তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮

তথ্যবিবরণী ২৬/৯/২০১৮

তথ্যবিবরণী                                                                     নম্বর : ২৬৪০
 
সম্পাদক পরিষদের কাছে তথ্যমন্ত্রীর চিঠি
 
ঢাকা, ১১ আশ্বিন (২৬ সেপ্টেম্বর) :
 
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের বিষয়ে সম্পাদক পরিষদকে বৈঠকে আহ্বান করে চিঠি দিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। বুধবার বিকেলে তথ্যমন্ত্রীর স্বাক্ষরে সম্পাদক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক বরাবর প্রেরিত চিঠিতে আগামী শনিবার পরিষদের ডাকা মানববন্ধনটি স্থগিত রাখার জন্যও অনুরোধ জানানো হয়। 
 
চিঠিতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের বিষয়ে সম্পাদক পরিষদের উদ্বেগ ও বিবৃতিতে তথ্য মন্ত্রণালয় গভীর মনোযোগের সঙ্গে গ্রহণ করেছে উল্লে¬খ করে বলা হয়, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা, অবাধ তথ্যপ্রবাহ ও তথ্য অধিকারের প্রতি সরকারের আন্তরিকতা ও শ্রদ্ধা সমুন্নত রেখে বিষয়টির দ্রুত ও গ্রহণযোগ্য সমাধানের লক্ষ্যে সম্পাদক পরিষদের সঙ্গে বৈঠকের একান্ত প্রয়োজন। 
 
আলোচনা সাপেক্ষে বিষয়টি নিষ্পত্তির সুযোগ রয়েছে বলে মন্ত্রী তাঁর দৃঢ় বিশ্বাসের কথাও জানান চিঠিতে। তথ্যমন্ত্রী চিঠিতে বলেন, আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর রোববার দুপুর ১২টায় তথ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে অথবা পরিষদের সুবিধাজনক সময়ে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার ও প্রধানমন্ত্রীর তথ্য বিষয়ক উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরীসহ তিনি পরিষদের সঙ্গে জরুরি বৈঠকে মিলিত হতে আগ্রহী। 
 
চিঠির শেষাংশে সম্পাদক পরিষদ আহূত আগামী ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ শনিবারের মানববন্ধন কর্মসূচিটি স্থগিত রাখার জন্য আন্তরিকভাবে অনুরোধ জানান হাসানুল হক ইনু। 
 
একই সাথে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে), ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে) এবং ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (ডিআরইউ) নেতৃবৃন্দকেও রোববার বিকাল ৩টায় তথ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে বৈঠকে আহ্বান জানিয়ে চিঠি দিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী। 
 
#
 
আকরাম/সেলিম/পারভেজ/সেলিমুজ্জামান/২০১৮/২০৪৫ ঘণ্টা   
তথ্যবিবরণী                                                                                          নম্বর : ২৬৩৯
 
বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ আন্তর্জাতিক ফুটবল প্রতিযোগিতা
আয়োজনের লক্ষ্যে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা
 
ঢাকা, ১১ আশ্বিন (২৬ সেপ্টেম্বর) :
বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের তত্ত্বাবধানে আগামী ১ থেকে ১২ অক্টোবর ‘বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ আন্তর্জাতিক ফুটবল প্রতিযোগিতা ২০১৮’ এর খেলা দেশের তিনটি ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত হবে। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ১ অক্টোবর সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে এ টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করবেন।
আজ যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে এক আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় এ তথ্য জানানো হয়। সভায় যুব ও ক্রীড়া সচিব মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ সভাপতিত্ব করেন।
‘বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ আন্তর্জাতিক ফুটবল প্রতিযোগিতা ২০১৮’ এর খেলা প্রতিযোগিতায় দু’টি গ্রুপে বাংলাদেশ, প্যালেস্টাইন, ফিলিপাইন, লাওস, নেপাল ও তাজিকিস্তান জাতীয় ফুটবল দল অংশগ্রহণ করবে। গ্রুপ এ-তে প্যালেস্টাইন, নেপাল এবং তাজিকিস্তান, গ্রুপ বি-তে স্বাগতিক বাংলাদেশ, ফিলিপাইন এবং লাওস অংশগ্রহণ করবে। ১ থেকে ৬ অক্টোবর সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে গ্রুপ পর্বের খেলা, ৯ ও ১০ অক্টোবর কক্সবাজারে বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমিন স্টেডিয়ামে দু’টি সেমিফাইনাল এবং ১২ অক্টোবর ঢাকায় বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হবে।
সভায় দেশি-বিদেশি খেলোয়াড়, কর্মকর্তা ও আমন্ত্রিত অতিথিদের বাংলাদেশে অবস্থানকালীন সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করার ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়। সভায় জানানো হয়, ‘বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ আন্তর্জাতিক ফুটবল প্রতিযোগিতা ২০১৮’ এর খেলাসমূহ সুষ্ঠু ও সফলভাবে আয়োজনে দেশের ভাবমূর্তি আরো উজ্জ¦ল হবে।
সভায় মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এবিএম রুহল আজাদ ও মোঃ আনোয়ারুল ইসলাম সরকার, সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার মোহাম্মদ মেজবাহ উদ্দিন চৌধুরী, জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সচিব মোঃ মাসুদ করিম, বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আবু নাইম সোহাগ এবং সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়, বিভাগ, সংস্থার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।
#
 
 
 
আকতারুল/সেলিম/সঞ্জীব/পারভেজ/জয়নুল/২০১৮/২১৩০ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                                  নম্বর : ২৬৩৮ 
 
সকল বাণিজ্য বাধা দূর করতে একমত ভারত-বাংলাদেশ
                                            --- বাণিজ্যমন্ত্রী
ঢাকা, ১১ আশ্বিন (২৬ সেপ্টেম্বর) :
বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, সকল বাণিজ্য বাধা দূর করতে ভারত-বাংলাদেশ একমত। 
আজ ঢাকায় রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় ভারতের বাণিজ্য, শিল্প ও বেসামরিক বিমান চলাচলমন্ত্রী শ্রী সুরেশ প্রভুর নেতৃত্বে প্রতিনিধিদলের সাথে বাণিজ্যমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে এ কথা বলেন বাণিজ্যমন্ত্রী।
বৈঠকে বাংলাদেশ থেকে বিভিন্ন পন্য রপ্তানির ক্ষেত্রে বিদ্যমান বাধাসমূহ তুলে ধরা হয়েছে। পাটজাত পণ্য, খাদ্যপণ্য, ভোজ্য তেলসহ বাংলাদেশের বেশকিছু পণ্য ভারতে রপ্তানির ক্ষেত্রে জটিলতা রয়েছে। অগ্রাধিকারভিত্তিতে সমস্যাগুলো সমাধান করার বিষয়ে উভয়দেশ একমত হয়েছে। বর্ডার হাটের বিষয়ে উভয়দেশের মানুষের মধ্যে ব্যাপক আগ্রহ রয়েছে। বর্তমানে ৪টি বর্ডার হাট চালু রয়েছে, আরো ৬টি বর্ডার হাট চালুর বিষয় চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। এরমধ্যে বাংলাদেশের শেরপুর জেলার নাকুগাঁও এবং ভারতের ডালু সীমান্তে একটি বর্ডারহাট অল্প কিছুদিনের মধ্যে চালু করা হবে। বাংলাদেশ ২১টি পণ্য ভারতে রপ্তানির ক্ষেত্রে বিএসটিআইয়ের টেস্টিং রিপোর্ট গ্রহণ করার অনুরোধ করা হয়েছিল। ইতোমধ্যে ১৫টি পণ্যের রিপোর্ট গ্রহণ করা হয়েছে, অবশিষ্ট ৬টি পণ্যের রিপোর্ট গ্রহণ করতে ভারত সম্মত হয়েছে। এছাড়া আরো ৬টি পণ্যের রিপোর্ট গ্রহণ করার অনুরোধ জানানো হয়েছে। 
বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারত বিভিন্নভাবে বাংলাদেশকে সহায়তা করেছে। ভারত সরকার মুজিব-ইন্দিরা চুক্তি লোকসভায় রেকটিফাই করে তা বাস্তবায়ন করেছে। ছিটমহলবাসী এখন স্বাধীন জীবনযাপান করছে। উভয়দেশের বাণিজ্য এখন ৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বেশি। বাংলাদেশ রপ্তানি করছে ৮৭৩ দশমিক ২৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য, একই সময়ে আমদানি করছে ৮ হাজার ৬১৯ দশমিক ৪০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য। বাংলাদেশ অনেক রপ্তানি পণ্যের কাঁচামাল ও যন্ত্রপাতি ভারত থেকে আমদানি করে অনেক দেশে পণ্য রপ্তানি করে থাকে। সেখানে বাণিজ্য বাংলাদেশের পক্ষে। এখন ভারতের বাজারে বাংলাদেশের তৈরি পণ্যের রপ্তানি বাড়ছে। 
এসময় ভারতের বাণিজ্য, শিল্প ও বেসামরিক বিমান চলাচলমন্ত্রী ও ভারতের প্রতিনিধিদলের প্রধান শ্রী সুরেশ প্রভু সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘বাংলাদেশ দ্রুত উন্নতি লাভ করছে। উভয়দেশের বাণিজ্যক্ষেত্রে কিছু জটিলতা আছে। উভয়দেশের সরকার এবং ব্যবসায়ীদের সাথে আলাপ আলোচনা করে সকল সমস্যার সমাধান করা হবে। বৈঠকে সমস্যাগুলো সমাধানের বিষয়ে একমত হয়েছি। বাংলাদেশের সাথে বাণিজ্য করতে ভারত খুবই আন্তরিক। বাংলাদেশের পক্ষ থেকে বিএসটিআইয়ের টেস্টিং রিপোর্ট গ্রহণ, ভোজ্যতেল রপ্তানির ক্ষেত্রে জটিলতা, নতুন বর্ডারহাট চালু, পাটপণ্য রপ্তানিসহ যে সকল সমস্যার কথা তুলে ধরা হয়েছে, সেগুলো অগ্রাধিকারভিত্তিতে সমাধান করা হবে। ট্যুরিজমকে গুরুত্ব দিয়ে বাংলাদেশের বিপুলসংখ্যক শিক্ষিত যুবককে কাজে লাগানোর সুযোগ এসেছে। এ মুহুর্তে বাংলাদেশের জন্য সার্ভিস সেক্টর খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বৈঠকে উভয় দেশের স্বার্থসংশ্লিষ্ট অনেক বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে, বিষয়গুলোতে একমত হয়েছি। উভয়দেশের স্বার্থ রক্ষা করে বাণিজ্য বৃদ্ধি করা হবে।’
বাংলাদেশের ১০ সদস্যের প্রতিনিধিদলে অন্যান্যের মধ্যে ছিলেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিবের দায়িত্বে অতিরিক্ত সচিব মুন্সী শফিউল হক, ট্যারিফ কমিশনের চেয়ারম্যান জহির উদ্দিন আহমেদ, অতিরিক্ত সচিব (এফটিএ) মোঃ শফিকুল ইসলাম, রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর ভাইস-চেয়ারম্যান বিজয় ভট্টাচার্য্য, স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান তপন কুমার চক্রবর্তী। ভারতের ১০ সদস্যের প্রতিনিধিদলে অন্যান্যের মধ্যে ছিলেন বাংলাদেশে ভারতের হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা, ভারতের বাণিজ্য বিভাগের (এফটি-এসএ) যুগ্মসচিব ভুপিনদার বাল্লা, বেসামরিক বিমান চলাচল মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব শেফালী জুনিগা।
#
বকসী/ফারহানা/সঞ্জীব/জয়নুল/২০১৮/১৯৫৮ ঘণ্টা
তথ্যববিরণী    নম্বর: ২৬৩৭
আগামী জুনরে মধ্যে দশেরে প্রতটিি ইউনয়িনে ইন্টারনটে সংযোগ সম্পন্ন হবে
                                                                     -- মোস্তাফা জব্বার
ঢাকা, ১১ আশ্বনি (২৬ সপ্টেম্বের):
ডাক, টলেযিোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি  মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলছেনে, আগামী বছররে জুনরে মধ্যে দশেরে প্রতটিি ইউনয়িনকে ইন্টারনটে সংযোগরে আওতায় আনা হব।ে তনিি বলনে, বঙ্গবন্ধু শখে মুজবিুর রহমান ১৯৭৫ সালে বতেবুনয়িা ভূউপগ্রহ কন্দ্রে স্থাপনরে মাধ্যমে দশেকে ডজিটিাল যুগে প্রবশেরে সূচনা করে গছেনে। বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শখে হাসনিা মহাকাশে স্যাটলোইটরে সফল উৎক্ষপেণরে মাধ্যমে দশেকে ডজিটিাল যুগে পুরোপুরি প্রবশে করয়িছেনে। তনিি বলনে, র্বতমান সরকার নারীদরে তথ্যপ্রযুক্তরি সাথে সম্পৃক্ত করতে বভিন্নি পদক্ষপে গ্রহণ করছে।ে 
মন্ত্রী আজ আগারগাঁওস্থ আইসটিি অধদিপ্তররে সম্মলেনকক্ষে ভডিওি কনফারন্সেংিয়রে মাধ্যমে ‘প্রযুক্তরি সহায়তায় নারীর ক্ষমতায়ন’ র্শীষক প্রকল্পরে প্রশক্ষিণ র্কাযক্রম উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজতি অনুষ্ঠানে প্রধান অতথিরি বক্তৃতায় এসব কথা বলনে।
মন্ত্রী বলনে, আইসটিি সক্টেরে নারীর র্কমসংস্থানরে সুযোগ বৃদ্ধ,ি নারী উদ্যোক্তা তরৈি এবং র্সবোপরি আইসটিরি মাধ্যমে নারীদরে ক্ষমতায়তি করার লক্ষ্যে ঝযব চড়বিৎ প্রকল্পসহ বভিন্নি র্কমসূচি গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করছ।ে 
বশিষে অতথিরি বক্তৃতায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতমিন্ত্রী জুনাইদ আহ্মদে পলক বলনে, দশেরে উন্নয়ন র্কমকাণ্ড ত্বরান্বতি করতে সকল ক্ষত্রেে নারীদরে সমান অংশগ্রহণ নশ্চিতি করতে হব।ে তনিি বলনে, র্বতমান সরকার এ লক্ষ্যে নরিলসভাবে কাজ করে যাচ্ছ।ে
অনুষ্ঠানে সভাপতত্বি করনে আইসটিি অধদিপ্তররে মহাপরচিালক এ কে এম খায়রুল আলম। অন্যান্যরে মধ্যে উপস্থতি ছলিনে আইসটিি বভিাগরে সচবি জুয়নো আজজি, আইসটিি অধদিপ্তররে অতরিক্তি মহাপরচিালক মালহিা র্নাগসি, প্রযুক্তরি সহায়তায় নারীর ক্ষমতায়ন প্রকল্পরে পরচিালক মোঃ সোলায়মান মণ্ডল।
পরে মন্ত্রী ভডিওি কনফারন্সেংিয়রে মাধ্যমে ২১টি জলোর প্রশক্ষিণ র্কাযক্রম আনুষ্ঠানকিভাবে উদ্বোধন করনে।
#
 
শহদিুল/ফারহানা/সঞ্জীব/পারভজে/রজোউল/২০১৮/১৯৫৪ ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                     নম্বর : ২৬৩৬
 
রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলায় সড়ক পুনর্নির্মাণ কাজের 
উদ্বোধন করেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী
 
পাংশা (রাজবাড়ী), ১১ আশ্বিন (২৬ সেপ্টেম্বর) :
 
সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের আজ রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার শিয়ালডাঙ্গী মোড়ে ‘গুরুত্বপূর্ণ আঞ্চলিক মহাসড়কের যথাযথ মান ও প্রশস্ততায় উন্নীতকরণ’ প্রকল্পের আওতায় তালতলা-শিয়ালডাঙ্গী সড়কের পুনর্নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন। ২২১ কোটি ৫৭ লাখ টাকা ব্যয়ে ৩৩ কিলোমিটার দীর্ঘ সড়কটির পুনর্নির্মাণ কাজ ২০১৯ সালের ডিসেম্বর মাসে শেষ হবে বলে মন্ত্রী জানান। সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর, রাজবাড়ী এর অধীনে সড়কটি পুনর্নির্মাণ হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, সড়কটি পুনর্নির্মাণ হলে রাজবাড়ীসহ আশপাশের এলাকার যাতায়াত ব্যবস্থায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।
 
শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী ও রাজবাড়ী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী কেরামত আলী, রাজবাড়ী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সংসদ সদস্য মোঃ জিল্লুল হাকিম, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ এবং স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তাগণ এসময় উপস্থিত ছিলেন।
 
#
 
ওয়ালিদ/ফারহানা/রফিকুল/সেলিমুজ্জামান/২০১৮/১৯০০ ঘণ্টা   
তথ্যবিবরণী                                                                     নম্বর : ২৬৩৫
 
পায়রা বন্দরের জন্য ৪ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে টার্মিনাল নির্মাণ করা হবে
 
ঢাকা, ১১ আশ্বিন (২৬ সেপ্টেম্বর) :
 
পায়রা বন্দরের জন্য পাইলট বোট, হেভি ডিউটি স্পিডবোট, টাগবোট, বয়া লেয়িং ভেসেল, জরিপ বোট ক্রয় এবং পায়রা-রাজপাড়া সংযোগ সড়ক নির্মাণ কাজ দ্রুততম সময়ের মধ্যে সম্পন্ন করতে নির্দেশ দেয়া  হয়েছে। 
 
নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান আজ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত পায়রা বন্দরের আর্থিক, উন্নয়ন ও প্রশাসনিক সভায় এ নির্দেশ দেন। 
 
পায়রা বন্দরের জন্য ট্রান্সশিপমেন্ট কন্টেইনার টার্মিনাল, ডিপ ওয়াটার কন্টেইনার টার্মিনাল, মাল্টিপারপাস টার্মিনাল, ড্রাই বাল্ক/কয়লা টার্মিনাল নির্মাণ এবং ক্যাপিটাল ড্রেজিং কার্যক্রম শুরু করতে সভায় গুরুত্বারোপ করা হয়। 
 
সভায় জানানো হয়, পায়রা বন্দরের অভ্যন্তরীণ নৌরুটের ড্রেজিং কাজ ইতোমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। ড্রেজিংকৃত বালু পায়রা বন্দরের জন্য অধিগ্রহণকৃত জমি ভরাট ও অন্যান্য সরকারি স্থাপনার কাজে ব্যবহার হয়েছে। 
 
পায়রা বন্দর থেকে মালামাল দেশের অন্যত্র পরিবহণের লক্ষ্যে রাবনাবাদ চ্যানেলে ৬৫০ মিটার দৈর্ঘ্যরে একটি জেটিসহ টার্মিনাল নির্মাণ করা হবে। এজন্য ব্যয় হবে প্রায় চার হাজার কোটি টাকা। এ সংক্রান্ত একটি ডিটেইলড প্রজেক্ট প্রফর্মা (ডিপিপি) পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হয়েছে বলে সভায় জানানো হয়। 
 
সভায় অন্যান্যের মধ্যে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ আবদুস সামাদ ও পায়রা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান কমডোর এম জাহাঙ্গীর আলম উপস্থিত ছিলেন। 
 
#
 
জাহাঙ্গীর/ফারহানা/রফিকুল/সেলিমুজ্জামান/২০১৮/১৮০০ ঘণ্টা   
তথ্যবিবরণী                                                                                          নম্বর : ২৬৩৪ 
 
ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠক 
ঢাকা, ১১ আশ্বিন (২৬ সেপ্টেম্বর) :
ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির ৩৮তম বৈঠক আজ জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত হয়। কমিটির সভাপতি  বজলুল হক হারুন বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন। 
কমিটির সদস্য হাবিবুর রহমান মোল্লা, এ কে এম এ আউয়াল, সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারি, মো. মকবুল হোসেন এবং মোহাম্মদ আমির হোসেন বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন। 
বৈঠকে ৩৭তম বৈঠকে গৃহীত সিদ্ধান্তসমূহের বাস্তবায়ন অগ্রগতি প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হয় এবং এ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।
সভায় অতীত অভিজ্ঞতার আলোকে হজের পরিকল্পনা প্রণয়নের জন্য মন্ত্রণালয়কে ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয়। বৈঠকে জানানো হয় ২০১৮ সালের সমাপ্ত হজে মোট ১৩৯ জন হাজি মৃত্যুবরণ করেন এবং সকলকে সৌদি আরবে দাফন করা হয়েছে।
বৈঠকে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ আনিছুর রহমানসহ মন্ত্রণালয়, অধিদপ্তর এবং বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।   
বৈঠকশেষে স্থায়ী কমিটির সভাপতি জাতীয় সংসদের মিডিয়া সেন্টারে ২০১৮ সালে সম্পাদিত হজ কার্যক্রম এবং ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে সরকার কর্র্তৃক গৃহীত বিভিন্ন উন্নয়ন কার্যক্রমের ওপর আয়োজিত ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন। এসময় স্থায়ী কমিটির সদস্যবৃন্দ, ধর্মসচিব এবং সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
 
#
নুরুল/অনসূয়া/রেজ্জাকুল/শামীম/২০১৮/১৫৩২ ঘণ্টা 
তথ্যবিবরণী            নম্বর : ২৬৩৩ 
 
আসেপ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে ব্রাসেলসে গেলেন স্পিকার 
ঢাকা, ১১ আশ্বিন (২৬ সেপ্টেম্বর):
স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী ১০ঃয অংরধ-ঊঁৎড়ঢ়ব চধৎষরধসবহঃধৎু চধৎঃহবৎংযরঢ় গববঃরহম (অঝঊচ ১০) অনুষ্ঠানে যোগ দিতে আজ ব্রাসেলসের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করেছেন। তিনি ২৭ সেপ্টেম্বর আসেপ-১০ এর উদ্বোধন সেশনে বক্তব্য রাখবেন এবং উপস্থাপন ছাড়াও বিভিন্ন কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করবেন। 
স্পিকারের নেতৃত্বে ইমরান আহমেদ এমপি এবং বেগম ফজিলাতুন নেসা বাপ্পি এমপি অনুষ্ঠানে যোগদান করবেন।
স্পিকারকে বিদায় জানাতে সংসদ সচিবালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উপস্থিত ছিলেন। 
#
 
তারিক/অনসূয়া/রেজ্জাকুল/আসমা/২০১৮/১৫০০ ঘণ্টা 
তথ্যবিবরণী                                                                                         নম্বর : ২৬৩২ 
 
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ১ম বর্ষ স্নাতক ভর্তির মেধা তালিকা আগামীকাল  
 
ঢাকা, ১১ আশ্বিন (২৬ সেপ্টেম্বর) :
 
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে ১ম বর্ষ ¯œাতক (সম্মান) ভর্তি কার্যক্রমে বিষয়ভিত্তিক 
১ম মেধা তালিকা ২৭ সেপ্টেম্বর প্রকাশ করা হবে। ঝগঝ এর মাধ্যমে বিকেল ৪টা থেকে যে কোনো মোবাইল মেসেজ অপশনে গিয়ে- হঁ<ংঢ়ধপব>ধঃযহ<ংঢ়ধপব>ৎড়ষষ হড়. লিখে ১৬২২২ নম্বরে ঝবহফ করলে ফল জানা যাবে এবং রাত ৯ টায় ওয়েব সাইট িি.িহঁ.ধপ.নফ/ধফসরংংরড়হং  থেকে ফল পাওয়া যাবে।
 
এ মেধা তালিকায় স্থানপ্রাপ্ত ভর্তিচ্ছু কোনো প্রার্থী পূর্ববর্তী শিক্ষাবর্ষে ¯œাতক (সম্মান), ¯œাতক (সম্মান) প্রফেশনাল ও ¯œাতক (পাস) নিয়মিত/প্রাইভেট কোর্সে ভর্তি হয়ে থাকলে তাকে অবশ্যই ৭ অক্টোবরের মধ্যে পূর্ববর্তী শিক্ষাবর্ষের ভর্তি বাতিল করতে হবে। অন্যথায় দ্বৈত ভর্তি হলে তার উভয় ভর্তি বাতিল বলে গণ্য হবে। এ শিক্ষাবর্ষে ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের ক্লাস ১১ অক্টোবর থেকে শুরু হবে।
 
এন ইউ’র মাস্টার্স শেষপর্ব পরীক্ষার ফরম পূরণের সময় বৃদ্ধি
 
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৬ সালের মাস্টার্স এমএ/এমএসএস/এমবিএস/ এমএসসি ও এম মিউজ শেষ পর্ব (আইসিটি সহ) পরীক্ষার আবেদন ফরম পূরণের সময় আগামী ৭ অক্টোবর পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হয়েছে। 
এ সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েব সাইট িি.িহঁনফ.রহভড়/সভ ও িি.িহঁ.ধপ.নফ থেকে জানা যাবে।  
 
#
ফয়জুল/অনসূয়া/রেজ্জাকুল/শামীম/২০১৮/১২৪৫ ঘণ্টা 
 
তথ্যবিবরণী                                                                                         নম্বর : ২৬৩০
বিশ্ব পর্যটন দিবসে প্রধানমন্ত্রীর বাণী
ঢাকা, ১১ আশ্বিন (২৬ সেপ্টেম্বর) :
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২৭ সেপ্টেম্বর বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষে নি¤েœাক্ত বাণী প্রদান করেছেন :
“বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশও ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ‘বিশ্ব পর্যটন দিবস’ পালন করা হচ্ছে জেনে আমি আনন্দিত। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য 'ঞড়ঁৎরংস ধহফ ঃযব উরমরঃধষ ঞৎধহংভড়ৎসধঃরড়হ' অর্থাৎ ‘পর্যটন শিল্প বিকাশে তথ্য প্রযুক্তি’ সময়োপযোগী হয়েছে বলে আমি মনে করি।
বর্তমান বিশ্বে পর্যটন অন্যতম বৃহৎ শিল্প হিসেবে স্বীকৃত। আমাদের দেশ অত্যন্ত পর্যটন সম্ভাবনাময় একটি দেশ। এ শিল্পের গুরুত্ব অনুধাবন করে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭২ সালে বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশন গঠন করেন। বাংলাদেশের অফুরন্ত পর্যটন সম্ভাবনাকে দেশি বিদেশি পর্যটকদের কাছে তুলে ধরতে আমাদের সরকার সুনির্দিষ্ট কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করেছে।
দেশি বিদেশি পর্যটকদের আকৃষ্ট করতে আমাদের রয়েছে অনন্য প্রাকৃতিক সৌন্দর্যম-িত পর্যটন আকর্ষণ, বিশ্ব ঐতিহ্যসমূহ, সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য এবং মানুষকে কাছে টেনে নেওয়ার মতো সহজাত আতিথেয়তাপূর্ণ বাঙালি মানস। পর্যটন শিল্পের সম্ভাবনা উপলব্ধি করে আমরা জাতীয় পর্যটন নীতিমালা ২০১০ প্রণয়ন করেছি। বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড গঠন করেছি। টেকসই পর্যটন উন্নয়নে জনসাধারণকে সম্পৃক্ত করতে এবং তাঁদের নিকট পর্যটনের সুফল পৌঁছে দিতে কমিউনিটি বেইজড ট্যুরিজমের ওপর গুরুত্বারোপ করেছি। দেশের পর্যটন শিল্পের সামগ্রিক উন্নয়নের লক্ষ্যে আমরা একটি পর্যটন মহাপরিকল্পনা প্রণয়নের কাজে হাত দিয়েছি।
আমরা সরকার গঠনের পর থেকেই তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উন্নয়নে ব্যাপক কার্যক্রম গ্রহণ করেছি। ডিজিটাল বাংলাদেশ আজ স্বপ্ন নয়, বাস্তবতা। পর্যটন শিল্পের সর্বক্ষেত্রে ডিজিটাল ব্যবস্থা প্রবর্তন করে এই শিল্পকে একটি অন্যতম অর্থনৈতিক খাত হিসেবে প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে আমাদের সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।
পর্যটন ব্যবসা পরিচালনায় ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে অবদান রাখতে সরকারি উদ্যোগের পাশাপাশি আমি বেসরকারি উদ্যোক্তাদেরও স্বতঃস্ফূর্তভাবে এগিয়ে আসার আহ্বান জানাই।
আমি ‘বিশ্ব পর্যটন দিবস ২০১৮’ এর সার্বিক সাফল্য কামনা করছি। 
জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু
বাংলাদেশ চিরজীবী হোক।”
#
ইমরুল/অনসূয়া/সুবর্ণা/শামীম/২০১৮/১০১৬ ঘণ্টা 
 
 
তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ২৬২৮
বিশ্ব পর্যটন দিবসে রাষ্ট্রপতির বাণী
ঢাকা, ১১ আশ্বিন (২৬ সেপ্টেম্বর) :
রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ ২৭ সেপ্টেম্বর বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষে নি¤েœাক্ত বাণী প্রদান করেছেন :
“প্রতিবছরের ন্যায় এ বছরও যথাযথ গুরুত্বের সাথে বাংলাদেশে ‘বিশ্ব পর্যটন দিবস’ পালিত হচ্ছে জেনে আমি আনন্দিত। বর্তমান প্রেক্ষাপটে এ বছরের প্রতিপাদ্য 'ঞড়ঁৎরংস ধহফ ঃযব উরমরঃধষ ঞৎধহংভড়ৎসধঃরড়হ' অর্থাৎ ‘পর্যটন শিল্প বিকাশে তথ্যপ্রযুক্তি’ পর্যটন সংশ্লিষ্ট সকল খাতে প্রযুক্তির ব্যবহারকে উৎসাহিত করবে বলে আমি মনে করি।
বাংলাদেশ বিপুল পর্যটন সম্ভাবনার দেশ। আমাদের রয়েছে হাজার বছরের ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি। আছে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য, জীববৈচিত্র্য ও স্বকীয় জীবনধারা। নিজেদের সংস্কৃতি, খাদ্যাভ্যাস, হস্তশিল্প, খেলাধুলা ও উৎসবসমূহ দেশি বিদেশি পর্যটকদের কাছে আকর্ষণীয়ভাবে তুলে ধরার মধ্যেই রয়েছে অফুরন্ত সুযোগ ও সম্ভাবনা। নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টিসহ দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জনে পর্যটন শিল্পের ভূমিকা খুবই উজ্জ্বল। 
সরকারের সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা এবং গৃহীত কর্মসূচির ফলে দেশের সম্ভাবনাময় শিল্প দ্রুত গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। দেশের বহুমূখী পর্যটন সম্ভাবনা ও পর্যটন আকর্ষণসমূহ দেশে বিদেশে পর্যটকদের কাছে তুলে ধরার লক্ষ্যে ডিজিটাল পদ্ধতিতে প্রচারণা চালানো হচ্ছে। সরকার পর্যটকদের নিরাপদ ও স্বাচ্ছন্দ্যময় ভ্রমণ নিশ্চিত করতে ট্যুরিস্ট পুলিশ প্রবর্তন করেছে। বিভিন্ন দেশের নাগরিকদের বাংলাদেশ ভ্রমণে ভিসা অন অ্যারাইভ্যাল সুবিধা প্রদান করা হয়েছে। এছাড়া কমিউনিটি বেইজড ট্যুরিজম, ইয়ুথ ট্যুরিজম, অ্যাডভেঞ্চার ট্যুরিজম, মাইস (গওঈঊ) ট্যুরিজম উন্নয়নের লক্ষ্যে সরকারের পক্ষ থেকে পৃষ্ঠপোষকতা দেয়ার পাশাপাশি পর্যটন খাতে বিনিয়োগের জন্য দেশি বিদেশি বিনিয়োগকারীদের আকৃষ্ট করতে বিভিন্ন প্রণোদনামূলক সুযোগ সুবিধা প্রদান করা হচ্ছে। 
বাংলাদেশকে ২০২১ সালের মধ্যে তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর মধ্য আয়ের দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে পর্যটন শিল্পের অবদান নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। প্রযুক্তিগত উত্তরণ ঘটিয়ে দেশের পর্যটন শিল্পের প্রচার ও উন্নয়নে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি ট্যুর অপারেটর, হোটেল ও এভিয়েশন সংশ্লিষ্ট সকলকে একসাথে কাজ করতে হবে। 
বিশ্ব পর্যটন দিবস ২০১৮ সফল হোক এ কামনা করি।
খোদা হাফেজ, বাংলাদেশ চিরজীবী হোক।”
#
হাসান/অনসূয়া/সুবর্ণা/শামীম/২০১৮/১০৩৩ ঘণ্টা 
 
Todays handout (7).docx Todays handout (7).docx

Share with :

Facebook Facebook