তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১st জুলাই ২০১৯

তথ্যবিবরণী - 01/07/2019

তথ্যবিবরণী                                                                                        নম্বর : ২৪১২  
 
‘হজ কার্যক্রম ২০১৯’ এর উদ্বোধন আগামীকাল
 
 
ঢাকা, ১৭ আষাঢ় (১ জুলাই) : 
 
ধর্ম প্রতিমন্ত্রী আলহাজ এডভোকেট শেখ মোঃ আব্দুল্লাহ বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার 
দিক-নির্দেশনার আলোকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে এবার হজের প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়। আগামীকাল রাষ্ট্রপতি এবারের হজ কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন এবং সম্মানিত হজযাত্রীদের সাথে মতবিনিময় করবেন।
প্রতিমন্ত্রী আজ ঢাকায় হজ ক্যাম্পে রোভার স্কাউটদের সেবাদান কার্যক্রমের উদ্বোধন অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের উদ্দেশে এসব কথা বলেন।
এর আগে রোভার স্কাউটদের উদ্দেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী বলেন, হজযাত্রীদের সেবা প্রধানের ক্ষেত্রে রোভার স্কাউটদের সর্বোচ্চ সেবা প্রদানের প্রস্তুতি রাখতে হবে। বিশেষ করে মহিলা ও বয়স্ক হাজিদের প্রতি বিশেষ খেয়াল রাখতে হবে। মনে রাখতে হবে আল্লাহর মেহমানদের সেবা প্রদানের মত মহৎ কাজের সুযোগ কমই হয়ে থাকে।
হজ ক্যাম্পে রোভার স্কাউটদের সেবাদান কার্যক্রম পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক মোঃ ফসিউল্লাহর সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ স্কাউটস এর জাতীয় কমিশনার এবং দুর্নীতি দমন কমিশনের কমিশনার ড. মোঃ মোজাম্মেল হক খান, ধর্ম সচিব মোঃ আনিছুর রহমান, পরিচালক (হজ অফিস) মোঃ সাইফুল ইসলাম প্রমুখ। 
#
আনোয়ার/মাহমুদ/রফিকুল/আব্বাস/২০১৯/২৩০৫ ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                        নম্বর : ২৪১১  
 
শিল্প-সাহিত্যে জাতির পিতার চর্চা বৃদ্ধি করতে হবে
    ---সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী
 
ঢাকা, ১৭ আষাঢ় (১ জুলাই) : 
 
সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেছেন, পৃথিবীর কোথাও জাতির পিতাকে নিয়ে কোনো বিতর্ক নেই। আমাদের দেশেও জাতির পিতাকে নিয়ে কোনো বিতর্ক থাকতে পারে না। যে জাতির শিল্প-সাহিত্যে জাতির পিতার যথাযথ চর্চা হয় না, সে জাতি দুর্ভাগা। শিল্প-সাহিত্যে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর চর্চা বৃদ্ধি করতে হবে।
প্রতিমন্ত্রী আজ রাজধানীর বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তনে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির চারুকলা বিভাগ আয়োজিত ‘২৩তম জাতীয় চারুকলা প্রদর্শনী ২০১৯’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি (উদ্বোধক) হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম।
এইচ টি ইমাম বলেন, এ দেশের এমন কোনো স্থান ও মাধ্যম নেই যেখানে জাতির পিতার পদচারণা ছিল না। যুদ্ধবিধ্বস্ত ধ্বংসস্তূপ থেকে তিনি বাংলাদেশ পুনর্গঠন করেছেন। তিনি সে সময় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি, ইসলামিক ফাউন্ডেশন, চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশন, টেক্সটাইল কলেজ প্রভৃতি স্থাপন করেছেন। কত দূরদর্শী এবং বিচক্ষণ ছিলেন বলে সে সময়ে তিনি এত কিছু গড়ে তুলেছেন এবং পরিকল্পনা করেছেন।
সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার শিল্প-সংস্কৃতি চর্চায় বেশ গুরুত্বারোপ করেছে। এরই অংশ হিসেবে ১৩৭ কোটি ৯৬ লাখ টাকা ব্যয়ে ‘জাতীয় চিত্রশালা এবং জাতীয় সংগীত ও নৃত্যকলা কেন্দ্রের সম্প্রসারণ ও অসমাপ্ত কাজ সমাপ্তকরণ’ শীর্ষক প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। প্রকল্পের আওতায় জাতীয় চিত্রশালা ভবনের সম্প্রসারণের অংশ হিসেবে বর্তমান ভবনের উপরে আরো ৩টি তলা নির্মাণ করা হবে। আধুনিক বেশ কয়েকটি গ্যালারির পাশাপাশি একটি বড় মিলনায়তন নির্মাণ করা হবে। এ বছরে এর নির্মাণ কাজ শুরু করা হবে বলে আশা করা হচ্ছে।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোঃ আব্দুল মান্নান ইলিয়াস ও বরেণ্য চিত্রশিল্পী মনিরুল ইসলাম। স্বাগত বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির চারুকলা বিভাগের পরিচালক আশরাফুল আলম পপলু।
উল্লেখ্য, জাতীয় চিত্রশালা গ্যালারিতে অনুষ্ঠিত এ প্রদর্শনী আগামী ২-২১ জুলাই ২০১৯ পর্যন্ত প্রতিদিন সকাল ১১টা থেকে রাত ৮টা এবং শুক্রবার বেলা ৩টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত দর্শকদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে। প্রদর্শনীতে ৩১০ জন শিল্পীর ৩২২টি শিল্পকর্ম স্থান পাচ্ছে।
#
ফয়সল/মাহমুদ/সঞ্জীব/আব্বাস/২০১৯/২১২০ ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                        নম্বর : ২৪১০  
 
বিআইডব্লিউটিএ’র ৪র্থ দফা উচ্ছেদ অভিযান আগামীকাল শুরু
 
 
ঢাকা, ১৭ আষাঢ় (১ জুলাই) :
 
নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) নদী তীর দখলমুক্ত করতে ঢাকা নদী বন্দরের আওতাধীন কেরাণীগঞ্জের খোলামোড়া লঞ্চঘাট থেকে ফতুল্লা অভিমুখে বুড়িগঙ্গা নদীর উভয় তীরের অবশিষ্ট অংশে ৪র্থ দফা উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করবে।
 
আগামীকাল (২ জুলাই) থেকে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালিত হবে। প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত অভিযান চলবে। ২ জুলাই শুরু হয়ে ২৫ জুলাই পর্যন্ত ৪র্থ দফা উচ্ছেদ অভিযান চলবে। 
 
উল্লেখ্য, বিআইডব্লিউটিএ ঢাকা নদী বন্দরের আওতাধীন এলাকায় গত ২৯ জানুয়ারি থেকে শুরু করে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত ৩ হাজার ৫৭৫টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ এবং ৯১ একর ভূমি উদ্ধার করেছে। এছাড়া বিআইডব্লিউটিএ উক্ত সময়ে পাঁচ কোটি দুই লাখ ২৬ হাজার টাকার মালামাল নিলাম, পাঁচ লাখ ৮৫ হাজার টাকা জরিমানা এবং ২২ জনকে আসামি করে ছয়টি মামলা করেছে।
#
 
জাহাঙ্গীর/মাহমুদ/মোশারফ/আব্বাস/২০১৯/১৯১৮ ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                নম্বর : ২৪০৯ 
 
স্থানীয় সরকার বিভাগের ‘ইনোভেশন শোকেসিং’ কর্মশালা আগামীকাল
 
ঢাকা, ১৭ আষাঢ় (১ জুলাই) :
 
 
           স্থানীয় সরকার বিভাগ এবং এর আওতাধীন দপ্তর ও সংস্থার উদ্ভাবনী উদ্যোগসমূহের ‘ইনোভেশন শোকেসিং’ আগামীকাল মঙ্গলবার দিনব্যাপী রাজধানীর কাকরাইলে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রধান কার্যালয়ের অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে।
জনপ্রশাসনে উদ্ভাবন-সংস্কৃতি বিকাশের মাধ্যমে নাগরিক সেবা ও দাপ্তরিক কার্যপদ্ধতি সহজীকরণে উদ্ভাবন কার্যক্রমকে এগিয়ে নেয়ার লক্ষ্যে স্থানীয় সরকার বিভাগ এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। উক্ত অনুষ্ঠানে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম প্রধান অতিথি, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য বিশেষ অতিথি এবং স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ সভাপতি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।  
         শোকেসিংয়ে বিভিন্ন দপ্তর ও সংস্থা পরস্পরের উদ্ভাবনী ও উত্তম চর্চা সম্পর্কে প্রত্যক্ষ ধারণা লাভ করতে পারে যা উদ্ভাবন চর্চার বিকাশে এবং রেপ্লিকেশনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। শোকেসিং কর্মশালায় পৃথক পৃথক স্টলে স্থানীয় সরকার বিভাগ, ১২টি সিটি কর্পোরেশন, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর, ৪টি ওয়াসা, জাতীয় স্থানীয় সরকার ইনস্টিটিউট, জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন রেজিস্ট্রার জেনারেলের কার্যালয় এবং ৩টি পৌরসভার বাস্তবায়িত ও বাস্তবায়নাধীন উদ্ভাবনী উদ্যোগসমূহ এবং ভবিষ্যৎ উদ্ভাবন কর্মপরিকল্পনা প্রদর্শন করা হবে এবং মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের নির্দেশনা অনুসারে স্টলসমূহ মূল্যায়ন করা হবে। প্রধান অতিথি, বিশেষ অতিথি ও অন্যান্য অতিথি দুপুর আড়াইটায় স্টলে প্রদর্শিত উদ্ভাবনী উদ্যোগসমূহ পরিদর্শন করবেন ও ১ম, ২য় এবং ৩য় স্থান অধিকারী প্রতিষ্ঠানসমূহকে পুরস্কৃত করবেন।
#
 
হাসান/মাহমুদ/সঞ্জীব/আব্বাস/২০১৯/১৮৩৪ ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                 নম্বর : ২৪০৮ 
 
ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নিয়োগের ক্ষেত্রে নতুনরা  প্রাধান্য পাবে
---আইনমন্ত্রী
 
ঢাকা, ১৭ আষাঢ় (১ জুলাই) :
 
শিগগিরই রাষ্ট্রের আইন কর্মকর্তা হিসেবে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নিয়োগ দেওয়া হবে। এক্ষেত্রে নতুনরা বেশি প্রাধান্য পাবে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।
আজ বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে যুগ্ম-জেলা ও দায়রা জজ এবং সমপর্যায়ের বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তাদের ১৪২তম রিফ্রেশার প্রশিক্ষণ কোর্সের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আইনমন্ত্রী একথা জানান।
আইনমন্ত্রী বলেন, ‘২০০৯ সাল থেকে আজ পর্যন্ত যারা ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে আছেন আমি তাদেরকে পদত্যাগ করতে বলেছিলাম। এর পরিপ্রেক্ষিতে আমার কাছে এখন পর্যন্ত ৮৭ জনের পদত্যাগপত্র পৌঁছে গেছে। এসব পদে খুব শিগগিরই নিয়োগ দেওয়া হবে এবং নিয়োগের ক্ষেত্রে নতুনরা  প্রাধান্য পাবে’।
হলি আর্টিজানের মামলার বিষয়ে আইনমন্ত্রী বলেন, ‘আপনারা দেখছেন প্রধানমন্ত্রী এই জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেছেন। হলি আর্টিজানের ঘটনায় যারা নিহত হয়েছে আমি তাদের রুহের মাগফিরাত কামনা করছি’। তিনি বলেন, ‘আমাদের দেশের প্রেক্ষিতে এটা নিতান্তই একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা। এই ঘটনা ঘটে যাওয়ার পর সকল আইনি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে এই মামলার তদন্ত ও বিচার কাজ অত্যন্ত  দ্রুত করার চেষ্টা করা হয়েছে’। তিনি আরো বলেন, ‘আমি মনে করি এখন যখন বিচার কাজ চলছে বিজ্ঞ আদালত দেখবেন কতজন সাক্ষী নিলে এই মামলা প্রমাণে যথেষ্ট হবে। এই মামলা দ্রুত শেষ করা প্রসিকিউটরের ইচ্ছা, বিজ্ঞ আদালতও হয়তো বিষয়টি অনুধাবন করবেন। এ মামলা নিয়ে অন্য কিছু বলতে চাই না। তাহলে আবার বিচারাধীন বিষয়ে কথা বলা হয়ে যাবে। তবুও আমি শুধু এই টুকু বলবো যে, সরকার এই বিষয়গুলোকে অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে দেখে। সেজন্য শুধু যে হলি আর্টিজনের মামলা হচ্ছে তা না। সিজার ট্যাভেলা হত্যা মামলা, রমিজউদ্দিন স্কুলের দুই শিক্ষার্থী হত্যার মামলা, নুসরাত হত্যার মামলা বিচার চলছে। এসব ঘটনা যাতে  বিচারের বাইরে না চলে যায়। যাতে এসব বিষয় বা ঘটনা মানুষের মনে থাকতেই দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক সাজা দেওয়া যায়। সে বিষয়ে আমরা নজর রাখবো’।
বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক বিচারপতি খোন্দকার মূসা খালেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আইন সচিব আবু সালেহ শেখ মোঃ জহিরুল হকও বক্তৃতা করেন।
#
 
রেজাউল/মাহমুদ/মোশারফ/আব্বাস/২০১৯/১৮২৯ ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                          নম্বর : ২৪০৭ 
 
 
সিডান গাড়ি পেলেন ৬২ অতিরিক্ত জেলা জজ
 
 
ঢাকা, ১৭ আষাঢ় (১ জুলাই) :
 
সিডান গাড়ি পেলেন অধস্তন আদালতে কর্মরত ৬২ জন অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ। আজ  ঢাকার আব্দুল গণি রোডে নিবন্ধন অধিদপ্তর প্রাঙ্গণে গাড়ির চাবি হস্তান্তর করেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।  
আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় বিগত ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে অধস্তন আদালতে কর্মরত বিচারকদের জন্য ৩৮ কোটি ৭৬ লাখ ৩২ হাজার ৩৩০ টাকা ব্যয়ে মোট ১০৯টি সিডান কার এবং ৬টি মাইক্রোবাস ক্রয় করে। এগুলোর মধ্যে ১৭ কোটি ২১ লাখ ৯৪ হাজার ৩৩০ টাকা ব্যয়ে  জেলা ও দায়রা জজ/সমমর্যাদার কর্মকর্তাদের জন্য ৪৬টি কার, ১৮ কোটি ৩৪ লাখ ৫৮ হাজার টাকা ব্যয়ে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজদের জন্য ৬২টি কার এবং ৬৩ লাখ ৯০ হাজার টাকা ব্যয়ে প্রশাসনিক আপিল ট্রাইব্যুলের জন্য একটি কার ক্রয় করা হয়। এছাড়া ২ কোটি ৫৫ লাখ ৯০ হাজার টাকা ব্যয়ে ছয়টি জেলার চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের জন্য ৬টি মাইক্রোবাস ক্রয় করা হয়েছে।
গাড়ির চাবি হস্তান্তর অনুষ্ঠানে আইন সচিব আবু সালেহ শেখ মোঃ জহিরুল হক, যুগ্মসচিব গোলাম সারোয়ার, বিকাশ কুমার সাহা ও হাবিবুর রহমান, সলিসিটর জেসমিন আরা, নিবন্ধন অধিদপ্তরের 
মহাপরিদর্শক খান মোঃ আব্দুল মান্নানসহ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।
#
 
রেজাউল/মাহমুদ/মোশারফ/আব্বাস/২০১৯/১৭৪২ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                             নম্বর : ২৪০৬

 

১৭-২৩ জুলাই পালিত হবে ২৭তম জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ

 

ঢাকা, ১৭ আষাঢ় ( ১ জুলাই) :

­

আগামী ১৭ থেকে ২৩ জুলাই দেশব্যাপী ২৭তম ‘জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ-২০১৯’ পালিত হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৮ জুলাই সকাল ১০টায় সপ্তাহের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন এবং মৎস্য খাতে অবদানের জন্য নির্বাচিত ১৭টি প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তিকে ‘জাতীয় মৎস্য পুরস্কার-২০১৯’ প্রদান করবেন। তিনি এদিন সকাল ১১টায় গণভবনে মাছের পোনাও অবমুক্ত করবেন।

 

সভায় জানানো হয়, সপ্তাহ পালন উপলক্ষে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী মোঃ আশরাফ আলী খান খসরু ১৭ জুলাই সকাল ১১টায় মৎস্য অধিদফতরের সম্মেলন কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে বক্তৃতা করবেন। এর আগে সকাল ৮টায় প্রতিমন্ত্রীর নেতৃত্বে মৎস্যভবন থেকে বর্ণাঢ্য র‍্যালি বের করা হবে।

 

আজ প্রতিমন্ত্রীর দফতরে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রস্তুতি সভায় এ তথ্য জানানো হয়।

 

সভায় সপ্তাহের বিস্তারিত কর্মসূচি প্রণয়ন করা হয়। ঢাকার কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন প্রাঙ্গণে সপ্তাহব্যাপী ‘মৎস্য মেলা’ অনুষ্ঠানের পাশাপাশি প্রতিটি জেলায় তিনদিনের মৎস্য মেলারও আয়োজন করা হবে। এছাড়া ময়মনসিংহে ৫দিনের একটি ‘প্রযুক্তভিত্তিক মৎস্য মেলা’ অনুষ্ঠিত হবে।

  

সপ্তাহজুড়ে দেশব্যাপী জেলা-উপজেলার মুক্ত জলাশয়, হাওর-বাঁওড়, খাল-বিল ও নদীতে ব্যাপকভাবে মৎস্য অবমুক্তির পাশাপাশি রাষ্ট্রপতি ও স্পিকার কর্তৃক বঙ্গভবন ও সংসদের লেকে মাছের পোনা ছাড়া হবে। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও প্রতিষ্ঠানের পুকুর-লেকেও পোনা অবমুক্ত করা হবে। মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, জনবহুল স্থান, মাছের আড়ত প্রভৃতিতে গণসচেতনতামূলক সভা-সেমিনার ও ভিডিওচিত্র প্রদর্শন করা হবে। শেষ দিন ২৩ জুলাই জাতীয় মৎস্য সপ্তাহের সমাপনীতে সপ্তাহের মূল্যায়ন এবং কেন্দ্রীয় মৎস্য মেলায় অংশগ্রহণকারী সেরা প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কার প্রদান করা হবে।     

 

সভায় মন্ত্রণালয়ের সচিব রইছউল আলম মণ্ডল, মৎস্য উন্নয়ন করপোরেশনের চেয়ারম্যান দিলদার আহমদ, মৎস্য অধিদফতরের মহাপরিচালক আবু সাইদ মোঃ রাশেদুল হক, মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. ইয়াহিয়া মাহমুদ, মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব কাজী ওয়াসি উদ্দিন, সুবোল বোস মনিসহ মৎস্য খাতের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।  

#

শাহ আলম/মাহমুদ/সঞ্জীব/আব্বাস/২০১৯/১৮২১ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                       নম্বর : ২৪০৫ 
 
 
ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরি কার্যক্রমকে স্থায়ী রূপ দেয়া হবে
   ---সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী
 
ঢাকা, ১৭ আষাঢ় (১ জুলাই) :
 
সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেছেন, ‘দেশব্যাপী ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরি প্রকল্প’ এর মাধ্যমে সরকার বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র থেকে ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরি সেবা ক্রয় করে মাঠ পর্যায়ে ৬৪ জেলায় লাইব্রেরি সেবা প্রদান করে যাচ্ছে। প্রকল্পটি ২০২০ সালের ডিসেম্বরে শেষ হবে। দেশব্যাপী তৃণমূল পর্যায়ে বই পড়া আন্দোলনকে ছড়িয়ে দিতে ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরি কার্যক্রমকে কীভাবে স্থায়ী রূপ দেয়া যায়, সে ব্যাপারে 
চিন্তা-ভাবনা করা হচ্ছে। তদুপরি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী মুজিববর্ষ উপলক্ষে ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরি কার্যক্রমের মাধ্যমে ইউনিয়ন পর্যায়ে বই পড়া আন্দোলনকে ছড়িয়ে দিতে পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে।
 
প্রতিমন্ত্রী আজ গণগ্রন্থাগার অধিদপ্তর প্রাঙ্গণে গণগ্রন্থাগার অধিদপ্তরের উদ্যোগে ‘দেশব্যাপী ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরি প্রকল্প’ এর অধীনে ৩০টি নতুন ভ্রাম্যমাণ গাড়ি-লাইব্রেরি সংযোজন কার্যক্রমের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
 
গণগ্রন্থাগার অধিদপ্তরের মহাপরিচালক জাহানারা পারভীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যাপক আব্দুল্লাহ আবু সায়ীদ ও ‘দেশব্যাপী ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরি প্রকল্প’ এর প্রকল্প পরিচালক এস এম কামরুজ্জামান। আরো উপস্থিত ছিলেন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা মাহবুব জামিল ও গণগ্রন্থাগার অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালক আশীষ কুমার সরকার।
 
উল্লেখ্য, ১ জুলাই ২০১৮ থেকে ৩১ ডিসেম্বর ২০২০ মেয়াদি ‘দেশব্যাপী ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরি প্রকল্প’ এর মাধ্যমে বর্তমানে চলমান ৪৬টি ভ্রাম্যমাণ গাড়ি-লাইব্রেরির অতিরিক্ত আরো ৩০টি গাড়ি-লাইব্রেরি আজ 
১ জুলাই ২০১৯ সালে এ কার্যক্রমের সঙ্গে যুক্ত হলো, যার ফলে মোট গাড়ি-লাইব্রেরির সংখ্যা দাঁড়াল ৭৬টিতে। এ গাড়ি-লাইব্রেরিসমূহের মাধ্যমে দেশের ৬৪ জেলার ৩০০০ স্পট/এলাকায় ৭৫ হাজার নতুন পাঠক তৈরি করা হবে এবং প্রায় ৩ লক্ষাধিক পাঠকের দোরগোড়ায় ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরি সেবা পৌঁছে দেয়া হবে। এসব এলাকায় সাধারণ মানুষ বিশেষ করে কিশোর-কিশোরীদের মধ্যে সামাজিক ও সাংস্কৃতিক কর্মকা-ের উৎসাহ প্রদান ও সুযোগ বৃদ্ধির লক্ষ্যে ৫০০টি সাংস্কৃতিক সংঘ গঠন এবং ৬ হাজার সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হবে।
#
 
ফয়সল/মাহমুদ/ফারহানা/মোশারফ/আব্বাস/২০১৯/১৭৪৪ ঘণ্টা 
তথ্যবিবরণী                                                                                নম্বর : ২৪০৪ 
 
কেব্ল টেলিভিশন নেটওয়ার্ক পরিচালনা আইন বাস্তবায়নে মোবাইল কোর্ট চালু
ঢাকা, ১৭ আষাঢ় (১ জুলাই) :
তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহ্মুদ বলেছেন, ‘বিদেশি টিভি চ্যানেলে অবৈধ বিজ্ঞাপন সম্প্রচার ও স্থানীয় কেব্ল নেটওয়ার্কে সিনেমা ও বিজ্ঞাপন প্রদর্শন বন্ধ করা এবং কেব্ল নেটওয়ার্কে চ্যানেলের ক্রমে রাষ্ট্রীয় চ্যানেলের পর সম্প্রচারের তারিখ অনুসারে দেশি বেসরকারি চ্যানেলগুলোকে রাখা নিশ্চিত করতে পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী দেশব্যাপী মোবাইল কোর্ট পরিচালনা আজ থেকে শুরু হচ্ছে’।
আজ রাজধানীতে সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে মন্ত্রী এ ব্যবস্থার কথা জানান। তথ্যসচিব আবদুল মালেক, অতিরিক্ত সচিব নূরুল করিম ও মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ এ সময় উপস্থিত ছিলেন। 
তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘উল্লিখিত বিষয়ে কেব্ল টেলিভিশন নেটওয়ার্ক পরিচালনা আইন ২০০৬ মেনে চলা নিশ্চিত করার জন্য মন্ত্রণালয় থেকে ৩০শে জুন সময়সীমা বেঁধে দেয়া হয়েছিল। দেশ ও দেশের টেলিভিশন শিল্পের কল্যাণে এ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে, আশা করি সকলে এ বিষয়ে আমাদের সহযোগিতা করবেন। এটা ঠিক যে, বিদেশি টিভি চ্যানেলে বিজ্ঞাপন সম্প্রচার বন্ধে কারিগরি প্রযুক্তিগত বিষয় রয়েছে। কিন্তু সে বিষয় নিরসনের চেষ্টা না করে কেউ অনির্দিষ্টকালের জন্য সময় বরাদ্দ চাইলে তা দেয়া সম্ভব নয়’।
এ সময় সাংবাদিকরা ‘জাতীয় সংসদ ভবন এলাকার জন্য পাকিস্তানের করা ডিজাইন বাস্তবায়নে সাবেক প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের কবর সরিয়ে নিতে চায় সরকার’- বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খানের এ মন্তব্যের প্রতি তথ্যমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করলে ড. হাছান বলেন, ‘লুই কান প্রণীত নকশাটিই বিষয়, কোন্ আমলে নকশা করা হয়েছে, সেটি বিষয় নয়। সংসদ ভবনও তো পাকিস্তান আমলে তৈরি হয়েছে। তাই বলে সে ভবনে কি বসা যাবে না’? 
‘স¤প্রতি মার্কিন কংগ্রেসম্যান ব্রাড শেরম্যান (ইৎধফ ঝযবৎসধহ) রোহিঙ্গাদের ওপর অমানবিক নির্যাতনের দায়ে মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশকে বাংলাদেশের সাথে যুক্ত করার প্রস্তাব দিয়েছেন এবং কংগ্রেসম্যান এলিয়ট এনজেল (ঊষরড়ঃ ঊহমবষ) মিয়ানমারে মার্কিন সামরিক সহায়তা স্থগিত করার প্রস্তাব দিয়েছেন’- এ বিষয়ে সাংবাদকিদের প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী বলেন, দু’টি প্রস্তাবই একান্তভাবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিষয়, এ বিষয়ে আমি কোনো মন্তব্য করতে চাই না। তবে একথা সত্য যে, রোহিঙ্গারা মিয়ানমারের নাগরিক। শত শত বছর ধরে তারা সেখানে বসবাস করছে। শুধু মিয়ানমারের সংসদেই তাদের প্রতিনিধিত্ব ছিল না, মন্ত্রিসভাতেও রোহিঙ্গা প্রতিনিধিত্ব ছিল। সেই রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব অস্বীকার করা যেমন সমীচীন নয়, তেমনি স্পষ্টতই সেখানে মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ সংঘটিত হয়েছে। মার্কিন প্রস্তাবগুলো মিয়ানমারের ওপর চাপ প্রয়োগ করবে যাতে করে মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ রোহিঙ্গাদের পূর্ণ নাগরিকত্ব স্বীকার করে তাদেরকে দেশে ফিরিয়ে নেয়ার কাজটি দ্রুত সম্পন্ন করে। 
#
আকরাম/মাহমুদ/সঞ্জীব/রেজাউল/২০১৯/১৭৩৮ ঘণ্টা  
তথ্যবিবরণী           নম্বর ঃ ২৪০৩
 ডেভেলপমেন্ট অভ পার্লামেন্টারিজম কনফারেন্সে যোগ দিতে মস্কো গেলেন স্পিকার
ঢাকা,  ১৭ আষাঢ় (১ জুলাই) :
স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী দ্য স্টেট দুমা অভ দ্য ফেডারেল এসেম্বলি অভ দ্য রাশিয়ান ফেডারেশনের আমন্ত্রণে দ্য সেকেন্ড ইন্টারন্যাশনাল ফোরাম ‘ডেভেলপমেন্ট অভ পার্লামেন্টারিজম ২০১৯’ শীর্ষক কনফারেন্সে অংশ নিতে গতকাল রাতে রাশিয়ার উদ্দেশ্যে ঢাকা ত্যাগ করেন।
বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের অন্য সদস্যবৃন্দ হলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মোঃ শামসুল হক টুকু এবং সংসদ সদস্য মো: জিল্লুল হাকিম। কনফারেন্সটি ১-২ জুলাই মস্কোতে অনুষ্ঠিত হবে।
এ সময় স্পিকারকে বিদায় জানাতে জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উপস্থিত ছিলেন।
          কনফারেন্স শেষে স্পিকার আগামী ৫ জুলাই দেশে ফিরবেন বলে আশা করা যাচ্ছে ।
 
 #
তারিক/ অনসূয়া/নাছির/রবি/শামীম/২০১৯/১৪০৯ ঘণ্টা
Todays handout (8).docx Todays handout (8).docx

Share with :

Facebook Facebook