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণের দায়িত্ব তরুণ প্রজন্মকেই নিতে হবে।
আজ রাজধানীর মিরপুর ১০-এ ৪৪তম জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে কাফরুল থানা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন। 
শিল্প প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বে বর্তমান সরকারের আমলে দেশে স্বাস্থ্য, শিক্ষা, অবকাঠামো-সহ সকল ক্ষেত্রে নজিরবিহীন অগ্রগতি অর্জিত হয়েছে। খাদ্য, মাছ, সবজি উৎপাদনে বাংলাদেশ স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছে।
সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক সংসদ সদস্য পঙ্কজ নাথ এবং যুগ্মসাধারণ সম্পাদক গাজী মেজবাউল হোসেন সাচ্চু।
#
মাসুম/মাহমুদ/ফারহানা/মোশারফ/জয়নুল/২০১৯/২১৩০ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী     নম্বর : ৩২৭০
 
বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশকে বঞ্চনা ও বৈষম্যহীন করতে চেয়েছিলেন
                      --- মোস্তাফা জব্বার
 
ঢাকা ১৪ ভাদ্র (২৯ আগস্ট) :
 
ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলাদেশ ছিলো ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত এবং শোষণ ও বৈষম্যহীন বাংলাদেশ। এই রাষ্ট্রের জন্মের প্রথমদিন থেকে তিনি সেই উদ্যোগ গ্রহণ করেন। ২৫ বিঘা জমির খাজনা মওকুফ, ১০০ বিঘা জমির সিলিং স্থাপন, রাষ্ট্রায়ত্ত্বকরণ, সমবায় আন্দোলন ও দ্বিতীয় বিপ্লবের কর্মসূচি ছিলো সেই বাংলাদেশ গড়ার জন্য। কিন্তু আন্তর্জাতিক সা¤্রাজ্যবাদ এবং একাত্তরের দেশি-বিদেশি পরাজিত শত্রু ও তাদের দোসররা বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠার এসব কর্মসূচি ও অগ্রযাত্রাকে স্তব্ধ করতে তাঁকে সপরিবারে হত্যা করে। জাতীয় চার নেতার হত্যাকা- বা ২১ আগস্টে গ্রেনেড হামলা করে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার চেষ্টাও একই ষড়যন্ত্রের অংশ। তিনি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, অশুভ শক্তির কোনো ষড়যন্ত্র বঙ্গবন্ধুর সৈনিকেরা শরীরে এক বিন্দু রক্ত থাকতেও সফল হতে দেবে না। 
মন্ত্রী আজ ঢাকায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধুর ৪৪তম শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের প্রতিষ্ঠান বিটিসিএল আয়োজিত আলোচনা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব অশোক কুমার বিশ্বাসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ সরকারি কর্মকমিশনের চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ সাদিক, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক প্রকৌশলী আবদুস সবুর এবং বিটিসিএল ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইকবাল মাহমুদ বক্তৃতা করেন।
বঙ্গবন্ধু বাঙালির যে রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করে গেছেন তা রক্ষা ও তাকে উন্নত রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তোলার ক্ষমতা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাঙালির আছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু, বাংলাদেশ এবং শেখ হাসিনা এখন সমার্থক শব্দ। বাংলাদেশ গত সাড়ে দশ বছরে উন্নয়নের প্রতিটি সূচকে শুধু পাকিস্তান বা প্রতিবেশী অন্য কোনো দেশই নয়, পৃথিবীর অনেক উন্নত দেশকেও  চমকে দেওয়ার পর্যায়ে উপনীত হয়েছে। 
মন্ত্রী পৃথিবীতে একমাত্র বাংলা ভাষাভিত্তিক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় বঙ্গবন্ধুর অবদান তুলে ধরে বলেন, যে সময়ে ব্রিটিশরা সমগ্র উপমহাদেশটিকে সাম্প্রদায়িকতার বিষবাষ্পে কলঙ্কিত করে দু’টি অদ্ভুত রাষ্ট্র বানিয়ে দিয়ে গিয়েছিল এবং পুরো উপমহাদেশের বড় বড় রাজনীতিবিদরা সেই সাম্প্রদায়িকতাকেই মাথায় তুলে নিয়েছিলেন তখন তিনি সাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র গঠনের বিপরীতে একটি ভাষাভিত্তিক আধুনিক জাতিরাষ্ট্র গঠনের দূরদর্শী স্বপ্ন দেখেন। তাঁকে বুঝতে হলে পড়তে হবে, জানতে হবে। বঙ্গবন্ধুর বাঙালিত্ব, তাঁর প্রতি একনিষ্ঠতা এবং জাতিসত্তা বিষয়ে অত্যন্ত স্পষ্ট নীতিমালা লাখো লাখো তরুণকে বাংলাদেশ নামক একটি রাষ্ট্র গঠনে জীবন দিতে উদ্বুদ্ধ করেছে।
#
শেফায়েত/মাহমুদ/রফিকুল/আব্বাস/২০১৯/২১২৩ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                             নম্বর :  ৩২৬৯

 

বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ও পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করে প্রধানমন্ত্রী দেশকে এগিয়ে নিচ্ছেন

                                                                          -- স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

 

ঢাকা, ১৪ ভাদ্র (২৯ আগস্ট) :

 

বিশ্বে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ও উন্নয়নের অনন্য উদাহরণ হচ্ছে বাংলাদেশ, যেটি সম্ভব হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ও পরিকল্পনাগুলো বাস্তবায়নের মাধ্যমে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন বলে।

 

১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষণা পরিষদ,  বাংলাদেশ ব্যাংক শাখা কর্তৃক বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকিং হলে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান এসব কথা বলেন।

 

অনুষ্ঠানে মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু তাঁর সমস্ত জীবন ব্যয় করেছেন বাংলাদেশের মানুষের কল্যাণে কাজ করে। শোষিত মানুষের কল্যাণে ও স্বাধীনতার জন্য বঙ্গবন্ধু তাঁর জীবদ্দশায় তিন হাজার তিপ্পান্ন দিন কারাভোগ করেন। বঙ্গবন্ধু তাঁর শিশুকাল থেকে ধারাবাহিকভাবে রাজনীতিতে প্রবেশ করেন এবং দেশের মানুষের জন্য রাজনীতি করে দেশকে স্বাধীন করেছেন। বঙ্গবন্ধু কারাগারে থেকেই বাংলাদেশের রাজনীতির ইতিহাস, ঐতিহ্য ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার কথা লিখে গেছেন। তাঁর অসমাপ্ত আত্মজীবনী ও কারাগারের রোজনামচা পাঠ করলে তা জানা যায়। মন্ত্রী তাঁর বক্তব্যের এক পর্যায়ে তরুণ প্রজন্মকে বাংলাদেশের রাজনীতিকে জানতে ও বাংলাদেশের অতীত ইতিহাস ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা জানতে বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী ও কারাগারের রোজনামচা পাঠ করার জন্য আহ্বান করেন।

 

অনুষ্ঠানের উদ্বোধক ছিলেন প্রফেসর ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির। সভাপতিত্ব করেন বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষণা পরিষদ বাংলাদেশ ব্যাংক শাখার সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান মোল্লা।

 

এছাড়া মন্ত্রী আজ ঢাকায় খামারবাড়ীর গিয়াসউদ্দিন মিল্কি অডিটোরিয়ামে বাংলাদেশ মৃত্তিকা সম্পদ ইনস্টিটিউট আয়োজিত ১৫ আগস্ট শোক দিবসের আলোচনা সভায় এবং রাজধানীর তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানায় তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানা ছাত্রলীগের আয়োজনে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন।

 

#

 

অপু/মাহমুদ/মোশারফ/সেলিম/২০১৯/২১০০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                                                                     নম্বর : ৩২৬৮
 
জাপানের শ্রমবাজারের চাহিদা অনুযায়ী দক্ষ কর্মী তৈরি করছে সরকার
              --- ইমরান আহমদ 
 
ঢাকা, ১৪ ভাদ্র (২৯ আগস্ট) :
প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ বলেছেন, জাপানের শ্রমবাজারের চাহিদা অনুযায়ী সরকার দক্ষ কর্মী তৈরি করছে। তিনি বলেন, সহযোগিতা স্মারক স্বাক্ষরের ফলে জাপানে বাংলাদেশি কর্মীদের কর্মসংস্থানের বিরাট সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। জাপানের শ্রমবাজার উন্মুক্তকরণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কূটনৈতিক প্রচেষ্টা ও দক্ষতার প্রশংসা করে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর লক্ষ্য পূরণে সকলকে আন্তরিকভাবে কাজ করতে হবে।
মন্ত্রী আজ প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ে তাঁর অফিস কক্ষে জাপানগামী টেকনিক্যাল ইন্টার্নদের স্মার্ট কার্ড প্রদান অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন। 
আন্তর্জাতিক শ্রমবাজারে বাংলাদেশি কর্মীদের অনেক সুনাম রয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, জাপানের ধারাবহিকতায় বিশ্বের অন্যান্য দেশের শ্রমবাজারও বাংলাদেশি কর্মীদের জন্য উন্মুক্ত হবে এবং বৈদেশিক কর্মসংস্থানও বৃদ্ধি পাবে। তিনি টেকনিক্যাল ইন্টার্নদের উদ্দেশে বলেন, কর্মক্ষেত্রে নিষ্ঠা ও সততার সাথে দায়িত্ব পালন করতে হবে। 
উল্লেখ্য, ইন্টারন্যাশনাল ম্যানপাওয়ার (আইএম) জাপানের সহায়তায় জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর মাধ্যমে সরকারিভাবে বিনা খরচে জাপানে টেকনিক্যাল ইন্টার্ন প্রেরণ কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ ৪ জন টেকনিক্যাল ইন্টার্নকে স্মার্টকার্ড প্রদান করা হয়। 
অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতন, বিশিষ্ট সাংবাদিক ইকবাল সোবহান চৌধুরী, জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর মহাপরিচালক মোঃ সেলিম রেজা প্রমুখ।
#
রাশেদুজ্জামান/মাহমুদ/ফারহানা/রফিকুল/জয়নুল/২০১৯/২১০০ঘণ্টা 
তথ্যবিবরণী                                                                                                                                                   নম্বর : ৩২৬৭
 
নতুন প্রজন্ম এখন স্বাধীনতার সঠিক ইতিহাস জানতে পারছে 
           --- সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী
 
ঢাকা, ১৪ ভাদ্র (২৯ আগস্ট) :
সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেছেন, ১৯৭৫ এর ১৫ আগস্টের পর একুশ বছর স্বাধীনতার প্রকৃত ইতিহাস গোপন রাখা হয়েছিল, মিথ্যা তথা বিকৃত ইতিহাস জাতির সামনে উপস্থাপন করা হয়েছিল। ফলে সে সময়ের শিক্ষার্থীরা স্বাধীনতার প্রকৃত ইতিহাস ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে জানতে পারেনি। আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর স্বাধীনতার প্রকৃত ইতিহাস উন্মোচিত হয়েছে। নতুন প্রজন্ম এখন সৌভাগ্যবান যে তারা স্বাধীনতার সঠিক ইতিহাস ও জাতির পিতা সম্পর্কে জানতে পারছে। বঙ্গবন্ধুর জন্ম, বেড়ে ওঠা, লেখাপড়া এবং বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবন সম্পর্কে জানতে পারছে যেটি তাদের বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলার সোনার মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে সহায়তা করবে।
প্রতিমন্ত্রী আজ বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা প্লাজায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোকদিবস ২০১৯ উপলক্ষে জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্রের উদ্যোগে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পৃষ্ঠপোষকতায় বাংলাদেশ জ্ঞান ও সৃজনশীল প্রকাশক সমিতি এবং বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতির সহযোগিতায় রাজধানী ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জের ৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৫০ জন শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণে আয়োজিত পাঁচ দিনব্যাপী (২৫-২৯ আগস্ট, ২০১৯) বঙ্গবন্ধু বিষয়ক পুস্তক প্রদর্শনী ও পাঠ কর্মসূচির সমাপনী ও সনদপত্র প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। 
জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্রের পরিচালক মিনার মনসুরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন রাজউক উত্তরা মডেল কলেজের অধ্যক্ষ ব্রিগেডিয়ার জেনারেল কাজী শওকত আলম, বাংলাদেশ জ্ঞান ও সৃজনশীল প্রকাশক সমিতির সভাপতি ফরিদ আহমেদ এবং বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতির সভাপতি মোঃ আরিফ হোসেন।
#
ফয়সল/মাহমুদ/ফারহানা/মোশারফ/জয়নুল/২০১৯/২০৫০ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                                                                     নম্বর : ৩২৬৬
 
জাতিকে বঙ্গবন্ধুর রক্তের ঋণ শোধ করতে হবে
         --- শ্রম প্রতিমন্ত্রী
ঢাকা, ১৪ ভাদ্র (২৯ আগস্ট) :
শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান বলেছেন, জাতিকে বঙ্গবন্ধুর রক্তের ঋণ শোধ করতে হবে, বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বুকে ধারণ করে দেশপ্রেমে উজ্জীবিত হতে হবে।
আজ রাজধানীতে সিদ্বেশ্বরী বালক উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ১৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিল আয়োজিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু সোনার বাংলার স্বপ্ন দেখিয়েছেন। কিন্তু খুনিচক্র বঙ্গবন্ধুর সে স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে দেয়নি। আমাদের সকলকে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন, আদর্শ বাস্তবায়নে তাঁরই সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনাকে সহযোগিতা করতে হবে, সকলে মিলে দেশের উন্নয়নে এগিয়ে আসতে হবে।
ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ১৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মুন্সী কামরুজ্জামান কাজলের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাহে আলম মুরাদ, সহ-সভাপতি আবুল বাশার-সহ ঢাকা দক্ষিণ এবং রমনা থানা আওয়ামী লীগ ও এর বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ বক্তৃতা করেন।
পরে সভায় মহান স্বাধীনতার স্থপতি জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমান-সহ ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট শাহাদতবরণকারী সকল শহিদের রূহের মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়।
#
আকতারুল/মাহমুদ/রফিকুল/জয়নুল/২০১৯/২০৪৫ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                             নম্বর :  ৩২৬৫

টিআইবি’র রিপোর্ট একপেশে, উদ্দেশ্যমূলক

                                     -- তথ্যমন্ত্রী

ঢাকা, ১৪ ভাদ্র (২৯ আগস্ট) :

তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহ্মুদ বলেছেন, ‘দশম সংসদের কার্যক্রমের ওপর টিআইবি প্রকাশিত রিপোর্টটি একপেশে এবং উদ্দেশ্যমূলক। যে তথ্য-উপাত্তের ভিত্তিতে প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে সেখানে অনেক ভুল রয়েছে। অতীতেও টিআইবি এ ধরনের ভ্রান্ত রিপোর্ট করেছে, তাদের উচিত ছিল জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়া। আমরা সমালোচনা চাই, কারণ সমালোচনা পথ চলাকে শাণিত করে। কিন্তু একপেশে, উদ্দেশ্য প্রণোদিত এবং বিভিন্ন গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানকে অহেতুক প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য সমালোচনা কাম্য নয়।’

আজ দুপুরে ঢাকায় জাতীয় প্রেস ক্লাবে ব্যারিস্টার নাজমুল হুদার সভাপতিত্বে তৃণমূল বিএনপি আয়োজিত ‘জাতির পিতার ৪৪তম শাহাদতবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় সমসাময়িক প্রসঙ্গে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

ড. হাছান বলেন, ‘আমরা অতীতেও দেখেছি, পদ্মাসেতু নিয়ে যখন অমূলক দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে, তখন টিআইবি বিশ্বব্যাংকের চেয়ে কয়েক ধাপ এগিয়ে রিপোর্ট দিয়েছে। অথচ বিশ্বব্যাংকের রিপোর্টই ভ্রান্ত প্রমাণিত হয়েছে। প্রমাণ হয়েছে, সে অভিযোগের কোনো সত্যতা নাই। এরপর টিআইবি’র উচিত ছিল জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়া।’

’টিআইবি’র সদ্য প্রকাশিত রিপোর্টে বলা হয়েছে, পার্লামেন্টে আধাঘণ্টায় বিল পাস হয়, কিন্তু সে বিলগুলো নিয়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা যে সংসদীয় কমিটিতে আলোচনা-সমালোচনা হয়, সে দীর্ঘ সময় টিআইবি অন্তর্ভুক্ত করেনি’ উল্লেখ করে টিআইবি’র অন্যান্য উদ্দেশ্যমূলক বিভ্রান্তিকর রিপোর্টের উদাহরণ টেনে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘২০১০ সালে সুন্দরবনে অনিয়ম নিয়ে একটি রিপোর্ট প্রকাশ হয়েছিল। কেউ যদি তাদের রিপোর্টের প্রাথমিক বিষয়গুলো পড়ে, মনে হবে অনিয়মগুলো ২০১০ কি ২০০৯ সালে হয়েছিল। কিন্তু আসলে অনিয়মগুলো ২০০৭ এবং ২০০৮-এ ঘটা, যখন আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় ছিল না, ছিল তত্ত্বাবধায়ক সরকার। তারা যে কয়েক বছর পুরনো রিপোর্ট করছেন, তাদের উচিত ছিল প্রথমেই সেটি পরিষ্কার করা।’

ড. হাছান এ সময় বঙ্গবন্ধুর শাহাদতবার্ষিকী পালন করায় ‘তৃণমুল বিএনপি’কে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ‘আশা করি তৃণমূল বিএনপির কাছ থেকে বিএনপি কিছু শিখবে।’ একই সাথে তিনি বলেন, ‘জিয়াউর রহমান বঙ্গবন্ধু হত্যাকা-ের প্রধান কুশীলব। হত্যাকারীদের তিনি বিদেশে পাঠিয়ে দিয়েছেন,  ইনডেমনিটি অধ্যাদেশ সংসদে পাস করিয়ে বঙ্গবন্ধু হত্যাকা-ের বিচারের পথ রুদ্ধ করেছেন। খালেদা জিয়া তার জন্ম তারিখ ১৫ আগস্ট পালন করা নিয়ে প্রমাণ করে যে তিনিও এর সাথে জড়িত। যারা বঙ্গবন্ধুর হত্যাকাণ্ডে খুশি হয়, বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের কারণে যারা রাজনৈতিক সুবিধাভোগী, তারা বঙ্গবন্ধুর শাহাদত দিবস পালন করবেন না,  এটি স্বাভাবিক। তৃণমূল বিএনপির কাছে শিখতে চাইলেও তারা শিখতে পারবে না।’

ড. হাছান বলেন, ‘আজকে মানুষের দাবি হচ্ছে- বঙ্গবন্ধু হত্যাকা-ের বিচার হয়েছে, কিন্তু বঙ্গবন্ধু হত্যাকা-ের কুশলীবদের বিচার হয়নি, তা করা এবং সেজন্য একটি কমিশন গঠন করা। আইনমন্ত্রী ইতোমধ্যেই বলেছেন কমিশন হবে।’

‘আওয়ামী লীগ কখনো জয় বাংলা স্লোগান দলীয়করণ করেনি’ উল্লেখ করে মন্ত্রী ড. হাছান বলেন, ‘জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু দুটিই মুক্তিযুদ্ধের স্লোগান। জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু বলে মুক্তিযোদ্ধারা রণাঙ্গনে যুদ্ধ করেছে। বুকে যখন বুলেট বিদ্ধ হয়েছে, তখন জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু স্লোগান দিয়ে তারপর কালিমা পড়ে মৃত্যুকে আলিঙ্গন করেছে। জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু স্লোগান যারা দেয় না, এটি তাদের রাজনৈতিক দৈন্য। আওয়ামী লীগ কাউকে এই স্লোগান দিতে নিষেধ করেনি। আশা করি সবাই ধীরে ধীরে এই দৈন্য থেকে বের হয়ে আসতে পারবেন।’

তৃণমূল বিএনপির কো-চেয়ারম্যান কে এ জাহাঙ্গীর মজুমদার, মহাসচিব মেজর (অব.) ডা. শেখ হাবিবুর রহমান, ব্যারিস্টার আকবর আমিন বকুল, সহযোগী মহাসচিব পরশ ভাসানী প্রমুখ সভায় বক্তব্য রাখেন।

#

আকরাম/মাহমুদ/মোশারফ/সেলিম/২০১৯/২০৩০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                       নম্বর :  ৩২৬৪

 

২০২১ সালের কলকাতা আন্তর্জাতিক বইমেলা বঙ্গবন্ধুকে উৎসর্গ করার সিদ্ধান্ত

 

ঢাকা, ১৪ ভাদ্র (২৯ আগস্ট) :

 

কলকাতা পাবলিশার্স অ্যান্ড বুকসেলার্স গিল্ড জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদ্যাপনের অংশ হিসেবে ২০২১ সালের কলকাতা আন্তর্জাতিক বইমেলা বঙ্গবন্ধুর নামে উৎসর্গ করা এবং থিম কান্ট্রি হিসেবে বাংলাদেশকে নির্বাচন করার নীতিগত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।

 

সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ আজ ঢাকায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদ্যাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি’র এ সংক্রান্ত এক সভায় উপস্থিত থেকে বলেন, বিশ^জুড়ে বাঙালিকে প্রীতিবন্ধনে আবদ্ধ করতে বঙ্গবন্ধু সবচেয়ে বড় অনুপ্রেরণা। কলকাতা আন্তর্জাতিক বইমেলা বঙ্গবন্ধুর নামে উৎসর্গ করার মধ্য দিয়ে এই সত্য আবারো প্রমাণ হলো।

 

এই আয়োজনের মাধ্যমে বাঙালির মৈত্রীর বন্ধন আরো দৃঢ় হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদ্যাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি’র সভাপতি জাতীয় অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলাম।

 

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদ্যাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি’র কার্যালয়ে কমিটির প্রধান সমন্বয়ক ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন কলকাতা পাবলিশার্স অ্যান্ড বুকসেলার্স গিল্ডের সভাপতি ও পত্রভারতীর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ত্রিদিবকুমার চট্টোপাধ্যায়,  গিল্ডের সাধারণ সম্পাদক ও দে’জ পাবলিশিং-এর কর্ণধার সুধাংশু শেখর দে, তথ্য সচিব আবদুল মালেক, সংস্কৃতি সচিব ড. মোঃ আবু হেনা মোস্তফা কামাল, জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্রের পরিচালক মিনার মনসুর, বাংলাদেশ জ্ঞান ও সৃজনশীল প্রকাশক সমিতির সভাপতি ফরিদ আহমেদ এবং পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতির সভাপতি মোঃ আরিফ হোসেন-সহ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও বাংলা একাডেমির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ। বাংলাদেশের প্রকাশকদের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন সর্বজনাব ওসমান গণি, আহমেদ মাহমুদুল হক, মেজবাহউদ্দীন আহমেদ, মাজহারুল ইসলাম, তারিক সুজাত, সাহিদুল ইসলাম বিজু, কামরুল হাসান শায়ক, মাহ্রুখ মহিউদ্দীন এবং শ্যামল পাল।

 

#

 

লিপি/মাহমুদ/রফিকুল/সেলিম/২০১৯/২০০০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                        &nb
Todays handout (17).docx Todays handout (17).docx

Share with :

Facebook Facebook