তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১০ জুলাই ২০২০

তথ্যবিবরণী ১০ জুলাই ২০২০

তথ্যবিবরণী                                                                                                 নম্বর : ২৫০৭

 

রিজেন্ট হাসপাতালের অনিয়ম সরকারই উদঘাটন করেছে

                                                      -- তথ্যমন্ত্রী

 

ঢাকা, ২৬ আষাঢ় (১০ জুলাই) :

          তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহ্‌মুদ বলেছেন, 'রিজেন্ট হাসপাতালের অনিয়ম সরকারই উদঘাটন করেছে, অন্য কেউ নয়। বিএনপিও এ নিয়ে আগে কোনো প্রশ্ন তোলেনি।'

          আজ সন্ধ্যায় রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন মন্ত্রী। বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুলের মন্তব্য 'সরকারের মদদে রিজেন্টের অনিয়ম' এর জবাবে তিনি একথা বলেন।

          'সরকারি সংস্থা নিজেই ঢাকায় রিজেন্ট হাসপাতালের দু'টি শাখায় অভিযান ও মামলা করেছে, গণমাধ্যমের কোনো প্রতিবেদনের ভিত্তিতে নয়। এরপর এবিষয়ে অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশের জন্য আমি গণমাধ্যমকে ধন্যবাদ জানাই' বলেন তথ্যমন্ত্রী।

          মন্ত্রী বলেন, পত্রপত্রিকার রিপোর্টে দেখা যায়, সাহেদ করিম বিএনপি আমলে হাওয়া ভবনের সাথে যুক্ত ছিলেন, এরপর দু'বছর জেলেও ছিলেন। রিপোর্ট অনুযায়ী কয়েক মাস আগেও যুবদলের নেতাকে সামনে রেখে সাহেদ যখন তারেক রহমানের সাথে স্কাইপে কথা বলেন, তখন সেটি কাদের মদদে ঘটে, মির্জা ফখরুলের কাছে প্রশ্ন রাখেন ড. হাছান।

          তিনি বলেন, সাহেদকে যারা টক শো'তে সুযোগ দিয়েছিলেন তাদেরও দায় রয়েছে, কারণ সে টক শো'কে প্রতারণার ঢাল হিসেবে ব্যবহার করতো।

          সাহেদ প্রতারণার কাজে কখনো নিজেকে মেজর, কর্নেল, আওয়ামী নেতা বা প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের কর্মকর্তা এমন নানা পরিচয় দিয়েছেন যা সত্য নয় বলেন তথ্যমন্ত্রী। 'আমরা তদন্ত করে দেখেছি, তিনি আওয়ামী লীগের কোনো কমিটিতে ছিলেন না' জানান আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক।

          ড. হাছান মাহ্‌মুদ বলেন, 'প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দ্ব্যর্থহীন ভাষায় বলেছেন, দুর্নীতিবাজদের পরিচয়-বর্ণ যাই হোক, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। তারই অংশ হিসেবে সাহেদ ও এমন আরো প্রতারকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।'

          তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান এ সময় প্রবীণ রাজনীতিক সাহারা খাতুনের মৃত্যুকে দেশের রাজনীতির জন্য অপূরণীয় ক্ষতি হিসেবে বর্ণনা করে বলেন, 'আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সর্বজনশ্রদ্ধেয় এডভোকেট সাহারা খাতুন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অত্যন্ত বিশ্বস্ত সহকর্মী ছিলেন। ২০০৭ সালে শেখ হাসিনাকে কারাবন্দি করা হলে তার মুক্তির জন্য আইনি ও রাজনৈতিক লড়াইয়ে তিনি ওতপ্রোতোভাবে ভূমিকা রাখেন। আওয়ামী লীগের সকল দুঃসময়ে তিনি বিপদের মুখোমুখী দাঁড়িয়েছেন, অনেকবার কারাবরণ করেছেন।'

          আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এবং দেশের রাজনীতিতে বণিকায়ণ ও দুর্বৃত্তায়নের বিরুদ্ধে সোচ্চার নেতা সাহারা খাতুনের মৃত্যু আওয়ামী লীগ তথা দেশের রাজনীতিতে এক অপূরণীয় ক্ষতি, বলেন তথ্যমন্ত্রী।

#

আকরাম/মাহমুদ/রফিকুল/সেলিম/২০২০/২০৩০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                 নম্বর : ২৫০৬

 

উদ্ভাবনকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার

                   -- আইসিটি প্রতিমন্ত্রী

 

ঢাকা, ২৬ আষাঢ় (১০ জুলাই) :

 

          আজকের উদ্ভাবন, আগামীর সম্ভাবনা’ প্রতিপাদ্য নিয়ে প্রথমবারের মতো অনলাইনে শুরু হয়েছে “বাংলাদেশ ইনোভেশন সামিট ২০২০"। আজ প্রধান অতিথি হিসেবে অনলাইনে দুই দিনের এই সম্মেলনের উদ্বোধন করেছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

 

          বাংলাদেশ ইনোভেশন ফোরাম এর প্রতিষ্ঠাতা আরিফুল হাসান অপুর সভাপতিত্বে চতুর্থবারের মতো আয়োজিত এই সম্মেলনে প্রায় ৩০ জনের অধিক দেশীয় এবং আন্তর্জাতিক বক্তা কথা বলবেন। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে সংযুক্ত হয়েছেন প্রায় বিশ হাজারের মতো অংশগ্রহণকারী।

 

          উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, সম্মেলনের সকল উদ্ভাবন ও পরামর্শ বাস্তবায়নে আইসিটি বিভাগ সর্বাত্মক সহায়তা করবে। তিনি বলেন, পৃথিবীর সামনে যে নতুন নতুন চ্যালেঞ্জ আসছে তা মোকাবিলার জন্য নতুন নতুন প্রযুক্তি যেন আমাদের তরুণদের হাতে থাকে এবং তারা এই সকল বিষয় গবেষণা করে যেন নতুন নতুন উদ্ভাবন করতে পারে। উদ্ভাবনের মাধ্যমে আমাদের স্থানীয় ও জাতীয় সমস্যাগুলো সমাধান করে আমরা যেন আত্মনির্ভরশীল ডিজিটাল বাংলাদেশে পরিণত হতে পারি তার জন্য এই ইনোভেশন সামিট খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

 

          আইসিটি বিভাগ উদ্ভাবনকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিচ্ছে উল্লেখ করে পলক বলেন, আমরা তরুণদের একদিকে যেমন প্রযুক্তি শিক্ষায় শিক্ষিত করছি, অপরদিকে গবেষণায় তারা যেন উৎসাহ পায়, সুযোগ পায়, তার জন্য আমরা বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে এবং কলেজ পর্যায়ে গবেষণা ল্যাব তৈরি করেছি। একদিকে যেমন ৪০টি বিশ্ববিদ্যালয়ে মোবাইল গেমিং অ্যাপলিকেশন অ্যান্ড এনিমেশন ল্যাব তৈরি করেছি; অপরদিকে বিগডেটা এনালিটিকস, আর্টিফিশিয়াল ইন্টিলিজেন্স, সাইবার সিকিউরিটির মতো যেসব ফ্রন্টিয়ার টেকনোলজি রয়েছে, যেগুলো ভবিষ্যতে সকল অর্থনৈতিক, বাণিজ্যিক ও রাষ্ট্রীয় কার্যক্রমে মূল ভূমিকা পালন করবে সেগুলো নিয়েও গবেষণার সুযোগ প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা তৈরি করে দিয়েছেন বলে তিনি উল্লেখ করেন।

 

#

 

শহিদুল/মাহমুদ/রফিকুল/সেলিম/২০২০/১৮৫০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                   নম্বর :  ২৫০৫

 

দেশবাসীকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার অনুরোধ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

 

ঢাকা, ২৬ আষাঢ় (১০ জুলাই) :

 

          করোনা ভাইরাসের সংক্রমণরোধে সিলেট মহানগরী-সহ দেশবাসীকে স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার অনুরোধ জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন।

 

          আজ ঢাকা থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সিলেট মহানগরীর বন্দরবাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের জীবাণুনাশক টানেল উদ্বোধনকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ অনুরোধ করেন।

 

          তিনটি জীবাণুনাশক টানেলের উদ্বোধন করে তার যথোপযুক্ত ব্যবহারেরও অ‍নুরোধ করেন তিনি।
ড. মোমেন বলেন, সতর্কতার মাধ্যমে করোনা মহামারি প্রতিরোধ করলে দ্রুত করোনামুক্ত বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব হবে।

 

          অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর আজাদুর রহমান আজাদ, বন্দরবাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের সভাপতি নাজমুল হোসেন, নির্বাহী কমিটির সদস্য মোহাম্মদ রেজা চৌধুরী ও ডা. হেলাল। 

 

          সিলেটের বেসরকারি সংস্থা ক্যাপ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে জীবাণুনাশক টানেলগুলো প্রদান করা হয়।

 

#

 

তৌহিদুল/মাহমুদ/রফিকুল/সেলিম/২০২০/১৭৫০ ঘণ্টা

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                 নম্বর : ২৫০৪

 

ফরিদপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবং জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি

লোকমান হোসেন মৃধার মৃত্যুতে স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর শোক

 

ঢাকা, ২৬ আষাঢ় (১০ জুলাই) :

 

          ফরিদপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি লোকমান হোসেন মৃধার মৃত্যুতে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

 

          মন্ত্রী আজ এক শোকবার্তায় মরহুমের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও স্থানীয় রাজনীতিতে এবং দেশের উন্নয়নে লোকমান হোসেন মৃধার অবদান চির স্মরণীয় থাকবে বলে মন্ত্রী উল্লেখ করেন।

 

          উল্লেখ্য, বীর মুক্তিযোদ্ধা লোকমান হোসেন মৃধা আজ রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। তিনি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন।

 

#

 

হায়দার/মাহমুদ/রফিকুল/সেলিম/২০২০/১৭৫০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                 নম্বর :  ২৫০৩

 

কোভিড-১৯ (করোনা ভাইরাসসংক্রান্ত সর্বশেষ প্রতিবেদন

 

ঢাকা, ২৬ আষাঢ় (১০ জুলাই) :

 

          ন্যাশনাল ডিজাস্টার রেসপন্স কো-অর্ডিনেশন সেন্টার (এনডিআরসিসি) থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য ৬৪ জেলায় ইতোমধ্যে ২ লাখ ১১ হাজার ১৭ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ করা হয়েছে। এছাড়া শিশু খাদ্য-সহ অন্যান্য সামগ্রী ক্রয়ের জন্য ১২২ কোটি ৯৭ লাখ ৭২ হাজার ২৬৪ টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে বরাদ্দকৃত এ সাহায্য দেশের সকল জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে বিতরণ করা হচ্ছে।

 

 ‌         স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এবং রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)-এর তথ্যানুযায়ী আজ দেশে নতুন করে আরো ২ হাজার ৯৪৯ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ ধরা পড়েছে। এ নিয়ে বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১ লাখ ৭৮ হাজার ৪৪৩ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৭ জন-সহ এ পর্যন্ত ২ হাজার ২৭৫ জন এ রোগে মৃত্যুবরণ করেছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় ১৩ হাজার ৪৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। করোনা ভাইরাস আক্রান্তদের মধ্যে এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৮৬ হাজার ৪০৬ জন।

 

          এখন পর্যন্ত সর্বমোট ২৫ লাখ ২৮ হাজার ২৪৫টি পিপিই সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে মোট বিতরণ করা হয়েছে ২৪ লাখ ৪২ হাজার ১৬৪টি এবং মজুত আছে ৮৬ হাজার ৮১টি।

 

          সারা দেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনের জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে ৬২৯টি প্রতিষ্ঠান এবং এর মাধ্যমে তাৎক্ষণিকভাবে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনের সেবা প্রদান করা যাবে ৩১ হাজার ৯৯১ জনকে।

 

#

 

তাসমীন/মাহমুদ/রফিকুল/সেলিম/২০২০/১৭২০ ঘণ্টা

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                  নম্বর : ২৫০২

                                                                                   

বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস-২০২০ উপলক্ষে রাষ্ট্রপতির বাণী

 

ঢাকা, ২৬ আষাঢ় (১০ জুলাই) :

 

          রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস-২০২০ উপলক্ষে নিম্নোক্ত বাণী প্রদান করেছেন:

 

          বিশ্বের অন্যান্য দেশের  ন্যায় বাংলাদেশেও বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস ২০২০ পালিত হচ্ছে জেনে আমি আনন্দিত। এ বছর বিশ্ব জনসংখ্যা দিবসের প্রতিপাদ্য ‘Putting the Breaks on COVID-19: How to Safeguard the Health and Rights of Women and Girls Now’ যা বাংলায় ভাবান্তর করা হয়েছে ‘মহামারি কোভিড-১৯ কে প্রতিরোধ করি, নারী ও কিশোরীর সুস্বাস্থ্যের অধিকার নিশ্চিত করি’। প্রতিপাদ্যটি আমাদের দেশ এবং বর্তমান বিশ্ব প্রেক্ষাপটে অত্যন্ত সময়োপযোগী ও যথার্থ হয়েছে বলে আমি মনে করি।

 

          বাংলাদেশ বিশ্বের ঘনবসতিপূর্ণ দেশগুলোর অন্যতম। ভূ-আয়তনের তুলনায় এদেশের জনসংখ্যা অনেক বেশি। এ বিশাল জনগোষ্ঠীর  দৈনন্দিন চাহিদা তথা খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থান, কর্মসংস্থান ও যোগাযোগ-সহ অন্যান্য অবকাঠামো নির্মাণ ও উন্নয়নের গতিধারা অব্যাহত রাখতে প্রতিনিয়ত ভূমি, পানি-সহ অন্যান্য প্রাকৃতিক সম্পদের ওপর মাত্রাতিরিক্ত চাপ পড়ছে। এতে একদিকে প্রাকৃতিক ভারসাম্য নষ্ট হচ্ছে, অন্যদিকে নানা প্রাকৃতিক দুর্যোগের ফলে জানমালের ক্ষতি-সহ উন্নয়ন ও অগ্রগতি বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। এরই ফলশ্রুতিতে এ বছর মহামারি  কোভিড-১৯ এর কারণে বাংলাদেশসহ পুরো বিশ্ব বিপর্যস্ত। এ প্রেক্ষিতে জনসংখ্যাকে কাঙ্ক্ষিত মাত্রায় রেখে বিদ্যমান সম্পদের পরিবেশবান্ধব ও সর্বোত্তম ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। জনসংখ্যাকে পরিণত করতে হবে জনসম্পদে। টেকসই উন্নয়নে পরিকল্পিত ও দক্ষ জনসংখ্যার গুরুত্ব অপরিসীম।

 

          বর্তমানে  কোভিড-১৯ কে ভয় না করে সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। বিশেষ করে মহামারির এ সময় গর্ভবতী নারী সন্তান প্রসব-সহ প্রসব পূর্ববর্তী ও প্রসব পরবর্তী সেবা যাতে ঠিকমতো পায় তা নিশ্চিত করতে হবে। সেই সাথে কিশোরীদের বয়ঃসন্ধিকালীন স্বাস্থ্যসেবা-সহ অন্যান্য সেবায় অগ্রাধিকার দিতে হবে। কিশোরী ও গর্ভবতী নারীরা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলে তাদের দ্রুত সেবার আওতায় আনতে হবে। এ সময় কোডিভ-১৯ এর চিকিৎসা-সহ পরিবার পরিকল্পনা এবং মা-শিশু স্বাস্থ্যসেবা কার্যক্রম আরো জোরদার করে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য একটি নিরাপদ মহামারি সহনশীল জাতি গঠনে আমাদের সদা প্রস্তুত থাকতে হবে। তাহলেই  দেশ আরো এগিয়ে যাবে, জাতি হিসেবে আমরা দেশকে বিশ্বের দরবারে উচ্চ মর্যাদার আসনে অধিষ্ঠিত করতে সক্ষম হবো।

         

          আমি বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস-২০২০ উপলক্ষে গৃহীত সকল কর্মসূচির সার্বিক সাফল্য কামনা করছি।

 

জয় বাংলা

খোদা হাফেজ, বাংলাদেশ চিরজীবী হোক।

 

#

 

ইমরানুল/মাহমুদ/রফিকুল/সেলিম/২০২০/১৭০০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                                             নম্বর : ২৫০১

বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস-২০২০ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর বাণী

ঢাকা, ১০ জুলাই (২৬ আষাঢ়) :   

 

            প্রতি বছরের মত এবারও বাংলাদেশে ‘বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস’ উদযাপন করা হচ্ছে জেনে আমি আনন্দিত। দিবসটির প্রতিপাদ্য ‘Putting the Breaks on COVID-19: How to Safeguard the Health and Rights of Women and Girls Now’ অর্থাৎ মহামারি কোভিড-১৯ কে প্রতিরোধ করি, নারী ও কিশোরীর সুস্থাস্থ্যের অধিকার নিশ্চিত করি’- অত্যন্ত সময়োপযোগী হয়েছে বলে আমি মনে করি। জাতিসংঘের জনসংখ্যা তহবিল (UNFPA) এবছর বিশ্বব্যাপী করোনা যুদ্ধের সম্মুখসারিতে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারী নারীদের অসামান্য অবদানের স্বীকৃতি দিয়েছে, সেই সঙ্গে সমগ্র পৃথিবীতে সরবরাহ শৃঙ্খল ভেঙে পড়ার কারণে অনাকাঙ্খিত গর্ভধারণ এবং লক-ডাউনের কারণে নারীদের অপারিশ্রমিক কর্মপরিধি বৃদ্ধি, মাতৃস্বাস্থ্যসেবার ব্যত্যয়সহ লিঙ্গ-ভিত্তিক নির্যাতনের প্রকোপ বৃদ্ধির আশংকা প্রকাশ করেছে।

 

            সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তাঁর দূরদর্শী সিদ্ধান্তে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানের ১৫ (ক) অনুচ্ছেদে চিকিৎসাসহ অন্যান্য মৌলিক প্রয়োজনের ব্যবস্থা এবং ১৮ (১) অনুচ্ছেদে জনগণের পুষ্টির স্তর-উন্নয়ন ও জনস্বাস্থ্যের উন্নতিসাধনকে রাষ্ট্রের অন্যতম মৌলিক ও প্রাথমিক দায়িত্ব হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছেন। জাতির পিতার আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে ১৯৯৬ সালে সরকার গঠনের পর আমরা স্বাস্থ্যখাতে যুগান্তকারী পরিবর্তন সাধন করেছি- স্বাস্থ্যসেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়ার জন্য ১০,৭২৩ টি কমিউনিটি ক্লিনিক স্থাপন করেছি, স্বাস্থ্যনীতি-২০০০ প্রণয়ন করেছি। পুনরায় দিন বদলের সনদ ঘোষণার মাধ্যমে ২০০৯ সাল থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত একটানা সাড়ে এগারো বছর সরকারে থাকায় আমাদের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা খাতে গৃহীত নানামূখী পদক্ষেপের সুফল আজ দেশের জনগণ পাচ্ছেন। ২০২১ সালে আমাদের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীকে উপলক্ষ্য করে পরিবার পরিকল্পনার মাধ্যমে জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণ, মাতৃস্বাস্থ্য, শিশু ও মাতৃমৃত্যুর হার হ্রাসের যে সকল লক্ষ্য নিয়ে আমাদের সরকার জাতীয় স্বাস্থ্যনীতি-২০১১ প্রণয়ন করেছিল, নির্ধারিত সময়ের অনেক আগেই সেগুলো অর্জিত হয়েছে।

 

            বিশ্বজুড়ে কোভিড-১৯ করোনা ভাইরাস মহামারির মধ্যেও পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের আওতাধীন ৩,৩৬৪টি ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র, ৩০,০০০ স্যাটেলাইট ক্লিনিক এবং ১৩,৮১৫টি কমিউনিটি ক্লিনিক যথাযথ সুরক্ষাসামগ্রী ব্যবহার করে প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে। এসব কেন্দ্র থেকে বিনামূল্যে ৩০ প্রকারের ঔষধ, হাসপাতাল রেফারেন্সসহ মোবাইল হট-লাইনের মাধ্যমে নারী প্রজননস্বাস্থ্য সুরক্ষা সেবা ও গর্ভধারণ বিষয়ে পরামর্শ প্রদান করা হচ্ছে। ফলে দিন দিন এখানে সেবা গ্রহীতার সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। আমাদের সরকারের স্থাপিত এ সকল স্বাস্থ্যকেন্দ্র দেশের দুর্গম এলাকায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছানোসহ জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে ব্যাপক ভূমিক রেখে চলেছে। নারী ও শিশুর প্রতি যেকোন সহিংসতা ও অন্যায় প্রতিরোধে আমরা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০, পারিবারিক সহিংসতা (প্রতিরোধ ও সুরক্ষা) আইন, ২০১০ বাল্য বিবাহ নিরোধ আইন, ২০১৭ এবং যৌতৃক আইন ২০১৮ প্রণয়ন করেছি এবং এগুলোর কঠোর বাস্তবায়ন করে যাচ্ছি। আওয়ামী লীগ সরকারের গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপের ফলে সামাজিক, অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক সকল ক্ষেত্রেই এখন নারীর অংশগ্রহণ বহুগুণ বেড়েছে। আমরা কর্মক্ষেত্রে নারীদের নিরাপত্তা বিধান করে যাচ্ছি।

 

            আমাদের সরকার বিভিন্ন প্রাকৃতিক দূর্যোগ এবং করোনা মহামারি মোকাবিলা করে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। যথাসময়ের মধ্যেই এসডিজি-২০৩০ এর লক্ষ্যসমূহ অর্জন করে ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ সৃষ্টিই আমাদের লক্ষ্য। সেই উদ্দেশ্য সফল করতে সুস্থ-সবল জাতি গঠনের উদ্দেশ্যে পরিবার পরিকল্পনা এবং মা-শিশুর প্রজনন-বয়সন্ধি স্বাস্থ্যসেবা প্রদানের ক্ষেত্রে তৃণমূল পর্যায়ের সেবা অবকাঠামো সমূহের সর্বোত্তম ব্যবহার নিশ্চিত করতে আমি সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি সহযোগী সংগঠন, গণমাধ্যম, সচেতন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে আরও নিবেদিত হওয়ার আহ্বান জানাই।

 

            আমি বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস-২০২০ উপলক্ষে গৃহীত সকল কর্মসূচির সর্বাঙ্গীণ সফলতা কামনা করছি।

 

জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু

বাংলাদেশ চিরজীবী হোক।

#

সরওয়ার/মামুন/খোরশেদ/২০২০/১৫০০ ঘণ্টা

 

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                       নম্বর : ২৫০০

 

ফরিদপুর জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা লোকমান হোসেন মৃধার মৃত্যুতে সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রীর শোক

 

ঢাকা, ১০ জুলাই (২৬ আষাঢ়) :   

 

          ফরিদপুর জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা লোকমান হোসেন মৃধার মৃত্যুতে গভীর শোক ও দু:খ প্রকাশ করেছেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এমপি।

 

          প্রতিমন্ত্রী আজ এক শোকবার্তায় মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং তাঁর শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের রাজনীতি ও স্থানীয় উন্নয়নে লোকমান হোসেন মৃধার অবদানের কথা শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন।

 

          উল্লেখ্য, বীর মুক্তিযোদ্ধা লোকমান হোসেন মৃধা (৭৭) আজ শুক্রবার আনুমানিক সকাল ১১টার দিকে রাজধানীর শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, চার পুত্র ও এক কন্যাসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

 

#

 

 

ফয়সল/মামুন/খোরশেদ/২০২০/১৪২০ ঘণ্টা

 

 

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                       নম্বর : ২৪৯৯

করোনা জয় করলেন ৩৫ বিচারক

ঢাকা, ১০ জুলাই (২৬ আষাঢ়) :   

 

          করোনা জয় করলেন অধস্তন আদালতের ৩৫ বিচারক। আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অধীন আইন ও বিচার বিভাগ কর্তৃক পরিচালিত করোনা মনিটরিং ডেস্ক এর গতকাল বৃহস্পতিবার ৯ জুলাই  রাত ১০টা পর্যন্ত প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী অধস্তন আদালতে করোনাভাইরাসজনিত রোগ কোভিড-১৯ এ মোট আক্রান্ত হয়েছেন ২৬৮ জন। আক্রান্তদের মধ্যে ৫১ জন বিচারক এবং ২১৭ জন কর্মচারী।

          আক্রান্ত বিচারকদের মধ্যে করোনা জয় করে সম্পূর্ণ সুস্থ হয়েছেন ৩৪ জন। আক্রান্ত বিচারকদের মধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন ১ জন এবং অন্যরা বাসায় চিকিৎসা নিচ্ছেন।

          আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক এমপি আইন ও বিচার বিভাগ কর্তৃক পরিচালিত মনিটরিং ডেস্ক এর রিপোর্ট প্রতিদিন পর্যবেক্ষণ করছেন এবং আক্রান্তদের খোঁজ-খবর রাখছেন ।


#

 

 

রেজাউল/মামুন/খোরশেদ/২০২০/১৩২০ ঘণ্টা



 

তথ্যবিবরণী                                                                                                       নম্বর : ২৪৯৮

 

সাহারা খাতুন এমপি’র মৃত্যুতে জাতীয় সংসদের স্পীকার, ডেপুটি স্পীকার এবং সংসদ উপনেতা’র শোক

 

ঢাকা, ১০ জুলাই (২৬ আষাঢ়) :   

 

          বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি একাদশ জাতীয় সংসদের সংসদ-সদস্য, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য, সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং সাবেক ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন এমপি’র মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন।


          স্পীকার সাহারা খাতুন এমপি’র রুহের মাগফেরাত কামনা এবং তাঁর শোকসন্তপ্ত পরিবার-পরিজন ও শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

 

          উল্লেখ্য, ঢাকা-১৮ আসনের সাংসদ সাহারা খাতুন জ্বর, অ্যালার্জিসহ বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) রাতে থাইল্যান্ডের একটি হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিলো ৭৭ বছর।


          এছাড়া, অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন এমপি’র মৃত্যুতে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পীকার মোঃ ফজলে রাব্বী মিয়া এমপি, সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী এমপি এবং চীফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী এমপি গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন।    

 

#

 

 

তারিক/মামুন/খোরশেদ/২০২০/১৩০০ ঘণ্টা

 

 

 

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                        নম্বর : ২৪৯৭

সংসদ সদস্য সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে মন্ত্রিপরিষদের সদস্যবৃন্দের শোক

 

ঢাকা, ১০ জুলাই (২৬ আষাঢ়) :    

 

          বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এডভোকেট সাহারা খাতুন এমপি'র মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

          পৃথক পৃথক শোক বার্তায় তাঁরা মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

          উল্লেখ্য, থাইল্যান্ডের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এডভোকেট সাহারা খাতুন বৃহস্পতিবার রাতে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৭ বছর। 

          সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক; সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের; কৃষিমন্ত্রী ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক; স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান; তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহ্‌মুদ; আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক; স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম; শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মণি; পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন; পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান; শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন; বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী; স্বাস্হ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক; খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার; বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি; সমাজকল্যাণ মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহ‌মেদ; মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ. ম. রেজাউল করিম; পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রীমোঃ শাহাব উদ্দিন; পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং; ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী; রেলপথ মন্ত্রী মোঃ নূরুল ইসলাম সুজন; বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান; ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার; প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ; শিল্প প্রতিমন্ত্রী  কামাল আহমেদ মজুমদার; যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল; বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী  নসরুল হামিদ; সমাজ কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী  মোঃ  আশরাফ আলী খান খসরু; শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী  বেগম মন্নুজান সুফিয়ান; নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী  খালিদ মাহ্‌মুদ চৌধুরী; প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী  মোঃ জাকির হোসেন; পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী  মোঃ শাহ্‌রিয়ার আলম; তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী  জুনা‌ইদ আহ্‌মেদ পলক; জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী  ফরহাদ হোসেন; পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী  স্বপন ভট্টাচার্য; পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক; তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মোঃ মুরাদ হাসান; গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী শরীফ আহমেদ; সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী  কে এম খালিদ; দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী  ডাঃ মোঃ এনামুর রহমান; বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী  মোঃ মাহবুব আলী; মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বেগম ফজিলাতুন নেছা এবং  পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম।

#

মামুন/খোরশেদ/২০২০/১২৪০ ঘণ্টা

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                                 নম্বর : ২৪৯৫

 

সংসদ সদস্য সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে তথ্যমন্ত্রীর শোক

 

ঢাকা, ১০ জুলাই (২৬ আষাঢ়) :  

 

            আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য, সংসদ সদস্য ও সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এডভোকেট সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখপ্রকাশ করেছেন তথ্যমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ। 

 

            ব্যাংককের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার রাতে ৭৭ বছর বয়সে সাহারা খাতুন মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। 

 

            তথ্যমন্ত্রী তার শোকবার্তায় বলেন, 'সাহারা খাতুনের মৃত্যু একজন নিবেদিতপ্রাণ দেশপ্রেমিক রাজনীতিকের জীবনাবসান। দেশের প্রথম নারী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবেও রাজনীতিতে তার অবদান আমাদের স্মৃতিপটে অম্লান হয়ে থাকবে।'

 

      &n

2020-07-10-20-49-c3e4d8daec4684f0d6d138531347b1bc.docx 2020-07-10-20-49-c3e4d8daec4684f0d6d138531347b1bc.docx

Share with :

Facebook Facebook