তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৯ ডিসেম্বর ২০১৬

তথ্যবিবরণী 29 Dec 2016

তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ৩৯৭২

‘স্বাধীনতা ও ইত্তেফাক’ প্রদর্শনী উদ্বোধন করলেন তথ্যমন্ত্রী 

ঢাকা, ১৫ পৌষ (২৯ ডিসেম্বর) : 
    
    দৈনিক ইত্তেফাকের ৬৪ বছরে পদার্পণ উপলক্ষে ‘স্বাধীনতা ও ইত্তেফাক’ শীর্ষক স'াপনা শিল্প প্রদর্শনী উদ্বোধন করেছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। 

    আজ রাজধানীর শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের নলিনীকানত্ম ভট্টশালী গ্যালারিতে এ প্রদর্শনী উদ্বোধনকালে উপসি'ত ছিলেন পরিবেশ ও বনমন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু, শিল্পী হাশেম খান ও জাতীয় জাদুঘরের মহাপরিচালক ফয়জুল লতিফ চৌধুরী। 

    তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু অনুষ্ঠানে তার বক্তব্যে ৬৪ বছরে পদার্পণ উপলক্ষে ইত্তেফাকের সকলকে এবং এ ব্যতিক্রমী প্রদর্শনীর শিল্পীদের অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার প্রশ্নে কোনো আপস নেই। দেশের শিল্পী ও গণমাধ্যম সমাজ এ বিষয়ে তাদের দৃঢ়তা অড়্গুণ্ন রাখবে।   

    দৈনিক ইত্তেফাকের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক তাসমিমা হোসেন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। 

    শিল্পী অভিজিৎ চৌধুরীর তত্ত্বাবধানে ১২ জন তরম্নণ শিল্পীর শব্দকল্প ও চিত্রবিষয়ক তিন দিনের এ স'াপনা শিল্প প্রদর্শনী প্রতিদিন সকাল ১০টা হতে বিকাল ৪টা পর্যনত্ম সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

#

আকরাম/মাহমুদ/মোশারফ/সেলিমুজ্জামান/২০১৬/২০২০ ঘণ্টা


তথ্যবিবরণী                                                                                                                নম্বর : ৩৯৭০

নির্বাচন কমিশন গঠনে রাষ্ট্রপতির সাথে বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট-বিএনএফ এর আলোচনা

ঢাকা, ১৫ পৌষ (২৯ ডিসেম্বর) :
    রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সাথে আজ বঙ্গভবনে বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট-বিএনএফ এর প্রেসিডেন্ট এসএম আবুল কালাম আজাদ এমপি’র নেতৃত্বে ১৫ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল নির্বাচন কমিশন গঠন সংক্রানত্ম বিষয়ে আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন। 
    রাষ্ট্রপতি বিএনএফ প্রতিনিধিদলকে বঙ্গভবনে স্বাগত জানান। তিনি বলেন,  নির্বাচন কমিশন গঠনে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের মতামত অত্যনত্ম গুরম্নত্বপূর্ণ। ইতোমধ্যে রাজনৈতিক দলসমূহ গঠনমূলক বিভিন্ন প্রসত্মাবনা পেশ করেছেন। রাষ্ট্রপতি আশা প্রকাশ করেন, দলগুলোর মতামত ও  প্রসত্মাবনা একটি শক্তিশালী নির্বাচন কমিশন গঠনে ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে। 
    বঙ্গভবনে আলাচনায় আমন্ত্রণ জানানোর জন্য বিএনএফ এর প্রেসিডেন্ট রাষ্ট্রপতিকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান। তিনি বলেন, তার দল সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানে সবসময়ই একটি নিরপেক্ষ শক্তিশালী নির্বাচন কমিশন প্রত্যাশা করে। তিনি নির্বাচন কমিশনের ধারাবাহিকতা রক্ষার জন্য একাধিক ধাপে নির্বাচন কমিশনার নিয়োগের প্রসত্মাব দেন। এছাড়া তিনি নির্বাচন কমিশনে একজন অবসরপ্রাপ্ত আইজিপি রাখারও প্রসত্মাব দেন। 
    আলোচনাকালে বিএনএফ এর ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল বেগম নাসিরা খাতুনসহ প্রতিনিধিদলের অন্য সদস্যগণ উপসি'ত ছিলেন।
    রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের সচিব সম্পদ বড়-য়া, রাষ্ট্রপতির সামরিক সচিব মেজর জেনারেল মো. সরোয়ার হোসেন এবং রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব মো. জয়নাল আবেদীন এ সময় উপসি'ত ছিলেন।
#
তথ্যবিবরণী                                                                                                            নম্বর : ৩৯৭১

নির্বাচন কমিশন গঠনে রাষ্ট্রপতির সাথে ইসলামী ঐক্যজোটের আলোচনা
ঢাকা, ১৫ পৌষ (২৯ ডিসেম্বর) :
    রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সাথে আজ বঙ্গভবনে ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান মাওলানা আবদুল লতিফ নেজামী’র নেতৃত্বে ১০ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল নির্বাচন কমিশন গঠন সংক্রানত্ম বিষয়ে আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন। 
    রাষ্ট্রপতি ইসলামী ঐক্যজোটের প্রতিনিধিদলকে বঙ্গভবনে স্বাগত জানান। তিনি বলেন, সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য একটি সুষ্ঠু রাজনৈতিক পরিবেশ দরকার এবং এ জন্য রাজনৈতিক দলগুলোকে ঐকমত্যে পৌঁছাতে হবে। রাষ্ট্রপতি বলেন, সততা ও নিষ্ঠা যে কোন গঠনমূলক কাজের জন্য অপরিহার্য। নির্বাচন কমিশন সততা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করলে সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠান সম্ভব। 
    বঙ্গভবনে আলাচনায় আমন্ত্রণ জানানোর জন্য ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান রাষ্ট্রপতিকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান। তিনি বলেন, জাতি আস'াভাজন ও বিশ্বাসযোগ্য একটি নির্বাচন কমিশন দেখতে চায়। নির্বাচন কমিশন গঠনের লক্ষ্যে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সাথে রাষ্ট্রপতির আলোচনাকে সময়োপযোগী উলেস্নখ করে তারা বলেন, পুরো জাতির দৃষ্টি এখন রাষ্ট্রপতির ওপর। রাজনৈতিক সমস্যা রাজনৈতিকভাবে সমাধান হওয়া উচিত। প্রতিনিধিদলটি ৫ সদস্যের পরিবর্তে ৮ সদস্যের নির্বাচন কমিশন গঠনের প্রসত্মাব করেন। 
    নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের উলেস্নখ করে তারা বলেন, কয়েক বছরের মধ্যে এটি একটি আদর্শ নির্বাচন। এ নির্বাচন মানুষের মধ্যে আশার সঞ্চার করেছে। তারা নির্বাচন সক্রানত্ম মামলা নিষ্পত্তিতে যে দীর্ঘ সময় লাগে তা কমিয়ে আনারও প্রসত্মাব করেন। প্রতিনিধিদলটি ইতোপূর্বে ত্রম্নটিপূর্ণ ভোটার তালিকা প্রণয়ন করে যারা দেশ ও জাতির আর্থিক ও নৈতিক ক্ষতি সাধন করেছে তাদের চিহ্নিত করে বিচারের দাবি জানান। আলোচনাকালে ইসলামী ঐক্যজোটের মহাসচিব মুফতী ফয়জুলস্নাহসহ অন্য সদস্যগণ উপসি'ত ছিলেন। 
    রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের সচিব সম্পদ বড়-য়া, রাষ্ট্রপতির সামরিক সচিব মেজর জেনারেল মো. সরোয়ার হোসেন এবং রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব মো. জয়নাল আবেদীন এ সময় উপসি'ত ছিলেন।
#
মাহমুদুল/মাহমুদ/মোশারফ/জয়নুল/২০১৬/২০০০ঘণ্টা  

তথ্যবিবরণী                                                                                          নম্বর : ৩৯৬৯


অসৎ সমবায়ীদের আইনের আওতায় আনতে হবে
                 -- পলস্নী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা, ১৫ পৌষ (২৯ ডিসেম্বর) :
ব্যক্তি স্বার্থে সমবায় সমিতি অপব্যবহারকারী অসৎ সমবায়ীদের শীঘ্রই আইনের আওতায় আনতে হবে। মামলাবাজ সমবায়ীদের চিহ্নিত করে অনিষ্পন্ন মামলাগুলো দ্রম্নত নিষ্পন্ন করতে হবে। পলস্নী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মো. মসিউর রহমান রাঙ্গা আজ পলস্নী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের সম্মেলন কড়্গে সমবায় অধিদপ্তরের সমবায় খাতের বিদ্যমান সমস্যা, সম্ভাবনা, নীতিমালা প্রণয়ন ও কর্মকৌশল নির্ণয় বিষয়ক এক আলোচনা সভায় সভাপতির ভাষণে এসব কথা বলেন। এ সময় বিভাগের সচিব ড. প্রশানত্ম কুমার রায়সহ সংশিস্নষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপসি'ত ছিলেন।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, সমবায় খাতের হৃতগৌরব পুনরম্নদ্ধার ও বিকশিত করতে সমবায়ভিত্তিক উৎপাদনশীল ও কর্মমুখী নতুন নতুন প্রকল্প প্রণয়ন করতে হবে। এসব প্রকল্প বাসত্মবায়নের মাধ্যমে গ্রামীণ বেকার যুবক-যুবতী ও হতাশাগ্রসত্ম বিপুল জনগোষ্ঠীকে সমবায় সমিতিতে নিবন্ধিত করে ব্যাপক কর্মসংস'ান সৃষ্টি ও দারিদ্র্য বিমোচন তথা জাতীয় আর্থসামাজিক উন্নয়নের মূল স্রোতধারায় ফিরিয়ে আনা সম্ভব হবে।
    বিভাগের সচিব ড. প্রশানত্ম কুমার রায় সমবায় খাতের বিকাশে যুগোপযোগী সমবায়বান্ধব আইন প্রণয়ন, সমবায় কর্মকর্তা-কর্মচারী ও সমবায়ীদের প্রশিড়্গণ, গবেষণা কার্যক্রম, প্রয়োজনীয় জনবল নিয়োগ এবং সমিতিসমূহ নিবিড় মনিটরিং কার্যক্রম জোরদার করার ওপর গুরম্নত্বারোপ করেন।
#

আহসান/মাহমুদ/মোশারফ/জয়নুল/২০১৬/১৯২০ঘণ্টা 

Handout                                                                                                          Number : 3968

 

Bangladesh demands early repatriation of

all Myanmar citizens from Bangladesh

 

Dhaka, December 29:

 

            Ambassador of Myanmar to Bangladesh Myo Myint Than was called to the Ministry of Foreign Affairs to meet Ambassador Kamrul Ahsan, Secretary (Bilateral & Consular) in the afternoon today.

 

            During the meeting, Ahsan expressed deep concern at the continued influx of Muslims from the Rakhine State of Myanmar into Bangladesh. He mentioned that around 50,000 Myanmar citizens took shelter into Bangladesh since 9 October 2016. There are around 3,00,000 Myanmar nationals staying in Bangladesh for years. The Secretary (Bilateral & Consular) demanded early repatriation of entire Myanmar population staying in Bangladesh and expressed Bangladesh’s readiness to engage with Myanmar to discuss process and modalities of repatriation with Myanmar. He also requested the Myanmar government to urgently address the “root cause” of the problem in the Rakhine State so that Rakhine Muslims are not required to desperately seek shelter across the border.

 

            Bangladesh also protested the unprovoked attack and firing on a Bangladeshi fishing boat named ‘FV JANIVA KHALEDA 1 on 27 December 2016 fishing off the south-east of the Saint Martin’s Island within Bangladesh’s territorial water by a Myanmarese trawler that left 4 Bangladeshi fishermen seriously injured. Ahsan mentioned that the Myanmarese trawler with armed people on board took the Bangladeshi fishing boat along with the fishermen including the injured ones to a nearby patrolling Myanmarese Navy vessel. Myanmar navy personnel seized the belongings of the fishermen and released them after 4 hours. Secretary (Bilateral & Consular) demanded appropriate investigation into the matter, bring the responsibles to justice and sought assurance that the Myanmarese Navy would abstain from attacking innocent fishermen of Bangladesh in future.

#

Mahmud/Mosharaf/Salimuzzaman/2016/1900  Hrs.


তথ্যবিবরণী                                                                                         নম্বর :  ৩৯৬৭

বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে বাংলাদেশ হতো না 
                             -- চিফ হুইপ

ঢাকা, ১৫ পৌষ (২৯ ডিসেম্বর) : 
    

বঙ্গবন্ধু মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশ একসূত্রে গাঁথা বলে মনত্মব্য করেছেন জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ। আজ ঢাকায় একটি হোটেলে সার্ক চলচ্চিত্র সাংবাদিক ফোরাম বাংলাদেশ ও জয়বাংলা মোশন পিকচার এর যৌথ উদ্যোগে বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধ এবং আমাদের চলচ্চিত্রের গল্প শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ডিসেম্বর মাস বিজয়ের মাস, আনন্দের মাস। সুদীর্ঘ সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে আমরা ১৬ই ডিসেম্বর বিজয় অর্জন করি। আর একমাত্র বঙ্গবন্ধুর আহ্বানেই এদেশের আপামর জনতা মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করে। তিনি বলেন বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে মুক্তিযুদ্ধের জন্ম হতো না আর মুক্তিযুদ্ধের জন্ম না হলে বাংলাদেশের জন্ম হতো না। 

তিনি আরো বলেন, জাতির জনকের কন্যা শেখ হাসিনা যথাযথ বিচারিক প্রক্রিয়ায় বঙ্গবন্ধু হত্যায় জড়িতদের বিচারের মাধ্যমে জাতিকে গস্নানি থেকে মুক্ত করেছেন।

     চিফ হুইপ বলেন, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য অর্থের পাশাপাশি উপযুক্ত উদ্যোগের প্রয়োজন। তিনি বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে ভবিষ্যতে চলচ্চিত্র নির্মাণ করা হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

    
তিনি তরম্নণ প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে দেশ সেবায় আত্ম নিয়োগের আহ্বান জানান। সার্ক চলচ্চিত্র সাংবাদিক ফোরাম বাংলাদেশ-এর সভাপতি রেদুয়ান খন্দকার এর সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন  কবি মেজর (অবঃ) শেখ হাবিবুর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্ব আহসান উলস্নাহ মনি, কবি দিদার চৌধুরী প্রমুখ।

#

সাব্বির/মাহমুদ/সেলিম/মোশারফ/সেলিমুজ্জামান/২০১৬/১৭৪০ ঘণ্টা


তথ্যবিবরণী                                                                                          নম্বর : ৩৯৬৬


সচিবালয় মসজিদে ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী’র দোয়া ও মিলাদ মাহফিল

ঢাকা, ১৫ পৌষ (২৯ ডিসেম্বর) :

    পবিত্র ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী-২০১৬ যথাযথ মর্যাদায় উদ্‌যাপন উপলড়্গে আগামী ১৫ জানুয়ারি ২০১৭ তারিখ বাদ জোহর বাংলাদেশ সচিবালয় মসজিদে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে।

#

মাহমুদ/মোশারফ/জয়নুল/২০১৬/১৭৫০ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ৩৯৬৫

ব্রুনাইয়ে আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস উদ্যাপন

ব্রুনাই দারুসসালাম, ২৯ ডিসেম্বর :  

বাংলাদেশ হাইকমিশন, ব্রুনাই দারুসসালামে আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস-২০১৬ উদ্যাপন করা হয়েছে। বাংলাদেশ হাইকমিশন ব্রুনাই শ্রম উইং আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ব্রুনাই দারুসসালামে বাংলাদেশের নবনিযুক্ত হাইকমিশনার এয়ার ভাইস মার্শাল মাহমুদ হোসেন। অনুষ্ঠানের শুরুতেই কাউন্সেলর (শ্রম) শফিউল আজিম বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রী মহোদয়ের বাণী পাঠ করেন।
    প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে ব্রুনাই ও বাংলাদেশের গভীর সম্পর্কের কথা তুলে ধরে বলেন, এ দেশের উন্নয়নে প্রবাসী বাংলাদেশি কর্মী ও উদ্যোক্তাগণ যেমন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছেন একই সাথে রেমিটেন্স প্রেরণের মাধ্যমে নিজ দেশের অর্থনীতির মজবুত ভিত্তি তৈরিতে অবদান রাখছেন। তিনি প্রবাসীদের কল্যাণে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে সরকারের গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা উল্লেখ করে বাংলাদেশের মর্যাদা ও স্বার্থ রক্ষায় অভিবাসন প্রক্রিয়ায় সুশাসন প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট সকলের দায়িত্বের কথাও স্মরণ করিয়ে দেন। তিনি আরো বলেন, আসন্ন ভবিষ্যতে ব্রুনাইতে বাংলাদেশি অভিবাসীদের চাহিদা বাড়বে। এখন থেকেই উভয় সরকারের দায়িত্বশীল সংস্থাগুলোর সহযোগিতা এবং সহমর্মিতা একান্ত প্রয়োজন বলে তিনি মন্তব্য করেন।
    অনুষ্ঠানে রাজকীয় ব্রুনাই পুলিশ ফোর্স, অ্যাটর্নি জেনারেল অফিস, ডিপার্টমেন্ট অভ্ লেবার, ডিপার্টমেন্ট অভ্ ইমিগ্রেশণ ও প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের প্রতিনিধি সমন্বয়ে গঠিত ‘ব্রুনাই মানবপাচার সংক্রান্ত কমিটি’ মানবপাচার সংক্রান্ত আইনের তদন্ত প্রক্রিয়া ও প্রতিরোধ সম্পর্কে সচেতনতামূলক ব্রিফিং উপস্থাপন করে। বাংলাদেশের মানবপাচার প্রতিরোধ ও দমন আইন ২০১২ এর বিভিন্ন দিক ও এর প্রয়োগ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা হয় ও প্রশ্নোত্তর পর্ব অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের জনশক্তি সংক্রান্ত প্রামান্য চিত্র ‘ঞযব ডড়ৎশ-যবৎড়বং ড়ভ ইধহমষধফবংয’ প্রদর্শন করা হয়।
#
শফিউল/অনসূয়া/নুসরাত/সাহেলা/রফিকুল/আসমা/২০১৬/১৫৩০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                              নম্বর : ৩৯৬৪

সরকার নদীর দখল ও দূষণরোধে শক্তিশালী কমিটি গঠন করেছে
                                                                - নৌমন্ত্রী
ঢাকা, ১৫ পৌষ (২৯ ডিসেম্বর) :  
নৌপরিবহণ মন্ত্রী শাজাহান খান বলেছেন, সরকার নদীর দখল ও দূষণরোধে শক্তিশালী কমিটি গঠন করেছে। কর্ণফুলিসহ ঢাকার চারপাশের নদীগুলোকে দখল ও দূষণমুক্ত করতে নৌবাহিনী সহযোগিতা করবে। শেখ হাসিনার সরকার যেভাবে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস রুখে দিয়েছে, ঠিক সেভাবেই নদী দখল ও দূষণকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। নদীর নাব্যতা রক্ষা অবৈধ দখলমুক্ত ও দূষণরোধে ২০১০ সালে ‘টাস্কফোর্স’ গঠন করা হয়েছে। টাস্কফোর্সের মাধ্যমে নদী তীরে ‘সীমানা পিলার’ বসানো হয়েছে। হাজারীবাগ থেকে ট্যানারি সাভারে স্থানান্তরে টাস্কফোর্স কার্যকর ভূমিকা রাখছে।
নৌমন্ত্রী আজ ঢাকায় সিরডাপ মিলনায়তনে ‘বাংলাদেশের নদনদী দখল, দূষণ প্রতিরোধ এবং জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে’ দিনব্যাপী সেমিনারের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন।
    মন্ত্রী বলেন, নদী খননের জন্য ড্রেজার প্রয়োজন। কিন্তু ৭৫ পরবর্তি কোন সরকার ড্রেজার ক্রয় করেননি। আওয়ামী লীগ সরকারের গত মেয়াদে বিআইডব্লিউটিএ ১৩টি ড্রেজার সংগ্রহ করেছে। আরো ২০টি ড্রেজার সংগ্রহের কার্যক্রম চলমান রয়েছে। নদীর তলদেশ থেকে বর্জ্য উত্তোলনের জন্য তিনটি এক্সকাভেটর ক্রয় করা হয়েছে, আরো ৬টি এক্সকাভেটর ক্রয় প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।
তিনি আরো বলেন, দেশের অভ্যন্তরীণ ৫৩টি নৌপথ ড্রেজিং এর মাধ্যমে হারিয়ে যাওয়া নৌপথ উদ্ধার তথা সেগুলো সচল রাখার জন্য বর্তমান সরকার কর্তৃক ১২ হাজার কোটি টাকার মেগা প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। এ পর্যন্ত প্রায় এক হাজার নৌপথ উদ্ধার করা হয়েছে ও প্রায় তিন হাজার একর জমি উদ্ধার করা হয়েছে। মংলা-ঘষিয়াখালি চ্যানেল পুনরায় খনন করে নৌপথটি জাহাজ চলাচলের উপযোগি করা হয়েছে।
জাতীয় নদী রক্ষা কমিশন বাংলাদেশের নদনদী দখল, দূষণ প্রতিরোধ এবং জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে দিনব্যাপী সেমিনারের আয়োজন করে। সেমিনারে মোট তিনটি প্রবন্ধ উপস্থাপন করা হয়। এ সেমিনারে বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও সংস্থার শতাধিক প্রতিনিধি অংশ নেয়।
জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যান মো. আতাহারুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ড. জাফর আহমেদ খান, নৌপরিবহণ মন্ত্রণালয়ের সচিব অশোক মাধব রায় এবং জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের সার্বক্ষণিক সদস্য মো. আলাউদ্দিন।
#

জাহাঙ্গীর/অনসূয়া/নুসরাত/সাহেলা/রেজ্জাকুল/আসমা/২০১৬/১৫০০ ঘণ্টা

Todays handout (2).docx Todays handout (2).docx

Share with :