তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১১ জুন ২০১৮

তথ্যবিবরণী ১১ জুন ২০১৮

তথ্যবিবরণী                                                                                          নম্বর : ১৭২৪

সমবায়কে অর্থনৈতিক উন্নয়নের চালিকা শক্তি হিসেবে ব্যবহার করতে হবে
                                               ---এলজিআরডি মন্ত্রী
ঢাকা, ২৮ জ্যৈষ্ঠ (১১ জুন) :

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, বঙ্গবন্ধু সমবায়কে দারিদ্র্য বিমোচনের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করার জন্য সমবায়কে মালিকানার দ্বিতীয় খাত হিসেবে সংবিধানে অন্তর্ভুক্ত করেছেন। বঙ্গবন্ধুর প্রদর্শিত সমবায় ব্যবস্থাকে অর্থনৈতিক উন্নয়নের চালিকাশক্তি হিসেবে ব্যবহার করতে হবে।

মন্ত্রী আজ আগারগাঁওস্থ সমবায় ভবনে  বিসিএস সমবায় এসোসিয়েশন আয়োজিত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, সমবায়কে যুগোপযোগী করে গড়ে তুলতে সমস্যাসমূহ চিহ্নিত করতে হবে। কোনো আইনগত সীমাবদ্ধতা থাকলে তা দূর করা হবে। মন্ত্রী সমবায়ের সমস্যা খুঁজে বের করতে প্রতিটি বিভাগে সমবায়ীদের সম্মেলন আয়োজনের কথা জানান।

বিসিএস সমবায় এসোসিয়েশনের সভাপতি ও অতিরিক্ত নিবন্ধক আসাদুজ্জামানের সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব ড. জাফর আহমেদ খান, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের সচিব এস এম গোলাম ফারুক এবং সমবায় অধিদপ্তরের নিবন্ধক ও মহাপরিচালক আব্দুল মজিদ।

পরে দেশ ও জাতির কল্যাণে মোনাজাত করা হয়।
#

জাকির/ফারহানা/মোশারফ/আব্বাস/২০১৮/২০২২ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                               নম্বর : ১৭২৩
 
আইসিটি বিভাগের সাথে অধীনস্থ দপ্তর ও সংস্থার বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি স¦াক্ষর
 
ঢাকা, ২৮ জ্যৈষ্ঠ (১১ জুন) :
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ (আইসিটি) এর ২০১৮-১৯ অর্থবছরে কর্মপরিকল্পনা নির্ধারণ করে এর অধীন ৪টি দফতর ও সংস্থার সঙ্গে ‘বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি (এনুয়াল পারফরমেন্স এগ্রিমেন্ট-এপিএ)’ স্বাক্ষরিত হয়েছে ।
আজ আইসিটি বিভাগের সভাকক্ষে বিভাগে র সচিব সুবীর কিশোর চৌধুরীর সাথে ৪টি সংস্থার শীর্ষ কর্মকর্তারা চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন। এ সময় ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার উপস্থিত ছিলেন। 
চুক্তি স্বাক্ষরের পরে বার্ষিক কর্মসংস্থান চুক্তি পদ্ধতিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ হিসেবে বর্ণনা করে মন্ত্রী বলেন, প্রত্যেক মন্ত্রণালয়কে জাতীয় বাজেটে যেসব লক্ষ্য নির্ধারিত হয় তা অর্জন করার জন্য কর্মকৌশল তৈরি করে সরকারের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হতে হচ্ছে। এ চুক্তি স্বাক্ষরের ফলে লক্ষ্য অর্জনের পথে কোথাও অদক্ষতা, ঘাটতি বা গাফিলতি আছে কি না তা সহজেই অনুমান করা যায়। তিনি বলেন, চুক্তিতে লক্ষ্য অর্জনের কর্মপদ্ধতি ও সময় কাঠামো উল্লেখ থাকে এবং প্রতি অর্জনের জন্য নম্বর থাকে। ফলে এ চুক্তি সংস্থাগুলোর দক্ষতা বৃদ্ধিতে প্রণোদনা হিসেবে কাজ করে।
মন্ত্রী চুক্তির লক্ষ্য অর্জনে মন্ত্রণালয়কে সহযোগিতা করার জন্য সংস্থা প্রধানদের নির্দেশনা প্রদান করেন। 
বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি স¦াক্ষর করা সংস্থাগুলোর মধ্যে রয়েছে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তর, বাংলাদেশ হাইটেকপার্ক কর্তৃপক্ষ, কন্ট্রোলার অভ্ সার্টিফাইং অথোরিটিজ (সিসিএ) এবং বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল। 
#
শহিদুল/মাহমুদ/রফিকুল/জয়নুল/২০১৮/১৮০০ঘণ্টা 
তথ্যবিবরণী                                                                                               নম্বর : ১৭২২
 
‘বিক্রি হচ্ছে জিপিএ ফাইভ’ সংক্রান্ত সংবাদের বিষয়ে তদন্ত কমিটি গঠন
 
ঢাকা, ২৮ জ্যৈষ্ঠ (১১ জুন) :
মাছরাঙা টেলিভিশনে গত ৯ জুন রাত সাড়ে দশটায় প্রচারিত ‘বিক্রি হচ্ছে জিপিএ ফাইভ’ শীর্ষক প্রতিবেদনের প্রেক্ষিতে বিষয়টি তদন্ত করে দেখার জন্য ৪ সদস্যবিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। 
আজ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের এক প্রজ্ঞাপনে এ তদন্ত কমিটি গঠনের বিষয়টি জানানো হয়েছে। 
মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব ড. মোঃ মাহামুদ-উল-হক কমিটির আহ্বায়কের দায়িত্ব পালন করবেন। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের সিএসই বিভাগের অধ্যাপক মোঃ ইউনুস আলী, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের যুগ্মসচিব আহমদ শামীম- আল রাজী এবং উপসচিব আবু আলী মোঃ সাজ্জাদ হোসেন।
কমিটি আগামী সাত কর্মদিবসের মধ্যে এ বিষয়ে প্রতিবেদন দাখিল করবে।
উল্লেখ্য, মাছরাঙা টেলিভিশনের ঐ প্রতিবেদনে মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড ঢাকার একজন উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক এবং বোর্ডের একজন ব্যক্তিগত কর্মকর্তাসহ উত্তরা এলাকার বেশ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান জিপিএ ফাইভ বিক্রির সাথে জড়িত মর্মে উল্লেখ করা হয়।
#
 
আফরাজুর/মাহমুদ/সঞ্জীব/জয়নুল/২০১৮/১৮৩০ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                               নম্বর : ১৭২১
 
তথ্যপ্রযুক্তি খাতে ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশের আয় হবে ৫ বিলিয়ন ডলার
                                                             --- মোস্তাফা জব্বার
ময়মনসিংহ, ২৮ জ্যৈষ্ঠ (১১ জুন) :
ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, ২০৪১ সালের বাংলাদেশ হবে পৃথিবীর শক্তিশালী ২০টি দেশের একটি। ২০২১ সালের মধ্যে তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বাংলাদেশের আয় হবে ৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। বিভিন্ন উন্নয়ন সূচকে বাংলাদেশ প্রতিবেশী দেশগুলোর তুলনায় অনেক ক্ষেত্রেই  এগিয়ে আছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদৃষ্টিসম্পন্ন এবং প্রজ্ঞাবান নেতৃত্বের কারণে বাংলাদেশ সমৃদ্ধির মহাসড়কে দুর্বার গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে।
মন্ত্রী গতকাল ময়মনসিংহ টাউন হলের তারেক স্মৃতি অডিটেরিয়ামে মুক্তিযোদ্ধা একাডেমি ট্রাস্ট ও বাংলাদেশে ভারতীয় হাইকমিশনের যৌথ উদ্যোগে মুক্তিযোদ্ধা সন্তান স্কলারশিপ স্কিমের আওতায় মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের মধ্যে বৃত্তির চেক হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। 
অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আলী আকবর, বাংলাদেশে ভারতীয় হাইকমিশনের প্রতিরক্ষা উপদেষ্টা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জে এস চীমা, মুক্তিযোদ্ধা ফাদার রাবার্ট মানকিন এবং মুক্তিযোদ্ধা একাডেমি ট্রাস্টের চেয়ারম্যান ড. আবুল আজাদ বক্তৃতা করেন। 
মন্ত্রী মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের জন্য ভারতীয় স্কলারশিপ উদ্যোগের প্রশংসা করে বলেন, ভারত বাংলাদেশের অকৃত্রিম বন্ধু। ভারত সরকার এবং তাদের জনগণ যেভাবে এদেশের পাশে আছে তা এক অনন্য দৃষ্টান্ত। মন্ত্রী শিক্ষার্থীদেরকে তথ্যপ্রযুক্তির সুযোগ কাজে লাগিয়ে নিজেদেরকে চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের উপযোগী হিসেবে তৈরি করার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে বাংলাদেশ তথপ্রযুক্তি বিকাশে বিশ্বের নেতৃত্বদানকারী দেশের আসনে উপনীত হয়েছে। বাংলাদেশকে বিশ্বের অনেক দেশ এখন অনুকরণ করছে। বিশ্বের ৮০টি দেশে বাংলাদেশি ছেলে-মেয়েদের উৎপাদিত সফটওয়ার রপ্তানি হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ১৯৯৬ সাল থেকে ২০০১ সালের শাসনামলে কম্পিউটারের ওপর থেকে ভ্যাট প্রত্যাহার, মোবাইল ফোনের একচেটিয়া ব্যবসা বন্ধ এবং সাবমেরিন কেবলের সংযোগ স্থাপনের পদক্ষেপ গ্রহণের মধ্য দিয়ে তথ্যপ্রযুক্তির বিকাশের মাইলফলক স্থাপন করা হয়। তাঁরই প্রচেষ্টায় ২০০৯ থেকে  গত ৯ বছরে ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার সংগ্রাম এগিয়ে যাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ আজ উন্নয়নশীল দেশের কাতারে শামিল হয়েছে। ঈর্ষণীয় জাতীয় প্রবৃদ্ধি অর্জিত হচ্ছে। 
পরে মন্ত্রী মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের মধ্যে বৃত্তির চেক হস্তান্তর করেন।
#
শেফায়েত/মাহমুদ/সঞ্জীব/জয়নুল/২০১৮/১৭২৫ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ১৭২০ 
আগামীকাল বিশ^ শিশুশ্রম প্রতিরোধ দিবস
ঢাকা, ২৮ জ্যৈষ্ঠ (১১ জুন) : 
          ‘প্রজন্মের জন্য নিরাপত্তা ও সুস্বাস্থ্য’ (এবহবৎধঃরড়হ: ঝধভব ধহফ যবধষঃযু) প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও আগামীকাল পালিত হবে ‘বিশ^ শিশুশ্রম প্রতিরোধ দিবস’। 
 
      প্রতি বছর বাংলাদেশসহ বিশে^র ৮০টি দেশে এ দিবস পালিত হয়। আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা (আইএলও) দিবসটির প্রতিপাদ্য নির্বাচন করে থাকে। দিবসটির গুরুত্ব বিবেচনায় রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাণী দিয়েছেন। শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় এবং আইএলও, সেইভ দ্য চিলড্রেন, মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন, বাংলাদেশ শিশু অধিকার ফোরাম এবং ওয়ার্ল্ড ভিশনের সহযোগিতায় শিশুশ্রম প্রতিরোধে গণসচেতনতা বৃদ্ধিমূলক আলোচনাসভা, সারাদেশে পোস্টারিং এবং লিফলেট বিতরণসহ বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। দিবসটির গুরুত্ব তুলে ধরে বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া বিশেষ অনুষ্ঠান প্রচার করবে।
 
সরকার ২০২১ সালের মধ্যে ঝুঁকিপূর্ণ শিশুশ্রম নিরসনে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। এজন্য ৩৮টি ঝুঁকিপূর্ণ কাজে নিয়োজিত শিশুদের প্রত্যাহারের লক্ষ্যে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় উপ-আনুষ্ঠানিক শিক্ষা এবং দক্ষতাবৃদ্ধিমূলক প্রশিক্ষণের জন্য প্রায় ২৮৫ কোটি টাকার প্রকল্প গ্রহণ করেছে। উল্লেখ্য, ইতোমধ্যে তৈরিপোশাক শিল্প এবং চিংড়ি প্রক্রিয়াজাতকরণ শিল্পকে শতভাগ শিশুশ্রম মুক্ত করা হয়েছে। ২০৩০ সালের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রাকে সামনে রেখে শ্রম মন্ত্রণালয় ২০২৫ সালের মধ্যে শিশুশ্রম নিরসনে সম্প্রতি নতুন করে কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন করেছে। কর্মপরিকল্পনা অনুযায়ী জাতীয় পর্যায় থেকে জেলা-উপজেলা পর্যায়ে শিশুশ্রম নিরসনে কমিটি কাজ করছে। বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর জরিপ অনুযায়ী বাংলাদেশে বর্তমানে ১২ লাখ ৮০ হাজার শিশু ঝুঁকিপূর্ণ কাজে নিয়োজিত।
 
শিশুর অধিকার সুরক্ষা ও ঝুঁকিপূর্ণ শিশুশ্রম প্রতিরোধের লক্ষ্যে আইএলও ২০০২ সাল থেকে নানা কর্মসূচি গ্রহণের মধ্য দিয়ে দিবসটি পালন করে আসছে।
 
#
 
আকতারুল/মাহমুদ/সঞ্জীব/রেজাউল/২০১৮/১৬৫৮ ঘণ্টা
 
 
তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ১৭১৯ 
১ম-৫ম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষায়
উত্তীর্ণদের প্রতি তথ্যের আহ্বান 
ঢাকা, ২৮ জ্যৈষ্ঠ (১১ জুন) : 
বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ) গৃহীত শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের সম্মিলিত জাতীয় মেধা তালিকা তৈরির প্রয়োজনে ১ম-৫ম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদেরকে এনটিআরসিএ’র িি.িহঃৎপধ.মড়া.নফ এবং যঃঃঢ়://হঃৎপধ.ঃবষবঃধষশ.পড়স.নফ ওয়েবসাইটের পরীক্ষা সংক্রান্ত লিংকে প্রবেশ করে তাদের আবশ্যকীয় তথ্য ২৬ জুন ২০১৮ তারিখের মধ্যে পূরণ করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।
#
 
আউয়াল/মাহমুদ/সঞ্জীব/রেজাউল/২০১৮/১৬৩০ ঘণ্টা
 
তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ১৭১৮
চতুর্দশ শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার 
মৌখিক পরীক্ষা শুরু ২৪ জুন 
ঢাকা, ২৮ জ্যৈষ্ঠ (১১ জুন) : 
চতুর্দশ শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা-২০১৭ এর লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের মৌখিক পরীক্ষা আগামী ২৪ জুন থেকে শুরু হবে। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ সকল প্রার্থীকে টেলিটক বিডি লিমিটেডের মাধ্যমে এসএমএস দিয়ে মৌখিক পরীক্ষার তারিখ, সময় ও স্থান জানিয়ে দেয়া হবে। এছাড়াও প্রার্থীরা মৌখিক পরীক্ষার প্রবেশপত্র যঃঃঢ়://হঃৎপধ.ঃবষবঃধষশ.পড়স.নফ এবং িি.িহঃৎপধ.মড়া.নফ এই ওয়েবসাইট থেকে ডাউনলোড করতে পারবে।
এ বিষয়ে বিস্তারিত জানতে যঃঃঢ়://হঃৎপধ.ঃবষবঃধষশ.পড়স.নফ এবং িি.িহঃৎপধ.মড়া.নফ ভিজিট করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করা হয়েছে।
#
 
আউয়াল/মাহমুদ/সঞ্জীব/রেজাউল/২০১৮/১৬২০ ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ১৭১৭
মিরপুরে নি¤œ ও মধ্যবিত্তের জন্য নির্মিত হচ্ছে ২৬০০ ফ্ল্যাট
ঢাকা, ২৮ জ্যৈষ্ঠ (১১ জুন) :        
মিরপুরে জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ দু’টি প্রকল্পে দুই হাজার ৬০০ ফ্ল্যাট নির্মাণ করছে। প্রকল্প দু’টি হলো স্বপ্ননগর-১ ও স্বপ্ননগর-২। নি¤œ ও মধ্যবিত্ত নাগরিকদের জন্য নির্মিত এসব ফ্ল্যাটের অধিকাংশই বিক্রি হয়ে গেছে। স্বপ্ননগর-২ প্রকল্পে প্রায় ৩০০ ফ্ল্যাট অবিক্রিত রয়েছে। এগুলো বিক্রির জন্য দরখাস্ত আহ্বান করা হয়েছে। ইতিমধ্যে প্রায় সাড়ে ৪০০ আবেদন পাওয়া গেছে। স্বপ্ননগর-১ এর নির্মাণ কাজ শেষের দিকে এবং স্বপ্ননগর-২ এর কাজও দ্রুত গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। 
আজ গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন মিরপুরে প্রকল্প দু’টি পদির্শনকালে তাকে এ তথ্য জানানো হয়। এসময় তিনি ভবন নির্মাণ এবং অন্যান্য কাজের অগ্রগতির খোঁজখবর নেন। প্রকল্প দু’টির বর্জ্য ব্যবস্থাপনা ও পানি পরিশোধনের জন্য পৃথক ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট স্থাপন করা হচ্ছে। মন্ত্রী সে কাজের অগ্রগতি সম্পর্কেও অবহিত হন। পরিদর্শনকালে মন্ত্রী কাজের অগ্রগতিতে সন্তোষ প্রকাশ করেন।
এ সময় জানানো হয় বৃষ্টির পানিধারণ ও ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট স্থাপন এবং বাসাবাড়ির বর্জ্য ও স্যুয়োরেজ ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট স্থাপনে কিছুটা বাড়তি সময় লাগবে। এই ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট স্থাপনকারী প্রতিষ্ঠান জানায়, স্যুয়োরেজ ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্টে যেসকল বর্জ্য পরিশোধন করা হবে তা থেকে পাওয়া পানির কিছু অংশ পান করার উপযোগী করা হবে এবং কিছু অংশ গাড়ি পরিস্কার ও বাগানে পানি দেওয়ার কাজে লাগানো হবে। স্যুয়োরেজ ট্রিটমেন্ট শেষে কঠিন কোন বর্জ্য অবশিষ্ট থাকবে না। বাসাবাড়ির রান্নাঘরের বর্জ্য ট্রিটমেন্ট করে বায়োগ্যাস ও জৈবসার উৎপাদন করা হবে। এ বায়োগ্যাস কয়েকটি ভবনের রান্নার কাজে ব্যবহার করা হবে এবং উৎপাদিত জৈবসার বিক্রি করা হবে।
পরে মন্ত্রী মিরপুরের দুয়ারি পাড়ায় জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের দু’টি জমি পরিদর্শন করেন। এরমধ্যে ৪০ একর জমির ওপর পিপিপি’র আওতায় নি¤œ ও মধ্যবিত্তের নাগরিকদের জন্য আবাসিক ফ্ল্যাট নির্মাণ করা হবে। ১০০ একরের অপর জমি সমন্বিত নগর হিসেবে গড়ে তোলা হবে।
জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান খন্দকার আখতারুজ্জামানসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ পরিদর্শনকালে উপস্থিত ছিলেন।  
#
গোলাম কিবরিয়া/অনসূয়া/রেজ্জাকুল/আসমা/২০১৮/১৫০৫ ঘণ্টা 
তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ১৭১৬
 
বিমল বিশ^াসের শয্যাপাশে সমাজকল্যাণ মন্ত্রী
 
ঢাকা, ২৮ জ্যৈষ্ঠ (১১ জুন) :
সমাজকল্যাণ মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন আজ রাজধানীর বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বরেণ্য রাজনীতিবিদ বিমল বিশ^াসকে দেখতে যান। তাঁর শারীরিক অবস্থার খোজখবর ও চিকিৎসায় সব ধরণের সহায়তা দিতে হাসপাতাল সমাজসেবা কর্মকর্তাদের যথাযথ পদক্ষেপ নিতে মন্ত্রী নির্দেশ দেন।
 
উল্লেখ্য, বিমল বিশ^াস বর্তমানে প্রস্টেট ক্যান্সার অপারেশনের ফলে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। 
 
#
মাইদুল/অনসূয়া/রেজ্জাকুল/শামীম/২০১৮/১৪৪৩ ঘণ্টা
 
তথ্যবিবরণী                                                                                         নম্বর : ১৭১৫
 
প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টকে ২টি মাইক্রোবাসের চাবি হস্তান্তর
শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তি করা হবে-শিক্ষামন্ত্রী 
ঢাকা, ২৮ জ্যৈষ্ঠ (১১ জুন) :
শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, বাজেটে আলাদাভাবে উল্লেখ না থাকলেও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তি করতে এটা কোন বাধা হবে না। বাজেটে থোক বরাদ্দ রয়েছে। এমপিওভুক্তির ব্যাপারে সরকার কাজ করছে। 
 আজ সচিবালয়ে শিক্ষামন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ফেডারেশন অভ্ বাংলাদেশ চেম্বার অভ্ কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ (এফবিসিসিআই) কর্তৃক প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টকে ২টি মাইক্রোবাসের চাবি হস্তান্তর অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী একথা বলেন। 
অনুষ্ঠানে এফবিসিসিআই-এর সভাপতি মো. শফিউল ইসলামের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধিদল আনুষ্ঠানিকভাবে দুটি মাইক্রোবাসের চাবি হস্তান্তর করেন।
এসময় শিক্ষামন্ত্রী বলেন, গরীব মেধাবী শিক্ষার্থীদের পড়াশুনা চালিয়ে  নেয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট গঠন করা হয়েছিল। এ ট্রাস্ট থেকে শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান করা হচ্ছে। উচ্চশিক্ষার জন্যও সহায়তা দেয়া হয়। বর্তমানে শতকরা ৪০ ভাগ শিক্ষার্থীকে বৃত্তি প্রদান করা হয়।  ট্রাস্টকে স্বাবলম্বী করতে বিভিন্ন উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। তিনি দুটি মাইক্রোবাস প্রদানের জন্য এফবিসিসিআই কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান।
মন্ত্রী আরো বলেন, শতকরা ৯৮ ভাগ শিশু এখন স্কুলে যাচ্ছে। বছরের প্রথমদিনে পুরো সেট বই শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দেয়া হয়। সার্বিকভাবে শিক্ষা সকলের দোরগোড়ায় পৌঁছে গেছে। এখন প্রয়োজন মান বাড়ানো। শিক্ষকদের মান বাড়াতে না পারলে শিক্ষার মান বাড়বে না। এটি একটি বড় চ্যালেঞ্জ।
মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসাইন, প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক নুরুল করিম, এফবিসিসিআই-এর সভাপতি মো. শফিউল ইসলাম (মহিউদ্দিন), বাংলাদেশ কার্গো ভেসেল ওনার্স এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মো. নুরুল হক এবং বাংলাদেশ অটো রি-রোলিং মিলস  এসোসিয়েশনের সদস্য মাসাদুল আলম মাসুদ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ।
 
#
আফরাজুর/অনসূয়া/সেলিনা/রেজ্জাকুল/শামীম/২০১৮/১৪৩৪ ঘণ্টা
 
 
তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ১৭১৪ 
 
মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তিস্বাক্ষর
 
ঢাকা, ২৮ জ্যৈষ্ঠ (১১ জুন) :
সরকারি কাজে জবাবদিহিতা, স্বচ্ছতা ও গতিশীলতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে আজ মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় এবং এর অধীনস্থ দপ্তর/সংস্থার মধ্যে ২০১৮-১৯ সালের জন্য বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তিস্বাক্ষর (অচঅ)  অনুষ্ঠিত হয়।  
মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দের সভাপতিত্বে মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ রইছউল আলম মন্ডল অধীনস্থ ৭টি দপ্তর/সংস্থার প্রধানদের সাথে এ চুক্তি সম্পাদন করেন। সংস্থাগুলো হচ্ছে-মৎস্য অধিদপ্তর, প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর, মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট, প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউট, মৎস্য উন্নয়ন কর্পোরেশন, মেরিন ফিশারিজ একাডেমি ও বাংলাদেশ ভেটেরিনারি কাউন্সিল।
মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে অনুষ্ঠিত চুক্তিস্বাক্ষর অনুষ্ঠানে মন্ত্রণালয় ও দপ্তরসমূহের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। 
মন্ত্রী নিজ নিজ চুক্তিসমূহ বাস্তবায়নের মাধ্যমে মন্ত্রণালয়সহ দপ্তরসমূহের ভাবমূর্তি উজ্জ¦ল করতে সবার প্রতি আহ্বান জানান।
#
 
শাহ আলম/অনসূয়া/জসীম/সেলিনা/শামীম/২০১৮/১৪০০ ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                                      নম্বর : 1713

বিশ্ব শিশুশ্রম প্রতিরোধ দিবসে রাষ্ট্রপতির বাণী

ঢাকা, ২৮ জ্যৈষ্ঠ (১১ জুন) :

            রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ Ôবিশ্ব শিশুশ্রম প্রতিরোধ দিবসÕ উপলক্ষে নিম্নোক্ত বাণী প্রদান করেছেন :    

            “বিশ্বের অন্যান্য দেশের ন্যায় বাংলাদেশেও ‘বিশ্ব শিশুশ্রম প্রতিরোধ দিবস'  পালিত হচ্ছে জেনে আমি আনন্দিত।

            বাংলাদেশ সরকার শিশুদের অধিকার ও মর্যাদা রক্ষায় অত্যন্ত আন্তরিক। সরকার এ লক্ষ্যে জাতীয় ‘শিশুশ্রম নিরসন নীতি-২০১০’, ‘গৃহকর্মী সুরক্ষা ও কল্যাণ নীতি-২০১৫' প্রণয়ন করেছে। শিশুদের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে ৩৮ ধরণের কাজ চিহ্নিত করে ঝুঁকিপূর্ণ কাজে নিযুক্ত শিশুদের প্রত্যাহার করে বৃত্তিমূলক ও কারিগরি শিক্ষা প্রদান করা হচ্ছে। শিশুদের উন্নয়ন ও কল্যাণে ‘সবার জন্য শিক্ষা কর্মসূচি’ বাস্তবায়নসহ শিক্ষার্থীদেরকে বিনামূল্যে পাঠ্যবই, শিক্ষা-উপকরণ বিতরণ, উপবৃত্তি প্রদান করা হচ্ছে। এছাড়াও দারিদ্র্যপীড়িত এলাকায় স্কুল ফিডিং কর্মসূচি চালু রয়েছে। বাংলাদেশ জাতিসংঘ শিশু অধিকার সনদ ও ঝুঁকিপূর্ণ শিশুশ্রম বিষয়ক আইএলও কনভেনশন অনুসমর্থন করেছে। ফলে দেশে শিশুশ্রমের হার ক্রমশ কমে আসছে। আগামী প্রজন্মের নিরাপত্তা ও সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে এবারের প্রতিপাদ্য ‘Generation: Safe and Healthy' অত্যন্ত সময়োপযোগী বলে আমি মনে করি।  

            শিশুশ্রম প্রতিরোধে সম্মিলিত উদ্যোগ প্রয়োজন। এ জন্য আমি সরকারের পাশাপাশি শিশুশ্রম প্রতিরোধ ও শিশুদের কল্যাণে নিয়োজিত বেসরকারি ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সংস্থা, উন্নয়ন সহযোগী, গবেষণা প্রতিষ্ঠান, সিভিল সোসাইটি ও গণমাধ্যম, মালিক ও শ্রমিক সংগঠনসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে আরো কার্যকর ভূমিকা পালনের আহ্বান জানাই।

            আমি ‘বিশ্ব শিশুশ্রম প্রতিরোধ দিবস’ উপলক্ষে আয়োজিত সকল কর্মসূচির সার্বিক সাফল্য কামনা করছি।

            খোদা হাফেজ, বাংলাদেশ চিরজীবী হোক।"

#

হাসান/অনসূয়া/জসীম/সেলিনা/সুবর্ণা/আসমা/২০১৮/১২৩০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                         নম্বর : ১৭১২

 
নিরাপদ নৌ চলাচল নিশ্চিতে নৌপরিবহন অধিদফতরের নির্দেশনা  
 
ঢাকা, ২৮ জ্যৈষ্ঠ (১১ জুন) :
আসন্ন পবিত্র ঈদুলফিতর ও বর্ষা মৌসুমে নৌপথে চলাচলকারী যাত্রী সাধারণের জান-মালের নিরাপত্তা বিধানকল্পে এবং দুর্ঘটনামুক্ত ও নিরাপদ নৌ চলাচল নিশ্চিত করার লক্ষ্যে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন নৌপরিবহন অধিদফতর  সতর্কতা অবলম্বনের আহ্বান জানিয়েছে। সতর্কতাসমূহ হচ্ছে ঃ
নির্ধারিত সংখ্যক ও নির্ধারিত গ্রেডের মাস্টার এবং ড্রাইভার দ্বারা নৌযান পরিচালনা করা; দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া বিরাজ করলে নৌযানের যাত্রা স্থগিত করা; সার্ভেসনদে উল্লিখিত যাত্রী সংখ্যার অতিরিক্ত যাত্রী ও ধারণ ক্ষমতার অতিরিক্ত মালামাল বহন পরিহার করা; পথিমধ্যে ঝড়ের আশংকা দেখা দিলে নৌযানকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে বা কিনারায় ভিড়িয়ে রাখা; বৈধ কাগজপত্র বিহীন নৌযান পরিচালনা হতে বিরত থাকা; অতিরিক্ত যাত্রী হয়ে বা নৌযানের ছাদে যাত্রী হয়ে ভ্রমণ না করা; দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে নৌযানে ভ্রমণ না করা এবং সকল বালু/মাটি/ইট/পণ্যবাহী ট্রলার/ড্রেজার/ইঞ্জিন চালিত নৌযান রাতের বেলায় চলাচল বন্ধ রাখা। 
#
জাহাঙ্গীর/অনসূয়া/রেজ্জাকুল/শামীম/২০১৮/১৪৩৯ ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ১৭১১ 
 
দুর্ঘটনা এড়াতে বন্ধ বয়লার চালুর পূর্বে সেফটি ডিভাইস পরীক্ষা করার পরামর্শ
ঢাকা, ২৮ জ্যৈষ্ঠ (১১ জুন) :
শিল্প দুর্ঘটনা এড়াতে পবিত্র ঈদুলফিতরের ছুটির পর বয়লার চালুর পূর্বে সেফটি ডিভাইসগুলো পরীক্ষা করার পরামর্শ দিয়েছে শিল্প মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন প্রধান বয়লার পরিদর্শকের কার্যালয়। দপ্তরটির এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, দীর্ঘদিন বয়লার বন্ধ থাকলে তা পুনরায় চালুর পূর্বে সেফটি ডিভাইসগুলো পরীক্ষা না করার কারণে বয়লা দুর্ঘটনার আশঙ্কা থাকে। এতে প্রাণহানিসহ ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি সাধিত হতে পারে।
এ বিবেচনায় ঈদের ছুটির পর বয়লার চালুর পূর্বে সেফটি ডিভাইসগুলো পরীক্ষা করে নেয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি অনুরোধ জানানো হয়েছে।
#
জলিল/অনসূয়া/সুবর্ণা/আসমা/২০১৮/১২৩০ ঘণ্টা  
 
তথ্যবিবরণী                                                                                                              নম্বর : ১৭১০

পবিত্র লাইলাতুল কদর উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর বাণী

ঢাকা, ২৮ জ্যৈষ্ঠ (১১ জুন) :   

            প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১২ জুন পবিত্র লাইলাতুল কদর উপলক্ষে নিম্নোক্ত বাণী প্রদান করেছেন :

            "পবিত্র লাইলাতুল কদর উপলক্ষে আমি দেশবাসীসহ বিশ্বের সকল মুসলমানকে আন্তরিক মোবারকবাদ জানাচ্ছি।

            লাইলাতুল কদর এক মহিমান্বিত রজনি। সিয়াম সাধনার মাসের এই রাতে মানবজাতির পথ নির্দেশক পবিত্র আল-কোরআন পৃথিবীতে নাযিল হয়। পবিত্র কোরআনের শিক্ষা আমাদের পার্থিব সুখ-শান্তির পাশাপাশি আখিরাতের মুক্তির পথ দেখায়।

            মহান আল্লাহতায়ালা লাইলাতুল কদরের রাতকে অনন্য মর্যাদা দিয়েছেন। হাজার মাসের ইবাদতের চেয়েও এ রাতের ইবাদত উত্তম। এই রাতে আল্লাহর অশেষ রহমত ও নিয়ামত বর্ষিত হয়। পবিত্র এই রাতে ইবাদত-বন্দেগির মাধ্যমে আমরা মহান আল্লাহর নৈকট্য লাভ করতে পারি। অর্জন করতে পারি তাঁর অসীম রহমত, বরকত ও মাগফেরাত।

            পবিত্র এই রজনিতে আমি মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের কাছে প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশ ও মুসলিম জাহানের উত্তরোত্তর উন্নতি, শান্তি ও কল্যাণ কামনা করছি। 

            মহান আল্লাহ আমাদের সহায় হোন। আমিন।

জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু

বাংলাদেশ চিরজীরী হোক।" 

#

ইমরুল/অনসূয়া/জসীম/সেলিনা/সুবর্ণা/আসমা/২০১৮/১১৩৯ ঘণ্টা   

 

তথ্যবিবরণী                                                                                          নম্বর ঃ ১৭০৯

পবিত্র শবে কদর উপলক্ষে রাষ্ট্রপতির বাণী 
 
ঢাকা, ২৮ জ্যৈষ্ঠ (১১ জুন) :
রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ ১২ জুন পবিত্র শবে কদর উপলক্ষে নি¤েœাক্ত বাণী প্রদান করেছেন :
“মহিমান্বিত রজনি পবিত্র শবে কদর উপলক্ষে আমি দেশবাসীসহ সমগ্র মুসলিম উম্মাহকে জানাই আন্তরিক মোবারকবাদ। 
‘হাজার মাসের চেয়েও উত্তম’ পবিত্র লাইলাতুল কদর সমগ্র মানবজাতির জন্য অত্যন্ত বরকত ও পুণ্যময় রজনি। পবিত্র ধর্মীয় গ্রন্থ আল কোরআন লাইলাতুল কদরে নাযিল হয়। আল্লাহ তা’য়ালা বলেন, ‘আমি কদর রাতে কোরআন নাযিল করেছি’। তাই মুসলিম উম্মাহ’র নিকট শবে কদরের গুরুত্ব, তাৎপর্য ও ফজিলত অত্যধিক। আমাদের ক্ষণস্থায়ী জীবনে হাজার মাসের চেয়েও বেশি ইবাদতের নেকি লাভের সুযোগ এনে দেয় এই রাত। এই মহিমান্বিত রজনি সকলের জন্য ক্ষমা, বরকত, সমৃদ্ধি ও কল্যাণ বয়ে আনুক মহান আল্লাহর দরবারে এ মোনাজাত করি।
 
ইসলাম শান্তি ও কল্যাণের ধর্ম। মানুষের ইহকালীন কল্যাণ ও পরকালীন মুক্তির জন্য ইসলামের সুমহান আদর্শ আমাদের পাথেয়। শবে কদরের এই পবিত্র রজনিতে আমরা সর্বশক্তিমান আল্লাহর দরবারে অশেষ রহমত ও বরকত কামনার পাশাপাশি দেশের অব্যাহত অগ্রগতি, কল্যাণ এবং মুসলিম উম্মাহর বৃহত্তর ঐক্যের প্রার্থনা জানাই। মহান আল্লাহ আমাদের প্রার্থনা কবুল করুন। আমিন।
 
খোদা হাফেজ, বাংলাদেশ চিরজীবী হোক।”
#
 
হাসান/অনসূয়া/জসীম/সেলিনা/সুবর্ণা/শামীম/২০১৮/১১২৭ ঘণ্টা 
 
 
তথ্যবিবরণী                                                                 
Todays handout (4).docx Todays handout (4).docx

Share with :

Facebook Facebook